বিএনপি এখন বাংলাদেশ নালিশ পার্টি: হাছান

প্রথম দফার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে দাবি করে নির্বাচন নিয়ে বিএনপিকে তাদের ‘নালিশের বাক্স’ বন্ধ রাখার অনুরোধ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 March 2016, 03:30 PM
Updated : 22 March 2016, 03:30 PM

মঙ্গলবার রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “অতীতের যে কোন স্থানীয় নির্বাচনের চেয়ে বর্তমানে দেশের স্থানীয় নির্বাচন আরো বেশি সুষ্ঠু হচ্ছে।

“এমনকি পার্শ্ববর্তী পশ্চিমবঙ্গের চেয়েও বর্তমানে আমাদের দেশের স্থানীয় নির্বাচন স্বচ্ছ ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে দেখা যাচ্ছে- বিএনপি সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন নিয়ে নানা অভিযোগ করছে।” 

বিএনপিকে ‘বাংলাদেশ নালিশ পার্টি’ আখ্যায়িত করে সাবেক মন্ত্রী হাছান বলেন, “বিএনপির এখন বাংলাদেশ নালিশ পার্টি। তাদের কাজই হচ্ছে নালিশ করা। আমি অনুরোধ করব আপনাদের নালিশের বাক্স বন্ধ করুন।”

বিএনপিতে দলের চেয়ারপারর্সন খালেদা জিয়ার ‘একক ক্ষমতা’ ও দলটির সর্বশেষ কাউন্সিল নিয়ে মন্তব্য করেন এই আওয়ামী লীগ নেতা।

হাছান মাহমুদ বলেন, “এতোদিন খালেদা জিয়া চাইলে কমিটি ভেঙে দিতে পারতেন। আর এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে উনাকে (খালেদা জিয়া) চাইলেই কমিটি গঠন করারও ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। অর্থ্যাৎ খালেদা জিয়াকে এখন সম্রাজ্ঞীর মতো ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। 

“যে দলে কাউন্সিলের আগে নেতৃত্ব নির্বাচিত হয়, সে দলকে দিয়ে আর যাই হোক- দেশের কোনো উন্নয়ন সম্ভব নয়।

কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্মরণে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু একাডেমি।

প্রয়াত জিল্লুর রহমানের স্মরণে বলতে গিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, “রাজনীতি হল ব্রত। যারা রাজনীতিকে ব্রত হিসেবে নিতে পারেন কেবল তাদেরই রাজনীতি করা উচিত। জিল্লুর রহমান ছিলেন তেমনই একজন- যিনি রাজনীতিকে ব্রত হিসেবে নিয়েছিলেন।

“তার জীবন থেকে আমাদের অনেক কিছ শেখার আছে। আওয়ামী লীগের একজন কর্মী থেকে তিনি দেশের রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন। অত্যন্ত বিশ্বস্ত, ত্যাগী ও পরিশীলিত রাজনীতিবিদ ছিলেন বিধায় তিনি যেমন বঙ্গবন্ধুর সময়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন- তেমনি বঙ্গবন্ধুতনয়া শেখ হাসিনার সময়েও দলের সাধারণ সম্পাদক হতে পেরেছিলেন।”

এমদাদুল হক সেলিমের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে সাম্যবাদী দলের নেতা হারুন চৌধুরী, শাজাহান সাজু, অরুণ সরকার রানা, এম এ করিম ও আসাদুজ্জামান দুর্জয়সহ অন্যরা বক্তব্য রাখেন।