হার্নিয়া না অন্য কিছু!

হার্নিয়া নামটির সঙ্গে আমরা সবাই কমবেশি পরিচিত। অনেকে অণ্ডথলি ফুলে গেলে মনে করেন যে, হার্নিয়া হয়েছে।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Nov 2016, 11:02 AM
Updated : 14 Nov 2016, 11:03 AM

এই বিষয়ে বিস্তারিত জানাচ্ছেন সার্জারি বিশেষজ্ঞ [এমবিবিএস (ডিএমসি), এফসিপিএস (সার্জারি) বিশেষ ট্রেনিং বৃহদন্ত্র ও পায়ুপথ সার্জারি] ডা. মীর রাশেখ আলম অভি।

আসলে অণ্ডথলি ফুলে যাওয়া হার্নিয়া ছাড়াও আরও অনেক কারণরয়েছে। যেহেতু এটি একটি স্পর্শকাতর অঙ্গ তাই সহজে চিকিৎসকের কাছে কেউ যেতে চান না, গেলেও লজ্জা পান। সাধারণত অণ্ডথলি ফুলে যাওয়ার কারণগুলো হল-

* আঘাতজনিত কারণে। * হার্নিয়া। * অণ্ডকোষের চারপাশে পানি জমা হওয়া (হাইড্রোসিল)। * অণ্ডকোষের চারপাশে পূজ জমা হওয়া (পায়োসিল)। * অণ্ডথলির রক্তনালী ফুলে যাওয়া (ভেরিকোসিল)। * অণ্ডকোষ প্যাঁচ লেগে যাওয়া। * অণ্ডকোষের টিউমার। * অণ্ডকোষের সংক্রমণ। * অণ্ডকোষের যক্ষা। * সিস্ট।

অণ্ডথলি ফুলে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যথা, প্রস্রাবের জ্বালাপোড়া ইত্যাদি সমস্যা প্রকার ভেদে হতে পারে। রোগীর সমস্যা শুনে, দেখে এবং প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা সঠিক রোগ নির্ণয় করে থাকেন। সাধারণত রক্ত, প্রস্রাব, অণ্ডথলির আল্ট্রাসনোগ্রাফি ইত্যাদি পরীক্ষা করা হয়ে থাকে।

কখনও অণ্ডথলি থেকে সুই ফুটিয়ে পরীক্ষা করা উচিত নয়।

অণ্ডথলির রোগগুলোর প্রতিটি নিয়েই আলাদা আলাদাভাবে বিষদভাবে আলোচনা সম্ভব। রোগীদের জন্য নির্দেশনা এই যে অণ্ডথলি ফুলে গেলে লজ্জা পেয়ে বা হার্নিয়া ভেবে বাসায় বসে না থেকে দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন এবং সময়মত চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ থাকুন।

ছবি: রয়টার্স।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক