ডিমের ঝুরি ভাজায় লেবুর রসের জাদু

ফুলকো হওয়ার পাশাপাশি ডিম ভাজায় স্বাদ বাড়ায় লেবুর রস।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 May 2021, 01:34 PM
Updated : 26 May 2021, 01:34 PM

পোচ, মামলেট বা ওমলেট, ‘স্ক্র্যামবলড এগ’, ডিমের ঝুরি করা অথবা ফেটে নিয়ে ভাজা ডিম ইত্যাদি প্রতিটি ধরনের স্বাদ আলাদা। আবার মানুষ ভেদে রন্ধনপ্রণালী বদলায়, আর কোনোটাই বিস্বাদ নয়।

তবে একজন খাদ্য-বিশেষজ্ঞ বলছেন ডিমে লেবুর রস দিতে, যা অনেকের জন্যই ‘আক্কেল গুড়ুম’ হওয়ার মতো একটি পরামর্শ।

তবে এই বিশেষজ্ঞের মতে লেবুর রস ডিম ভাজিকে আরও ফুলিয়ে তুলবে এবং স্বাদ বাড়াবে একদম সঠিক মাত্রায়।

ডিমে লেবুর রস দেওয়া এই পরামর্শকের নাম ম্যাকেনজি ব্রাইসন জ্যাকসন (এমএস)।

‘ওয়েলঅ্যান্ডগুড ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্টের এই খাদ্য-বিশেষজ্ঞ বলেন, “লেবু দেওয়ার কারণে যে উপকার হবে তার পেছনে কারণ মূলত দুটি।”

“প্রথমত, ডিমের প্রোটিনের সঙ্গে লেবুর রসের অম্লতার বিক্রিয়া। যখন তাপ পায় তখন ডিমের প্রোটিন লেবুর রসের কারণে গঠন পরিবর্তীত হয়, ঘন হয় তা ‘স্ক্র্যাম্বলড এগ’ তৈরি করার জন্য আদর্শ।”

“ডিমের মোট প্রোটিনের ৬০ শতাংশ থাকে সাদা অংশে আর বাকি ৪০ শতাংশ কুসুমে।”

তিনি আরও বলেন, “ডিম কড়াইতে দেওয়ার আগে ফেটে নেওয়ার সময় যদি তাতে লেবুর রস মেশানো হয় তবে ঘনত্ব বৃদ্ধি পেয়ে ডিমের ভেতর বাতাস আরও শক্তভাবে আটকে থাকে। আর কড়াইতে ছাড়ার আগে ডিমের ওপর আরেকটু লেবুর রস ছড়িয়ে দিয়ে আরও ভালো।”

আর লেবুর রস দিলে ‘স্ক্র্যাম্বলড এগ’ আরও নরম ও ফোলা হওয়ার দ্বিতীয় কারণ হলো, লেবুর রসে থাকা পানি।

ডিমে তরল থাকার কারণে তা ঝুরিতে পরিণত হয় ধীরে। ডিমের প্রোটিন যখন পানিতে মেশে তখন তা সহজেই জমাট বাঁধতে পারে না। ফলে রান্না হয় ধীর। কারণ বেশি পানিকে বাষ্পে পরিণত করতে হয়। আর সেই বাড়তি পানি বাষ্পও তৈরি করে বেশি। তাই ডিম হয় নরম, বাড়ে ফোলাভাব।

স্বাদের দিক থেকে ওই ‘স্ক্র্যাম্বলড এগ’য়ে লেবুর স্বাদ খুব বেশি টের পাওয়া যাবে না। তবে কতটুকু লেবুর রস দিতে হবে সেটা একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

অতিরিক্ত অম্ল পেলে ডিম দ্রুত ঝরঝরে হয়ে পুড়তে শুরু করবে। আবার পানি বেশি পেলে একেবারেই ‘পেস্ট’য়ে পরিনত হবে।

তাই হিসাবটা হবে আধা ডজন ডিমের জন্য এক চা-চামচ লেবুর রস।

আরও পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক