উদাসীন মানুষ, বাড়ছে সংক্রমণ

  • করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • মাস্কে নাক-মুখ ঢেকে রাখার কথা থাকলেও সেটা বেশিরভাগ সময়ই থাকছে থুতনির নিচে। মানুষের এমন উদাসীনতায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    মাস্কে নাক-মুখ ঢেকে রাখার কথা থাকলেও সেটা বেশিরভাগ সময়ই থাকছে থুতনির নিচে। মানুষের এমন উদাসীনতায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • মাস্কে নাক-মুখ ঢেকে রাখার কথা থাকলেও সেটা বেশিরভাগ সময়ই থাকছে থুতনির নিচে। মানুষের এমন উদাসীনতায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    মাস্কে নাক-মুখ ঢেকে রাখার কথা থাকলেও সেটা বেশিরভাগ সময়ই থাকছে থুতনির নিচে। মানুষের এমন উদাসীনতায় নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হচ্ছে, তার অন্যতম হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। কিন্তু ইদানীং কয়েকজন মিলেও রিকশায় চলাফেরা হচ্ছে ঢের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হচ্ছে, তার অন্যতম হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। কিন্তু ইদানীং কয়েকজন মিলেও রিকশায় চলাফেরা হচ্ছে ঢের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হচ্ছে, তার অন্যতম হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। কিন্তু ইদানীং কয়েকজন মিলেও রিকশায় চলাফেরা হচ্ছে ঢের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হচ্ছে, তার অন্যতম হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। কিন্তু ইদানীং কয়েকজন মিলেও রিকশায় চলাফেরা হচ্ছে ঢের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হচ্ছে, তার অন্যতম হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। কিন্তু ইদানীং কয়েকজন মিলেও রিকশায় চলাফেরা হচ্ছে ঢের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে যেসব স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হচ্ছে, তার অন্যতম হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। কিন্তু ইদানীং কয়েকজন মিলেও রিকশায় চলাফেরা হচ্ছে ঢের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাস মহামারীতে গণপরিবহনে চলাচলে মুখে মাস্ক রাখা অত্যাবশ্যকীয় হলেও এখন মানুষকে এর ব্যবহারে খুব একটা সচেতন দেখা যায় না। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মুখে মাস্ক বাধ্যতামূলক হলেও দিন দিন যেন উদাসীন হয়ে পড়ছে মানুষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি