কাঠবাদামের তেলে চুল হয় ঝলমলে

অন্যান্য তেলের মতো কাঠবাদামের তেল চুলের জন্য উপকারী।

কামরুন নাহার সুমিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Jan 2015, 12:04 PM
Updated : 21 Jan 2015, 12:09 PM

রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটেজানানো হয় কাঠবাদামের দুই ধরনের তেল হয়, একটি মিষ্টি আরেকটি তিতা। আর তিতা কাঠবাদামেরতেল চুল পরিচর্যায় কাজে লাগে।

কাঠবাদামের তেলে থাকা ভিটামিনই, ডি, পটাশিয়াম ম্যাগনিজিয়াম-এর অন্যতম উৎস যা চুলকে নরম ও উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

যদিও দাম বেশি তবে কয়েকফোঁটা ব্যবহারেই বেশ কাজ করে।

কাঠবাদামের তেলের সঙ্গেআরও কিছু উপদান মিলিয়ে ব্যবহার করলে চুল হয় আরও সাস্থ্যোজ্জ্বল।

মধু ও ডিমের কুসুম

চুল পড়া কমাতে ডিমের কুসুমেরসঙ্গে ১ টেবিল-চামচ কাঠবাদামের তেল ও ১ টেবিল-চামচ মধু ভালোভাবে মেশাতে হবে। তারপরমিশ্রণটি চুলের গোড়া ও পুরো চুলে লাগিয়ে গরম তোয়ালে দিয়ে পুরো মাথা পেঁচিয়ে এক ঘণ্টাঅপেক্ষা করতে হবে। সবশেষে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। মাথায় নতুন চুল গজাতেও চুল পড়া কমাতে মিশ্রণটি সপ্তাহে একবার ব্যবহার করতে হবে।

নারিকেলদুধ

ক্ষতিগ্রস্ত চুল সারাতেকার্যকর। এক্ষেত্রেসমপরিমাণ বাদাম তেল ও কুসুম গরম নারিকেলের দুধ একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটিচুলে লাগিয়ে পুরো মাথা তোয়ালে দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে।

ভঙ্গুর চুলের ক্ষেত্রেনারিকেলের দুধের পরিবর্তে অর্ধেক পাকা আভোকাডো মেশালে উপকার পাওয়া যাবে।

উজ্জ্বল  দেখাতে

কয়েক ফোঁটা কাঠবাদামেরতেল হাতের তালুতে নিয়ে চুলে ব্যবহার করুন। দেখবেন চুল আলোকোজ্জ্বল দেখাচ্ছে। সাধারণতকোঁকড়া চুলের জন্য এটি বেশি প্রযোজ্য।

মজবুত চুল

কাঠবাদামের তেলে থাকা উপদানচুল ভালো রাখতে সহায়তা করে। এক্ষেত্রে মাথার ত্বকে কয়েক ফোঁটা বাদামের তেল নিয়ে ঘষলেচুলে হবে উজ্জ্বল। তাছাড়া চুল মজবুত ও ঘন করার পাশাপাশি চুলে পুষ্টি জোগাতে ও মাথারত্বক মসৃণ রাখতে এই তেল বেশ কার্যকর। 

দ্রুত চুল গজাতে

নিয়মিত এই তেল মাথায় মালিশকরলে চুল হয় মসৃণ ও নরম। ফলে চুল সামলানও সহজ হয়। তাছাড়া কাঠবাদামের তেল মাথার ত্বকেরক্ত চলাচল ঠিক রেখে নতুন চুল গজাতে ও ভঙ্গুর চুল দ্রুত ঠিক করতে সাহায্য করে।

খুশকি  ও মৃত কোষ দূর করে

যখন কাঠবাদামের তেল মাখলেমাথার ত্বক, মৃত কোষ ও খুশকি নরম হয়। ফলে, ভালো শ্যাম্পু দিয়ে মাথা পরিষ্কার করার সময়খুশকি ও মৃত কোষ খুব সহজেই উঠে আসে। তাছাড়া এভাবে মাথার ত্বকে মালিশ করা হলে লোমকূপখুলে যায় এবং চুলের গভীরে তেল যেয়ে চুলে পুষ্টি যোগাতে সাহায্য করে।

চুল পড়া নিয়ন্ত্রণ

কাঠবাদামের তেল চুল পড়াকমিয়ে দেয়। এভাবে চুল পড়া নিয়ন্ত্রণ করে

চুল পরিষ্কার করতে সাহায্য করে

শ্যাম্পু করার কয়েক ঘণ্টাআগে কাঠবাদামের তেল চুলে মাখুন। এটা মাথার ময়লা তেলের সঙ্গে উঠে আসবে। ফলে চুল ধোয়ারসময় তেলে সঙ্গে ময়লাও পরিষ্কার হয়ে যাবে।

চুলে পুষ্টি যোগায়

মাথার ত্বকের ভিতর ঢুকেচুলের গভীর থেকে পুষ্টি যোগায় কাঠবাদামের তেল। ফলে চুল হয় নরম ও স্বাস্থ্যোউজ্জ্বলহয়।

সতর্কীকরণ

যাদের কাজুবাদাম, কাঠবাদামবা অন্যান্য বাদামে অ্যালার্জি আছে তারা বাদামজাতীয় তেল ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। 

ছবি সৌজন্যে: লা রিভ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক