অর্ণবের ‘হোক কলরব’ পশ্চিমবঙ্গে প্রতিবাদের অস্ত্র

বাংলাদেশি শিল্পী অর্ণবের ‘হোক কলরব’ গানটির শিরোনামের এই শব্দযুগল হয়ে দাড়িয়েছে পশ্চিমবঙ্গের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান ছাত্র আন্দোলনের সঙ্গে সম্পৃক্তদের প্রতিবাদের ভাষা।  

চিন্তামন তুষারচিন্তামন তুষারবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Sept 2014, 12:07 PM
Updated : 25 Sept 2014, 12:07 PM

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক, টুইটারে ‘হোককলরব’ হ্যাশ ট্যাগ ব্যাবহার করে আন্দোলনের কথা ছড়িয়ে দিচ্ছেন তারা। #হোককলরব লেখা ব্যানারও ব্যাবহার করছেন ক্যাম্পাসে অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ২৮শে অগাস্ট এক ছাত্রী নিগৃহিত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয় এ বিক্ষোভ। শিক্ষার্থীদের মিছিলে পুলিশ চড়াও হওয়ার পর আন্দোলন আরও বড় আকার নেয়।  

‘হোক কলরব’  কী

‘হোক কলরব’ অ্যালবামটি প্রকাশিত হয় ২০০৬ সালে। ১২টি গানের অ্যালবামের তৃতীয় গান ‘হোক কলরব’। গানটির রচয়িতা রাজীব আশরাফ। সুর করেছেন ও কণ্ঠ দিয়েছেন সায়ান চৌধুরী অর্ণব।গানটির রচনাকাল ২০০৪ সাল। সে সময়েই রাজীব আশরাফের একটি লেখা থেকে গানটি তৈরি করেন অর্ণব।

যাদভপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবাদী শিক্ষার্থীর একাংশ। ছবি: আইএএনএস।

যাদভপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবাদী শিক্ষার্থীর একাংশ। ছবি: আইএএনএস।

রাজীবের প্রতিক্রিয়া

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ২১শে সেপ্টেম্বর সংগীত শিল্পী শাহানা বাজপেয়ী লিখেন, “আমার প্রিয় ভাই রাজীব আশরাফকে ধন্যবাদ, এমন বুদ্ধিদীপ্ত কিছু শব্দ উপহার দেওয়ার জন্য। যা আজ স্লোগানে পরিণত হয়েছে।#হোককলরব।”

একই দিনে রাজীব লিখেছেন, “আমিও আছি আমার পূর্ণ সমর্থন নিয়ে তোমাদের সঙ্গে।  আমার লেখা ‘হোক কলরব’ যদি অধিকার আদায়ের লড়াইয়ে এতটুকুও অনুপ্রেরণা যোগায় তোমাদের, তাতেই আমার লেখার স্বার্থকতা। জয় মানুয়, জয় মানবতা। #হোককলরব”

আন্দোলনে সামিল হয়েছে টালিগঞ্জ

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত শনিবারের মিছিলে ‘হোক কলরব’ স্লোগানে মুখর হতে দেখা গেছে চলচ্চিত্র নির্মাতা সুমন মুখোপাধ্যায়, অভিনয়শিল্পী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় ও ঋ সেনকে । ভারতীয় দৈনিক টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে ঋ সেন বলেছেন, “বর্তমান পরিস্থিতি অত্যন্ত দুঃজনক এবং ভীতিকর। উপাচার্যের বিষয়ে কথা বলার রুচিও আমার নেই! খুব শিগগিরই তার পদত্যাগ করা উচিৎ।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক