• কোহলি নাকি স্মিথ, লাবুশেন জানালেন পছন্দ
    আইসিসি র‍্যাঙ্কিং বলছে, সময়ের সেরা দুই টেস্ট ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি ও স্টিভেন স্মিথ। দক্ষতা-সামর্থ্য বা সামগ্রিক ব্যাটসম্যানশীপে যদিও দুজনের মধ্যে পার্থক্য করা কঠিন। তবে টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে এই দুজনের ঠিক পরেই যিনি, সেই মার্নাস লাবুশেন এগিয়ে রাখলেন স্মিথকেই।
  • নিজের আয়নায় লাবুশেনের জীবন বদলে যাওয়া বছর
    স্বপ্নের মতো কাটানো একটি বছরে বদলে গেছে জীবন। পায়ের নিচে মাটি শক্ত করার লড়াইয়ে জিতে উঠে এসেছেন পাদপ্রদীপের আলোয়। কেমন ছিল এই পথ চলা? মুগ্ধতা ছড়ানো সময়টার দিকে ফিরে তাকালেন মার্নাস লাবুশেন। নিজের আয়নায় অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান দেখে নিলেন ২০১৯ সালকে।   
  • দক্ষিণ আফ্রিকায় হোয়াইটওয়াশড অস্ট্রেলিয়া
    অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ব্যাটিংয়ে একাই লড়লেন মার্নাস লাবুশেন। তার দারুণ সেঞ্চুরির পরও দল পেল না বড় পুঁজি। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে লক্ষ্যটা নাগালে রাখলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বোলাররা। বাকি কাজটা সহজেই সারলেন ব্যাটসম্যানরা। ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করে ছাড়ল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • পনেরো মিনিটেই লাবুশেনকে চিনেছিলেন টেন্ডুলকার
    নিজে ক্রিকেটের সব সময়ের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন। উইকেট দেখেই বলে দিতে পারতেন কেমন আচরণ করবে। ক্রিকেট-রত্ন চিনতেও ভুল হয় না। খানিকটা খেলা দেখে অনুমান করে নিতে পারেন সামর্থ্য। তেমনটাই হয়েছে অ্যাশেজ সিরিজে। মিনিট পনেরোর মতো খেলা দেখেই মার্নাস লাবুশেনের প্রতিভা বুঝতে পেরেছিলেন ব্যাটিং কিংবদন্তি শচিন টেন্ডুলকার।
  • লাবুশেনের সামনে শুধু কোহলি-স্মিথ
    গত বছরের শুরুতে ছিলেন ১১০তম স্থানে। এক বছর পর এখন তার সামনে শুধু বিরাট কোহলি আর সতীর্থ স্টিভ স্মিথ। অতিমানবীয় ফর্ম আর বিস্ময়কর উত্থানের ধারাবাহিকতায় টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে চলেছেন মার্নাস লাবুশেন। সেরা দশ, সেরা পাঁচের ধাপ পেরিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান জায়গা করে নিয়েছেন সেরা তিনে।
  • ওয়ার্নারের সেঞ্চুরির পর নিউ জিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিলেন লায়ন
    তাসমান পারের দুই দেশের লড়াই জমল না মোটেও। ব্যাটে-বলে নিজেদের মেলে ধরে প্রতিবেশী নিউ জিল্যান্ডকে উড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া। ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরির পর পাঁচ উইকেট নিয়ে চার দিনেই সিডনি টেস্টে স্বাগতিকদের জয় এনে দিলেন ন্যাথান লায়ন।
  • লাবুশেনের ডাবল সেঞ্চুরির পর ল্যাথাম-ব্লান্ডেলের দৃঢ়তা
    ব্যাট হাতে দুর্দান্ত সময় কাটানো মার্নাস লাবুশেন খেললেন ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। তরুণ এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিতে সিডনি টেস্টে বড় সংগ্রহ গড়েছে অস্ট্রেলিয়া। কোনো ক্ষতি ছাড়ায় দিনের শেষ সেশন কাটিয়ে দিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের দুই ওপেনার টম ল্যাথাম ও টম ব্লান্ডেল।
  • লাবুশেনের সেঞ্চুরিতে আরও চাপে এলোমেলো নিউ জিল্যান্ড
    অসুস্থতা আর চোটের থাবায় টালমাটাল নিউ জিল্যান্ডকে আরও চাপে ফেলে দিয়েছেন মার্নাস লাবুশেন। তরুণ এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিতে সিডনি টেস্টে বড় সংগ্রহের পথে আছে অস্ট্রেলিয়া।
  • টেস্ট রাঙিয়ে এবার ওয়ানডেতে লাবুশেন
    টেস্ট ক্রিকেটে সময়ের সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটারদের একজন তিনি। সাদা পোশাকে বিস্ময়কর উত্থানের গল্প রচনা করে এবার রঙিন পোশাক রাঙাতে আসছেন মার্নাস লাবুশেন। ২৫ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান জায়গা করে নিয়েছেন ভারত সফরের অস্ট্রেলিয়া দলে।
  • ১২ টেস্ট খেলেই সেরা পাঁচে লাবুশেন
    বছরের শুরুতে ছিলেন ১১০তম স্থানে। অ্যাশেজে স্টিভ স্মিথের বদলি হিসেবে সুযোগ পাওয়ার পর থেকেই মার্নাস লাবুশেন আছেন অতিমানবীয় ফর্মে। প্রথমবারের মতো সেরা দশে ঢুকেছিলেন এ মাসের শুরুতে। বিস্ময়কর উত্থানের ধারাবাহিকতায় অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান এবার জায়গা করে নিয়েছেন সেরা পাঁচে।
  • লাবুশেনের ব্যাটে রানের ফোয়ারা
    থিতু হয়ে ফিরে গেছেন ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথ। পার্থ টেস্টে দলকে টানছেন দারুণ ছন্দে থাকা মার্নাস লাবুশেন। তরুণ এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের টানা তৃতীয় সেঞ্চুরিতে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে বড় সংগ্রহের পথে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
  • ওয়ার্নার-লাবুশেনের রেকর্ড জুটি, প্রথম দিনেই কোণঠাসা পাকিস্তান
    ম্যাচ তখনও শুরু হয়নি; অ্যাডিলেডের আকাশ থেকে ঝরছে ঝিরিঝিরি বৃষ্টি। এরপরও দিবা-রাত্রির টেস্টে টস জিতে ব্যাটিং বেছে নিলেন টিম পেইন। অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কের সিদ্ধান্ত শুরুতে হোঁচট খেলেও শেষ পর্যন্ত তা যথার্থ প্রমাণ করেছেন ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্নাস লাবুশেন। বৃষ্টিবিঘ্নিত দিনে দুজনে দারুণভাবে সামলেছেন পাকিস্তানের বোলিং। দুজনেই তুলে নিয়েছেন টানা সেঞ্চুরি, গড়েছেন দিবা-রাত্রির টেস্টে জুটির রেকর্ড। তাতে প্রথম দিনেই কোণঠাসা হয়ে পড়েছে পাকিস্তান।
  • লাবুশেনের লড়াইয়ে তিনশর কাছে অস্ট্রেলিয়ার লিড
    পেসারদের অসাধারণ পারফরম্যান্স নিশ্চিত করেছিল প্রথম ইনিংসে বড় লিড। ব্যাটিংয়ে মার্নাস লাবুশেনের লড়াইয়ে সেই লিড আরও বাড়িয়ে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ইনিংসের মতোই ব্যাটিং বিপর্যয়ে ত্রাতা হয়ে দলকে টেনেছেন লাবুশেন।
  • স্টোকসের সেঞ্চুরি ও লাবুশেন চমকের পর ম্যাচ ড্র
    প্রায় দুটি দিন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পর ড্র ছিল ম্যাচের সবচেয়ে অনুমিত ফল। হয়েছে সেটিই। তবে তার আগে লড়াই হলো জমজমাট। দেখা গেল পারফরম্যান্সের দ্যুতি। বেন স্টোকসের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ড পেল ইনিংস ঘোষণার সুযোগ। অস্ট্রেলিয়ার সামনে তখন ম্যাচ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ। শুরুতে হোঁচট খেলেও অস্ট্রেলিয়াকে উদ্ধার করলেন ‘কনকাশন’ বদলি হিসেবে খেলতে নামার ইতিহাস গড়া মার্নাস লাবুশেন।