কূটনীতিকদের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক

সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে ঢাকায় কর্মরত কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বিএনপির নেতারা।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2016, 12:33 PM
Updated : 27 July 2016, 04:16 PM

বুধবার বিকালে খালেদা জিয়ার গুলশানের কার্যালয়ে এই রুদ্ধদ্বার বৈঠকে দলের জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাজা নিয়ে দলের প্রতিক্রিয়াও তুলে ধরা হয় বলে বিএনপি নেতারা জানিয়েছেন।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কূটনীতিকদের কাছে পরিস্থিতি নিয়ে ‘ব্রিফ’ করেন বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৈঠকে স্পেন, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব, পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত; যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, জাপান, নরওয়ে, নেপাল দূতাবাস এবং জাতিসংঘ মিশনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকের পর স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান সাংবাদিকদের বলেন, “বিএনপি দেশের বড় রাজনৈতিক দল, বিপুল সংখ্যক মানুষের প্রতিনিধিত্ব করে। বিএনপি কূটনীতিকদের সাথে মাঝে মাঝে কথা বলে। এটা একটা নিয়মিত বৈঠক হয়েছে, নার্থিং স্পেশাল।”

বৈঠকে অংশ নেওয়া একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কূটনীতিকদের কাছে মুদ্রা পাচার মামলায় হাই কোর্টের রায়ে তারেক রহমানকে সাজা দেওয়ার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। তাদেরকে হাই কোর্টের সাজার রায় এবং নিম্ন আদালতের খালাসের রায়ের অনুলিপিও সরবরাহ করা হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসনের এক উপদেষ্টা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “তারেক রহমান সরকারের প্রতিহিংসার শিকার। তাকে অন্যায়ভাবে সরকার উচ্চ আদালতের মাধ্যমে সাজা দিয়েছে। আমরা আইনগত দিকটি ব্যাখ্যা করেছি কূটনীতিকদের কাছে।”

কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠকে বিএনপি নেতাদের মধ্যে আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, মাহবুবউদ্দিন খোকন, রুমিন ফারহানা উপস্থিত ছিলেন।

গত ১ জুলাই গুলশানে ক্যাফেতে হামলা চালিয়ে ১৭ বিদেশিসহ ২০ জনকে হত্যার পর জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় জাতীয় ঐক্য গড়ার উদ্যোগ নিতে সরকারকে আহ্বান জানিয়েছিল বিএনপি।

তবে বিএনপির জামায়াতে ইসলামী সংশ্লিষ্টতার দিকটি তুলে ধরে তাদের নিয়ে ঐক্য গড়ার প্রস্তাব নাকচ করেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

এরপর বিএনপি জোটসঙ্গী জামায়াতকে বাদ রেখে জঙ্গিবাদবিরোধী ‘বৃহত্তর প্ল্যাটফর্ম’ গড়ার উদ্যোগ নিয়ে এগুচ্ছে বলে দলটির নেতাদের কাছ থেকে জানা গেছে। ওই প্রক্রিয়া শুরুর আগেই কূটনীতিকদের সঙ্গে বসল তারা।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “জাতীয় ঐক্যের বিষয় বিএনপি চেয়ারপারসন যে আহ্বান জানিয়েছেন, কূটনীতিকদের কাছে তা ব্যাখ্যা করা হয়।

“জাতীয় ঐক্য কেন প্রয়োজন এবং জঙ্গিবাদের সমস্যা মোকাবেলা যে কেবল প্রশাসন দিয়ে সমাধান সম্ভবপর নয়, তা আমরা তুলে ধরেছি। কূটনীতিকদের কেউ কেউ জাতীয় ঐক্যের ধারণাটি বিস্তারিতভাবে জানতে প্রশ্ন করেছেন। আমরা তার জবাব দিয়েছি।”

বৈঠকে বিএনপির পক্ষে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আসম হান্নান শাহ, জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ, গিয়াস কাদের চৌধুরী, আসাদুজ্জামান রিপন উপস্থিত ছিলেন।

পৌর নির্বাচনে ‘ব্যাপক কারচুপির’ তথ্য তুলে ধরতে গত ২০ জানুয়ারি কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হয়েছিলেন বিএনপির নেতারা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক