সিআরবিতে অনুমোদনহীন স্থাপনা নির্মাণে ব্যবস্থা: সিডিএ

সিআরবিতে অনুমোদনহীন কোনো স্থাপনা নির্মাণ হলে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ- সিডিএ এর চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ ডলফিন।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 August 2021, 03:28 PM
Updated : 2 August 2021, 03:28 PM

সোমবার নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের নেতাদের সঙ্গে আলাপকালে সিডিএ চেয়ারম্যান এই কথা বলেছেন।

সিডিএ চেয়ারম্যানের বক্তব্য এমন সময় এল যখন সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ প্রকল্পের প্রস্তাবিত স্থানে গভীর নলকূপ বসানোর জন্য বোরিং এর কাজ শুরু হয়েছে।

বেসরকারি ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ কর্তৃপক্ষ প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রস্তুতিমূলক কাজ শুরু করেছে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধ ও বিট্রিশ বিরোধী আন্দোলনসহ বিভিন্ন কারণে ঐতিহাসিক স্থান পূর্ব রেলের সদর দপ্তর-সিআরবিতে বেসরকারি একটি হাসপাতাল নির্মাণের প্রতিবাদ চলছে। এর মধ্যেই সেখানে গভীর নলকূপ স্থাপনের এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।   

সোমবার সিডিএ চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠকে নাগরিক সমাজ চট্টগ্রামের চেয়ারম্যান সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেন ও সদস্য সচিব বর্ষীয়ান আইনজীবী ইব্রাহিম হোসেন বাবুল একটি লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এতে সিআরবিতে ‘বেআইনি ও অবৈধ’ কাজ বন্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হয়েছে।

এসময় সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ ডলফিন বলেন, “চট্টগ্রাম শহরে যে কোনো স্থাপনা নির্মাণে সিডিএ এর অনুমোদনের প্রয়োজন। কিন্তু সিডিএ ঘোষিত হেরিটেজ জোন সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণে রেল কর্তৃপক্ষ বা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কেউই কোনো অনুমোদন নেয়নি।

“সরকারি প্রতিষ্ঠান হোক কিংবা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান- কেউ অনুমোদনবিহীন স্থাপনা নির্মাণ করলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পাশাপাশি আমরা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিষয়টি অবশ্যই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করব।”

এরআগে ১৫ জুলাই সিডিএ এর প্রধান প্রকৌশলী জানিয়েছিলেন, মহাপরিকল্পনায় সিআরবি ‘হেরিটেজ জোন’ হিসেবে সংরক্ষিত এলাকা তাই সেখানে কোনো বাণিজ্যিক স্থাপনার অনুমতি দেবে না সিডিএ।

সিআরবি এলাকায় সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব প্রকল্পের (পিপিপি) আওতায় ৫০০ শয্যার হাসপাতাল, ১০০ আসনের মেডিকেল কলেজ ও ৫০ আসনের নার্সিং ইনস্টিটিউট করতে রেলওয়ের সঙ্গে ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ প্রাইভেট লি. চুক্তি করে গত বছরের শুরুতে।

সম্প্রতি প্রস্তাবিত প্রকল্প এলাকায় রেলওয়ে হাসপাতাল কলোনির স্টাফ কোয়ার্টার উচ্ছেদ শুরু হলে রেলের শ্রমিক কর্মচারীদের একাংশ প্রতিবাদ করে।

এরপর চট্টগ্রামে ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র শতবর্ষী বৃক্ষ শোভিত সিআরবিতে হাসপাতল প্রকল্প বাতিলের দাবিতে আন্দোলন শুরু করে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

আন্দোলন চলা অবস্থাতেই সিআরবিতে প্রকল্পের প্রস্তাবিত স্থানে গভীর নলকূপ বসানোর জন্য বোরিং এর কাজ শুরু হয়।

রোববার সিআরবি পরিদর্শন শেষে চট্টগ্রাম ওয়াসার রাজস্ব কর্মকর্তা রেলের হাসপাতাল প্রকল্পের পরিচালক বরাবরে সেখানে গভীর নলকূপ স্থাপনের জন্য অনুমতি ছাড়াই টেস্ট বোরিং এর কাজ শুরু করা হয়েছে বলে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন।

সোমবার সিডিএ চেয়ারম্যানকে দেয়া নাগরিক সমাজের অভিযোগে আরও বলা হয়, “২০০৮ সালের ২১ ডিসেম্বর সিডিএ ডিটেইল এরিয়া প্ল্যান এর প্রজ্ঞাপন হয় এবং ২০০৯ সালের ২৫ জানুয়ারি তা গেজেটভুক্ত হয়। সেই ডিটেইল এরিয়া প্ল্যানে সিআরবিকে কালচারাল হেরিটেজ ঘোষণা করা হয়।

“সুতরাং সিআরবিতে কোনো ধরণের স্থাপনা আইনত অসিদ্ধ। গেজেটের ৮ ধারা মতে সিডিএ ব্যবস্থা গ্রহণের অধিকারী। তাই সিআরবিতে যে প্রতিষ্ঠান বা কর্তৃপক্ষ নির্মাণ কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করছি।”

এ সময় নাগরিক সমাজের কো-চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান ও মুক্তিযোদ্ধা মো. ইউনুচ, যুগ্ম সদস্য সচিব মহসিন কাজী ও আবৃত্তি শিল্পী রাশেদ হাসান, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, সিডিএর প্রধান প্রকৌশলী শাহীন উল ইসলাম খান, বোর্ড সদস্য জসিম উদ্দিন শাহ্, কে বি এম শাজাহান ও এম আর আজিম উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক