অবসরের সিদ্ধান্ত বোর্ড ও মাশরাফির ব্যাপার: কোচ

মাশরাফির বিন মুর্তজার অবসর প্রশ্নে নিজেকে জড়াতে চান না স্টিভ রোডস। বল হাতে বাংলাদেশ অধিনায়কের পারফরম্যান্স হতাশার, সেটি মানছেন বাংলাদেশ কোচ। তবে জানালেন, অধিনায়কের চেষ্টার কোনো কমতি তিনি দেখেননি।

ক্রীড়া প্রতিবেদক বার্মিংহাম থেকেবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 July 2019, 09:02 PM
Updated : 2 July 2019, 09:02 PM

বিশ্বকাপে এবার শুরু থেকেই হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে ভুগেছেন মাশরাফি। মাঠে নেমে জয় করতে পারেননি সেই বাধা। টুর্নামেন্ট জুড়ে ছিলেন না চেনা চেহারায়। বোলিংয়ে ছিল না ধার। ৭ ম্যাচে উইকেট নিয়েছেন কেবল একটি। ধারাবাহিক লাইন-লেংথ বরাবরই ছিল তার বড় শক্তি, এই টুর্নামেন্টে দেখা যায়নি সেটাও।

ভারতের বিপক্ষে হেরে বাংলাদেশের সেমি-ফাইনালের আশা শেষ হওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন উঠল মাশরাফির পারফরম্যান্স নিয়ে। আলোচনা হলো সম্ভাব্য অবসর নিয়েও। কোচ সরাসরি কিছু বললেন না, তবে ইঙ্গিতে পাশেই দাঁড়ালেন অধিনায়কের।

“গত সপ্তাহ দুয়েক ধরেই এটি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে, সেই প্রশ্নের উত্তর আসলে মাশরাফি ও বোর্ড দিতে পারবে। আমি উত্তর দিতে পারছি না। তবে আমাদের এটাও মনে রাখতে হবে, আমাদের এমন বোলার লাগবে, যে ম্যাশের বিকল্প হওয়ার মতো সামর্থ্য রাখে। কারও এই দিকটি মনে থাকে না।”

“আমাদের তো লম্বা, গতিময় বোলার খুব বেশি নেই। টেস্ট ম্যাচের জন্য আমরা তেমন বোলার খুঁজছি। তাদের খুঁজে পেলে এবং তারা ভালো করলে, অবশ্যই দলে নেব। তবে ম্যাশের অবসরের প্রশ্নের উত্তর আমার জন্য কঠিন। আমি এটায় জড়াতে চাই না।”

কোচ অবশ্য জানালেন, নিজের পারফরম্যান্সে মাশরাফির নিজেরও হতাশার কমতি নেই। তবে প্রশংসা করলেন দুই পায়ে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট নিয়েও চেষ্টা করে যাওয়ায়।

“ম্যাশ নিজের পারফরম্যান্সে গর্ব খুঁজে নেয়। এবারের পারফরম্যান্সে পেছন ফিরে তাকিয়ে তার মনে হবে, নিশ্চয়ই আরও ভালো হতে পারত! তবে এটা বলার পাশাপাশি মনে রাখতে হবে, সে টুর্নামেন্ট জুড়ে চেষ্টা করে গেছে। ম্যাশের একটি ব্যাপার হলো সে প্রতিটি বলে চেষ্টা করে। অন্য কোনো পথ তার জানা নেই।”

“সাতটি অস্ত্রোপচারের পরও দুইশর বেশি ওয়ানডের অসাধারণ ক্যারিয়ার তার। ক্যারিয়ারে কখনোই সে চেষ্টা করা থামায়নি, এটা বলতে পারি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক