খবর > কিডজ > দাদাইয়ের গল্প
  • একটি অসহায় পাখিকে নিয়ে সত্য গল্প
    আমরা সবাই জানি সারা পৃথিবীতে করোনাভাইরাস রাজত্ব করছে। আমাদের বাসার আশপাশে ভাইরাস-আক্রান্ত অনেক রোগী, তাই আমাদের এলাকা লকড ডাউন।
  • আদিবাসী লোককথা: মায়ের বোন নদী
    কোন এক কালের কথা। পাহাড়ের পাশে ছিল ছোট্ট এক গ্রাম। সে গ্রামেই বাস করত দুই বোন- তুইচংগী ও নোয়েংগী।
  • বইয়ের সঙ্গে আরাফ যেভাবে বন্ধুত্ব করে
    আমাদের ছোট্ট আরাফ প্রতিদিন দেখতো সকাল হলেই চাচ্চু আর আব্বু অফিস যায়। একটু বড় হলে তারও ইচ্ছা করতো সেও তাদের মতো অফিসে যাবে।
  • ফ্লেমিংগোর পিছিয়ে পড়া বাচ্চা
    খুব বিরক্তমুখে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে সাবধানী হাতে দাঁতব্রাশ করছে দ্বীপ। নিচের পাটির একদম সামনের দিকের দাঁতটাও নড়া শুরু হয়েছে কেবল।
  • বাপ-দাদার স্যার, প্রধানমন্ত্রীর স্যার, আমারও স্যার
    এই পুটু কী করছিলি?
  • সুমাইয়া বরকতউল্লাহর গল্প: ঘুড়ির লড়াই
    এ আবার কেমন আবদার! এটা তো ছেলেদের খেলা, তুমি ঘুড়ি উড়াতে চাও কোন শখে? ছাদে উঠে ঘুড়ি উড়াবার বায়না করতেই মা এমন করে কথাগুলো শোনালেন। আমি অবাক হয়ে ভাবছি, ঘুড়ি উড়ানোর মধ্যে ছেলে আর মেয়ে বলে কি কোনো কথা থাকতে পারে?
  • আনন্দমুখ ঈদের বেদনামাখা স্মৃতি 
    ঈদ মানেই আমার কাছে ছেলেবেলার স্মৃতি। আমার ঈদের দিন মানেই ছিল অকারণে ভোরবেলায় ঘুম থেকে উঠে গোসল করা আর নতুন জামা গায়ে দিয়ে জানালার পাশে বসে রাস্তা দেখা।
  • ছোটগল্প: মধ্যবিত্ত বাবার ঈদ
    মধ্যবিত্ত পরিবারের বাবা-ই পরিবারের জন্য ঈদ আনন্দকে বিসর্জন দিতে পারে। পরিবার সুখে থাক, এটাই তাদের কামনা।
  • কিছু গল্প থাকে সবার প্রায় একই রকম
    রোজার মাস ফুরিয়ে আসে আর আমরা গুণতে থাকি ঈদের আগমনী ধ্বনি। স্কুলের ক্লাস ফুরিয়ে আসে। কয়েকদিনের মাঝে ছুটির ঘণ্টা বেজে উঠবে।
  • আদিবাসী লোককথা: সিঁদুর যেভাবে এলো
    চার বন্ধু। সবার মধ্যে ভাব খুব। যে কোন কাজই একসঙ্গে করে তারা। একবার কোনো এক কাজে তারা রওনা হয় দূরদেশে। যেতে যেতে তারা পৌঁছায় এক জঙ্গলের ভেতর। সন্ধ্যা গড়িয়ে ঠিক তখনই হলো রাত।
  • নিশাত সুলতানার গল্প: চকোলেট ডিমের ছানা
    রনি এইমাত্র খবরটা পেয়েছে। দীপু মামা আজ দেশে ফিরছেন। খবরটা জানার পর থেকেই খুশিতে লাফাচ্ছে সে।
  • বানরের সাজা
    সুন্দরবনে বাস করতো এক বানর। সে ছিল খুব দুষ্টু। সারাদিন এ গাছ থেকে সে গাছে লাফিয়ে বেড়াত। আর দুষ্টু সব বুদ্ধি এঁটে বাকি জন্তু-জানোয়ারদের জ্বালাতন করতো।
  • জিলাপি দাদু
    রাইসা তখন দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে। একদিন বাবার সঙ্গে ওর নানুবাড়ির মেলায় ঘুরতে গিয়েছে। মেলার বড় গেইট দিয়ে ভেতরে ঢুকতেই দেখে জিলাপির দোকান।
  • দুঃসাহসী হাঁসের ছানা
    হাঁসের ছানাটি বাড়ি থেকে বেরিয়ে সোজা সড়কে গিয়ে উঠল। জোরে হেঁটে চলেছে সে। পা দুটো দেখাই যাচ্ছে না। মনে হচ্ছে একটি ক্রিকেট বল গড়িয়ে যাচ্ছে।
  • ছোটগল্প: লকডাউন
    খুব সাদামাটা জীবন যাপন করে মাহিন। কলেজের মেধাবী ছাত্র। মেসে থাকে, টিউশনি করিয়ে যা পায় তা দিয়ে তার কোনোভাবে চলে যায়।
  • আরাফ যেভাবে একদিনে তিনটা রোজা রাখে
    করোনাভাইরাস প্রকোপের এ সময়ে সবাই এখন বাড়িতে। বড় ভাইয়া আর আমার অফিস চলছে বাড়ি থেকেই, ওয়ার্ক ফ্রম হোম। আরাফের স্কুল আগে থেকেই ছুটি। তিনটে ঘরের দুটো দখল করে বসে আছি আমি আর ভাইয়া।
  • ক্ষুধার্ত ছানার খাবারের খোঁজে মা
    এক বাঘিনী বনের ভেতর ঘুরে বেড়াচ্ছিল খাবারের সন্ধানে। ছানারা তার বড্ড ক্ষুধার্ত। সকাল থেকে দানা-পানি কিছুই পেটে পড়েনি।
  • ধরিদাদুর মুরগি পালন
    সুখানন্দ গ্রামের এক কাঠের বাড়িতে থাকত এক বুড়ো, নাম তার হরিধরি। এই গ্রামে আর একটাও কাঠের বাড়ি পাওয়া যাবে না শুধু হরিধরির বাড়ি  ছাড়া। বন থেকে কাঠ কেটে এনে নিজেই তৈরি করেছে তার এই প্রিয় বাড়ি।
  • ছোটগল্প: কালবৈশাখী
    সেদিনের কথা স্পষ্ট মনে আছে। আকাশ কালো মেঘে ছেয়ে গিয়েছিল৷ সঙ্গে দমকা হাওয়া। ক্ষণিকের জন্য মনে হয়েছিল আজই বোধ হয় পৃথিবীর শেষ দিন।
  • রিন্তির স্কুলে ভর্তি হওয়ার গল্প
    মায়ের ইচ্ছে রিন্তিকে একটি ভাল স্কুলে ভর্তি করবে। রিন্তিকে মা যে স্কুলে ভর্তি করতে চায় সে স্কুলে ভর্তি হতে হলে মৌখিক পরীক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণ হতে হয়। আজ রিন্তির সেই পরীক্ষা।
  • আদিবাসী লোককথা: ভাগ্য দেবতার খোঁজে
    কার্মু আর ধার্মু। যমজ দুই ভাই। কার্মু বড়। ধার্মু ছোট।
  • ইচ্ছেপূরণ
    স্কুলে রোজার ঈদের ছুটি দিয়ে দিয়েছে। সারাটা দিন বাড়িতে ছোট্ট পাখির মতো ঘুরে বেড়াচ্ছে টিয়া। মা-বাবা সকালেই কাজে বেরিয়ে পড়েছেন।
  • রোল কলের খাতা গল্পভরা পাতা
    বাড়িতে দাদার সঙ্গে এটা ওটা খেলে আরোহীর স্কুল ছুটির সময়টা ভালোই কাটছিল। আজ হঠাৎ ওর স্কুলের কথা মনে পড়ছে খুব। বন্ধুদেরও। এই কথা জেনে দাদা আরোহীকে বললেন, ‘চল আমরা একটা মজার খেলা বানাই।’
  • আদিবাসী লোককথা: পাখির সঙ্গে লড়াই
    ভাদ্র মাস। তাল পাকানো গরম। চারপাশে ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা। বারকয়েক ঘাম গোসল দিয়ে গাছের ছায়ায় জিরিয়ে নিচ্ছেন অনেকেই।
  • টিকটিকির জেঠা ডাইনোসরের ভাই
    নদীর চরায় শুয়ে রোদ পোহাচ্ছিল কুমির। একটু দূরে আখক্ষেতের পাশে বসে একটা আখের গোড়া চিবুচ্ছিল শেয়াল পণ্ডিত।