কর্মহীনতার দিন শ্রমিকদের

  • করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে ‘সর্বাত্মক লকডাউনের’ তৃতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় কাজের আশায় বসে থাকেন শ্রমিকেরা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে ‘সর্বাত্মক লকডাউনের’ তৃতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় কাজের আশায় বসে থাকেন শ্রমিকেরা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে ‘সর্বাত্মক লকডাউনের’ তৃতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় কাজের আশায় বসে থাকেন শ্রমিকেরা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে ‘সর্বাত্মক লকডাউনের’ তৃতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় কাজের আশায় বসে থাকেন শ্রমিকেরা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • ‘লকডাউনের’ তৃতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় বসে থেকে কাজ না পেয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন এক শ্রমিক। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    ‘লকডাউনের’ তৃতীয় দিন শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় বসে থেকে কাজ না পেয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন এক শ্রমিক। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • ‘লকডাউনের’ মধ্যে শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় বসে থেকে কাজ না পেয়ে বাড়ি ফিরছেন শ্রমিকরা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    ‘লকডাউনের’ মধ্যে শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় বসে থেকে কাজ না পেয়ে বাড়ি ফিরছেন শ্রমিকরা। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

  • ‘লকডাউনের’ মধ্যে শুক্রবার বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কাজের আশায় বসে ছিলেন এই নারী শ্রমিক। এক সময় ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

    ‘লকডাউনের’ মধ্যে শুক্রবার বাড্ডার নতুন বাজার এলাকায় সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কাজের আশায় বসে ছিলেন এই নারী শ্রমিক। এক সময় ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি