নেতিবাচক রাজনীতি বাদ দিন, গণভবনে আসুন: বিএনপিকে তথ্যমন্ত্রী

‘নেতিবাচক’ রাজনীতির কারণে বিএনপির জনপ্রিয়তা ‘তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে’ দাবি করে দলটির নেতাদের প্রধানমন্ত্রীর চা চক্রে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Feb 2019, 04:43 PM
Updated : 1 Feb 2019, 04:43 PM

শুক্রবার বিকালে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সদ্য প্রয়াত চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরীর স্মরণ সভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

হাছান মাহমুদ বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে পলিটিক্স অব কনফ্রনটেশনের পরিবর্তে পলিটিক্স অব কনসালটেশন শুরু করার জন্য সব সময় চেষ্টা করেছেন। তিনি বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে নেতিবাচক রাজনীতির অবসান কল্পে আগামীকাল গণভবনে চা চক্রে বাংলাদেশর রাজনৈতিক দলগুলোকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

“দেখতে পেলাম, ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে এই চা চক্রে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে তারা একটি চিঠি দিয়ে এসেছেন। এটা অত্যন্ত স্বাভাবিক। কারণ যাদের দুয়ারে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ১০ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকার পর তাদের দুয়ার খোলে না…।”

২০১৫ সালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুর পর সমবেদনা জানাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে গিয়েও ফটক না খোলায় ফিরে আসেন।

ওই ঘটনা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, “যে নেত্রী নিজের জন্মের তারিখ বদলে দিয়ে ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডকে উপহাস করার জন্য, হত্যাকারীদের উৎসাহিত করার জন্য কেক কাটেন, তারা প্রধানমন্ত্রীর চা চক্রে যাবেন না-এটাই খুব স্বাভাবিক।”

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “নেতিবাচক রাজনীতি করার কারণে আপনাদের জনপ্রিয়তা আজ তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। গত নির্বাচনে আপনারা সেটির প্রমাণ পেয়েছেন। এই নেতিবাচক রাজনীতি পরিহার করে আসুন সবাই মিলে দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যাই।”

আওয়ামী লীগ সবাইকে নিয়ে সমঝোতার রাজনীতি করতে চায় মন্তব্য করে হাছান মাহমুদ বলেন, “সেটিতে আমরা হাত প্রসারিত করেছি, আপনাদের হাতও প্রসারিত করুন। তাহলে আপনাদের রাজনীতি বাঁচবে, বিএনপি টিকবে।”

দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে গণফোরামের নির্বাচিত দুজন সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিতে চাওয়ায় তাদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। সভাপতিত্ব করেন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী।

দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, দক্ষিণ জেলার সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমদ, উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম বক্তব্য রাখেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক