পথশিশুদের জন্য ভাসমান হোটেল

  • বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন পথশিশুদের জন্য ঢাকার বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে ইস্পাতের ফ্রেম দিয়ে তৈরি ১৩ ফুট দৈর্ঘ্য এবং সাড়ে ৬ ফুট প্রস্থের ছোট্ট কিছু ভাসমান ঘর নিয়ে এসেছে শীতের রাতে খোলা আকাশের নিচে থাকা পথশিশুদের জন্য। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন পথশিশুদের জন্য ঢাকার বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে ইস্পাতের ফ্রেম দিয়ে তৈরি ১৩ ফুট দৈর্ঘ্য এবং সাড়ে ৬ ফুট প্রস্থের ছোট্ট কিছু ভাসমান ঘর নিয়ে এসেছে শীতের রাতে খোলা আকাশের নিচে থাকা পথশিশুদের জন্য। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন পথশিশুদের জন্য ঢাকার বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে ইস্পাতের ফ্রেম দিয়ে তৈরি ১৩ ফুট দৈর্ঘ্য এবং সাড়ে ৬ ফুট প্রস্থের ছোট্ট কিছু ভাসমান ঘর নিয়ে এসেছে শীতের রাতে খোলা আকাশের নিচে থাকা পথশিশুদের জন্য। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন পথশিশুদের জন্য ঢাকার বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে ইস্পাতের ফ্রেম দিয়ে তৈরি ১৩ ফুট দৈর্ঘ্য এবং সাড়ে ৬ ফুট প্রস্থের ছোট্ট কিছু ভাসমান ঘর নিয়ে এসেছে শীতের রাতে খোলা আকাশের নিচে থাকা পথশিশুদের জন্য। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • ইস্পাতের ফ্রেম দিয়ে তৈরি, ত্রিপল দ্বারা আবৃত এই ঘরে পথ শিশুদের জন্য রয়েছে তোষক, বালিশ, কম্বল থেকে শুরু করে শীতের রাতে একটু আরাম করে থাকার সব সুবিধা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    ইস্পাতের ফ্রেম দিয়ে তৈরি, ত্রিপল দ্বারা আবৃত এই ঘরে পথ শিশুদের জন্য রয়েছে তোষক, বালিশ, কম্বল থেকে শুরু করে শীতের রাতে একটু আরাম করে থাকার সব সুবিধা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুদের জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের বানানো এই ভাসমান হোটেলে প্রতিদিন রাতে নিয়ে আসা হয় পথশিশুদের এবং সকাল হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের একটি ঘরে ৪ থেকে ৫ জন অনায়াসেই থাকতে পারে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের একটি ঘরে ৪ থেকে ৫ জন অনায়াসেই থাকতে পারে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের একটি ঘরে ৪ থেকে ৫ জন অনায়াসেই থাকতে পারে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের একটি ঘরে ৪ থেকে ৫ জন অনায়াসেই থাকতে পারে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে শিশুদের ঢোকার আগে দেওয়া হয় মশা নিধনের কীটনাশক। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে শিশুদের ঢোকার আগে দেওয়া হয় মশা নিধনের কীটনাশক। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে শিশুদের ঢোকার আগে দেওয়া হয় মশা নিধনের কীটনাশক। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে শিশুদের ঢোকার আগে দেওয়া হয় মশা নিধনের কীটনাশক। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে শিশুদের ঢোকার আগে দেওয়া হয় মশা নিধনের কীটনাশক। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো এই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে শিশুদের ঢোকার আগে দেওয়া হয় মশা নিধনের কীটনাশক। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো ভাসমান হোটেলে শিশুদের ঘুমানোর আগে দেওয়া হয় রাতের খাবার। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য বানানো ভাসমান হোটেলে শিশুদের ঘুমানোর আগে দেওয়া হয় রাতের খাবার। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুরা যাতে খালি পেটে না ঘুমায়, তাই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকদের উপস্থিতিতেই খাওয়ানো হয় তাদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুরা যাতে খালি পেটে না ঘুমায়, তাই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকদের উপস্থিতিতেই খাওয়ানো হয় তাদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পথশিশুরা যাতে খালি পেটে না ঘুমায়, তাই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকদের উপস্থিতিতেই খাওয়ানো হয় তাদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পথশিশুরা যাতে খালি পেটে না ঘুমায়, তাই ভাসমান হোটেলের প্রতিটি ঘরে বিদ্যানন্দের স্বেচ্ছাসেবকদের উপস্থিতিতেই খাওয়ানো হয় তাদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য ভাসমান হোটেল বানাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য ভাসমান হোটেল বানাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য ভাসমান হোটেল বানাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য ভাসমান হোটেল বানাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য ভাসমান হোটেল বানাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বিমানবন্দর রেল স্টেশনের পেছনে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের পথশিশুদের জন্য ভাসমান হোটেল বানাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবকরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি