সম্পর্কে ঠোকাঠুকি ঠেকাতে

বাকবিতণ্ডা তর্ক-বিতর্ক থাকবেই, কখনও ভালো বা খারাপ সময় আসতেই পারে। তাই বলে খারাপ সময় আসা মানেই সম্পর্ক ভেঙে দিতে হবে এমন কোনো কথা নেই। একটু সংযত হলেই সমস্যা এড়ানো যায়।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Nov 2017, 09:02 AM
Updated : 28 Nov 2017, 09:02 AM

সম্পর্কবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে কিছু উপায় সম্পর্কে জানা যায় যা সম্পর্কের খারাপ সময় সামাল দিতে ও সম্পর্ক মজবুত করতে সাহায্য করে।

সঙ্গীর কথা শুনুন: আবেগ তাড়িত হয়ে সঙ্গী সঙ্গে ঝগড়া করতেই পারেন। মাঝে মধ্যে হয়ত নিজের কথা বলতে গিয়ে সঙ্গী কি বলতে চাচ্ছে তা শোনার প্রয়োজনই মনে করছেন না অথবা সঙ্গীর কথাও যে আপনার শুনতে হবে তা ভুলে গেছেন। এমনও হতে পারে, সমস্যার সমাধান আপনার সামনেই আছে তবে তা ধরতে পারছেন না। তাই যে কোনো পরিস্থিতিতে নিজের কথা বলার পাশাপাশি সঙ্গীর কথাও শুনুন।      

তর্ক যেন স্বাস্থ্যকর হয়: যদি দেখা যায়, একই বিষয় নিয়ে বারবার ঝগড়া হচ্ছে তাহলে মনে হতেই পারে, বর্তমান সম্পর্ক আপনার জন্য শাস্তিস্বরূপ। এমন পরিস্থিতিতে মনে রাখবেন ঝগড়া স্বাস্থ্যকর ও গঠনমূলকও হতে পারে। পরে এমন সমস্যা দেখা দিলে একে অপরকে আক্রমণ করে কথা না বলে বরং সমস্যার উৎস খোঁজার ও তা সমাধান করার চেষ্টা করুন।

ভালো সময় সম্পর্কে চিন্তা করুন: সম্পর্ক যখন খারাপের দিকে যায় তখন নেতিবাচক দিকগুলোই প্রাধান্য পায়। ফলে সম্পর্ক আরও খারাপের দিকে যায়। এই সমস্যা কমানো যায় আগের ভালো সময়গুলোর কথা চিন্তা করে। এটা আপনার সম্পর্ক বাঁচাতে ও জীবনে সঙ্গীর মূল্য বুঝতে সাহায্য করে।

আপোষ করা: অধিকাংশ ক্ষেত্রে ঝগড়া মানেই একে অপরকে দোষারোপ করা। সম্পর্ক রক্ষা করার জন্য যে আপোষ করা প্রয়োজন এটা অধিকাংশ যুগল ভুলে যান। তাই যদি কোনো সমস্যায় আপোষ করে সমাধান করা যায় তবে সেটাই সম্পর্কের জন্য ভালো। 

বিরতি নিন: অতিরিক্ত ঘনিষ্ঠতাও সম্পর্কের অবনতির কারণ হতে পারে। তাই একে অপরের কাছ থেকে বিরতি নিন। একা ছুটির দিন কাটান অথবা একে অপরের সঙ্গে পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী যোগাযোগ বন্ধ রাখুন। এতে আপনি বেশ আনন্দ পাবেন যা আপনাদের দুজনের জন্যই উপকারী হবে।

বিশেষজ্ঞ কারো সাহায্য নিন: সব রকমের উপায়ই যদি ব্যর্থ হয় তাহলে বিশেষজ্ঞ কারোর সহায়তা নিতে দ্বিধা করবেন না। কারণ অনেক সময় আমরা নিজেরা নিজেদের সমস্যা বুঝতে পারি না সেক্ষেত্রে অন্যের সহযোগিতা গ্রহণ করা ভালো সিদ্ধান্ত। এতে লজ্জার কিছু নেই বরং তা আপনার সম্পকর্কে আরও বেশি জোরালো ও মজবুত করতে সাহায্য করবে।

প্রতীকী ছবির মডেল: বিপা ও ইমরান।

আরও পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক