কোভিড: মসজিদেও পরতে হবে মাস্ক, কাতারে থাকবে দূরত্ব

দেশে আবার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় অন্য সব জায়গার মত মসজিদেও মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে, ফিরিয়ে আনা হয়েছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ কোভিড বিধির বেশ কিছু বিধিনিষেধ।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 June 2022, 04:24 PM
Updated : 28 June 2022, 04:35 PM

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সুপারিশের ভিত্তিতে ধর্ম মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এসব বিধিনিষেধ আরোপের কথা বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছে।

২০২০ সালেও করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় ধর্ম মন্ত্রণালয় এসব বিধিনিষেধ দিয়েছিল, পরে সেগুলো প্রত্যাহারের কোনো আদেশ আর আসেনি।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করে মঙ্গলবার ছয়টি নির্দেশনা দেওয়ার পর ধর্ম মন্ত্রণালয় মসজিদে পালনীয় স্বাস্থ্যবিধির বিষয়গুলো আলাদাভাবে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানাল।

সেখানে বলা হয়েছে,

>> মসজিদে হ্যান্ড স্যানিটাইজার/হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে।

>> মসজিদে সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরে আসতে হবে।

>> সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান/উপাসনালয়ে প্রবেশের ক্ষেত্রে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, হ্যান্ড স্যানিটাইজার/সাবান দিয়ে হাত ধোয়াসহ স্বাস্থ্যবিধি ও শারীরিক দূরত্ব বিধিমালা যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে।

>> প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে ওজু করে ও সুন্নত আদায় করে মসজিদে আসতে হবে।

>> ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

>> মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না।

>> পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের আগে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে।

>> মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না।

>> যারা মসজিদে নামাজে যাবেন, তাদের নিজ নিজ দায়িত্বে জায়নামাজ নিয়ে যেতে হবে।

>> কাতারে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে।

>> শিশু, বৃদ্ধ, অসুস্থ ও অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তিরা জামায়াতে অংশগ্রহণ করা হতে বিরত থাকবেন।

এসব বিধিনিষেধ না মানলে স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনী দায়িত্বশীলদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে সতর্ক করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

ফেব্রুয়ারির পর দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে এলেও জুনের শুরু থেকে আবার তা বাড়ছে। মঙ্গলবার টানা দ্বিতীয় দিন দুই হাজারের বেশি কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে তিনজনের।

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি গত ১৬ জুন কিছু বিধিনিষেধ ফেরানোর পরামর্শ দিয়েছিল।

এই প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ছয়টি নির্দেশনা দিয়ে বলা হয়, সাম্প্রতিককালে সারাদেশে কোভিড-১৯ আক্রান্তের হার দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে ও জনগণের মধ্যে মাস্ক পরিধান এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণে যথেষ্ট শৈথিল্য পরিলক্ষিত হচ্ছে মর্মে সরকারের উচ্চ মহলে আলোচনা হচ্ছে।

“কোভিড-১৯ জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির গত ১৪ জুন অনুষ্ঠিত সভায় গৃহীত সুপারিশ প্রতিপালনের জন্য এবং কোভিড প্রতিরোধকল্পে নিম্নোক্ত নির্দেশনাসমূহ বাস্তবায়নের জন্য অনুরোধ করা হলো।”

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনায় বলা হয়, ধর্মীয় প্রার্থনার স্থানগুলো (যেমন-মসজিদ, মন্দির, গির্জা ইত্যাদি) মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। জ্বর, সর্দি, কাশি বা কোডিড ১৯ এর উপসর্গ দেখা দিলে কোভিড টেস্ট করার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক