আমবাত থেকে আরাম পাওয়ার তিন উপায়

‘হাইভজ’ বা আমবাত এমন একটা অবস্থা যখন ত্বক বেপরোয়া ও তীব্রভাবে অনবরত চু্লকাতে থাকে।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 July 2022, 06:18 AM
Updated : 18 July 2022, 06:18 AM

“আমবাতে মুখে লালচে ও ফোলাভাব দেখা দেয়। এগুলো ফুলে ওঠে ও চুলকানির সৃষ্টি করে। কিছু ক্ষেত্রে তা দ্রুত ভালো হয়ে যায় আবার অনেক ক্ষেত্রে এর স্থায়িত্ব বেশি হয়” ব্যাখ্যা করেন ভারতের ‘স্কিন সেন্স’য়ের লেখক এবং ত্বক বিশেষজ্ঞ ডা. কিরণ শেঠি।

লালচে ফোলাভাবগুলো চুলকানির পাশাপাশি উষ্ণভাবেরও সৃষ্টি করে থাকে।

ফেমিনা ডটইন’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে তিনি আরও বলেন, “নানান কারণ যেমন- “খাবারে অ্যালার্জি, বাতাসে অ্যালার্জি, পণ্য, ওষুধ, মানসিক চাপ, ‘অটোইমিউন ডিজঅর্ডার’, সংক্রমণ, র‍্যাশ, তাপ, ঘাম, রোদের জন্য আমবাত হতে পারে।”

এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার কয়েকটি পন্থাও দিয়েছেন তিনি।

কালামাইন লোশন

ত্বকের নানান সমস্যা যেমন- চুলকানি, ফুসকুড়ি, জ্বালাপোড়াভাব ইত্যাদি সমাধানে কালামাইন লোশন উপকারী। আমবাতের ক্ষেত্রেও এটা সমান কার্যকর। কালামাইন লোশন তরল, পাউডারভিত্তিক ও গোলাপি রংয়ের হয়, যা চুলকানি কমাতে সহায়তা করে। তাই আমবাতের সমস্যা দেখা দিলে সাথে ছোট এক বোতল লোশন রাখা যেতে পারে।

কালামাইনে রয়েছে জিংক অক্সাইড ও জিংক কার্বোনেট যা ক্ষয়রোধী, আরামদায়ক এবং জীবাণুনাশক। এটা ঘামাচির প্রভাবও কমায় ফলে চুলকানি বা আচড় লাগা কমে।

এতে থাকা হিস্টামিন ত্বকে আরাম দেয় ফলে চুলকানির প্রবণতা কমে বলে ব্যাখ্যা করেন, ডা. কিরণ।

ঠাণ্ডা চাপ প্রয়োগ

ডা. কিরণের মতে, চুলকানির অনুভূতি কমাতে ঠাণ্ডা চাপ প্রয়োগে ভালো কাজ করে।

তাই ত্বকে আমবাত, র‍্যাশ বা জ্বালাপোড়ার সমস্যা দেখা দিলে বরফ দিয়ে চাপ দেওয়া গেলে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

সেন্টেলা এশিয়াটিকা পন্থা

সেন্টেলা এশিয়াটিকা বা সিকা ত্বকে চমৎকার কাজ করে। এগুলো ত্বকে আরাম দেয় এবং নিমেষেই প্রশান্তিভাব আনে।

“সেন্টেলা এশিয়াটিকা প্রদাহ কমায় ফলে চুলকানি হ্রাস পায়,” বলেন ডা কিরন।

আরও ভালো ফলাফল পেতে এটা ত্বকে ‘লিভ ইন মাস্ক’ হিসেবে ব্যবহারের পরামর্শ দেন তিনি।

ছবি: রয়টার্স।

আরও পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক