ঘরোয়া উপাদানে দাগ দূর

জীবদেহের কোষের স্বাভাবিক রঞ্জন পক্রিয়ার পরিবর্তনের কারণে ত্বকে কালো দাগ হয়। যা সূর্যের আলো, বংশগত, যকৃতের সমস্যা, গর্ভধারণ, অ্যান্টিবায়োটিক গ্রহণসহ নানান কারণে হতে পারে।

কামরুন নাহার সুমি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফর ডটকমবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Oct 2014, 11:35 AM
Updated : 29 Oct 2014, 11:35 AM

ত্বকে কালো ছোপ মানে তিল, মেচেতা বা বয়সজনীত দাগ। যেভাবেই হোক না কেনো, এগুলোসত্যিই বিরক্তিকর।

রূপচর্চা বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রাকৃতিক উপাদানের মাধ্যমে ঘরে বসেই কীভাবেত্বকের কালো দাগ দূর করা যায় সে সম্পর্কে জানানো হয়।

লেবুর রস

প্রাকৃতিক 'হোয়াইটিং এজেন্ট'হিসেবে লেবু বেশ জনপ্রিয়। এর রস ব্যবহারেদ্রুত ত্বকের কালো দাগ দূর করা সম্ভব।

প্রথমে লেবু চিপে পরিমাণ মতো রস বের করেনিতে হবে। তারপর একটি তুলার বলে লেবুর রস নিয়ে সরাসরি ত্বকের কালো দাগে লাগিয়েকয়েক মিনিট রেখে দিতে হবে।

এছাড়া চাইলে আক্রান্ত জায়গায় লেবুর মাস্ক এবং স্ক্রাব ব্যবহার করা যাবে।লেবুতে থাকা সাইট্রিক এসিড ত্বকের মৃতকোষ তুলতে এবং ত্বকের রংফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে।

তবে, রোদেবের হওয়ার আগে লেবুর রস লাগানো উচিত নয়।

 

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী

ত্বকের কালো দাগের উপর অ্যালোভেরার রস লাগিয়ে ত্বক শুষেনা নেওয়া পর্যন্ত ঘষতে হবে।এতে ত্বকের কালো দাগ হালকা হয়ে যাবে এবং ত্বক উজ্জ্বল দেখাবে। প্রতিদিন ব্যবহারেউপকার পাওয়া যায়।

পেঁপে

একটি পাকাপেঁপে ভালোভাবে চটকে নিয়ে ত্বকের আক্রান্ত স্থানেঘষে কিছুক্ষণ পরে ঠান্ডা পানিদিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে ৩ থেকে ৪ দিন এই পদ্ধতিতে ত্বকে পেঁপে ব্যবহার করাযাবে। পেঁপেতে থাকা পাপাইন উপাদান মৃতকোষ তুলেত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

 

পেঁয়াজ

বয়সের ছাপ বা দাগ কমাতে পেঁয়াজের জুড়ি নেই। একটি পেঁয়াজ কুচি কুচি করে কেটে ত্বকেরকালো দাগের উপর ৫ মিনিট ধরে ঘষতে হবে। চাইলে প্রতিদিনই এটি ব্যবহার করা যায়।

কলা এবং লেবু

প্রথমে একটি কলা চটকে নির্দিষ্টপরিমাণ লেবুর রসের সঙ্গে ভালোভাবে মেশাতে হবে।তারপর ত্বকের কালোদাগের উপর এই মিশ্রণ লাগালেইদাগ হালকা হয়ে আসবে।

প্রচ্ছদ ছবির মডেল: শারমিন রমা।

ছবি: ই স্টুডওি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক