গুমাই বিলের ধান উঠছে গোলায়

  • চন্দ্রঘোনা, মরিয়মনগর, হোছনাবাদ ও স্বনির্ভর রাঙ্গুনিয়া এই চারটি ইউনিয়নে বিস্তৃত গুমাই বিল। পুরো বিলজুড়ে চাষ করা হয় আমন ধান। ছবি: সুমন বাবু

    চন্দ্রঘোনা, মরিয়মনগর, হোছনাবাদ ও স্বনির্ভর রাঙ্গুনিয়া এই চারটি ইউনিয়নে বিস্তৃত গুমাই বিল। পুরো বিলজুড়ে চাষ করা হয় আমন ধান। ছবি: সুমন বাবু

  • কৃষকদের অভিযোগ, গিঁট ব্লাস্ট রোগ (ধান গাছ গিট বরাবর ভেঙে পড়ে), ইঁদুর-সাপের উৎপাত ও মাঠ পর্ষায়ে কৃষি বিভাগের কর্মচারীদের প্রত্যাশিত সহায়তা না পাওয়ায় কাঙ্ক্ষিত ফলন পাচ্ছেন না তারা। ছবি: সুমন বাবু

    কৃষকদের অভিযোগ, গিঁট ব্লাস্ট রোগ (ধান গাছ গিট বরাবর ভেঙে পড়ে), ইঁদুর-সাপের উৎপাত ও মাঠ পর্ষায়ে কৃষি বিভাগের কর্মচারীদের প্রত্যাশিত সহায়তা না পাওয়ায় কাঙ্ক্ষিত ফলন পাচ্ছেন না তারা। ছবি: সুমন বাবু

  • বিস্তৃত গুমাই বিলের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত যাতায়াতের সু-ব্যবস্থা না থাকায় চাষের খরচ বেড়ে যায়। যে কারণে গুমাই বিলের শেষ প্রান্তে কয়েক বছর ধরে চাষ বন্ধ রেখেছেন জমির মালিকরা। ছবি: সুমন বাবু

    বিস্তৃত গুমাই বিলের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত যাতায়াতের সু-ব্যবস্থা না থাকায় চাষের খরচ বেড়ে যায়। যে কারণে গুমাই বিলের শেষ প্রান্তে কয়েক বছর ধরে চাষ বন্ধ রেখেছেন জমির মালিকরা। ছবি: সুমন বাবু

  • গুমাই বিলে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ইট ভাটার জন্য মাটি কেটে নেওয়ায় জমি নষ্ট হচ্ছে। এতে জমি বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানান কৃষকরা। ফলে দিনকে দিন কমছে ধানী জমি। ছবি: সুমন বাবু

    গুমাই বিলে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ইট ভাটার জন্য মাটি কেটে নেওয়ায় জমি নষ্ট হচ্ছে। এতে জমি বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানান কৃষকরা। ফলে দিনকে দিন কমছে ধানী জমি। ছবি: সুমন বাবু

  • গুমাই বিলে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ইট ভাটার জন্য মাটি কেটে নেওয়ায় জমি নষ্ট হচ্ছে। এতে জমি বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানান কৃষকরা। ফলে দিনকে দিন কমছে ধানী জমি। ছবি: সুমন বাবু

    গুমাই বিলে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ইট ভাটার জন্য মাটি কেটে নেওয়ায় জমি নষ্ট হচ্ছে। এতে জমি বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন বলে জানান কৃষকরা। ফলে দিনকে দিন কমছে ধানী জমি। ছবি: সুমন বাবু

  • প্রায় আড়াই হাজার হেক্টর জমি নিয়ে গুমাই বিল। অন্যান্য বছর বিলের জমিতে কানিতে প্রায় সাড়ে ১২ মন করে ধান হলেও এবার তা ১০ মনের কাছাকাছি বলে জানান কৃষকরা। ছবি: সুমন বাবু

    প্রায় আড়াই হাজার হেক্টর জমি নিয়ে গুমাই বিল। অন্যান্য বছর বিলের জমিতে কানিতে প্রায় সাড়ে ১২ মন করে ধান হলেও এবার তা ১০ মনের কাছাকাছি বলে জানান কৃষকরা। ছবি: সুমন বাবু