• হোল্ডারের ক্যারিয়ার সেরা রেটিং ও র‍্যাঙ্কিং
    দুর্দান্ত বোলিং করে নতুন উচ্চতা স্পর্শ করেছেন জেসন হোল্ডার। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে হাতে ধরা দিয়েছে নতুন অর্জন। প্রথমবারের মতো উঠে এসেছেন আইসিসির টেস্ট বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে দুই নম্বর স্থানে। পেয়েছেন ক্যারিয়ার সেরা রেটিং পয়েন্ট।
  • ‘বন্ধু’ রোচকে তিনশর উচ্চতায় দেখছেন ওয়ালশ
    দুজনের বয়সের ব্যবধান ২৫ বছর। তবে একটা বড় মিল, দুই যুগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেস আক্রমণের কাণ্ডারি দুজন। বোলিংই কাছাকাছি এনেছে কোর্টনি ওয়ালশ ও কেমার রোচকে, গড়ে উঠেছে বন্ধুত্ব। রোচ এখন দাঁড়িয়ে ২০০ টেস্ট উইকেটের সামনে। ওয়ালশের বিশ্বাস, চোটে না পড়লে ৩০০ উইকেট পর্যন্ত অনায়াসেই যেতে পারবেন রোচ।
  • পন্টিংদের কোচ টেন্ডুলকার, ওয়ার্নদের ওয়ালশ
    অস্ট্রেলিয়ায় দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যার্থে আয়োজিত চ্যারিটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে কোচের দায়িত্বে থাকবেন শচীন টেন্ডুলকার ও কোর্টনি ওয়ালশ। রিকি পন্টিংয়ের নেতৃত্বে খেলা দলটির কোচ হবেন ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তি টেন্ডুলকার। আর শেন ওয়ার্নের দলটির দায়িত্বে থাকবেন সাবেক ক্যারিবিয়ান পেসার ওয়ালশ।
  • ওয়ালশ-লুইস যুগলবন্দীতে উইন্ডিজের জয়
    সিরিজের প্রথম ম্যাচে দলকে জিতিয়েও ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার হতাশায় পুড়তে হয়েছিল এভিন লুইসকে। শেষ ম্যাচে সেই অম্ল-মধুর স্বাদ পেতে হলো না। এবার দলকে জেতানো ইনিংস পেল সেঞ্চুরির পূর্ণতা। লেগ স্পিনার হেইডেন ওয়ালশের দারুণ বোলিং যে মঞ্চ গড়ে দিয়েছিল, সেখানে দাঁড়িয়ে লুইসের সেঞ্চুরিতে ক্যারিবিয়ানরা পেল হোয়াইটওয়াশ করার স্বাদ।
  • ওয়ালশের বীরত্ব ও কটরেলের ছক্কায় উইন্ডিজের নাটকীয় জয়
    রোমাঞ্চ ও উত্তেজনা যেন প্রতিটি বলে। শেষ ওভারের একেকটি বল মেলে ধরল নাটকীয়তার নতুন রূপ। ফুল টসে রান নেই, ইয়র্কারে সিঙ্গেল। পরপর দুই বলে রান আউট হতে হতেও না হওয়া। পঞ্চম বলে ছক্কায় সবকিছুর অবসান। নয় নম্বরে নেমে হেইডেন ওয়ালশের বীরোচিত ব্যাটিং যে মঞ্চ তৈরি করে দিয়েছিল, সেখানেই দারুণ ছক্কায় শেষাঙ্কের নায়ক শেলডন কটরেল। আইরিশদের হৃদয় ভেঙে ক্যারিবিয়ানদের জয়।
  • উইন্ডিজ নারী দলের সহকারী কোচ হলেন ওয়ালশ
    ওয়েস্ট ইন্ডিজ মহিলা ক্রিকেট দলের অন্তর্বর্তীকালীন ম্যানেজমেন্টে যোগ দিয়েছেন কোর্টনি ওয়ালশ। দলটির প্রধান কোচ গাস লগির সহকারী হিসেবে কাজ করবেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক বোলিং কোচ।
  • সিপিএল মাতিয়ে উইন্ডিজ দলে ওয়ালশ-কিং
    সিপিএলে নজর কাড়া পারফরম্যান্সের পুরস্কার দ্রুতই পেলেন হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়র ও ব্র্যান্ডন কিং। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে ডাক পেয়েছেন এই দুই ক্রিকেটার।
  • নবায়ন হচ্ছে না ওয়ালশের চুক্তি
    পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে যখন দেশে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিল বাংলাদেশ দল, ক্রিকেটারদের কাছ থেকে তখন বিদায় নিচ্ছিলেন তাদের ‘মাস্টার’। কোর্টনি ওয়ালশকে এই নামেই ডাকতেন ক্রিকেটাররা। বিশ্বকাপ দিয়েই শেষ হয়েছে বাংলাদেশের বোলিং কোচ হিসেবে এই ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তির চুক্তি।
  • সংকটের নাম নতুন বল
    বোলিং কোচের দাবি, নতুন বলে বোলিংয়ের জন্য প্রস্তুত দলের প্রথম পছন্দের তিন পেসারই। বাস্তবতা বলে, তিন জনের দুই জনেরই বিতৃষ্ণা নতুন বলে। সেই টানাপোড়েনের ছাপ পারফরম্যান্সে। নতুন চকচকে বল যখন প্রতিটি দলের জন্যই সম্ভাবনার প্রথম ধাপ, বাংলাদেশ দলে সেখানেই শুরু বোলিংয়ের মূল সংকট।
  • মাশরাফির উইকেট খরায় চিন্তিত নন ওয়ালশ
    ৬ ম্যাচে উইকেট ১টি। উইকেট শিকারের দিক থেকে এবারের বিশ্বকাপে ম্যাচের পর ম্যাচে হতাশাই প্রাপ্তি মাশরাফি বিন মুর্তজার। তবে বাংলাদেশ অধিনায়কের বোলিংয়ের ক্ষেত্রে উইকেট সংখ্যাকে খুব গুরুত্বপূর্ণ মানছেন না কোর্টনি ওয়ালশ। দলের বোলিং কোচের মতে, রান আটকানোর কাজটা বেশ ভালোভাবেই করছেন মাশরাফি।
  • ইংল্যান্ড-ভারত ম্যাচে চোখ রেখে প্রস্তুতিতে বাংলাদেশ
    হোটেলের বাইরে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশের টিম বাস। গন্তব্য এজবাস্টন। তবে ক্রিকেটারদের মন আগে থেকেই পড়ে আছে এজবাস্টনে। জনি বেয়ারস্টো আউট হয়েছে, বেন স্টোকস দারুণ খেলছে, জস বাটলার অপেক্ষায়। টিম বাসে উঠতে উঠতে এসব নিয়েই আলোচনা ক্রিকেটারদের। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগে বাংলাদেশ দলের আগ্রহের কেন্দ্রে ভারত-ইংল্যান্ড ম্যাচ। নিজেদের ভাগ্যও যে খানিকটা জড়িয়ে এই ম্যাচে।
  • ছোট মাঠে বদলে যেতে পারে বাংলাদেশের একাদশ
    কার্ডিফ-ব্রিস্টলের মাঠের চেয়ে ছোট না বড়? টনটন কাউন্টি গ্রাউন্ডে ঢুকে ক্রিকেটাররা হিসাব কষছিলেন মাঠের আকৃতির। আগের দুই ম্যাচের ভেন্যুর চেয়ে সোজা বাউন্ডারি ছোট না বড়, এটা নিয়ে মতের ভিন্নতা থাকল। তবে একটা জায়গায় সবাই একমত, স্কয়ার বাউন্ডারি দুই পাশেই বেশ ছোট। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশের ভাবনায় প্রবলভাবেই বিবেচনায় থাকবে মাঠের আকার।
  • মাশরাফিকে নিয়ে সংশয় নেই ওয়ালশের
    রানিং-স্ট্রেচিং হলো। ফিল্ডিং অনুশীলনও সেরে নিলেন। পরে আরেক দফা রানিং করলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। এরপর বোলিং সেশন। টনটনে শুক্রবার অনুশীলনে বাংলাদেশ অধিনায়কের ঘাম ঝরানো দেখলেন কোর্টনি ওয়ালশ। দেখে আসছেন গত তিন বছর ধরেই। তাকে নিয়ে তাই কোনো সংশয় নেই বাংলাদেশের বোলিং কোচের, অধিনায়কের ওপর আস্থা রাখছেন পুরোপুরি।
  • ওয়ালশের কাছে গতির চেয়ে বেশি জরুরি নিয়ন্ত্রণ
    বাংলাদেশ দল যখন টনটনে, তাদের পরবর্তী প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ খেলছে সাউথ্যাম্পটনে। শুক্রবার দুপুরে অনুশীলনের আসার আগে টিভি পর্দায় চোখ রেখেছিল দল। দেখেছেন জফরা আর্চার ও মার্ক উডের গতি কিভাবে কাঁপিয়ে দিয়েছে ক্যারিবিয়ানদের। বাংলাদেশ দলে এমন গতিময় পেসার নেই একজনও। তবে পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ বলছেন, গতি খুব জরুরি নয়।
  • সাইফ নাকি রুবেল, আভাস দিলেন ওয়ালশ
    ফিট থাকলে মাশরাফি বিন মুর্তজা ও মুস্তাফিজুর রহমান থাকছেন নিশ্চিতভাবেই। তৃতীয় পেসার কে? লড়াইয়ে আছেন মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন ও রুবেল হোসেন। বিশ্বকাপে শুরুর ম্যাচে টিম ম্যানেজমেন্টের পছন্দ কে, সেই ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।
  • সেরায় ফেরার কাছে মুস্তাফিজ, বিশ্বাস ওয়ালশের
    টুকটাক চোট এখনও হানা দেয় মাঝেমধ্যেই। পারফরম্যান্সে ওঠা-নামাও আছে। তবে মুস্তাফিজুর রহমানের এগিয়ে চলার পথটা ঠিক আছে, বলছেন কোর্টনি ওয়ালশ। বাংলাদেশের বোলিং কোচের বিশ্বাস, নিজের সেরা চেহারায় ফেরার কাছেই আছেন মুস্তাফিজ।
  • আগের উইকেটেই ম্যাচ, তাই আশায় বাংলাদেশ 
    বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে যে উইকেটে খেলেছে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা, সেই উইকেটেই রোববার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। এটিই আশা বাড়াচ্ছে বাংলাদেশ দলের। ব্যবহৃত উইকেট আরেকটু মন্থর হতে পারে, বাংলাদেশ দলের ধরনের সঙ্গে যা মানিয়ে যেতে পারে দারুণভাবে।
  • বাংলাদেশের ‘এক্স ফ্যাক্টর’ দেখা যাবে ‘সময় হলেই’
    বাংলাদেশ সম্ভবত এই বিশ্বকাপের একমাত্র দল, যাদের স্কোয়াডে তেমন কোনো ‘এক্স ফ্যাক্টর’ চোখে পড়ে না। কোর্টনি ওয়ালশ বললেন, চোখে পড়বে কিভাবে, বাংলাদেশের এক্স ফ্যাক্টর তো গোপন অস্ত্র, দেখা মিলবে কেবল সময় হলেই!
  • বিশ্রামে মাশরাফি-সাইফ, বোলিং করেছেন মুস্তাফিজ
    সতীর্থদের অনেকে যখন ব্যস্ত অনুশীলনে, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন তখন মাঠে মৃদু পায়ে হাঁটছিলেন ফিজিওর সঙ্গে। হয়তো চেষ্টা চলছিল পিঠের আড়ষ্টতা কাটানোর। বল হাতে নেননি মাশরাফি বিন মুর্তজাও। অনুশীলনের প্রায় পুরো সময়টুকুই বাংলাদেশ অধিনায়ককে দেখা গেল নির্বাচক হাবিবুল বাশার ও ম্যানেজার খালেদ মাহমুদের সঙ্গে মাঠের মাঝখানে দাঁড়িয়ে কথা বলতে। তবে স্বস্তির খবর, বোলিং করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান।
  • তাসকিনকে আশার আলো দেখালেন ওয়ালশ
    তাসকিন আহমেদের ফর্ম নিয়ে ভাবছেন না কোর্টনি ওয়ালশ। বোলিং কোচ বড় করে দেখছেন তার মাঠে ফেরাকে। ফিটনেস ইস্যুতে বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ে যাওয়া গতিময় এই পেসারকে আশার আলো দেখালেন ওয়ালশ। শিষ্যকে দিলেন ম্যাচ ফিটনেস ফিরে পাওয়ার লড়াই চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ।
  • মুস্তাফিজকে নিয়ে তাড়াহুড়া নয়: বোলিং কোচ
    সবশেষ ইংল্যান্ড সফরটা ভালো কাটেনি মুস্তাফিজুর রহমানের। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে চার ম্যাচ খেলে নিতে পেরেছিলেন মোটে একটি উইকেট। কোর্টনি ওয়ালশের বিশ্বাস, তরুণ এই পেসার চোটমুক্ত থাকতে পারলে এবারের বিশ্বকাপ দিয়ে পাল্টাবে চিত্রটা। ব্যাটিং সহায়ক উইকেটেও দেখা যাবে মুস্তাফিজ জাদু।  
  • আয়ারল্যান্ডে পেসারদের ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে খেলানোর পরামর্শ ওয়ালশের
    অলরাউন্ডারসহ বিশ্বকাপ দলের পাঁচ পেসারের তিন জনই ভুগছেন চোটে। তাই আয়ারল্যান্ডে হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজে বাড়তি সতর্কতার প্রয়োজন দেখছেন কোর্টনি ওয়ালশ। প্রধান কোচ স্টিভ রোডসকে এই ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি দিয়েছেন পেসারদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোর পরামর্শ। একই সঙ্গে বাড়তি পেসারও নিয়ে যেতে মত দিয়েছেন এই পেস বোলিং কোচ।
  • তামিম-মুশফিকদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু
    ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে ব্যস্ত জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের বড় একটা অংশ। আইপিএলে খেলার জন্য ভারতে রয়ে গেছেন সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ক্যাম্পের প্রথম দিনে ছিলেন মোটে পাঁচ জন। তামিম ইকবাল ছাড়া তাদের সবাই লড়ছেন চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরতে।
  • নিউ জিল্যান্ড সফরের দিকে তাকিয়ে ওয়ালশ
    দেশের মাটিতে স্পিন সহায়ক উইকেটে পেসারদের তেমন একটা ভূমিকা রাখার সুযোগ না থাকা নিয়ে কোনো দুর্ভাবনা নেই কোর্টনি ওয়ালশের। বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচকে ভাবাচ্ছে দেশের বাইরের টেস্ট সিরিজে পেসারদের ব্যর্থতা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই সাবেক পেসারের আশা, নিউ জিল্যান্ড সফর দিয়ে পাল্টাবে চিত্র।
  • স্পিন রাজত্বে আপত্তি নেই ওয়ালশের
    দেশের মাটিতে স্পিন দিয়ে ম্যাচ জয়ের যে কৌশলের পথে হাঁটছে বাংলাদেশ, সেটিই যেন নতুন উচ্চতা ছুঁয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে। আগের সিরিজগুলোয় তবু কিছু করার ছিল পেসারদের, এই সিরিজে তারা প্রায় ‘বেকার’। কোর্টনি ওয়ালশেরও তাই করার ছিল না তেমন কিছু। তাতে অবশ্য আপত্তি নেই বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচের। দলের জয়টাই তার কাছে আগে।
  • ‘মুস্তাফিজ স্পেশাল প্রতিভা, ওর স্কিল স্পেশাল’
    এই ভালো এই খারাপ। মুস্তাফিজুর রহমানের পথচলায় এখন এরকমই আশা-নিরাশার দোলাচল। বিস্ময় জাগানিয়া আবির্ভাবে চমকে দিয়েছিলেন ক্রিকেট বিশ্বকে। পরে তাকে বারবার থমকে দিয়েছে চোট। তবে ফিট মু্স্তাফিজ দলের কত বড় সম্পদ, সেটি আবারও মনে করিয়ে দিয়েছেন কোর্টনি ওয়ালশ। আসছে এশিয়া কাপে এই বাঁহাতি পেসারের কাছে ভালো কিছু আশা করছেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ।
  • ‘মাশরাফি তার পারফরম্যান্সকে আত্মসম্মান হিসেবে দেখে’
    অভিজ্ঞতার ওজন আছে। স্কিলেও অন্যদের তুলনায় অনেক সমৃদ্ধ। এসবের বাইরেও আছে আরও অনেক কিছু। ভালো করার তীব্র ক্ষুধা, নিজেকে ফুটিয়ে তোলার তাড়না। কোর্টনি ওয়ালশের মতে, এই সবকিছু মিলিয়েই বাংলাদেশের ক্রিকেটে অনন্য মাশরাফি বিন মুর্তজা।
  • তরুণদের সুযোগ না দিলে শিখবে কিভাবে, প্রশ্ন ওয়ালশের
    ভালো তরুণ পেসার উঠে আসছে না বলে দেশের ক্রিকেটে হাহাকার অনেক দিনের। তবে সেটির অন্য এক সুর শোনা গেল এবার পেস বোলিং কোচের কণ্ঠে। বাংলাদেশে পেস প্রতিভার অভাব দেখছেন না কোর্টনি ওয়ালশ। কমতি দেখছেন না তাদের শেখার আগ্রহেও। ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তির আক্ষেপ, তরুণদের যথেষ্ট সুযোগ না দিলে যথেষ্ট ভালো তারা কি করে হবে!
  • ঘরের মাঠেও সবুজ উইকেট আশা করছেন ওয়ালশ
    অ্যান্টিগা থেকে জ্যামাইকা, বাংলাদেশ দলের জন্য বাস্তবতা একই। ক্যারিবিয়ার আরেকটি দ্বীপ। কিন্তু কোর্টনি ওয়ালশের জন্য এটি ঘরে ফেরা। এখানেই তার জন্ম, এই আলো-বাতাসে বেড়ে ওঠা। জ্যামাইকার হয়ে খেলেই ওয়েস্ট ইন্ডিজে সুযোগ পাওয়া আর বিশ্ব ক্রিকেট মাতানো। ঘরে ফেরার আনন্দ আছে ওয়ালশের। আছে আশাও। অ্যান্টিগার মতো জ্যামাইকায়ও থাকবে সবুজ উইকেট। বোলিং কোচের বিশ্বাস, তার দেশে ভালো করবে তার দল বাংলাদেশ।
  • হারের ভয় দূরে ঠেলে সিরিজ জয়ের আশা
    বনের বাঘে খাওয়ার আগে মনের বাঘে খাবে না তো? আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের আগে বাংলাদেশের এই শঙ্কার কারণ আছে যথেষ্টই। আফগানদের কাছে হারলে সমালোচনার যত তীর ছুটে আসবে, এই ভয়ই হয়ে উঠতে পারে হারের কারণ। সেটি অস্বীকারও করছেন না বাংলাদেশের ভারপ্রপ্ত কোচ ও সহ-অধিনায়ক। তবে সেই ভয়কে উড়িয়ে তারা জিততে চান সিরিজ।
  • আফগানিস্তান সিরিজেও প্রধান কোচ ওয়ালশ
    প্রধান কোচ না পেলে আফগানিস্তান সিরিজেও দায়িত্বে থাকবেন কোর্টনি ওয়ালশ, আগেই জানিয়েছিল বিসিবি। প্রস্তুতি ক্যাম্পে প্রধান কোচ হিসেবেই কাজ করেছেন তিনি। রোববার দুপুরে সিরিজ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনেও ছিলেন। ওই সংবাদ সম্মেলনের খানিক আগে আনুষ্ঠানিক ঘোষণাও দিল বিসিবি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজেও বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত প্রধান কোচ ওয়ালশ।
  • আফগানদের ভাবনায় কাতর নন ওয়ালশ
    র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের ওপরে আফগানিস্তান। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটটা তারা খেলেও দারুণ। দলে আছে একাই ম্যাচ জেতানোর মতো বেশ কজন ব্যাটসম্যান ও বোলার। আসছে সিরিজে বাংলাদেশের অপেক্ষায় তাই কঠিন চ্যালেঞ্জ। তবে প্রতিপক্ষের শক্তিমত্তা ভাবনায় ডুবে নেই কোর্টনি ওয়ালশ। বাংলাদশের ভারপ্রাপ্ত প্রধান কোচের চাওয়া, নিজেদের সেরাটা দিয়ে খেলা।
  • মুস্তাফিজের জ্বলে ওঠার অপেক্ষায় ওয়ালশ
    শুরুটা খারাপ হয়নি। তবে পরের দুই ম্যাচেই মুস্তাফিজুর রহমানের পারফরম্যান্স ছুঁতে পারেনি প্রত্যাশাকে। তবে বাঁহাতি পেসারের সামর্থ্যটা জানেন বলেই আশাভরে তাকিয়ে কোর্টনি ওয়ালশ। বাংলাদেশ কোচের বিশ্বাস, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেই প্রত্যাশা আর প্রাপ্তিকে এক বিন্দুতে মেলাতে পারবেন মুস্তাফিজ।
  • সাকিবকে নিয়ে সংশয় দেখছেন না কোচ
    আগের রাতে ম্যাচ খেলায় বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ দলের অনুশীলন নেই। সকালটা তাই ছিল অনেকটাই ম্যাড়মেড়ে। বিসিবির একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি হঠাৎই যেন ছড়িয়ে দিল উত্তেজনার দাবানল। বাংলাদেশ দলে যোগ দিচ্ছেন সাকিব আল হাসান! জমা হতে থাকল প্রশ্নের ভিড়ও। তবে প্রশ্নগুলো উড়িয়ে দিলেন বাংলাদেশের অন্তবর্তীকালীন কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।
  • ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশ আন্ডারডগ: ওয়ালশ
    দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কা বরাবরই শক্তিশালী দল। বিরাট কোহলি, মহেন্দ্র সিং ধোনিদের বিশ্রাম দেওয়ার পরও ভারত যথেষ্ট শক্তিশালী। ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজের দলকেই পিছিয়ে রাখছেন কোর্টনি ওয়ালশ। ভারপ্রাপ্ত কোচের কাছে টুর্নামেন্টে আন্ডারডগ বাংলাদেশ।
  • রাতারাতি সাকিবের অভাব পূরণ করা কঠিন: ওয়ালশ
    সাকিব আল হাসানকে ছাড়া কিভাবে খেলবে দল, সেটির একটি ছক কষে ফেলেছেন কোর্টনি ওয়ালশ। সেটি অবশ্য নিয়ে খুব বেশি মুখ খুলতে চান না বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত কোচ। তবে সাকিবের মত একজনের অভাব পূরণ করা যে কতটা কঠিন, সেটি ভালোই অনুভব করছেন কোচ।
  • ভারপ্রাপ্ত কোচের চাওয়া ধারাবাহিকতা
    দায়িত্ব পেয়েছেন কঠিন সময়ে। চ্যালেঞ্জটাকে তবু সাদরেই বরণ করে নিচ্ছেন কোর্টনি ওয়ালশ। চ্যালেঞ্জ জয়ে বাংলাদেশ দলের কাছে অন্তবর্তীকালীন কোচের চাওয়া ধারাবাহিকতা ধরে রাখা।
  • কোচ ওয়ালশের অনুপ্রেরণা অধিনায়ক ওয়ালশ
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবার কোনো সিরিজে যখন নেতৃত্বের স্বাদ পেয়েছিলেন কোর্টনি ওয়ালশ, সেটি ছিল অন্তবর্তীকালীন দায়িত্ব। প্রথমবার আন্তর্জাতিক দলের প্রধান কোচও হলেন অন্তবর্তী দায়িত্বে। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের দায়িত্বে হয়েছিলেন সফল। কোচ হিসেবেও হাঁটতে চান সেই সাফল্যের পথে।
  • ক্রিকেটারদের কাছে ‘পিতৃসুলভ’ হতে চান ওয়ালশ
    “ছেলেদের সঙ্গে আমি কাজ করব কোচ হিসেবে। একই সঙ্গে হব পিতৃসুলভ ও মেন্টর”-বাংলাদেশের বোলিং কোচের দায়িত্ব নিয়ে ২০১৬ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ঠিক এই কথাগুলি বলেছিলেন কোর্টনি ওয়ালশ। সময়ের পরিক্রমায় এখন তিনি বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত প্রধান কোচ। নতুন দায়িত্ব নেওয়ার পর ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তির কণ্ঠে শোনা গেল সেই শুরুর দিনের কথাগুলোই। পিতৃসুলভ নির্ভরতায় ক্রিকেটারদের করে তুলতে চান আত্মবিশ্বাসী।
  • শ্রীলঙ্কা সফরে বাংলাদেশের প্রধান কোচ ওয়ালশ
    দেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজে টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের মোড়কে প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করেছিলেন খালেদ মাহমুদ। এবার এ দায়িত্ব দেওয়া হলো আনুষ্ঠানিকভাবেই। শ্রীলঙ্কায় ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত প্রধান কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।
  • ধারাবাহিকতায় জোর ওয়ালশের
    দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পর দেশের মাটিতেও ব্যর্থ বাংলাদেশের পেসাররা। শ্রীলঙ্কায় ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে তাই তাদের নিয়ে বিশেষ অনুশীলন ক্যাম্পে ব্যস্ত কোর্টনি ওয়ালশ। শিষ্যদের স্কিল নিয়ে নিবিড় কাজ শুরু করেছেন বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ।
  • বোলিং কোচের দায় দেখছেন না রুবেল
    টেস্ট সিরিজে পারফরম্যান্স ছিল বাজে। ওয়ানডে সিরিজেও যাচ্ছেতাই। বাংলাদেশের বোলারদের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা সফরটি এখনও পর্যন্ত বিভীষিকা। সেই ব্যর্থতার দায়ভার বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশকে দিচ্ছেন না রুবেল হোসেন। নিচ্ছেন নিজেদের কাঁধেই।
  • ‘ওয়ালশের কাছ থেকে শিখতে না পারলে আমাদের ব্যর্থতা’
    বোলিং করে চলেছেন তাসকিন আহমেদ, আম্পায়ার কোর্টনি ওয়ালশ। তবে চার-ছয় বা উইকেটের সিদ্ধান্ত দিতে নয়, দাঁড়িয়ে তিনি বোলারদের দেখভাল করতে। একটি-দুটি বল পরপরই যেমন তাসকিনকে বলছিলেন নানা কিছু। বিশ্রামের সময়টাতেও ছাতার নিচে ওয়ালশের পাশে তাসকিন। কথা চলছিল দুজনের।
  • 'আমরা চাই তাসকিন জোরে বল করুক'
    বাংলাদেশের ক্রিকেটে তাসকিন আহমেদের আবির্ভাব গতির ঝড় তুলে। তবে গত কিছুদিনে সেই গতির স্রোতে যেন একটু ভাটার টান। আবারও সেই গতিময় তাসকিনকে ফিরিয়ে আনতে চান কোর্টনি ওয়ালশ। সঙ্গে চান আরও ধারাবাহিক করে তুলতে।
  • ‘মুস্তাফিজের অ্যাকশন বদলানো হবে না’
    শ্রীলঙ্কায় শেষ ম্যাচে ৪ উইকেট। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজেও বোলিং হলো বেশ ভালো। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভীষণ বিবর্ণ মুস্তাফিজুর রহমান। সমস্যা কোথায় ছিল? কোর্টনি ওয়ালশ সেটি ঠিকই ধরতে পেরেছেন। এখন কাজ করছেন সেটি নিয়েই।
  • চম্পকাকে খোলা মনে স্বাগত জানাবেন ওয়ালশ
    আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এখনও দেওয়া হয়নি। তবে চম্পকা রামানায়েকে আবার বাংলাদেশে ফিরছেন, এটা নিশ্চিতই। কোর্টনি ওয়ালশ এটিকে কিভাবে দেখছেন? বাংলাদেশ বোলিং কোচের উত্তরটি নিশ্চিত করবে সংশয়বাদীদের, নির্ভার করবে সবাইকে।
  • ওয়ালশের বিরক্তি, ওয়ালশের আশা
    অমুকের অ্যাকশন বদলে ফেলা হয়েছে, তমুকের কমে গেছে ধার। বাংলাদেশের পেস বোলারদের কার্যকারিতাও আগের মত নেই। চারপাশে এসব কথার অতিবর্ষণে বিরক্ত কোর্টনি ওয়ালশ। বাংলাদেশ বোলিং কোচের কথা, আলাদা করে কাজ করার সময়ই তো মেলেনি আগে! সময় মিলেছে এখন, ওয়ালশ সেটিই কাজে লাগাতে চান।
  • ‘বন্ধুসুলভ’ ওয়ালশের কাছ থেকে শিখছেন রাব্বি
    মুস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে সেশন নিয়মিত চলছে। কোর্টনি ওয়ালশের ক্লাসে যোগ হয়েছেন ফিটনেস ক্যাম্পে থাকা অন্য পেসাররাও। ফিটনেস ট্রেনিংয়ের পর প্রতিদিন নিয়ম করে চলছে বোলিং অনুশীলন। ছাত্রদের একজন, কামরুল ইসলাম রাব্বি মুগ্ধ কিংবদন্তি পেসারের বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণে।
  • ওয়ালশের ক্লাসে মুস্তাফিজ
    সকালের রানিং আর জিম সেশন তখন শেষ। ফিটনেস ক্যাম্পে থাকা ক্রিকেটারদের কেউ কেউ তখন বিশ্রাম নিচ্ছেন। কেউ বা আরেকটু সময় কাটাচ্ছেন জিমে। একাডেমি মাঠে নিজের মত করে ব্যাটিং-বোলিং করছেন কেউ কেউ। একমাত্র একজনই কেবল তখন আলাদা। মুস্তাফিজুর রহমান ছিলেন ইনডোরের পাশের নেটে। তার সঙ্গে কোর্টনি ওয়ালশ।
  • শিষ্যদের ওয়ালশের তাগিদ
    নিউ জিল্যান্ডের কন্ডিশনে কিভাবে বোলিং করতে হবে সেটা শিখতে শিখতেই সফর শেষ হয়ে গেল। ভারতে তো ছিলই কেবল এক টেস্ট। শ্রীলঙ্কায় এরই মধ্যে শেষ হয়ে গেছে এক টেস্ট, পরের ম্যাচে ভালো করতে শিষ্যদের দ্রুত মানিয়ে নেওয়ার তাগিদ দিয়েছেন কোর্টনি ওয়ালশ।
  • ‘অধিনায়কের স্বপ্নের বোলার তাসকিন’
    প্রস্তুতি ম্যাচে পুরোপুরি বিশ্রামে তাসকিন আহমেদ। প্রথম দিন তো মাঠেই আসেননি। দ্বিতীয় দিন অবশ্য পানি-তোয়ালে নিয়ে বেশ কবার মাঠে ঢুকলেন। প্রতিবারই মাঠের সীমানা কাঁটাতার ঘেঁষে দাঁড়ানো দর্শক চিৎকার করেছে ‘তাসকিন…তাসকিন’ বলে। বোঝা গেল, তাসকিনের গতির জোয়ার আছড়ে পড়েছে এই হায়দরাবাদেও।
  • সেই ভারতেই ওয়ালশের ভিন্ন চ্যালেঞ্জ
    ড্রেসিং রুমের সামনেই মাঠে দাঁড়ানো কোর্টনি ওয়ালশ। তাকে ঘিরে দাঁড়িয়ে শফিউল ইসলাম, আবু জায়েদ ও শুভাশীষ রায়। প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের তিন পেসার বেশ মনোযোগ দিয়ে শুনলেন ওয়ালশের কথা। তার পর মাঠে গিয়ে অকাতরে বিলিয়ে দিলেন; নিজেদের নয়, বিলিয়ে দিলেন রান। তাতে শুভাশীষ ছিলেন দারুণ, বাকি দুজনই নিদারুণ!
  • ‘৫০ শতাংশ সামর্থ্য দিয়ে বল করছে মুস্তাফিজ’
    ইংল্যান্ড সিরিজে পেসাররা তেমন কিছু করার সুযোগই পাননি। নিউ জিল্যান্ডে পরের সিরিজে তাদেরই রাখতে হবে বড় ভূমিকা। সেখানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারেন মুস্তাফিজুর রহমান। তবে চোট থেকে সেরে ওঠার পথে থাকা এই তরুণকে নিয়ে সাবধানী বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।
  • পেসারদের নিয়ে হতাশ নন ওয়ালশ
    যে উইকেটে বেন স্টোকস দারুণ রিভার্স সুইংয়ে কাঁপিয়ে দিলেন স্বাগতিকদের সেখানে ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের খুব একটা পরীক্ষা নিতে পারলেন না শফিউল ইসলাম ও কামরুল ইসলাম রাব্বি। তবে দুই পেসারের প্রচেষ্টায় খুশি বাংলাদেশের বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। 
  • সাকিবের আউটের ধরনে হতাশ ওয়ালশ
    প্রত্যাশা ছিল আকাশচুম্বী। কিন্তু সেই আশার বেলুন ফুটো হয়ে গেল সাতসকালেই। দিনের দ্বিতীয় বলেই বিস্ময় জাগানিয়া এক শটে আউট সাকিব আল হাসান। দলের অন্যতম অভিজ্ঞ ক্রিকেটার ওভাবে আউট হওয়ায় হতাশ বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ।
  • মাশরাফি-রুবেলদের ওয়ালশ-দর্শন
    পরিচয় পর্ব, টুকটাক কথা আর খানিকটা দেখা। জাতীয় দলের বোলিং কোচ হিসেবে এই ছিল কোর্টনি ওয়ালশের প্রথম দিন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই কিংবদন্তি চেষ্টা করেছেন নতুন ছাত্রদের সম্পর্কে ধারণা নিতে।
  • ‘লারাকে বলেছিলাম, আমি আজ আউট হচ্ছি না’
    ৫ বলে অপরাজিত শূন্য রান। উইকেটে ১৪ মিনিটের স্থায়ীত্ব; ৯ রানের জুটি। তবে সেই ইনিংসই কিন্তু কোর্টনি ওয়ালশের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে আলোচিত ব্যাটিং কীর্তি! ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা ইনিংস খেলা ব্রায়ান লারাকে দিয়েছিলেন সঙ্গ; শেষ জুটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে এনে দিয়েছিলেন অসাধারণ এক জয়। পেছন ফিরে তাকিয়ে ওয়ালশ বলছেন, তিনি জানতেন, সেদিন আউট হবেন না!
  • বাংলাদেশের উন্নতির অংশ হতে চান ওয়ালশ
    এতদিন দূর থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নতি দেখেছেন। এবার সেই অগ্রগতির অংশ হতে চান কোর্টনি ওয়ালশ।
  • ধারাবাহিকতা-পরিশ্রমে ওয়ালশের দৃষ্টি
    গতির সঙ্গে আপোস না করেও লম্বা সময় ধরে বল করে যাওয়ায় জুড়ি ছিল না কোর্টনি ওয়ালশের। নতুন শিষ্যদেরও গড়ে তুলতে চান সেভাবে। তাই শারীরিক ও মানসিকভাবে কঠোর পরিশ্রমের জন্য তৈরি থাকতে বলেছেন বাংলাদেশের বোলারদের।
  • ‘আরেকটি অ্যামব্রোস বাংলাদেশে পেলে খুশি হব’
    যতটা না কোচ, কোর্টনি ওয়ালশ তার চেয়ে বেশি হতে চান ‘মেন্টর’। মাশরাফি-তাসকিনদের আগলে রাখতে চান পিতৃসুলভ নির্ভরতায়। কার্টলি অ্যামব্রোসের সঙ্গে তার জুটির মতোই দারুণ কিছু উপহার দিতে চান বাংলাদেশ দলকে।
  • ওয়ালশের স্বপ্ন পূরণ
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন প্রায় দেড় যুগ। অর্জনে সমৃদ্ধ ক্যারিয়ার। নিশ্চয়ই সত্যি হয়ে ধরা দিয়েছে অনেক স্বপ্ন। খেলোয়াড়ী জীবন শেষে তবু নতুন একটি স্বপ্ন ছিল কোর্টনি ওয়ালশের। কোনো আন্তর্জাতিক দলকে কোচিং করানো। বাংলাদেশের বোলিং কোচের প্রস্তাব পাওয়ার পর তাই খুব বেশি ভাবতে হয়নি কিংবদন্তি ফাস্ট বোলারকে।
  • বাংলাদেশকে আপন করে নিতে চান ওয়ালশ
    সংস্কৃতি পুরো ভিন্ন; জীবনযাত্রার ধরন উল্টো। ক্যারিবিয়ান থেকে বাংলাদেশে এসে কতটা মানিয়ে নিতে পারবেন কোর্টনি ওয়ালশ - সংশয়টা অনেকেরই আছে। তবে ওয়ালশের নিজের এ নিয়ে ভাবনা আছে সামান্যই। বাংলাদেশকে আপন করে নিতে চান জাতীয় দলের নতুন বোলিং কোচ।
  • ঢাকায় এসেছেন ওয়ালশ
    বাংলাদেশ জাতীয় দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব নিতে শনিবার রাতে ঢাকায় এসেছেন কোর্টনি ওয়ালশ। রাত সোয়া নয়টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পা রাখেন ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি।
  • শনিবার আসছেন ওয়ালশ
    বাংলাদেশ জাতীয় দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব নিতে শনিবার রাতে ঢাকায় পা রাখছেন কোর্টনি ওয়ালশ।
  • ‘ওয়ালশের আসা হতে পারে বাংলাদেশের ক্রিকেটের টার্নিং পয়েন্ট’
    ক্রিকেট ক্যারিয়ারে তিনি কিংবদন্তি; কিন্তু কোচিং ক্যারিয়ারের কেবলই শুরু। বোলিং কোচ হিসেবে কেমন হবেন কোর্টনি ওয়ালশ? কতটা শিখতে পারবে বাংলাদেশের পেসাররা? কতটা উপকৃত হবে বাংলাদেশের ক্রিকেট? নতুন বোলিং কোচকে নিয়ে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সঙ্গে কথা বললেন দুই প্রজন্মের দুই পেসার মাশরাফি বিন মুর্তজা ও তাসকিন আহমেদ।
  • বাংলাদেশের দায়িত্ব নিয়ে রোমাঞ্চিত ওয়ালশ
    ক্রিকেটার হিসেবে তিনি সব সময়ের সেরাদের একজন; কিন্তু কোচিংয়ে প্রায় নবীন। দায়িত্ব নিচ্ছেন উন্নতির পথে থাকা একটি দলের। সব মিলিয়ে বাংলাদেশের বোলিং কোচের দায়িত্ব নিয়ে দারুণ রোমাঞ্চিত কোর্টনি ওয়ালশ।
  • মাশরাফিদের বোলিং কোচ ওয়ালশ
    নতুন বোলিং কোচ কে?- গত মাস দুয়েক বাংলাদেশের ক্রিকেট আঙিনায় সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত প্রশ্ন সম্ভবত এটিই। সংবাদ সম্মেলনগুলোয় এটি ছিল নিয়মিত প্রসঙ্গ। বিসিবি কর্তারাও রহস্য করে আসছিলেন বরাবর। তবে গত কিছু দিনে অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল এর উত্তর। বাকি ছিল আনুষ্ঠানিক ঘোষণার। সেটিও হলে গেল। বাংলাদেশ জাতীয় দলের নতুন বোলিং কোচ ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি কোর্টনি ওয়ালশ।