ফুলের গ্রাম সাবদিতে এবার ফুটছে ফুল দেরিতে

  • জানুয়ারি মাসে নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামের চাষিরা ফুল তোলে। কিন্তু এবার বন্যার পানি দেরিতে নামায় সেই সময়ে শুরু হয়েছে ফুল চাষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    জানুয়ারি মাসে নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামের চাষিরা ফুল তোলে। কিন্তু এবার বন্যার পানি দেরিতে নামায় সেই সময়ে শুরু হয়েছে ফুল চাষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামের ফুল চাষিরা গত বছর লোকসান গুনেছে। লকডাউনের কারণে প্রায় অর্ধেক ফুল নষ্ট হয়েছে জমিতেই। এবার আবার চাষ শুরু করেছে, কিন্তু ফুলচাষিরা ‍ভয়ে রয়েছে, দেরিতে চাষ শুরু হওয়ায় সঠিক দাম নিয়ে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামের ফুল চাষিরা গত বছর লোকসান গুনেছে। লকডাউনের কারণে প্রায় অর্ধেক ফুল নষ্ট হয়েছে জমিতেই। এবার আবার চাষ শুরু করেছে, কিন্তু ফুলচাষিরা ‍ভয়ে রয়েছে, দেরিতে চাষ শুরু হওয়ায় সঠিক দাম নিয়ে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নকুল চন্দ্র হালদার সাবদি গ্রামে প্রায় ৪০ বছর ধরে ফুলের চাষ করেন। ডালিয়া, চেরি, গ্লাডিওলাস, জারবেরা, চন্দ্রমল্লিকা, গাঁদাসহ সাত থেকে আট ধরনের ফুল চাষ করছেন এবার তিনি। কিন্তু দেরিতে চাষ শুরু করায় দাম নিয়ে তিনি রয়েছেন শঙ্কায়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নকুল চন্দ্র হালদার সাবদি গ্রামে প্রায় ৪০ বছর ধরে ফুলের চাষ করেন। ডালিয়া, চেরি, গ্লাডিওলাস, জারবেরা, চন্দ্রমল্লিকা, গাঁদাসহ সাত থেকে আট ধরনের ফুল চাষ করছেন এবার তিনি। কিন্তু দেরিতে চাষ শুরু করায় দাম নিয়ে তিনি রয়েছেন শঙ্কায়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে নিজের ক্রিসেনথেমাম ফুলের জমিতে কাজ করছেন নকুল চন্দ্র হালদার। এই ফুলের বেশ চাহিদা বলে জানান তিনি। বীজ থেকে এই ফুলের চারা করা কষ্টকর বলে চারা কিনেই করেন চাষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে নিজের ক্রিসেনথেমাম ফুলের জমিতে কাজ করছেন নকুল চন্দ্র হালদার। এই ফুলের বেশ চাহিদা বলে জানান তিনি। বীজ থেকে এই ফুলের চারা করা কষ্টকর বলে চারা কিনেই করেন চাষ। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • ক্রিসেনথেমাম ফুলের একটি গাছে প্রায় ৫০টি ফুল হয়, গাছ রোপণের দুই মাস পর ফুল আসে। ফুল আসার পর এক মাস ধরে তা সংগ্রহ করা যায়। সাবদি গ্রামের ফুলচাষিরা প্রতিটি ফুল পাইকারি দরে বিক্রি করে এক থেকে দুই টাকায়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    ক্রিসেনথেমাম ফুলের একটি গাছে প্রায় ৫০টি ফুল হয়, গাছ রোপণের দুই মাস পর ফুল আসে। ফুল আসার পর এক মাস ধরে তা সংগ্রহ করা যায়। সাবদি গ্রামের ফুলচাষিরা প্রতিটি ফুল পাইকারি দরে বিক্রি করে এক থেকে দুই টাকায়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে ফুলের জমিতে আগাছা পরিষ্কার করছেন এক চাষি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে ফুলের জমিতে আগাছা পরিষ্কার করছেন এক চাষি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা লাল রঙের ডালিয়া ফুল। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা লাল রঙের ডালিয়া ফুল। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা একটি বেগুনি রঙের ডালিয়া ফুল। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা একটি বেগুনি রঙের ডালিয়া ফুল। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা একটি হালকা গোলাপি ও হলুদ ডালিয়া ফুল। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা একটি হালকা গোলাপি ও হলুদ ডালিয়া ফুল। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে ডালিয়া ফুলের গাছে এসেছে কুঁড়ি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে ডালিয়া ফুলের গাছে এসেছে কুঁড়ি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা ক্যালেন্ডুলা ফুল । ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে সদ্য ফোটা ক্যালেন্ডুলা ফুল । ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে গাঁদা ফুলে মৌ অন্বেষণে মৌমাছি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে একটি জমিতে গাঁদা ফুলে মৌ অন্বেষণে মৌমাছি। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে পাঁচ বছর ধরে জারবেরা ফুলের চাষ করছেন সফিক মিয়া। পাঁচ বছর আগে লাগানো গাছ এখনও ফুল দিয়ে যাচ্ছে। প্রায় সারা বছর এই ফুলের চাহিদা থাকে এবং একবার গাছ লাগালে তা চার থেকে পাঁচ বছর ধরে ফুল দেয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে পাঁচ বছর ধরে জারবেরা ফুলের চাষ করছেন সফিক মিয়া। পাঁচ বছর আগে লাগানো গাছ এখনও ফুল দিয়ে যাচ্ছে। প্রায় সারা বছর এই ফুলের চাহিদা থাকে এবং একবার গাছ লাগালে তা চার থেকে পাঁচ বছর ধরে ফুল দেয়। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • অন্য ফুলের তুলনায় জারবেরা ফুলের পরিচর্যা একটু বেশি করতে হয়, সে কারণে আলাদাভাবে ঘর করে এই ফুলের চাষ করা হয়ে থাকে। বর্তমানে ১০ টাকা দরে প্রতিটি ফুল বিক্রি করছেন সাবদির ফুলচাষি সফিক মিয়া। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    অন্য ফুলের তুলনায় জারবেরা ফুলের পরিচর্যা একটু বেশি করতে হয়, সে কারণে আলাদাভাবে ঘর করে এই ফুলের চাষ করা হয়ে থাকে। বর্তমানে ১০ টাকা দরে প্রতিটি ফুল বিক্রি করছেন সাবদির ফুলচাষি সফিক মিয়া। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে জারবেরা ক্ষেত থেকে ফুল সংগ্রহ করছেন ফুলচাষি সফিক মিয়া। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে জারবেরা ক্ষেত থেকে ফুল সংগ্রহ করছেন ফুলচাষি সফিক মিয়া। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামের বাসিন্দারা বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য স্থানীয় ফুলচাষিদের কাছ থেকে ফুল কেনেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামের বাসিন্দারা বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য স্থানীয় ফুলচাষিদের কাছ থেকে ফুল কেনেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে ক্ষেত থেকে সংগ্রহ করা এই জারবেরা ফুল রেখে দেওয়া হয়েছে ঢাকার শাহবাগে ফুলের বাজারে পাঠানোর জন্য। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নারায়ণগঞ্জের সাবদি গ্রামে ক্ষেত থেকে সংগ্রহ করা এই জারবেরা ফুল রেখে দেওয়া হয়েছে ঢাকার শাহবাগে ফুলের বাজারে পাঠানোর জন্য। ছবি: মাহমুদ জামান অভি