চোখের ক্ষতি থেকে সাবধান

’ওয়টার প্রুফ মাস্কারা’ বা ‘সাঁতারের চশমা’ ব্যবহারের আগে একবার ভাবুন।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 May 2015, 10:46 AM
Updated : 18 May 2015, 12:06 PM

চোখের নিচে দীর্ঘস্থায়ী কালি অনেক সময় কনসিলার দিয়েও ঢাকা যায় না। তাছাড়া অনেক ধরনের রূপচর্চা করেও চোখের নিচে কালোদাগ দূর হয় না।

এ ধরনের সমস্যার অন্যতম কারণ হতে পারে অপর্যাপ্ত ঘুম এবং চোখ ডলার অভ্যাস। রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে চোখের নিচে দীর্ঘস্থায়ী কালি এবং বলিরেখা পড়ার কিছু কারণ উল্লেখ করা হয়।

ওয়াটারপ্রুফ মাস্কারার ব্যবহার

ওয়াটারপ্রুফ মাস্কারা বা যে মাস্কারাগুলোর বোতলে ‘লং ওয়্যার’ লেখা থাকে সেগুলো চোখের পাপড়ি থেকে উঠাতে বেশ কসরত করতে হয়। চোখের পাপড়ি থেকে মাস্কারা ভালোভাবে তুলে ফেলতে বেশ কিছুক্ষণ ঘষতে হয়। ফলে চোখের আশপাশের ত্বকের ক্ষতি হয় ও বলিরেখা পড়ে। তাই যেসব মাস্কারা খুব একটা দীর্ঘস্থায়ী নয় সেগুলো বেছে নেওয়া উচিত।

নকল চোখের পাপড়ি

নকল চোখের পাপড়ি কৃত্রিম আঠার সাহায্যে চোখে লাগাতে হয়। আর ওই আঠাগুলো অনেক সময়ই চোখের ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। চোখের সংস্পর্শে বা চোখের ত্বকে এই আঠার কারণে চোখের চারপাশে অ্যালার্জি বা চুলকানি হতে পারে। যা চোখের ত্বকের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

সাঁতারের চশমা

সাঁতারের সময় যে চশমা পরা হয় তা চোখের চারপাশের ত্বকের উপর চেপে থাকে। যা ত্বকের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। এতে করে চোখে বলিরেখা পরতে পারে।

ছবি: আসাদুজ্জামান প্রামানিক।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক