উপকারী ‘হাসি’

যারা হাসতে এবং মজা করতে পছন্দ করেন তারা শারীরিক ও মানসিকভাবে অনেকের চাইতে বেশি সুস্থ থাকেন।

কামরুন নাহার সুমিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Nov 2014, 11:33 AM
Updated : 25 Nov 2014, 11:33 AM

একটি স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইটে হাসির উপকারিতা নিয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে এখানে কিছু বিষয় উল্লেখ করা হল।

* হাসি হৃদপিণ্ড ভালো রাখতে সহায়তা করে। এক গবেষণায় দেখা গেছে, যাদের হৃদরোগ আছে তারা অন্যদের চাইতে হাসির চর্চা কম করেন। এছাড়া সাধারণ জীবনে তাদের হিউমার বা রসবোধটাও কম থাকে। রসবোধ হৃদপিণ্ড সুস্থ্য রাখতে সাহায্য করে।

* হাসি ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে। ‘দি ক্যান্সার ট্রিটমেন্ট সেন্টারস অফ আমেরিকা’ ক্যান্সারের রোগীদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে, কষ্ট লাঘব করতে ও মানসিক অবস্থা উন্নত করতে হাসি-থেরাপি ব্যবহার করেন।

* সবচেয়ে বড় সুবিধা হল হাসি মানুষের সম্পর্ক ঘনিষ্ট করে। রাগ ও দুশ্চিন্তা কমিয়ে ইতিবাচক অনুভূতি ফিরিয়ে আনতে পারে। কঠিন সময়ে মানসিক চাপ কমাতে পারে আর সম্পর্কের জটিলতায় সমাধান খুঁজে পেতে সাহায্য করে।

* কাজের মধ্যে আনন্দ আনুন। কর্মক্ষেত্রে রসিকতা বা মজা করা (অবশ্যেই যথাযথ মানানসই রসিকতা) কাজে সৃষ্টিশীলতা ও উৎপাদনশীলতা বাড়ায়। এবং মনোবল বাড়িয়ে দলবদ্ধ হয়ে কাজ    করার শক্তি যোগায়।

* মানসিক চাপ কমায়। এই আধুনিক যুগে মানসিক চাপ অন্যতম একটি রোগ। আর এই কারণেই হয়ত হাসি’র নানান রকম উপকারীতা রয়েছে। মানসিক চাপ উপশম করে এবং পুরো শরীরের অক্সিজেন সরবারহ করতে পারে ‘হাসি’, যা মানসিক চাপের সময় খুবই প্রয়োজনীয়।

* হাসলে এনডোরফিনের পরিমাণ বাড়ে, এটা মস্তিষ্কের একধরনের রাসায়নিক পদার্থ যা ব্যাথা কমাতে সাহায্য করে। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষকরা এক ডোজ হাসির প্রতিক্রিয়া হিসেবে দেখতে পান,  মানুষ যত বেশি হাসে ততই ব্যাথার অনুভূতি কমে।

* হাসি বিষণ্ণতা কমায়। জনশ্রুতি আছে যে, হাসি আত্মা শুদ্ধি করে। তবে এটা আরও গভীরে যেতে পারে। গবেষকরা দেখিয়েছেন যে, হাসি বিষণ্ণতা কমানোর ওষুধ হিসেবে কাজ করে। যারা বেশি হাসেন তাদের বিষণ্নতা ও দুশ্চিন্তা কম। আর যারা রসিকতাটা জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে ফেলেছেন তাদের দৃষ্টিভঙ্গি অনেক ইতিবাচক যা তাদের বিষণ্নতার হাত থেকে রক্ষা করে।

* রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। শরীরের উদ্দিপনা তৈরি করে, রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় এবং পুরো শরীরে অক্সিজেন সরবারহ ঠিক রেখে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।  

* জাপানে করা এক গবেষণায় দেখা গেছে সন্ধ্যায় হাসাহাসি করলে রাতের ঘুম ভালো হয়। সুখ নিদ্রা দিতে শোয়ার আগে মজার বই বা টিভিতে মজার কোন ধারাবাহিক দেখতে পারেন।

ছবি: রয়টার্স।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক