• বাংলাদেশকে গুঁড়িয়ে মাস সেরার লড়াইয়ে হার্মার-মহারাজ
    দেশের মাটিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার সবশেষ টেস্ট সিরিজ জয়ে বড় অবদান ছিল কেশভ মহারাজ ও সাইমন হার্মারের। সফরকারীদের ব্যাটিং গুঁড়িয়ে এই দুই স্পিনার মিলে সিরিজে নেন ২৯ উইকেট। দারুণ সেই পারফরম্যান্সে  ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দা মান্থ’-এর সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন তারা। এপ্রিলের সেরা হওয়ার লড়াইয়ে তাদের সঙ্গে আছেন ওমানের ওপেনার জাতিন্দার সিং।
  • ডারবানে হার্মারের স্পিনে বিপাকে বাংলাদেশ
    দুই প্রান্তে দুই স্পিনার বোলিং করছেন। ব্যাটসম্যানের আশেপাশে ক‍্যাচের অপেক্ষায় কিপারসহ সাত ফিল্ডার। এই চিত্র দেখা গেল দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে, সেটাও কেবল টেস্টের দ্বিতীয় দিনে। এতেই পরিষ্কার, বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের জন্য মূল চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে স্বাগতিক স্পিনারদের সামলানো। চার উইকেট নিয়ে সাইমন হার্মার বুঝিয়ে দিয়েছেন, কাজটা সহজ হবে না।
  • ৬ বছর পর দ.আফ্রিকা দলে হার্মার
    দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে টেস্ট ক্যারিয়ারের শুরুটা ছিল সম্ভাবনাময়। কিন্তু কঠিন বাস্তবতা সাইমন হার্মারকে ঠেলে দিয়েছিল দেশের বাইরে। পরে কলপ্যাক চুক্তি করে কাউন্টি ক্রিকেটে পাড়ি জমিয়ে স্বপ্ন দেখেন ইংল্যান্ডের হয়ে ক্যারিয়ার গড়ার। কিন্তু পটপরিবর্তনে সেই স্বপ্নও যায় হারিয়ে। শেষ পর্যন্ত তাকে ফিরতে হলো শেকড়ের কাছেই। জন্মভূমির হয়েই ৬ বছর পর আবার আন্তর্জাতিক আঙিনায় ফেরার পথে এই অফ স্পিনার।