ওষুধের বিক্রয় প্রতিনিধিদের জ্বালাতন

  • বারডেম হাসপাতালের ফটকের সামনে প্রতিদিন রোগীদের নাজেহাল হতে হয় ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিদের কাছে। সামনে দাঁড়িয়ে থাকলেও কোনো তৎপরতা থাকে না হাসপাতালের নিরাপত্তা রক্ষীদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বারডেম হাসপাতালের ফটকের সামনে প্রতিদিন রোগীদের নাজেহাল হতে হয় ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিদের কাছে। সামনে দাঁড়িয়ে থাকলেও কোনো তৎপরতা থাকে না হাসপাতালের নিরাপত্তা রক্ষীদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • শাহবাগের বারডেম হাসপাতালের ফটকে শনিবার সকালে এক রোগী বের হওয়ার পর তার প্রেসক্রিপশন বা ব্যবস্থাপত্র নিয়ে টানাটানিতে ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    শাহবাগের বারডেম হাসপাতালের ফটকে শনিবার সকালে এক রোগী বের হওয়ার পর তার প্রেসক্রিপশন বা ব্যবস্থাপত্র নিয়ে টানাটানিতে ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • শাহবাগের বারডেম হাসপাতালের ফটকে শনিবার সকালে এক রোগী বের হওয়ার পর তার প্রেসক্রিপশন বা ব্যবস্থাপত্র নিয়ে টানাটানিতে ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    শাহবাগের বারডেম হাসপাতালের ফটকে শনিবার সকালে এক রোগী বের হওয়ার পর তার প্রেসক্রিপশন বা ব্যবস্থাপত্র নিয়ে টানাটানিতে ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বারডেম হাসপাতালের ফটকে থাকা ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা তাদের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে রোগীদের অনেকটাই বাধ্য করেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বারডেম হাসপাতালের ফটকে থাকা ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা তাদের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে রোগীদের অনেকটাই বাধ্য করেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বারডেম হাসপাতালের ফটকে থাকা ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা তাদের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে রোগীদের অনেকটাই বাধ্য করেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বারডেম হাসপাতালের ফটকে থাকা ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা তাদের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে রোগীদের অনেকটাই বাধ্য করেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • বারডেম হাসপাতালের ফটকে থাকা ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা তাদের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে রোগীদের অনেকটাই বাধ্য করেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    বারডেম হাসপাতালের ফটকে থাকা ওষুধ কোম্পানিগুলোর বিক্রয় প্রতিনিধিরা তাদের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে রোগীদের অনেকটাই বাধ্য করেন। ছবি: মাহমুদ জামান অভি