বেঁচে থাকার লড়াই

  • সালেহা বেগমের স্বামী মারা গেছেন কয়েক বছর আগে, দুই ছেলেকে নিয়েই ছিল তার পরিবার। বিয়ের পর মাকে রেখে আলাদা সংসার করছেন বড় ছেলে। বৃদ্ধ সালেহার খবর নেন না তিনি। ১৪ বছর বয়সী ছোট ছেলে অসুস্থ হওয়ায় সংসারের ভার সালেহাকেই সামলাতে হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    সালেহা বেগমের স্বামী মারা গেছেন কয়েক বছর আগে, দুই ছেলেকে নিয়েই ছিল তার পরিবার। বিয়ের পর মাকে রেখে আলাদা সংসার করছেন বড় ছেলে। বৃদ্ধ সালেহার খবর নেন না তিনি। ১৪ বছর বয়সী ছোট ছেলে অসুস্থ হওয়ায় সংসারের ভার সালেহাকেই সামলাতে হয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • স্বামীর মৃত্যুর পর ছেড়ে গেছে বড় ছেলে, ১৪ বছরের ছোট ছেলেটি অসুস্থ; দুজনের থাকা, খাওয়া-পরার ব্যবস্থা সালেহা বেগমকেই করতে হয়। করোনাভাইরাসের কারণে গৃহকর্মীর কাজও হয় না বলে পাইকারদের ফেলা আবর্জনা থেকে আধা নষ্ট আলু, পেঁয়াজ, রসুন সংগ্রহের কাজ করছেন তিনি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    স্বামীর মৃত্যুর পর ছেড়ে গেছে বড় ছেলে, ১৪ বছরের ছোট ছেলেটি অসুস্থ; দুজনের থাকা, খাওয়া-পরার ব্যবস্থা সালেহা বেগমকেই করতে হয়। করোনাভাইরাসের কারণে গৃহকর্মীর কাজও হয় না বলে পাইকারদের ফেলা আবর্জনা থেকে আধা নষ্ট আলু, পেঁয়াজ, রসুন সংগ্রহের কাজ করছেন তিনি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে শ্যামবাজারের পাইকারদের ফেলে দেওয়া ময়লা-আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আলু, পেঁয়াজ, রসুন পান সেগুলো বিক্রি করেই চলে সালেহা বেগমের সংসার। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে শ্যামবাজারের পাইকারদের ফেলে দেওয়া ময়লা-আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আলু, পেঁয়াজ, রসুন পান সেগুলো বিক্রি করেই চলে সালেহা বেগমের সংসার। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে শ্যামবাজারের পাইকারদের ফেলে দেওয়া ময়লা-আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আলু, পেঁয়াজ, রসুন পান সেগুলো বিক্রি করেই চলে সালেহা বেগমের সংসার। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে শ্যামবাজারের পাইকারদের ফেলে দেওয়া ময়লা-আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আলু, পেঁয়াজ, রসুন পান সেগুলো বিক্রি করেই চলে সালেহা বেগমের সংসার। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পুরান ঢাকায় ২৮০০ টাকা ভাড়া দিয়ে ছোট ছেলেকে নিয়ে একটি বাসায় থাকেন সালেহা বেগম। শ্যামবাজারের পাইকারি দোকান থেকে ফেলে দেওয়া ময়লা- আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আধা নষ্ট আলু, পেঁয়াজ, রসুন পাওয়া যায় সেগুলো বিক্রি করে প্রতিদিন ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পান তিনি, তা দিয়েই চলছে সালেহার বেঁচে থাকার লড়াই । ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পুরান ঢাকায় ২৮০০ টাকা ভাড়া দিয়ে ছোট ছেলেকে নিয়ে একটি বাসায় থাকেন সালেহা বেগম। শ্যামবাজারের পাইকারি দোকান থেকে ফেলে দেওয়া ময়লা- আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আধা নষ্ট আলু, পেঁয়াজ, রসুন পাওয়া যায় সেগুলো বিক্রি করে প্রতিদিন ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পান তিনি, তা দিয়েই চলছে সালেহার বেঁচে থাকার লড়াই । ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • পুরান ঢাকায় ২৮০০ টাকা ভাড়া দিয়ে ছোট ছেলেকে নিয়ে একটি বাসায় থাকেন সালেহা বেগম। শ্যামবাজারের পাইকারি দোকান থেকে ফেলে দেওয়া ময়লা- আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আধা নষ্ট আলু, পেঁয়াজ, রসুন পাওয়া যায় সেগুলো বিক্রি করে প্রতিদিন ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পান তিনি, তা দিয়েই চলছে সালেহার বেঁচে থাকার লড়াই। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    পুরান ঢাকায় ২৮০০ টাকা ভাড়া দিয়ে ছোট ছেলেকে নিয়ে একটি বাসায় থাকেন সালেহা বেগম। শ্যামবাজারের পাইকারি দোকান থেকে ফেলে দেওয়া ময়লা- আবর্জনা কুড়িয়ে যেসব আধা নষ্ট আলু, পেঁয়াজ, রসুন পাওয়া যায় সেগুলো বিক্রি করে প্রতিদিন ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পান তিনি, তা দিয়েই চলছে সালেহার বেঁচে থাকার লড়াই। ছবি: মাহমুদ জামান অভি