ভাঙনের পর জাসদের দুই কমিটি ইসিতে

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ এর বিভক্ত দুই কমিটির তালিকা নির্বাচন কমিশনে জমা পড়েছে।

মঈনুল হক চৌধুরীবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 March 2016, 07:43 PM
Updated : 22 March 2016, 07:43 PM

মঙ্গলবার হাসানুল হক ইনু নেতৃ্ত্বাধীন এবং শরীফ নুরুল আম্বিয়া নেতৃত্বাধীন দুটি কমিটি তাদের তালিকা ইসিতে পাঠায়।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ অনুযায়ী, দলীয় কাউন্সিলে নির্বাচিত কমিটির নাম ইসিতে জমা দেওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

নিজেদের মূল জাসদ ও মশাল প্রতীকের দাবির মুখে কাউন্সিলের এক সপ্তাহ পর নবনির্বাচিত কমিটির বিষয়টি জানানো হল ইসিকে।

সংসদ সদস্য শিরিন আখতারকে সাধারণ সম্পাদক করার বিরোধিতা করে ১২ মার্চ কাউন্সিলে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর নেতৃত্বাধীন জাসদ থেকে বেরিয়ে আলাদা কমিটি ঘোষণা করে দলটির একটি অংশ।

শরীফ নুরুল আম্বিয়াকে সভাপতি ও সংসদ সদস্য নাজমুল হক প্রধানকে সাধারণ সম্পাদক করা হয় এই কমিটিতে। এই কমিটিতে কার্যকরী সভাপতি হয়েছেন সংসদ সদস্য মইন উদ্দীন খান বাদল।

দলটির নেতৃত্ব নিয়ে ভাঙনের পর ইসিতে নতুন কমিটির তালিকা দেওয়ার পর তা প্রকাশ্য রূপ নিল। সেই সঙ্গে দলীয় প্রতীক নিয়ে জটিলতা তৈরি হল।

ইনু নেতৃত্বাধীন কমিটি ইসিকে বলেছে, হাসানুল হক ইনু বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি পুনঃনির্বাচিত হয়েছেন। সাধারণ সম্পাদক পদে দুইজন প্রার্থী থাকায় গোপন ব্যালটে ভোট হয়। এতে শিরীন আখতার ৬০৩ ও নাজমুল হক প্রধান ১৩৭ ভোট পান। সর্বোচ্চ ভোট পাওয়ায় শিরীন আখতার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

ইসির প্রশাসনিক কর্মকর্তা রোমান চৌধুরী জানান, জাসদের আরেক অংশ শরীফ নুরুল আম্বিয়া, নাজমুল হক প্রধান ও মইনউদ্দীন খান বাদল স্বাক্ষরিত কমিটির তালিকাও জমা পড়েছে।

নাজমুল হক প্রধান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “নতুন কমিটির তিন জনের স্বাক্ষর সংক্রান্ত চিঠি নির্বাচন কমিশনে জমা দিয়েছি। ২৪ মার্চ সংবাদ সম্মেলন করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি জানিয়ে দেওয়া হবে।”

তিনি বলেন, “এখন দলীয় প্রতীক নিয়ে শুনানি করবে ইসি। আশা করি, এ নিয়ে মীমাংসাও হবে।”

নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধন যাছাই-বাছাই কমিটির প্রধান যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলী ইতোমধ্যে বলেছেন, “স্বপ্রণোদিত হয়ে কিছু করার সুযোগ নেই। যখনই এ সংক্রান্ত তালিকা বা চিঠি পাব, তখন এ নিয়ে কমিশনের মতামত নেওয়া হবে।”