জেনারেল রাওয়াতের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত ‘পাইলটের ভুলে’

ভারতের চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াতের মৃত্যুর কারণ হওয়া হেলিকপ্টার দুর্ঘটনা ‘পাইলটের ভুলে’ ঘটেছে বলে তদন্ত দলের দেওয়া প্রাথমিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Jan 2022, 09:49 AM
Updated : 15 Jan 2022, 09:49 AM

এই দুর্ঘটনার সবচেয়ে সম্ভাব্য কারণ নির্ধারণে প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে যাদের পাওয়া গেছে তাদের সবাইকে বিভিন্ন প্রশ্ন জিজ্ঞেস করার পাশাপাশি তদন্ত দল হেলিকপ্টারটির ফ্লাইট ডেটা রেকর্ডার ও ককপিট ভয়েস রেকর্ডার বিশ্লেষণ করে দেখেছে বলে ভারতের গণমাধ্যমের প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়েছে।

৮ ডিসেম্বর স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১২টার দিকে জেনারেল রাওয়াতকে বহনকারী ভারতীয় বিমান বাহিনীর এমআই সেভেনটিন ভি৫ মডেলের একটি হেলিকপ্টার তামিল নাড়ুর কুন্নুরের গভীর জঙ্গলে বিধ্বস্ত হয়। এতে রাওয়াত ও তার স্ত্রী মধুলিকা রাওয়াতসহ কপ্টারের ১৪ জন আরোহীর মধ্যে ১৩ জন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। কেবল একজনকে জীবিত উদ্ধার করা গেলেও পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

অনুসন্ধানে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী তদন্ত দল বলেছে, “উপত্যকায় আবহাওয়া পরিস্থিতির একটি অপ্রত্যাশিত পরিবর্তনের কারণে হেলিকপ্টারটি মেঘের ভেতরে ঢুকে পড়ায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। তখন পাইলট দিকভ্রান্ত হয়ে পড়ে সিএফআইটির শিকার হন।”

বাতাসে ভাসমান এয়ারক্রাফট পাইলটের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে থাকার পরও আসাবধানতাবশত ভূখণ্ডে, পানিতে বা কোনো বাধার দিকে উড়ে যাওয়ার ফলে সিএফআইটি ঘটে। এ ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল এয়ারক্রাফটি ফ্লাইট ক্রুদের নিয়ন্ত্রণে থাকা অবস্থায়ই দুর্ঘটনা ঘটে।

তামিল নাড়ুর কোয়েমবাটোরের সুলুর বিমান ঘাঁটি থেকে রাজ্যটির ওয়েলিংটনের ডিফেন্স স্টাফ সার্ভিসেস কলেজে যাওয়ার সময় রাওয়াতকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়।   

ভারতের শীর্ষ হেলিকপ্টার পাইলট এয়ার মার্শাল মানভেন্দ্র সিংয়ের নেতৃত্বাধীন তিন বাহিনীর কোর্ট অব ইনকোয়ারি তাদের প্রাথমিক প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। তারা দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে যান্ত্রিক ত্রুটি, নাশকতা বা অমনোযোগ দায়ী ছিল না বলে জানিয়েছে। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক