পরীমনির পক্ষে মানববন্ধনে শিল্পী, নির্মাতারা

মাদকের মামলায় গ্রেপ্তার চিত্রনায়িকা পরীমনির জন্য ন্যায়বিচার চেয়ে এক মানববন্ধনে শামিল হলেন চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকের নির্মাতা, অভিনয়শিল্পীরা।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 August 2021, 01:17 PM
Updated : 21 August 2021, 04:22 PM

গত ৪ অগাস্ট ঢাকার বনানীর বাসায় র‌্যাব অভিযান চালিয়ে পরীমনিকে গ্রেপ্তারের পর তাকে তিন দফায় রিমান্ড শেষে শনিবার কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার বিকালে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে ‘পরীমনির জন্য ন্যায়বিচার চাই’ ব্যানারে এক সমাবেশে দাঁড়ান চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকের নির্মাতা, অভিনয়শিল্পী, চিত্রনাট্যকারসহ নানাজন।

পরীমনিকে গ্রেপ্তারের পর শিল্পী-নির্মাতাদের মধ্যে কেউ কেউ তার ন্যায়বিচার চেয়ে ফেইসবুকে সোচ্চার থাকলেও রাজপথে দেখা যায়নি; শিল্পী-নির্মাতাদের একাংশের তরফ থেকে প্রথমবারের মতো ‘শিল্পীর পাশে’ প্লাটফর্মের আয়োজনে ন্যায়বিচারের দাবি নিয়ে এলেন অনেকে।

গ্রেপ্তার পরীমনি যেন ন্যায়বিচার পান, সেই দাবিতে এই মানববন্ধন: শনিবার বিকালে ঢাকার শাহবাগে এই কর্মসূচিতে চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকের নির্মাতা, অভিনয়শিল্পী, চিত্রনাট্যকাররা ছিলেন। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

সমাবেশে নাট্যশিল্পী আবুল কালাম আজাদ বলেন, “দেশে লুটপাট ও বিচারহীনতার সংস্কৃতি চলছে। তার বিপরীতে একটা লোককে পাওয়া গেছে যাকে সব ধরনের নির্যাতন চালানো যেতে পারে। সেক্ষেত্রে সবচেয়ে ভালো উপাদান হচ্ছেন-নারী। সে যদি মডেল কিংবা অভিনেত্রী হয় সেটা আরও ভালো। সেই সুযোগটাই যেন প্রশাসন নিচ্ছে। সেই প্রশাসনের অন্তরালে কারা আছেন, আমি জানি না। আমি নিশ্চিত ভীষণ শক্তিশালী একটি পক্ষ আছে যারা এগুলো করাচ্ছে। এটা ভীষণভাবে অমানবিক একটি প্রক্রিয়া।”

‘স্বপ্নজাল’ চলচ্চিত্রের নায়িকা পরীমনির জন্য ন্যায়বিচার চাইতে সমাবেশে আসেন সেই সিনেমার নির্মাতা গিয়াসউদ্দিন সেলিম।

সেলিম বলেন, “পরীমনির গ্রেপ্তার প্রক্রিয়া থেকে শুরুর করে তিন বার রিমান্ডে নেওয়া, একই সঙ্গে মিডিয়া ট্রায়ালে জন্য উস্কে দেওয়া-এটাই তো বেআইনি কাজ। আইনের রক্ষক যারা তারাই তো আইন ভেঙেছেন, তাদের কী হবে? আমরা আইনের শাসন চাই। সাংবিধানিক অধিকারের সুরক্ষা চাই।

পরীমনি একজন অভিনয়শিল্পী, একই সঙ্গে বাংলাদেশের নাগরিক। তার আটক প্রক্রিয়া যদি বেআইনি হয়-সবার আগেই তো তার জামিন হওয়ার কথা। আমরা পরীমনির জামিন চাই। আইন সবার জন্য সমান হোক।”

গ্রেপ্তার পরীমনি যেন ন্যায়বিচার পান, সেই দাবিতে এই মানববন্ধন: শনিবার বিকালে ঢাকার শাহবাগে এই কর্মসূচিতে চলচ্চিত্র ও টিভি নাটকের নির্মাতা, অভিনয়শিল্পী, চিত্রনাট্যকাররা ছিলেন। ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

শিল্পী ঝুনা চৌধুরী বলেন, “...পরীমনির বিষয়টি নিয়ে খুব অবাক লাগে। সে বিশ্বের কতবড় একজন মাফিয়া! তাকে ধরতে একটি এলিট ফোর্সকে বিশালভাবে তার বাড়িতে যেতে হয়েছিল। তাকে বললেই সে থানায় কিংবা ডিবি অফিসে যেতে পারতেন। চয়নিকা চৌধুরীও তার বক্তব্যে বলেছেন, তাকে বললেই তিনি যেতেন।

“যে কোনো শিল্পীর প্রতি অবিচার ও অনাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকব। দুয়েকদিনের মধ্যেই যদি পরিষ্কার ধারণা না পাই তাহলে আমরা রাজপথে থেকেই সংগ্রামের মাধ্যমে এর একটা সুরাহা করব।”

সমাবেশে শিল্পী-নির্মাতাদের মধ্যে মোহাম্মদ বারী, নোমান রবিন, গাজী মাহবুব, শহিদ উন নবী, অপরাজিতা সঙ্গীতাসহ আরও অনেকে বক্তব্য রাখেন।

শনিবার শাহবাগে বিক্ষুব্ধ নাগরিকজনের ব্যানারে পরীমনির পক্ষে আরেকটি মানববন্ধন আয়োজনের কথা ছিল তবে পরে তা স্থগিত করা হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক