গোসলের সময় শিশুর কান্না থামাতে

পানি ঢালার পরিমাণ, তাপমাত্রা ইত্যাদি বিষয়গুলো পছন্দ না হলে শিশু গোছলের সময় কান্না করতে পারে।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2020, 11:18 AM
Updated : 27 July 2020, 11:18 AM

শিশুর পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করতে তাকেনিয়মিত গোসল করানো জরুরি। শিশুকে গোসল করাতে গিয়ে পড়তে হয় নানা বিড়ম্বনায়। কোনো শিশুপানি খুব পছন্দ করে, কোনো শিশু আবার একদমই পানিতে যেতে চায় না।

শিশু-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনঅবলম্বনে গোসলের সময় শিশুর কান্না করার কারণ ও সমাধান সম্পর্কে জানানো হল।

পানির তাপমাত্রা: শিশুরা গরম ও ঠাণ্ডা দুই অবস্থার প্রতিই নাজুক থাকে। তাই পানি খুব বেশি ঠাণ্ডাবা গরম যেন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

কুসুম গরম পানিতে গোসল করানো শিশুর জন্যসবচেয়ে উপকারী। এতে শিশুরা গোসলের সময় আরামও অনুভব করে।

পানির গতি:শিশুর গায়ে পানি ঢালার সময় তা ধীরে ঢালুন। কোনো ‘বাথটাব’ বা গোসলের জন্য বড় গামলা নিন।আর তাতে শিশুকে রেখে ধীরে ধীরে পানি ঢালুন। শিশুর মাথায় পানি ঢালার সময় খেয়াল রাখুনযেন বেগ কম থাকে।

র‌্যাশ, জ্বালাপোড়া বা ঘা: শিশুর শরীরে কাটা-ছেড়া, র‌্যাশ বা ঘা দেখা দিলে তা সাবান পানিরসংস্পর্শে জ্বালাপোড়া সৃষ্টি করে। এমন সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শে প্রয়োজনীয়‘মলম’ ব্যবহার করুন এবং আক্রান্ত স্থানে সাবান ব্যবহার বাদ দিন।

ক্ষুধা: গোসলকরানোর আগে খেয়াল রাখুন যেন শিশু খুব বেশি ক্ষুধার্ত বা ক্লান্ত না থাকে। শিশু ক্লান্তবা ক্ষুধার্ত থাকলে অস্বস্তি অনুভব করে। শিশুকে খাওয়ানোর কমপক্ষে ৩০ থেকে ৪৫ মিনিটপরে গোসল করাতে নিয়ে যান।

নিয়ম মেনে চলা: শিশুকে গোসল করানোর ক্ষেত্রে সময় ঠিক রাখাটা জরুরি। এতে শিশু এবং তার দেহঘড়িএকটা ছকে আবদ্ধ থাকে। শিশু নিজের ঘুমের সময় জানলে তাকে ঘুম পাড়ানো যেমন সহজ হয় একইভাবেগোসলের সময় জানা থাকলে তাকে সহজেই গোসল করানো যায়।

ছবি: রয়টার্স।

আরও পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক