‘প্রান্তিক মানুষের জন্য ওয়াশ খাতে বরাদ্দ অপ্রতুল’

প্রস্তাবিত বাজেটে প্রান্তিক ও দূরবর্তী এলাকার মানুষের জন্য নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্য খাতে অপ্রতুল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে মনে করেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 June 2022, 04:45 PM
Updated : 28 June 2022, 05:35 PM

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মত দেন বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

আগামী বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) ওয়াশ খাতের বরাদ্দ বাড়লেও তা সার্বিক এডিপি বৃদ্ধির তুলনায় কম মন্তব্য করে পিপিআরসির নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. জিল্লুর বলেন, “এর ফলে ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপগুলো ধীরগতিতে বাস্তবায়িত হবে।” 

তবে নতুন বাজেটে আঞ্চলিক বৈষম্য কমানোর ক্ষেত্রে কিছু ইতিবাচক প্রবণতা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “হাওর এবং পার্বত্য এলাকায় বরাদ্দ কিছুটা বেড়েছে। তবে চর এবং উপকূলীয় এলাকায় বরাদ্দ বাড়েনি।

“এছাড়া দূরবর্তী অঞ্চলের প্রান্তিক কমিউনিটির মানুষের জন্য আসন্ন চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলায় বর্তমান বাজেটে যে বরাদ্দ রাখা হয়েছে, তা কম।”

ওয়াটারএইডের সহযোগিতায় পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেশন রিসার্চ সেন্টারের (পিপিআরসি) একটি বিশ্লেষণে দেখানো হয়েছে, সামগ্রিক এডিপি ৭.৫ শতাংশ বৃদ্ধির তুলনায় ওয়াশ এডিপি বরাদ্দ ৫.৪৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, কেবল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ওয়াশ খাতের কাঙ্ক্ষিত সাফল্য অর্জন করা সম্ভব নয়। এ খাতের উন্নয়নে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মাল্টি-এজেন্সির মাধ্যমে সামগ্রিক নীতি কৌশল গ্রহণ করা উচিত।

ওয়াটারএইড, পিপিআরসি, ফানসা-বিডি, এফএসএম নেটওয়ার্ক, বাংলাদেশ ওয়াটার ইন্টিগ্রিটি নেটওয়ার্ক (বাউইন), স্যানিটেশন অ্যান্ড ওয়াটার ফর অল, এন্ড ওয়াটার পোভার্টি, এমএইচএম প্ল্যাটফর্ম, ইউনিসেফ ও ওয়াশ অ্যালায়েন্স ইন্টারন্যাশনাল যৌথভাবে এ সংবাদ সম্মেলনে আয়োজন করে। 

এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ওয়াটারএইডের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর হোসেন ইশরাত আদিব।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক