ক্লান্ত ত্বক সতেজ করতে

আয়নায় নিজেকে দেখে কখনও কি মনে হয়ে ত্বক হয়েছে মলিন? শুধু মনের ক্লান্তিতেই নয়, দূষণ বা রোদের তাপে আর্দ্রতা হারিয়ে ত্বকও ক্লান্ত হয়ে যায়।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 June 2017, 09:17 AM
Updated : 28 June 2017, 09:17 AM

তবে চিন্তার কিছু নেই। সাজসজ্জাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনে জানানো হয়কীভাবে সজিব করবেন ক্লান্ত ত্বক।

বরফ: ত্বকের রক্তসঞ্চালনবাড়াতে বরফ ঘষুন। রক্তসঞ্চালন বৃদ্ধি পেলে উজ্জ্বলতাও বৃদ্ধি পায়। তাৎক্ষনিক সতেজ ওউজ্জ্বল ত্বক পেতে দুটুকরা বরফ মুখে ঘষে নিন।

মুখ মালিশ করা: এই পন্থাতেও ত্বকেররক্তসঞ্চালন বাড়ে, উজ্জ্বল ও সতেজ থাকে। নিয়মিত ত্বক মালিশ করলে বলিরেখা এবং ফোলাভাবকমে।

গোলাপ জল: এই নির্যাসের শীতলভাবনিস্তেজ ত্বককে আর্দ্র রাখে এবং সজীব করে তোলে। মুখে গোলাপ জল স্প্রে করুন। ত্বক জলশুষে নিলে আরাম ও সুবাস অনুভব করতে পারবেন। চোখের নিচের ত্বক সতেজ করতে একটি তুলারবল গোলাপ জলে ভিজিয়ে চোখের পাতার উপরে রাখুন। চোখ শীতল রাখার পাশাপাশি এটা চোখের নিচেরফোলাভাবও কমাবে।

শসা: ত্বক শীতল রাখে। পাশাপাশিপ্রাকৃতিক টোনার হিসেবেও কাজ করে। একটি শসা ভালোভাবে ধুয়ে ছিলে নিন। টুকরা করে ব্লেন্ডকরুন। মুখে লাগান। ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সতেজঅনুভব করবেন।

পুদিনা: পুদিনার শীতল উপাদানত্বককে করে তোলে সক্রিয়। পুদিনার মাস্ক ব্যবহার করলে মুখের ক্লান্ত ভাব দূর হয়।

আলু: ত্বকের নির্জীব ভাবদূর করার পাশাপাশি ফর্সাও করে। মাঝারি মাপের একটা আলু ছিলে কুচি করে নিন। আলুকুচি সারামুখে ও গলায় লাগান। শীতলতার জন্য দুটুকরা আলু চোখের উপর দিয়ে রাখুন। এতে ‘ডার্ক সার্কেল’ওদূর হবে।

স্ট্রবেরি: এটা অ্যান্টি-অক্সিডেন্টও ভিটামিন সি সমৃদ্ধ। তাই তাৎক্ষনিক-ভাবে ত্বক উজ্জ্বল করে। কয়েকটি স্ট্রবেরি পিষেমুখে লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর একে এক্সফলিয়েটর হিসেবে বা স্ট্রবেরি দিয়ে মুখ ঘষেধুয়ে ফেলুন। এর ফলে ত্বক সতেজ, নরম ও কোমল হবে।

গ্রিন টি: আন্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধএই পানীয় নিস্তেজ ও ক্লান্ত ত্বকের জন্য বেশ উপকারী। এছাড়াও ফোলাভাব কমায়, টোনারেরমতো কাজ করে। ত্বক আর্দ্র রাখে এবং তারুণ্য ধরে রাখতে সাহাজ্য করে।

এক কাপ গ্রিন টি বোতলে ভরে রেফ্রিজারেইটরে সংরক্ষণ করুন। সারাদিনের ক্লান্তিদূর করে ত্বকে নবযৌবন আনতে এই পানীয় দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক