বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে

  • ঢাকার বিজয় সরণীতে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে বছরের প্রথম সপ্তাহে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    ঢাকার বিজয় সরণীতে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে বছরের প্রথম সপ্তাহে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শিত বাংলাদেশ বিমানবাহিনীতে ব্যবহৃত পিটি-৬ বিমানের ইঞ্জিন। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শিত বাংলাদেশ বিমানবাহিনীতে ব্যবহৃত পিটি-৬ বিমানের ইঞ্জিন। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • এফটি-৬ যুদ্ধবিমানের ইঞ্জিন প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    এফটি-৬ যুদ্ধবিমানের ইঞ্জিন প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • এয়ারট্যুরার প্রশিক্ষণ বিমানও প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    এয়ারট্যুরার প্রশিক্ষণ বিমানও প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে দেখা যাবে বিভিন্ন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে দেখা যাবে বিভিন্ন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • এফএম-৯০ এসএএম, যা ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য, মিসাইল সিস্টেমসহ বিভিন্ন ধরনের সমর সরঞ্জাম রাখা আছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    এফএম-৯০ এসএএম, যা ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য, মিসাইল সিস্টেমসহ বিভিন্ন ধরনের সমর সরঞ্জাম রাখা আছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শিত বাংলাদেশ বিমানবাহিনীতে ব্যবহৃত মিগ-২১ যুদ্ধবিমান। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শিত বাংলাদেশ বিমানবাহিনীতে ব্যবহৃত মিগ-২১ যুদ্ধবিমান। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে নৌবাহিনীতে ব্যবহৃত স্কুইড মাউন্টিং মর্টার মার্ক-৪, রকেট ডেপথ চার্জ, ইটি ৪০ টর্পেডো, টাইপ ৫৩-৬৬ টর্পেডো ও টিউবসহ বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে নৌবাহিনীতে ব্যবহৃত স্কুইড মাউন্টিং মর্টার মার্ক-৪, রকেট ডেপথ চার্জ, ইটি ৪০ টর্পেডো, টাইপ ৫৩-৬৬ টর্পেডো ও টিউবসহ বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত মোটর ক্যারিজ ৪০ মিমি সেলফ প্রপেল্ড টুইন এম১৯এ১ বিমানবিধ্বংসী ট্যাঙ্ক প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত মোটর ক্যারিজ ৪০ মিমি সেলফ প্রপেল্ড টুইন এম১৯এ১ বিমানবিধ্বংসী ট্যাঙ্ক প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে মালিতে সন্ত্রাসীদের পুঁতে রাখা ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস বা আইইডি বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী বাহিনীর ট্যাঙ্ক। এই হামলায় তিনজন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত এবং চারজন আহত হয়। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে মালিতে সন্ত্রাসীদের পুঁতে রাখা ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস বা আইইডি বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী বাহিনীর ট্যাঙ্ক। এই হামলায় তিনজন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত এবং চারজন আহত হয়। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন সরঞ্জাম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন সরঞ্জাম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন সরঞ্জাম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন সরঞ্জাম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত ১০০ এমএম ট্যাঙ্ক গানসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম রয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত ১০০ এমএম ট্যাঙ্ক গানসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম রয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • সামরিক বাহিনীতে ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরনের মিসাইল ও ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শনীর জন্য বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা আছে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    সামরিক বাহিনীতে ব্যবহৃত বিভিন্ন ধরনের মিসাইল ও ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শনীর জন্য বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা আছে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • নৌবাহিনীতে ব্যবহৃত সাবমেরিন, যুদ্ধ জাহাজ ও বিভিন্ন নৌযান স্থান পেয়েছেন বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    নৌবাহিনীতে ব্যবহৃত সাবমেরিন, যুদ্ধ জাহাজ ও বিভিন্ন নৌযান স্থান পেয়েছেন বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা হয়েছে সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত আর্মার্ড পার্সোনেল ক্যারিয়ার। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা হয়েছে সেনাবাহিনীতে ব্যবহৃত আর্মার্ড পার্সোনেল ক্যারিয়ার। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রয়েছে সতের শতকে অটোমান নৌবাহিনীর ১২৪ কামানবিশিষ্ট একটি যুদ্ধজাহাজের মডেল। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রয়েছে সতের শতকে অটোমান নৌবাহিনীর ১২৪ কামানবিশিষ্ট একটি যুদ্ধজাহাজের মডেল। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য রাখা ১২ পাউন্ড আর্টিলারি গান ও পলাশীর যুদ্ধে ব্যবহৃত কামান। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য রাখা ১২ পাউন্ড আর্টিলারি গান ও পলাশীর যুদ্ধে ব্যবহৃত কামান। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য রাখা ১৭ শতকে মুঘল নৌবাহিনীর ব্যবহৃত বৃহৎ সামরিক জলযানের আদলে তৈরি নৌযান। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য রাখা ১৭ শতকে মুঘল নৌবাহিনীর ব্যবহৃত বৃহৎ সামরিক জলযানের আদলে তৈরি নৌযান। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • ঐতিহাসিক পলাশি যুদ্ধের মডেল ও অষ্টদশ শতাব্দীর কামান প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    ঐতিহাসিক পলাশি যুদ্ধের মডেল ও অষ্টদশ শতাব্দীর কামান প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • যুদ্ধক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর একটি গাড়ি ও সেনা সদস্যদের কার্যক্রমের মডেল প্রদর্শিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    যুদ্ধক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর একটি গাড়ি ও সেনা সদস্যদের কার্যক্রমের মডেল প্রদর্শিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি জেনারেল এমএজি ওসমানীর ব্যবহৃত জিপ স্থান পেয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি জেনারেল এমএজি ওসমানীর ব্যবহৃত জিপ স্থান পেয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত প্রথম পতাকা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত প্রথম পতাকা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বিভিন্ন সময় ব্যবহৃত ছোট ছোট আগ্নেয়াস্ত্র বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বিভিন্ন সময় ব্যবহৃত ছোট ছোট আগ্নেয়াস্ত্র বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে প্রদর্শনীর জন্য স্থান পেয়েছে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পণের চিত্রকর্ম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পণের চিত্রকর্ম। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • যুদ্ধক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর সদস্যদের মডেল প্রদর্শিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    যুদ্ধক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর সদস্যদের মডেল প্রদর্শিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • যুদ্ধক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর সদস্যদের মডেল প্রদর্শিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    যুদ্ধক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর সদস্যদের মডেল প্রদর্শিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি