নৌকার টিকেট নিলেন জাসদ-তরিকতের নেতারা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হতে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের প্রত্যয়নপত্র নিয়েছেন জোট শরিক জাসদের একাংশের সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া ও মাইনুদ্দিন খান বাদল। আরেক জোট শরিক তরিকত ফেডারেশনের দুই নেতাও এদিন আওয়ামী লীগের প্রত্যয়নপত্র নিয়েছেন।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 Nov 2018, 10:33 AM
Updated : 27 Nov 2018, 11:21 AM

জাসদ নেতাদের মধ্যে নুরুল আম্বিয়াকে নড়াইল-১ (কালিয়া) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এই আসনেই আগের দিন দলীয় মনোনয়নের প্রত্যয়নপত্র পেয়েছেন বর্তমান সাংসদ ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা বি. এম কবিরুল হক (মুক্তি)।

আম্বিয়ার পর তাদের দল থেকে চট্টগ্রাম-৮ আসনে নৌকার প্রার্থী হওয়ার প্রত্যয়নপত্র নেন  মাইনুদ্দিন খান বাদল। জাসদের এই নেতা ওই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য।

চট্টগ্রাম-৮ আসনে নৌকার প্রার্থী হচ্ছেন জাসদ নেতা ও বর্তমান সাংসদ মাইনুদ্দিন খান বাদল, তার স্ত্রী সেলিনা খান সকালে স্বামীর মনোনয়নের চিঠি নেন

২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দল জোটগতভাবে নির্বাচনে অংশ নিয়ে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে। সে সময় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু নেতৃত্বাধীন জাসদেই ছিলেন আম্বিয়া, বাদল। ২০১৪ সালের নির্বাচনের সময়ও তারা একসঙ্গে ছিলেন।

এরপর ২০১৬ সালে কমিটি গঠন নিয়ে মতবিরোধ থেকে দলীয় কাউন্সিল থেকে বেরিয়ে আলাদা দলের ঘোষণা দেন জাসদের এই নেতারা।

আম্বিয়া-বাদলরা জাসদ নামেই দল করলেও তাদের দলীয় প্রতীক ‘মশাল’ রয়ে গেছে ইনু নেতৃত্বাধীন জাসদের হাতে।

শরীফ নুরুল আম্বিয়া মঙ্গলবার সকালে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডি কার্যালয় থেকে মনোনয়নের চিঠি বুঝে নেন। তার কিছুক্ষণ পর বাদলের পক্ষে তার স্ত্রী সেলিনা খান মনোনয়নের প্রত্যয়নপত্র বুঝে নেন।

আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রত্যয়নপত্র বুঝিয়ে দিয়েছেন বলে সেলিনা খান জানান।

প্রত্যয়নপত্র নিলেন তরিকতের দুই নেতা

ত‌রিকত ফেডা‌রেশ‌নের চেয়ারম্যান সৈয়দ ন‌জিবুল বাশার মাইজভান্ডারী ও সদস্য আনোয়ার খানকে নৌকা প্রতী‌কে প্রার্থী হওয়ার প্রত্যয়নপত্র দেওয়া হয়েছে।

বি‌কা‌লে দলটির ধানমণ্ডির কার্যালয় থেকে প্রত্যয়নপত্র নেন তারা।

ত‌রিকত ফেডা‌রেশ‌নের যুগ্ম মহাস‌চিব সৈয়দ তৈয়বুল বাশার মাইজমান্ডারী সাংবাদিকদের ব‌লেন, ১৪ দলীয় জোটের শরিক হিসেবে তারা দুটি আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতার সুযোগ পাচ্ছেন।

“চট্টগ্রাম-২ এ আমার বাবা সৈয়দ ন‌জিবুল বাশার মাইজভান্ডারী এবং ল‌ক্ষ্মীপুর- ১ আস‌নে ত‌রিকত ফেডা‌রেশ‌নের সদস্য আনোয়ার হো‌সেন খানকে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার জন্য মনোনয়ন দেওয়া হ‌য়ে‌ছে।”

২০১৪ সালের দশম সংসদ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর-১ আসনে নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সাংসদ হন তরিকত ফেডারেশনের এম এ আউয়াল। সস্প্রতি তাকে দল থেকে বহিষ্কারের ঘোষণা দেন নজিবুল বাশার মাইজভান্ডারী।

তরিকতের হয়েই তার আসনে এবার প্রার্থী হচ্ছেন আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ার হোসেন খান। রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি আনোয়ার ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালের চেয়ারম্যান।

১৪ দলীয় জোটের প্রার্থী হওয়ার প্রত্যয়নপত্র পাওয়ার পর তিনি সাংবাদিকদের ব‌লেন, “ল‌ক্ষীপুর-১ আস‌ন থে‌কে ত‌রিকত ফেডা‌রেশ‌নের প্রার্থী হ‌য়ে নৌকা প্রতীক পে‌য়ে‌ছি। আশা ক‌রি, নির্বা‌চিত হ‌য়ে মানু‌ষের কল্যা‌ণে কাজ কর‌তে পার‌ব।” 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক