• মিঠুন-রেজাউরকে দ. আফ্রিকা সফরে নেওয়া ‘ভালো লাগেনি’ সালাউদ্দিনের
    গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স ছেড়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে এবার প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের কোচের দায়িত্বে মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে মিলে বেশ আগে থেকেই চেষ্টা করেছেন দল গুছিয়ে নেওয়ার। কিন্তু লিগ শুরুর আগে এই ক্লাবেরই এখন একাদশ দাঁড় করানো কঠিন। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের বাংলাদেশ স্কোয়াডে এই ক্লাব থেকে আছেন ছয় ক্রিকেটার। সঙ্গে আরও দুজনকে বাড়তি নেওয়া হয়েছে এই ক্লাব থেকেই। ঘরোয়া ক্রিকেটে সফল এই কোচ তাই বেশ হতাশাই প্রকাশ করলেন।
  • মাহমুদুলকে সামলাতে হবে ‘চাপ ও অর্থের ঝনঝনানি’
    পারফরম্যান্সের সঙ্গে আসে খ্যাতি। বাংলাদেশের মতো ক্রিকেট পাগল দেশে সেই খ্যাতি স্পর্শ করে আকাশ। খ্যাতি যখন বাড়তে থাকে, জোয়ার বইতে থাকে তখন অর্থকড়ির। সেই স্রোতে ক্রিকেটই হারিয়ে যায় অনেক সময়! মাহমুদুল হাসান জয়ের সামনেও এখন এসব চ্যালেঞ্জ দেখছেন মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কোচের মতে, চারপাশের চাপ ও অর্থের হাতছানিতে নিজেকে ধরে রাখতে পারলেই তরুণ এই ব্যাটসম্যানের অপেক্ষায় উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ।
  • সাকিবের গুরুর দুর্ভাবনা যখন ‘সাকিবের মাথা’
    ২২ গজের লড়াই যতটা ব্যাট-বলের, ততটাই মস্তিষ্কের। কৌশলের সেই খেলা শুরু হয়ে যায় মাঠের লড়াইয়ের বেশ আগে থেকেই, চলতে থাকে ম্যাচ জুড়ে। এখানেই সাকিব আল হাসানকে সবচেয়ে বেশি সমীহ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের। সাকিবকে খুব ভালো করে চেনেন বলেই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কোচ জানেন, বিপিএল ফাইনালের মূল লড়াইটা হবে সাকিবের ক্ষুরধার মস্তিষ্কের সঙ্গে।
  • সহজাত ক্রিকেটে ওয়ানডে রাঙাতে চান মাহমুদুল
    টেস্টের পর আরেক সংস্করণে দেশের প্রতিনিধিত্ব করার হাতছানি। স্বাভাবিকভাবেই মাহমুদুল হাসান জয় ভাসছেন খুশির জোয়ারে। তবে ভালো করেই জানেন, এটা কেবল প্রথম ধাপ। লড়াই করেই জায়গা করে নিতে হবে। সেখানে মুখোমুখি হতে হবে রশিদ খান, মোহাম্মদ নবি, মুজিব উর রহমানদের উঁচুমানের স্পিনের। যুব বিশ্বকাপজয়ী মাহমুদুল বললেন, সহজাত ক্রিকেট দিয়েই উতরাতে চান কঠিন এই পরীক্ষায়।
  • ‘আরও উঁচুতে উঠতে পারে লিটন’
    শ্বেতশুভ্র পোশাকে এখন ডানা মেলে উড়ে চলেছেন লিটন কুমার দাস। টেস্ট ক্রিকেটের আকাশে উড়ন্ত এই লিটনকে দেখে মুগ্ধ স্টিভ রোডস। পাশাপাশি একটু আক্ষেপও তার আছে। লিটনের যে থাকার কথা এখন আরও উঁচুতে!
  • সালাউদ্দিন ও নিজের ভূমিকা খোলাসা করলেন রোডস
    একজন ক্রিকেটারদের কোচ, আরেকজন ক্রিকেটারদের পাশাপাশি কোচদেরও সহায়ক। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে মোহাম্মদ সালাউদ্দিন ও স্টিভ রোডসের ভূমিকা আপাতত এরকমই। এখানে দুজনের দায়িত্ব ও ব্যক্তিত্বের সংঘাতের কোনো সুযোগ দেখেন না রোডস।
  • কুমিল্লায় রোডসকে পেয়ে রোমাঞ্চিত সালাউদ্দিন
    মাত্র এক বছরের দায়িত্বেই বাংলাদেশের ক্রিকেটে চোখে পড়ার মতো ছাপ রাখতে পেরেছিলেন স্টিভ রোডস। কিন্তু এখান থেকে সুখকর হয়নি তার বিদায়। বাংলাদেশ ছেড়ে যাওয়ার পর অনেকটা আড়ালেই চলে যান তিনি। সেই রোডসকে আবার সোমবার দেখা গেল মিরপুর একাডেমি মাঠে। সদাহাস্য এই ইংলিশ কোচ আবার মাঠে ফিরলেন বাংলাদেশের ক্রিকেট দিয়েই।
  • ট্রফির লড়াই: খুলনার অভিজ্ঞতা আর চট্টগ্রামের ধারাবাহিকতা
    অভিজ্ঞতার ভেলায় যাত্রা শুরু করেছিল খুলনা। কয়েকবার টালমাটাল হয়ে অভিজ্ঞ মাঝিদের সৌজন্যেই দল এখন তীরের খুব কাছে। শেষ ধাপে তাদের অপেক্ষায় কঠিন চ্যালেঞ্জ। পেছনে ফেলতে হবে শুরু থেকে মসৃণ গতিতে ছুটে চলা চট্টগ্রামকে। অপেক্ষা তাই রোমাঞ্চকর ও জমজমাট শেষ লড়াইয়ের।
  • ‘মিঠুনের মাথা খুবই ভালো’
    অধিনায়ক হিসেবে মোহাম্মদ মিঠুনের কার্যকারিতা নিয়ে সংশয়ের অবকাশ ছিল টুর্নামেন্ট শুরুর আগে। একটু চুপচাপ স্বভাবের তিনি, নেতাসুলভ মনোভাব ও কতৃত্ব আগে দেখা গেছে কমই। সেই মিঠুনই বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ট্রফি ছোঁয়া থেকে কেবল এক ম্যাচ দূরে এখন। তাদের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের মতে, যোগ্য হিসেবেই সাফল্যের দাবিদার মিঠুন।
  • কোচদের পারিশ্রমিকে ‘লজ্জিত’ সালাউদ্দিন
    বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে দলগুলির কোচদের পারিশ্রমিক নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানালেন গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। দেশের কোচদের আরও মূল্যায়ন করার অনুরোধ করলেন দেশের সেরা কোচদের একজন।
  • করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সালাউদ্দিন
    করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সাবেক তারকা ফুটবলার এবং বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।
  • সালাউদ্দিনের ক্লাসে তামিমের ফ্লিক শট ঝালাই
    সপ্তাহের পর সপ্তাহ অনুশীলনে নিজের অজান্তেই অনেক সময় গড়বড় হয়ে যায় টেকনিকের অনেক জায়গায়। সেসব ধরার জন্য তামিম ইকবাল নেটে আমন্ত্রণ জানালেন তার ‘মেন্টর’ ও ঘরোয়া ক্রিকেটের সফল কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনকে। গলদ খানিকটা ধরাও পড়ল। সেটি শোধরানো নিয়েই চলল দুজনের কসরত।
  • বই লেখা, অনলাইন পরামর্শ, ভিডিও দেখায় সময় কাটছে ক্রিকেট কোচদের
    ‘এই জীবন যে কবে শেষ হবে, আর ভালো লাগছে না’, ক্রিকেটবিহীন সময়ে এভাবেই হাঁপিয়ে উঠেছেন মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। বাস্তবতার কাছে তবু অসহায় সবাই। করোনাভাইরাসের প্রকোপের এই অস্থির সময়ে নিজের ভেতরের অস্থিরতা দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছেন দেশের অন্যতম সফল এই কোচ। এগিয়ে রাখছেন কোচিং নিয়ে নিজের লেখা বই শেষ করার কাজ।
  • বিপিএলের সূচি নিয়ে প্রশ্ন সালাউদ্দিন-মালানের
    বিপিএলের সূচি নিয়ে এবার শুরু থেকেই চাপা বিরক্তি ছিল অনেকের। বিপিএল যখন হাঁটছে শেষের পথে, বিরক্তিও প্রকাশ্য হতে শুরু করেছে। ঢাকা প্লাটুন কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন যেমন বলছেন, সূচি আরও গোছানো হওয়া উচিত ছিল। কুমিল্লা অধিনায়ক দাভিদ মালানের চোখে এই সূচি অদ্ভুতুড়ে।
  • ‘দলের চাওয়াই পূরণ করছে তামিম’
    ধারাবাহিকতা যথেষ্ট ভালো। গড় দুর্দান্ত। কিন্তু একটু ভ্রু কুঁচকে যেতে পারে তামিম ইকবালের স্ট্রাইক রেট দেখে। খুব খারাপ নয়, তবে এই যুগের টি-টোয়েন্টির সঙ্গে কতটা মানানসই, সেই প্রশ্ন উঠতেই পারে। তবে মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের প্রশ্ন নেই। ঢাকা প্লাটুন কোচ বরং এই অভিজ্ঞ ওপেনারের ওপর খুশি দলের দায়িত্ব ঠিকভাবে পালন করতে পারায়।
  • ‘দেশি কোচকে মনের কথা বলা সহজ’
    কোচের সঙ্গে যোগাযোগের দিক থেকে বাকি দলগুলোর চেয়ে নিজেদের একটু এগিয়ে রাখছেন এনামুল হক। কারণ, একমাত্র ঢাকা প্লাটুন দলেই আছেন স্থানীয় কোচ। মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের সঙ্গে যে কোনো সময়ে মনের কথা খুলে বলতে পারেন দলের সবাই।
  • ‘শুভকে নেওয়ার পুরো কৃতিত্ব তামিমের’
    ফাইনালে ওঠার ম্যাচে ১৫ বলে অপরাজিত ৩৪ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস। আরও কয়েকটি ম্যাচে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। এবারের বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সাফল্যে উল্লেখযোগ্য অবদান শামসুর রহমানের। অথচ এই ব্যাটসম্যানকে দলে নিতেই চাননি কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। অকপটে তা স্বীকার করে শামসুরকে দলে নেওয়ার কৃতিত্ব কোচ পুরোটাই দিলেন তামিম ইকবালকে।
  • বিপিএল শিরোপার মঞ্চে দুই দেশি কোচ
    দেশি কোচের ওপর আস্থা রেখেছিল দুটি দল। বিদেশি কোচদের ভিড়ে এবারের বিপিএলের ফাইনালে উঠেছে সেই দুই দলই। দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম সফল কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ফাইনালে লড়বে খালেদ মাহমুদের ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে।
  • ‘স্নিকো, আলট্রা এজ আনতে অনেক টাকা লাগে’
    রিভিউ পদ্ধতি রাখা হয়েছে, কিন্তু স্নিকোমিটার কিংবা আলট্রা এজ নেই। অদ্ভুত এই ডিআরএস (ডিসিশান রিভিউ সিস্টেম) দেখা যাচ্ছে এবার বিপিএলে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন জানালেন, স্নিকোমিটার যে থাকবে না, এটি আগেই জানানো হয়েছিল দলগুলিকে। কারণ এটি রাখতে খরচ হবে বেশি।
  • গুরুর ছোঁয়ায় শাণিত মুমিনুল
    বিপিএল শেষে যখন ছুটি কাটাচ্ছিলেন ক্রিকেটারদের অনেকে, মুমিনুল হক চলে গিয়েছিলেন বিকেএসপিতে। ভাবনায় ছিল সামনের টেস্ট সিরিজ। মনে অস্বস্তির কাঁটা স্পিনে ভোগান্তি। ক্রিকেটে যে কোনো সমস্যায় সবার আগে তার মনে পড়ে ‘মেন্টর’ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের কথা। বিকেএসপিতে গিয়ে কোচের সঙ্গে কাজ করলেন ‘ফুটওয়ার্ক’ নিয়ে। উন্নতির ছাপ দেখালেন বিসিএলে। বাড়ল আত্মবিশ্বাস। সেটির প্রতিফলনই পড়ল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনে।