ময়মনসিংহের দুটি রান্না

শুঁটকির গন্ধ আর তিতা পাটশাকের স্বাদের কারণে যারা মুখ বাঁকাচ্ছেন তাদের ধারণা আমূল পাল্টে দিবে এই রান্না।

ইশরাত মৌরিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Nov 2014, 02:01 PM
Updated : 18 Nov 2014, 02:10 PM

ময়মনসিংহের এই দুটি বিখ্যাত খাবারের রেসিপি দিয়েছেন তামান্না জামান।

চ্যাপা-শুঁটকি ভুনা

উপকরণ

চ্যাপা-শুঁটকি ৩টি। পেঁয়াজকুচি ১ কাপ। রসুনকুচি আধা কাপ। কুমড়া-পাতা কুচি ৩/৪টি (ইচ্ছা)। মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ। হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ। ধনিয়াগুঁড়া ১ চা-চামচ। তেল ২ টেবিল-চামচ। লবণ পরিমাণ মতো।

পদ্ধতি

চ্যাপা-শুঁটকি হালকা গরম পানি আর লবণ দিয়ে ধুয়ে নিন। প্যানে তেল দিন। গরম হলে পেঁয়াজকুচি, রসুনকুচি আর চ্যাপা-শুঁটকি দিয়ে দুই থেকে তিন মিনিট ভেজে নিন। বাকি সব মসলা আর লবণ দিয়ে ভালো করে কষিয়ে কুমড়া-পাতার কুচি আর সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে দিন।

পানি একদম শুকিয়ে গেলে নামিয়ে নিন। গরম ভাত বা খিচুরিতে সঙ্গে একটু লেবু দিয়ে বেশ লাগে খেতে।

শুকনা পাটশাক ভাজি

উপকরণ

পাটশাক ২ কাপ। আধাকাপ পেঁয়াজকুচি (মোটা করে)। রসুনকুচি আধাকাপ (মোটা করে)। শুকনা মরিচকুচি ৪/৫টি বা ঝাল পছন্দমতো। লবণ পরিমাণ মতো। তেল ৩ টেবিল-চামচ।

পাটশাক তৈরির পদ্ধতি: আস্ত পাটশাক ভালো করে ধুয়ে চালনিতে পানি ঝরান। পাটশাকগুলো কুচি করে দুই থেকে তিনদিন কড়া রোদে শুকিয়ে এয়ারটাইট বয়াম অথবা পলিথিনে রেখে দিন।

রান্নার পদ্ধতি: প্যানে তেল দিয়ে সামান্য গরম করে পাটশাক আর লবণ বাদে বাকি সব উপকরণ দিয়ে দুই থেকে তিন মিনিট ভেজে নিন।

তারপর পাটশাক আর লবণ দিয়ে অল্প আঁচে ভাজতে থাকুন। কিছুক্ষণ পরপর নেড়ে দিন।

পেঁয়াজ ও রসুন বাদামি রং আর পাটশাক মুচমুচে হলে নামিয়ে নিন।

* গরম ভাতের সঙ্গে অসাধারণ একটি খাবার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক