মহামারীতে হলের পাট গুটিয়ে

  • আবু রাহাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের স্নাতকোত্তরের ছাত্র। তার হল ফজলুল হক মুসলিম হল, কিন্তু মহামারীর কারণে ছয় মাস থাকতে পারেননি। কবে খুলবে- তার নিশ্চয়তা নেই। তাই হলে যা ছিল তা নিয়ে উঠছেন মেসে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    আবু রাহাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের স্নাতকোত্তরের ছাত্র। তার হল ফজলুল হক মুসলিম হল, কিন্তু মহামারীর কারণে ছয় মাস থাকতে পারেননি। কবে খুলবে- তার নিশ্চয়তা নেই। তাই হলে যা ছিল তা নিয়ে উঠছেন মেসে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবু রাহাত স্নাতকোত্তরে পড়াশোনার পাশাপাশি চাকরির যুদ্ধে নামার প্রস্তুতিও নিচ্ছেন। কিন্তু হলে না থাকায় সেই প্রস্তুতি নিতে পারছিলেন না বলে উঠছেন মেসে। তাই হল থেকে নিয়ে যাচ্ছেন জিনিসপত্র। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবু রাহাত স্নাতকোত্তরে পড়াশোনার পাশাপাশি চাকরির যুদ্ধে নামার প্রস্তুতিও নিচ্ছেন। কিন্তু হলে না থাকায় সেই প্রস্তুতি নিতে পারছিলেন না বলে উঠছেন মেসে। তাই হল থেকে নিয়ে যাচ্ছেন জিনিসপত্র। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে শিক্ষার্থীরা এখন থাকতে পারছেন না। তবে প্রতি সপ্তাহের শনিবার সকালে নিজের মালপত্র নিতে পারছেন তারা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে শিক্ষার্থীরা এখন থাকতে পারছেন না। তবে প্রতি সপ্তাহের শনিবার সকালে নিজের মালপত্র নিতে পারছেন তারা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • শনিবার বাদে অন্য কোনো দিন হল থেকে মালপত্র বের করতে হলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনুমতি নিতে হবে শিক্ষার্থীদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    শনিবার বাদে অন্য কোনো দিন হল থেকে মালপত্র বের করতে হলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনুমতি নিতে হবে শিক্ষার্থীদের। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • নিজের মালপত্র সমেত জগন্নাথ হলের বন্ধুর মালপত্র ভ্যানে তুলছেন মো. আবু রাহাত ও তার বন্ধু। বনশ্রীর একটি মেসে উঠছেন দুজনে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    নিজের মালপত্র সমেত জগন্নাথ হলের বন্ধুর মালপত্র ভ্যানে তুলছেন মো. আবু রাহাত ও তার বন্ধু। বনশ্রীর একটি মেসে উঠছেন দুজনে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

  • হল ছেড়ে যাচ্ছেন ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্বের ছাত্র আবু রাহাত ও তার বন্ধু। মহামারীকালে হল কবে খুলবে, তার কোনো নিশ্চয়তা না থাকায় মেসে ‍উঠছেন তারা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

    হল ছেড়ে যাচ্ছেন ঢাকা বিশ্বাবিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্বের ছাত্র আবু রাহাত ও তার বন্ধু। মহামারীকালে হল কবে খুলবে, তার কোনো নিশ্চয়তা না থাকায় মেসে ‍উঠছেন তারা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি