সব নারীর গর্ভকালের গল্প এক নয়: কারিনা কাপুর

নিজের লেখা  ‘প্রেগনেন্সি বাইবেল’ বইটির মুখবন্ধ সোশাল মিডিয়ায় তুলে ধরে সবমায়ের কাছে তাদের গর্ভকালের অভিজ্ঞতা জানতে চেয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কারিনা কাপুর।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Sept 2021, 12:52 PM
Updated : 18 Sept 2021, 01:02 PM

ইনস্টাগ্রামে গত ১৩ সেপ্টেম্বর নিজের গর্ভকালের ছবি পোস্ট করে সবাইকে নিজেরবইটি সংগ্রহ করতে বললেন দুই সন্তানের এই মা।

সাইফ-কারিনা জুটির প্রথম সন্তান তৈমুর আলি খানের জন্ম হয় ২০১৬ সালে। আর এ বছর ফেব্রুয়ারিতে তাদের ঘরে দ্বিতীয় সন্তান এল।

দুইবার মা হওয়ার অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?

‘‘প্রেগনেন্সি বাইবেল’ বইটিতে কারিনা বলেছেন,  “কোনো দুজনের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার দিনগুলো একই রকম হয় না। সবার জন্যই এই অভিজ্ঞতা ভিন্ন ভিন্ন হয়ে দেখা দেয়। আর এ নিয়েই আমার গর্ভকালের গল্প।”

নিজের ও পেটে থাকা সন্তানের জন্য খাদ্যাভাস প্রসংগে গর্ভকালের ডায়েট নিয়ে বইটিতে বলেছেন কারিনা।

গত জুলাই মাসে প্রেগনেন্সি বাইবেল বইটির প্রকাশ হয়। এরপর অগাস্টে বলিউড নির্মাতা করণ জোহরের সঙ্গে ইনস্টাগ্রামে এই বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন ফের।

 

করণ জোহরের সঙ্গে আলাপে কারিনা বলেন, নিজের মাতৃত্ব যাত্রা নিয়ে ‘অকপট’ অনুভূতি ব্যক্ত করার শর্তেই বইটি লিখতে রাজি হয়েছেন তিনি।

প্রেগনেন্সি বাইবেল প্রকাশের পর বইটি তার ‘তৃতীয় সন্তান’ জানিয়ে ইনস্টাগ্রামে দেওয়া পোস্টে বয়স ৪০ পেরুনো এই অভিনেত্রী বলেন, “ওই সময় কখনও ভালো দিন ছিল কখনও খারাপ।

“আমি কোনো কোনো দিন কাজে যেতে ব্যাকুল হয়ে উঠতাম, আবার কোনো কোনো দিন বিছানা থেকে নামাটাই কষ্টকর ছিল। এই বইয়ে আমার গর্ভকালের শারীরিক ও মানসিক অবস্থার সব সব কথাই লিখেছি আমি।”

 

অ্যামাজন ডট আইএন থেকে কেনা যাবে কারিনা কাপুরের প্রেগনেন্সি বাইবেল। সেই লিংক রয়েছে কারিনার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলেও।

বইটি নিয়ে অ্যামাজনের ওয়েব সাইটে বলা হয়েছে, সন্তান প্রসবের জন্য হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সময় কী কী নিয়ে যেতে হবে সঙ্গে সেসবও লিখেছেন কারিনা।

“নিজের গর্ভকাল নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন তিনি। এই দিনগুলোতে সকাল বেলায় শরীর ম্যাজম্যাজ থেকে পেপেরনি পিজা খাওয়ার তীব্র ইচ্ছা কিছুই বাদ যায়নি।”

চার অধ্যায়ে ভাগ করা বইটির প্রথম অধ্যায়ে কারিনা বলেছেন গর্ভকালের ৪০ সপ্তাহ নিয়ে। এই ৪০ সপ্তাহকে ভাগ করা হয়েছে আবার তিনটি পরিচ্ছেদে; প্রথম তিন মাস, দ্বিতীয় তিন মাস এবং শেষ তিন মাস।

বইটির শেষে শুভেচ্ছা বার্তা লিখেছেন সাইফ আলী খান।

২০১৩ সালে লেখক রোশেল পিন্টোর সঙ্গে মিলে একটি বই প্রকাশ করেছিলেন কারিনা। ‘কারিনা কাপুর: স্টাইল ডায়রি অফ এ বলিউড ডিভা’ নামের ওই বইয়ে কারিনা তার রূপচর্চাবিষয়ক বিভিন্ন তথ্য দিয়েছেন।

কারিনার বড়বোন কারিশমা কাপুর মা হওয়ার পর মায়েদের জন্য একটি বই লেখেন, যার নাম ‘দ্য ইয়াম্মি মাম্মি গাইড’।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক