খবর > কিডজ > নিজে করি

  • আমার ভাবনা

    আমার ভাবনা এ গল্পটি মিসবাহ রাদিয়াহ নাওয়ার খানের লেখা ও আঁকা। শিশুদের বুদ্ধিবৃত্তিক কর্মকাণ্ড ও সৃজনশীলতা বাড়াতে কাজ করা প্রতিষ্ঠান ‘কিডস টাইম’ এর স্টোরি মেকিং কোর্স করার সময় সে এ গল্পটি লিখেছে এবং ছবিগুলো এঁকেছে।– কিডস ডেস্ক

  • টুনটুনি আর বিড়াল

    টুনটুনি আর বিড়াল এ গল্পটি মিসবাহ আহমেদ শায়নের লেখা ও আঁকা। শিশুদের বুদ্ধিবৃত্তিক কর্মকাণ্ড ও সৃজনশীলতা বাড়াতে কাজ করা প্রতিষ্ঠান ‘কিডস টাইম’ এর স্টোরি মেকিং কোর্স করার সময় সে এ গল্পটি লিখেছে এবং ছবিগুলো এঁকেছে।– কিডস ডেস্ক

  • হারিয়ে যাওয়া রাজকন্যা

    হারিয়ে যাওয়া রাজকন্যা এ গল্পটি ইধান্ত এশাজ দাসের লেখা ও আঁকা। শিশুদের বুদ্ধিবৃত্তিক কর্মকাণ্ড ও সৃজনশীলতা বাড়াতে কাজ করা প্রতিষ্ঠান ‘কিডস টাইম’ এর স্টোরি মেকিং কোর্স করার সময় সে এ গল্পটি লিখেছে এবং ছবিগুলো এঁকেছে।– কিডস ডেস্ক

  • কার্ডের উপর গ্লাস দাঁড়ানোর ম্যাজিক

    কার্ডের উপর গ্লাস দাঁড়ানোর ম্যাজিক একটা ছোট প্লাস্টিকের গ্লাস অথবা কাগজের ছোট কাপ কি একটা সমতল কার্ডের উপর দাড় করিয়ে রাখা সম্ভব? গ্লাসে পানি থাকলে তো অবশ্যই সম্ভব না। খালি গ্লাস নিয়ে দেখা গেলো সেটাও পরে যাচ্ছে এইবার গ্লাস বাদ শুধু একটা সমতল কার্ডকে লম্বা করে দাড় করিয়ে রাখার চেষ্টা করে দেখা যাক। যাহ এটাও পরে যাচ্ছে! তাহলে আর কী করা? জাদু দিয়েই গ্লাসকে কার্ডের উপর দাঁড় করাতে হবে।

  • ছেঁড়া টাকা জোড়ার ম্যাজিক

    ছেঁড়া টাকা জোড়ার ম্যাজিক টাকার কোনো অংশ ছিঁড়ে গেলে কেমন মুশকিলই না হয় বলো, কেউ সেই টাকা নিতে চায় না। সবাই বলে চলবে না চলবে না। তো আমাদের মতো সব মানুষই টাকা ছিঁড়ে যাওয়া বিড়ম্বনায় পরে। তাই আমরা যদি বলি আমরা ছেঁড়া টাকা জুড়ে দেওয়ার ম্যাজিক জানি তবে সেই ম্যাজিক দেখতে আসবে না এমন কেউ নেই।

  • লজেন্স উধাও করার জাদু

    লজেন্স উধাও করার জাদু পৃথিবীতে জাদু বলে কিছু নেই এ কথাটা তো আমরা সবাই জানি। জাদু বা জাদু বলতে আমরা যা দেখি তা শুধুই কৌশলের ফাঁকি বা এমন কোনো কৌশল যেটা শুধু কিছু মানুষ জানে অন্যরা জানে না।

  • বন্ধু দিবসের উপহার

    বন্ধু দিবসের উপহার আমরা বন্ধু দিবসের জন্য ছোট্ট সুন্দর একটা কার্ড বানাবো যে কার্ডে বন্ধুত্ব থাকবে, হাত থাকবে, আর বন্ধুকে কিছু কথা লেখার জায়গাও থাকবে। সহজ এই কার্ডটি বানাতে আমাদের কী কী লাগবে তাই আগে জেনে নেওয়া যাক।

  • ম্যাজিক: একটি থেকে দুইটি কয়েন

    ম্যাজিক: একটি থেকে দুইটি কয়েন একটা সহজ মজার জাদু আজকে আমরা করব। এখানে একটা কয়েন থাকবে। তার সামনে ছোট একটা আয়না ধরব আর আয়নায় দেখা যাবে দুইটি কয়েন। এবার আরেকটি আঙ্গুল দিয়ে আয়নার পিছন থেকেও টেনে আনা যাবে প্রতিবিম্ব কয়েনটি।

  • বিশাল বুদবুদ

    বিশাল বুদবুদ সাবান দিয়ে ফেনার বুদবুদ বানানো খুবই মজার ব্যাপার। আমরা সবাই সাবান দিয়ে বুদবুদ বানাই আর সেটাকে উড়তে দেখে খুব মজা পাই। শুধু তাই নয়, বুদবুদ ফাটাতেও খুব মজা হয়, তবে সেই বুদবুদ যদি এক ফুট বা দুই ফুটের সমান বড় হয় তবে কেমন মজা হবে বলো তো?

  • স্ট্র দিয়ে ফটো ফ্রেম

    স্ট্র দিয়ে ফটো ফ্রেম আমরা প্রায়ই ছবি আঁকি। আবার মধ্যে মধ্যে ছবি তুলে সেটার প্রিন্টও নেই। কিন্তু সুন্দর করে সংরক্ষণের অভাবে আমাদের ছবিগুলো হারিয়ে বা নষ্ট হয়ে যায়। কেমন হবে যদি আমরা সেই ছবিগুলো কোথাও টানানোর ব্যবস্থা করে ফেলতে পারি।

  • ঘড়ি বলবে সময়

    ঘড়ি বলবে সময় ঘড়ির দোকানে কিছু ঘড়ি পাওয়া যায় যেটা আসলে কখনও চলে না। স্থির থাকে, আর কাটাগুলো হাতে নড়িয়ে নেওয়া যায়। এই ঘড়ির ব্যবহার সারাক্ষণ সময় প্রদর্শন করা নয়। বরং নির্দিষ্ট একটা কাজ কখন করতে হবে তা জানিয়ে দেওয়া। যেমন মসজিদে এরকম ৫টা ঘড়ি থাকে। প্রতিটাতে ঘড়িতে এক একটা নামাজের সময় দেখানো থাকে। যেমন ফজর মানে সকালের নামাজের সময় সকাল ৩:৫৭ তে আবার মাগরিব মানে সন্ধ্যার নামাজের সন্ধ্যা ৬:৪৬ এ। সিনেমা হলে বা বাস স্টেশনেও এরকম নির্দিষ্ট সময়কে নির্দেশ করা ঘড়ি থাকতে পারে। এ ঘড়িগুলোর কাটা নড়ে না। বরং সারাদিন একই জায়গায় দাঁড়িয়ে সইকে ক্রমাগত সেই নির্দিষ্ট কাজ করার সময়টা জানাতে থাকে।

  • বেলুনের হোভারক্রাফট

    বেলুনের হোভারক্রাফট যে কোনো বাহন চলতে কীসের প্রয়োজন হয় তা কি আমরা জানি? যে কোনো বাহন চলতে কোনো না শক্তির প্রয়োজন হয়। এই শক্তি বেশিরভাগ সময় হয় খনিজ তেল যেমন পেট্রোল, ডিজেল অথবা প্রাকৃতিক গ্যাস। কিছু কিছু বাহন সৌর শক্তি বা পানির স্রোত বা বাতাসের শক্তি ব্যবহার করেও চলতে পারে।

  • পার্টি পপার

    পার্টি পপার পার্টি পপার বা পার্টিতে ছোট ছোট কাগজ, রঙিন পুঁতি, চুমকি জরি ছুড়ে মারার ছোট্ট নলটা আমরা খুবই পছন্দ করি। বাজারে এমন পপার কিনতে পাওয়া যায় সেগুলো অনেক সময় নষ্ট বের হয় অনেক সময় বাসার বড়রা পপার কিনে দিতে রাজি হয় না।

  • ম্যাজিক: ঝাঁকি দিলেই রঙিন

    ম্যাজিক: ঝাঁকি দিলেই রঙিন অনেকগুলো বোতল ভর্তি পানি। বোতলের মুখে ছিপি আঁটা। বাইরে থেকে কোনোভাবেই ভেতরে রঙ ঢোকা সম্ভব না। কিন্তু যখন বোতল ঝাঁকা দেওয়া হবে তখন এক একটা বোতলের পানি একেক রঙ হয়ে যাবে।

  • কাগজ হলো ফুল-পাতা

    কাগজ হলো ফুল-পাতা অরিগ্যামি একটা জাপানী শব্দ। আসলে কি জানো শব্দ এইখানে একটা না, এইখানে শব্দ দুইটা। অরি আর কামি। অরি অর্থ ভাঁজ করা আর কামি কাগজ অর্থ এই অরির সাথে কামি মিলে হয়ে গেলো অরিকামি। এখন আমাদের ভাষায় যেমন সন্ধি আছে শব্দের সাথে শব্দ মিলে উচ্চারণ বদলে যায়। তেমনি অরিকামি হয়ে যায় অরিগ্যামি।

  • কাগজ হলো বাঘ

    কাগজ হলো বাঘ অরিগ্যামি একটা জাপানী শব্দ। আসলে কি জানো শব্দ এইখানে একটা না, এইখানে শব্দ দুইটা। অরি আর কামি। অরি অর্থ ভাঁজ করা আর কামি কাগজ অর্থ এই অরির সাথে কামি মিলে হয়ে গেলো অরিকামি। এখন আমাদের ভাষায় যেমন সন্ধি আছে শব্দের সাথে শব্দ মিলে উচ্চারণ বদলে যায়। তেমনি অরিকামি হয়ে যায় অরিগ্যামি।

  • ভাঁজ করি হাতির মাথা

    ভাঁজ করি হাতির মাথা অরিগ্যামি একটা জাপানী শব্দ। আসলে কি জানো শব্দ এইখানে একটা না, এইখানে শব্দ দুইটা। অরি আর কামি। অরি অর্থ ভাঁজ করা আর কামি কাগজ অর্থ এই অরির সাথে কামি মিলে হয়ে গেলো অরিকামি। এখন আমাদের ভাষায় যেমন সন্ধি আছে শব্দের সাথে শব্দ মিলে উচ্চারণ বদলে যায়। তেমনি অরিকামি হয়ে যায় অরিগ্যামি।

  • অরিগ্যামি খরগোশ

    অরিগ্যামি খরগোশ অরিগ্যামি একটা জাপানী শব্দ। আসলে কি জানো শব্দ এইখানে একটা না, এইখানে শব্দ দুইটা। অরি আর কামি। অরি অর্থ ভাঁজ করা আর কামি কাগজ অর্থ এই অরির সাথে কামি মিলে হয়ে গেলো অরিকামি। এখন আমাদের ভাষায় যেমন সন্ধি আছে শব্দের সাথে শব্দ মিলে উচ্চারণ বদলে যায়। তেমনি অরিকামি হয়ে যায় অরিগ্যামি।

  • ম্যাজিক: টেকসই বেলুন

    ম্যাজিক: টেকসই বেলুন ম্যাজিকের পিছনে সব সময় একটা ‘কৌশল’ থাকে। অস্বাভাবিক কোনো বিষয় যখন স্বাভাবিকভাবে হয় তখন সেটা তো আর এমনি এমনি হতে পারে না তাই না?

  • ধোঁয়ার বলয়

    ধোঁয়ার বলয় আজকে আমরা বানাবো ধোঁয়ার বলয়। এমন এক একটা দিন আসে না যে পড়তে ইচ্ছে করে না, খেলতেও ইচ্ছে করে না, দুষ্টুমি করেও তেমন মজা পাওয়া যায় না? সেরকম দিনে একটু মজার কিছু করে ফেলা যায়। এই অনেকটা নেই কাজ তো খই ভাজের মত আর কি। তবে খই ভাজলে খই মজা করে খেতে পারবে। ধোঁয়ার বলয় থেকে সেরকম কিছুই পাবে না নিছক আনন্দ আর কপাল খারাপ হলে আম্মুর বকুনি ছাড়া। তবে মজা তো মজাই।

  • চরকি ঘুরে হাওয়ায়

    চরকি ঘুরে হাওয়ায় বসন্ত তো এলো বলে একটু বসন্তের সাজে ঘর বাড়ি না সাজালে কেমন হয় বলো দেখি! আজকে আমরা শিখবো কীভাবে সহজেই কাগজ দিয়ে চরকি বানিয়ে ফেলা যায়।

  • ম্যাজিক: কাঠি গেলো কোথায়?

    ম্যাজিক: কাঠি গেলো কোথায়? আজ আমরা যে জাদুটা শিখবো সেটা খুব সরল কিন্তু খুবই আকর্ষণীয়। প্রথমে দেখা যাবে জাদুকরের হাতে একটা ছোট কাঠি। এরপর জাদুকর হাতটা একটা ঝারা দিবে আর কাঠি কই যেন হারিয়ে যাবে। কেউ কেউ অবাক হবে আর কেউ কেউ সন্দেহ করবে জাদুকর বুঝি কাঠিটা কোথাও ছুঁড়ে ফেলেছে। কিন্তু না। সবাইকে অবাক করে আবার হাতে একটা ঝারা দিয়ে জাদুকর কাঠি ফিরিয় নিয়ে আসবে।

  • ম্যাজিক: ভাত নাচে পানিতে

    ম্যাজিক: ভাত নাচে পানিতে একটা গ্লাস নিলে তাতে কিছুটা ভাত ছেড়ে দিলে। ভাতগুলো ভালো মতো পানিতে ডুবেও গেলো। এরপর আঙ্গুল দিয়ে গ্লাসের চারিদিকে এক চিমটি যাদু মন্ত্র ছড়িয়ে দিলে। কী কাণ্ড! ওমনি ভাতগুলো উপরে থেকে নিচে নিচে থেকে উপরে দৌড়াদৌড়ি শুরু করলো!

  • কয়েন দিলো লাফ

    কয়েন দিলো লাফ ম্যাজিকটা খুব সহজ। একটা কাঁচের বোতল। বোতলের মুখে রাখা একটা কয়েন। তুমি বোতলের গা ধরবে আর ধপ করে কয়েনটা লাফ দিয়ে উঠবে।

  • রঙিন একটা মাছ

    রঙিন একটা মাছ আঁকাআঁকি কাজটা বেশ মজার। একটু চেষ্টা করলেই আমরা সুন্দর সুন্দর জিনিস এঁকে ফেলতে পারি। যেমন আমরা আজকে মাছ আঁকা শিখব। ভাবছো মাছ আঁকা বেশ কঠিন। হ্যাঁ তা একটু কঠিন আছে। তবে আমরা একটা সহজ মাছ আঁকা শিখবো। একটা বৃত্ত আর ইংরেজির B লিখতে পারলেই এই মাছ এঁকে ফেলা যাবে।