সুস্থ থাকতে স্বাস্থ্যকর অভ্যাস

সকালে খেতে হবে পুষ্টিকর খাবার, রাতে দিতে হবে পর্যাপ্ত ‍ঘুম।

ফাল্গুনী সান্যাল জুঁইবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Nov 2015, 10:30 AM
Updated : 13 Nov 2015, 11:30 AM

লাইফস্টাইলবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে সুস্থ থেকে ভালোভাবে কাজ করার জন্য করণীয় কিছু বিষয় উল্লেখ করা হয়।

সকালের নাস্তা এড়ানো যাবে: দিনের শুরু ভালোভাবে না হলে সারাদিন ভালোভাবে কাজ করা সম্ভব নয়। তাই সকালে স্বাস্থ্যকর নাস্তা খেয়ে দিন শুরু করা অত্যন্ত জরুরি।

অনেকেই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে সকালের নাস্তা বাদ দিয়ে থাকেন। যা অত্যন্ত বাজে অভ্যাস।

সকালে ভারি কিছু খাওয়া সম্ভব না হলে দিন শুরু করতে দই, ফল, পাউরুটি, মাখন, কর্নফ্লেক্স, ওটমিল ইত্যাদি দিয়ে খাওয়া যেতে পারে। সকালে পুষ্টিকর এবং শক্তিবর্ধক খাবার খেলে সারাদিন ক্লান্তি অনুভূত হবে না এবং ভালোভাবে কাজ করা যাবে।

সময় মতো দুপুরের খাবার: অফিসে বা ঘরে কাজের চাপে অনেক সময়ই দুপুরে খাবার খাওয়ার সময় পার হয়ে যায়। তাই সময় মতো দুপুরের খাবার সহকর্মীদের নিয়ে খাওয়া যেতে পারে।

কোথাও একসঙ্গে খেতে যাওয়া অথবা অফিসেই খাবার অর্ডার করে নেওয়া যেতে পারে সময় মতো। আরও ভালো হয় বাসা থেকে খাবার নিয়ে যেতে পারলে। দুপুরে একসঙ্গে খাওয়ার অভ্যাসে কাজের পরিবেশ ভালো থাকে এবং সকলের মধ্যে সম্পর্কও সুন্দর হয়। তাছাড়া কাজ করতেও স্বতঃস্ফূর্ততা আসে।

কাজের ফাঁকে হালকা নাস্তা: সারাদিন খাটনির পর দিনের শেষে শরীরে ক্লান্তি ভর করে। এসময় প্রয়োজন হালকা কিছু খাবার।আর চা-কফির বিরতি। তবে আমরা যা খাই তা শরীরে জ্বালানীর কাজ করে। তাই নাস্তায় কী ধরনের খাবার বেছে নেওয়া হবে সে বিষয়েও সচেতন হতে হবে।

প্রোটিন ও ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার শরীরকে চাঙ্গা করে তুলতে সাহায্য করবে। তাছাড়া ঝিমুনি কাটাতে চা বা কফিও পান করা যেতে পারে।

ব্যায়ামের জন্য সময়:
সুন্দর স্বাস্থ্যের জন্য ব্যায়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাছাড়া মুটিয়ে যাওয়ার ঝুঁকি কমাতেও নিয়ম করে শরীরচর্চা করা দরকার। যারা সারাদিন অফিসে বসে কাজ করেন তাদের পেটে মেদ জমে যাওয়া, কোমড়ে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যা বেশি হয়। তাই উচিত নিয়ম করে দিনের একটি সময় ব্যায়াম করা।

রাতের খাবার: অবশ্যই হতে হবে স্বাস্থ্যসম্মত ও পুষ্টিকর, বিশেষ করে মেয়েদের জন্য। ছুটির দিনগুলোতে পুরো সপ্তাহের খাবারের একটি তালিকা তৈরি করে নিলে সারা সপ্তাহের বাজার করা কিছুটা সহজ হবে। 

পর্যাপ্ত ঘুম: সারাদিনের খাটনির পর পরের দিনের জন্য শরীরকে প্রস্তুত করতে প্রয়োজন পর্যাপ্ত বিশ্রাম আর ঘুম। সারাদিন পর রাত না জেগে ঘুমাতে হবে সময় মতো। রাত জেগে টিভি দেখা এবং বই পড়ার অভ্যাসগুলো তুলে রাখতে হবে ছুটির দিনগুলোর জন্য।

ছবি: রয়টার্স।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক