খবর > কিডজ > দাদাইয়ের গল্প

  • এ পি জে আবদুল কালামের ৩০টি অমিয় বাণী

    এ পি জে আবদুল কালামের ৩০টি অমিয় বাণী আবুল পাকির জয়নুল আবেদিন আবদুল কালাম, জন্ম ১৫ অক্টোবর ১৯৩১, ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের রামেশ্বরমে। তিনি ছিলেন একাধারে বিজ্ঞানী, লেখক ও সমাজচিন্তক, ছিলেন ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের একাদশ রাষ্ট্রপতি (২০০২ - ২০০৭)।

  • অন্ধকারে ভূত

    অন্ধকারে ভূত ল্যাম্পপোস্টের আলোগুলো জ্বলছিল। রাস্তায় লোকজন যাওয়া-আসা করছিল। এ-বাড়ি ও-বাড়ি থেকে সোনামণিদের পড়ার শব্দ শোনা যাচ্ছিল। সবকিছুই ঠিকঠাক মতো চলছিল। হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে গেল।

  • শ্যাওড়া গাছের নিচে

    শ্যাওড়া গাছের নিচে ঘটনাটি আমার বন্ধু ডমরু ধরের কাছ থেকে শোনা। লোকে বলে শোনা কথায় বিশ্বাস করতে নেই। আমিও প্রথম প্রথম বিশ্বাস করিনি। কিন্তু ডমরু ধর তার কাহিনীর সমর্থনে এমন কিছু অকাট্য প্রমাণ হাজির করেছিল যে আমার বিশ্বাস না করে থাকার আর কোনো উপায় ছিল না।

  • ছোটগল্প: প্রতিদান

    ছোটগল্প: প্রতিদান চারদিকে সাজের ধুম। আকাশে বাতাসে উৎসবের গন্ধ। আজ বাদে কাল নতুন বছর। সময় যতই ঘনিয়ে আসছে দাদু আর দিদিমার মন খুব খারাপ হচ্ছে। খারাপ হবে নাইবা কেনো? নতুন বছর এলে তো কিছু না কিছু কেনাকাটা করতেই হয়।

  • ঠাকুর্দার ভূত দর্শন

    ঠাকুর্দার ভূত দর্শন আমাদের গ্রামে সর্বশেষ ভূত দেখা গিয়েছিল নারায়ণের ঠাকুর্দার শ্রাদ্ধের দিন থেকে প্রায় বছরখানেক। আর তখনই ভূতদের নিয়ে যুগের পর যুগ চলমান মিথ্যাচারের অবসান হয়েছিল। বিভিন্ন গল্প, উপন্যাস কিংবা ইতিহাসে ভূতদের নিয়ে যেসকল তথ্য-উপাত্ত হাজির করা হয়েছিল তা একটি বৃহৎ ষড়যন্ত্রের অংশ বলে প্রতীয়মান হয়েছে।

  • ছোটগল্প: স্টেডিয়ামে একদিন

    ছোটগল্প: স্টেডিয়ামে একদিন বাবার সঙ্গে স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখবে শাহান। তবে মাঠে বসে সরাসরি খেলা দেখার ব্যাপারে শাহানের চেয়ে তার বাবার আগ্রহটাই বেশি। কতো বাবা-মা’ই তো তাদের সন্তানদের সঙ্গে নিয়ে মাঠে খেলা দেখতে যান। ছোট ছোট শিশুরাও বাদ যায় না।

  • রহস্য উপন্যাস: অলীকের অভিযান, পর্ব ৩

    রহস্য উপন্যাস: অলীকের অভিযান, পর্ব ৩ পিঠে ভারি ব্যাগগুলো নিয়ে জঙ্গলের মধ্যে আমরা ধুপধাপ করে এগোতে লাগলাম। খানিক পরে পরে আমরা প্রত্যেকে পিছনে মাথা ঘুরিয়ে দেখছিলাম। কারণ মনে হচ্ছিল আমাদের ঠিক পিছনে আরো অনেক মানুষ দৌড়ে আসছে। তাদের পায়ের শব্দ আমরা পরিষ্কার শুনতে পাচ্ছিলাম।

  • ভূত মরিলে মার্বেল হয়

    ভূত মরিলে মার্বেল হয় মানুষ মরিলে ভূত হয় আর ভূত মরিলে হয় মার্বেল। এই কথাটি বলিয়াছিলেন, স্বর্গীয় ত্রৈলোক্যনাথ মুখোপাধ্যায়। কিন্তু কথাটি বিলক্ষণ মিথ্যা মনে হইতেছিল যখন বেলতলায় নিজ হাতে একটি জলজ্যান্ত ভূতকে নিজ টুথব্রাশ দ্বারা পিটাইয়া মারিয়াছিলাম।

  • রহস্য উপন্যাস: অলীকের অভিযান, পর্ব ২

    রহস্য উপন্যাস: অলীকের অভিযান, পর্ব ২

  • রহস্য উপন্যাস: অলীকের অভিযান, পর্ব ১

    রহস্য উপন্যাস: অলীকের অভিযান, পর্ব ১

  • ষড়ঋতুর গল্প

    ষড়ঋতুর গল্প বর্ষার বিরুদ্ধে শরৎ মামলা করেছে। মামলা সে এমনি এমনি করেনি, বর্ষাঋতুর অসম্ভব বাড়াবাড়িতে শরতঋতু রীতিমত ত্যক্ত-বিরক্ত। বহু চিন্তা-ভাবনার পর অন্য ঋতুদের সঙ্গে শলা-পরামর্শ করে শরৎ তার ন্যায্য অধিকার পেতে ঋতুরাজ বসন্তের দরবারে মামলা ঠুকে দিয়েছে।

  • বোকা বাঘের কাণ্ড

    বোকা বাঘের কাণ্ড এক বনে এক খরগোশের বিয়ে। বিয়েতে দাওয়াত পেলো বনের অন্য প্রাণীরা। উপস্থিত হলো বাঘ, সিংহ, ভাল্লুক, হরিণ, বানর, হনুমান, কাক, কোকিল, বক, চিল, দোয়েল, কোয়েল, ময়না, টিয়া, বাদুড়, হাতি, ঘোড়া, মহিষ, গরু, ছাগল, ভেড়া, কুকুর, বিড়াল, আঞ্জন, গয়াল ও বনের সবচেয়ে উঁচু প্রাণী জিরাফ।

  • অ্যাম্বুলেন্সের ডানা

    অ্যাম্বুলেন্সের ডানা রাসেলের বয়স ১০ বছর। চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। প্রতিদিনের মতো সেদিনও সে বুবুর সঙ্গে রিকশায় করে স্কুল থেকে বাসায় ফিরছিল। রাস্তায় তীব্র যানজট।

  • রাজার আগমনের পথ চেয়ে

    রাজার আগমনের পথ চেয়ে শিশুরা তাদের খেলার মাঠে খেলছিলো। এমন সময় রাজদরবারের বুড়ো ঘোষক তার টিনের মাইক নিয়ে শহরের রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছিলো আর রাজার আগমনবার্তা ঘোষণা করছিলো, ‘সাবধান...হুশিয়ার! মহামান্য রাজা আসছেন...। তিনি এই রাস্তা দিয়ে যাবেন। সবাই সাবধান...।’

  • বাবা তুমি কোথায়?

    বাবা তুমি কোথায়? টুনটুনির আজ খুব মন খারাপ। বাবাকে বলে রেখেছিল, রোববার সে বাবার সঙ্গে স্কুলে যাবে। কিন্তু তার ঘুম ভাঙার আগে বাবা অফিসে চলে গিয়েছে।

  • মানুষের খোঁজে

    মানুষের খোঁজে এক ছিল রাজা। তার কোনো সন্তান ছিল না। রাজ্যের জ্যোতিষ কবিরাজ, খনকার কার কাছে যাননি তিনি! শুধু একটি সন্তানের জন্য। পীর, ফকির, মুর্শিদ সবার দুয়ারে গিয়েছেন। কারো প্রার্থনাই যে গ্রহণ হয় না!

  • রাজস্থানের রূপকথা: ইঁদুর ও চড়ুইয়ের গল্প

    রাজস্থানের রূপকথা: ইঁদুর ও চড়ুইয়ের গল্প অনেক দিন আগে এক ইঁদুর ও চড়ুইয়ের মধ্যে বন্ধুত্ব হয়। চড়ুইটি ছিল ছোট্ট ধূসর রঙের। একদিন সে পাখায় আঘাত পেলো। ভাঙা পাখায় খুব বেশিদূর উড়ে যেতে পারতো না চড়ুইটি।

  • টাকার ইতিহাস

    টাকার ইতিহাস দাদাইকে দেখে টুনু, বিলু, স্বাতী, বেলী, সব বাচ্চারা একসঙ্গে হৈচৈ করে উঠলো। দাদাইয়ের সঙ্গ আর সবার মতো ওরাও খুব পছন্দ করে, কতো মজার মজার সব গল্পই না জানেন দাদাই।

  • স্বাধীনতা,এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো

    স্বাধীনতা,এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো সাত সকালে টুনুরা দল বেঁধে এসেছে তাদের দাদু, মোসলেহ উদ্দীনের বাড়িতে। সাত সকাল বললে অবশ্য কম বলা হয় সকাল বাজে ছয়টা। মাত্র নরম আলো ছড়াতে শুরু করেছে সূর্যের এখনও দেখা পাওয়া যায়নি।

  • প্রাণের মেলায় প্রাণের টানে

    প্রাণের মেলায় প্রাণের টানে শুক্রবার শনিবার এই দুইদিন টুনুদের স্কুল ছুটি। নীলা, কাজল, সুদীপ্ত, বিলু, স্বাতী, বেলি, আরাফ সবাই

  • কান পেতে শুনি কী বলিতে চাইছে জল্লাদখানা বধ্যভূমি

    কান পেতে শুনি কী বলিতে চাইছে জল্লাদখানা বধ্যভূমি মা যাবেন মিরপুরে, টুনুও তার সঙ্গী হলো। যদিও দরদাম, কেনাকাটা এই সব বিষয়গুলো টুনুর খুব একটা ভাল লাগে না, তবুও নতুন জায়গা দেখা হবে বলে সে মায়ের সঙ্গ নিতে রাজি হয়েছে।

  • ঢাকার গল্প

    ঢাকার গল্প আজ পথে নাকি অনেক জ্যাম। মা বলল, টুনু জ্যামের মধ্যে আজ স্কুলে গিয়ে কাজ নেই। এটা শুনে টুনুর খুশি আর ধরে না। সে ঠিক করল সকালবেলাটা দাদাই বাড়িতে কাটাবে। হালকা শীতের সকালে দাদাইর বাটিটা খুব শুনশান লাগছে। নীচের দাদুর পড়ার ঘরে উঁকি দিয়ে দেখল, দাদু ইজিচেয়ারে আধশোয়া হয়ে চোখ বন্ধ করে আছেন, হাতে কী একটা বই।

  • দুর্গা পূজা এবং রমনা কালী মন্দিরের কথা

    দুর্গা পূজা এবং রমনা কালী মন্দিরের কথা মোসলেহ উদ্দীন সাহেব মহল্লার সবার ছোট বড় সবার দাদু। রাস্তার শেষ মাথার ছোট্ট একটা দোতালা বাড়িতে একাই থাকেন, সঙ্গী বলতে একটা কুকুর আর ঘর ভর্তি বই। তিনি ইদানিং কালের মানুষদের মতো বাড়িটা এপার্টমেন্টওয়ালাদের হাতে তুলে দেননি। বাড়ির চারপাশে নানা রকমের গাছ পালা ঘেরা সাদা বাড়িটা দেখলেই খুব শান্তি শান্তি লাগে।  বাচ্চাদের সঙ্গে তাঁর খুবই বন্ধুত্ব। সুযোগ পেলেই বাচ্চারা চলে আসে দাদাইর বাড়িতে, কোনোদিন চলে সামনের লনে খেলা, কোনদিন গল্প শোনা আবার কোনদিন প্রজেক্টরে মজার সব সিনেমা বা ডকুমেন্টরি দেখা।দাদাই গল্প এক আশ্চর্য গুপ্তধন। ওরা মাঝে মাঝেই আবদার ধরে সেই সব গল্প শোনার।

  • ঢাকার পূজা দর্শন

    ঢাকার পূজা দর্শন সভ্যতা আর ঐতিহ্য খুব খুশি কারণ পূজার ছুটিতে নানাভাই এসেছেন ওদের বাসায়, থাকবেন কিছুদিন। নানাভাই মানেই মজার মজার সব গল্প, সঙ্গে এদিক-সেদিক ঘুরতে যাওয়া!

  • মুঘল ঈদগাহে এক বিকেলে

    মুঘল ঈদগাহে এক বিকেলে ঈদুল আযহা’র পরদিন সভ্যতা-ঐতিহ্যদের নিমন্ত্রণ ছিলো ছোট ফুপির বাসায়। ছোট ফুপিরা ধানমন্ডি থাকেন,  উনাদের বাসায় যেতে দুজন’ই খুব পছন্দ করে। কারণ ফুপাদের একান্নবর্তী পরিবার, অনেকগুলো ভাই বোন মিলে খুব হৈ চৈ করা যায়।