কন্যা সন্তানকে গড়ে তুলতে

তার মধ্যে যেন লিঙ্গ বৈষম্যের সংকীর্ণতা প্রবেশ করতে না পারে সেই বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Oct 2016, 12:50 PM
Updated : 31 Oct 2016, 12:50 PM

সমাজে ছেলেএবং মেয়ে সন্তান আলাদা করে দেখার মনোভাব এখন অনেকটা কমলেও তা পুরোপুরি দূর করা যায়নি।তাই বলে নিজের সন্তানের ভেতর এই বিষয়ের বীজ বুনে দেওয়া চলবে না। ছেলে সন্তানের তুলনায়কোনো অংশে কম নয় আপনার মেয়েটি। আর এই বিষয়টি সন্তানের মধ্যেও জাগিয়ে তুলতে হবে।

লাইফস্টাইলবিষয়কএকটি ওয়েবসাইটে মেয়েকে বড় করে তোলার ক্ষেত্রে কিছু বিষয় উল্লেখ করা হয়। সেই দিকগুলোএখানে বর্ণনা করা হলো।

শুধুই সৌন্দর্যের প্রশংসা নয়: ছোট মেয়েটি সব মা-বাবার কাছেই পৃথিবীর সব থেকে সুন্দর।তবে এই প্রশংসাই সব সময় মেয়ের সামনে করা ঠিক নয়। শুধু সৌন্দর্য নয় বরং তার অন্যান্যগুণের প্রশংসা করুন। একথাটি পরিবার এবং বন্ধু মহলেও জানিয়ে দিন। ‘রাজকন্যার মতো সুন্দর’বলার পাশাপাশি তাকে বুদ্ধিমতি, গোছানো ইত্যাদি প্রশংসাও করুন। তাকে অন্যের সাহায্যকরতে শেখান, তার গুণগুলো বিকশিত করতে সাহায্য করুন।

দিল্লিরক্লিনিকল এবং শিশু মনোরোগ বিশারদ ডা. ধারেদ্র কুমার বলেন, “একটি ছেলে শিশুর প্রশংসাকরতে যে দিকগুলো তুলে ধরা হয় মেয়ে সন্তানের ক্ষেত্রেও ওই দিকগুলো উল্লেখ করুন। এতেছেলে এবং মেয়ে সন্তান যে আলাদা এ ধরনের মনোভাব থেকে দূরে থাকবে আপনার শিশু।”

অতিরিক্তআগলে রাখবেন না: কখনও মেয়ে সন্তানের জন্য আলাদা নিয়ম বেঁধে দেবেন না।ছেলেকে যেভাবে বড় করবেন সেভাবেই গড়ে তুলুন কন্যাকে। একই ধরনের খেলা খেলতে দিন ছেলেএবং মেয়ে শিশুকে। শুধু ঘরে নয় স্কুলেও উভয় শিশুর জন্য একই নিয়ম বেঁধে দিতে হবে।

সঠিক বই পড়তে দিন: সব শিশুদেরই স্কুলের বরাদ্দকৃত বইয়ের বাইরেও শিক্ষামূলকবই পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলা উচিত। সন্তানদের এমন বই পড়তে দিন যেখানে লিঙ্গ বৈষম্যের দিকগুলোনেই। সহজ ভাষায় লেখা বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন সন্তানের মধ্যে।

খেলনা বাছাই: বাজারে ছেলে এবং মেয়ে শিশুর জন্য আলাদা খেলনা রাখাথাকে। তবে এই বিভেদ দূর করতে হবে। মেয়ে শিশুও গাড়ি বা ফুটবল নিয়ে খেলতে পারে। তাই শুধুপুতুল বা হাঁড়ি-পাতিল নয় বিভিন্ন ধরনের খেলনা দিয়ে মেয়ে শিশুদের খেলতে দিন।

আপনিই সন্তানের ‘রোল মডেল’: মা বাবাকে দেখেই সন্তানরা শেখে। তাইঘরে ছেলে মেয়ের পার্থক্য কখনও তুলে ধরবেন না। দুই সন্তানকে একইভাবে বড় করে তুলুন। এটিতাদের ভবিষ্যতের জন্যই ভালো।

মেয়ে সন্তানকে যেমন বড় করবেন তেমনি ছেলে শিশুকেও শেখাতে হবে ঘরথেকেই। ছেলে মানেই সেরা এমন মনোভাব কোনোভাবেই সন্তানের মধ্যে গেঁথে দেওয়া যাবে না।সন্তানদের বড় করে তুলুন মানুষ হিসেবে। ছেলে বা মেয়ের লড়াইয়ে শ্রেষ্ঠত্ব জাহিরের জন্যনয়।

ছবির প্রতীকী মডেল: নাজিয়া খান এবং ওফেলিয়া। ছবি: দীপ্ত।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক