জোড়া সেঞ্চুরিতে সেমির আগে ভারতের বড় জয়

জোড়া সেঞ্চুরিতে সেমির আগে ভারতের বড় জয়

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের সেঞ্চুরির পরও পুঁজি খুব একটা বড় ছিল না শ্রীলঙ্কার। মাঝারি সংগ্রহ নিয়ে দলটিকে লড়াইও করতে দেয়নি ভারত। রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুলের সেঞ্চুরিতে সেমি-ফাইনালের আগে অনায়াস জয় পেয়েছে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। 

শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে ভারতের রেকর্ড জয়

শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে ভারতের রেকর্ড জয়

নতুন চেহারার ভারতের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি শ্রীলঙ্কা। লোকেশ রাহুলের ফিফটি, মহেন্দ্র সিং ধোনি ও মনিশ পান্ডের টর্নেডো ইনিংসে বিশাল সংগ্রহ গড়া ভারত পেয়েছে রেকর্ড গড়া জয়।

দ্বিতীয় ইনিংসে যেন অন্য ভারত

দ্বিতীয় ইনিংসে যেন অন্য ভারত

কন্ডিশন বদলে গেল, উইকেটের আচরণেও আমূল বদল। তাতে বদলে গেল ভারতের ব্যাটিংও। প্রথম ইনিংসে ধুঁকতে থাকা ব্যাটিং করা ভারত দ্বিতীয় ইনিংসে রান তুলল ওয়ানডের গতিতে। তাতে অনেকটাই উড়ে গেল হারের শঙ্কা।

ধাওয়ানের শতকের পর ঘুরে দাঁড়াল শ্রীলঙ্কা

ধাওয়ানের শতকের পর ঘুরে দাঁড়াল শ্রীলঙ্কা

উদ্বোধনী জুটিতে ছিল ভারতের রানের পাহাড় গড়ার আভাস। তবে পাল্লেকেলে টেস্টে শেষ দুই সেশনে ঘুরে দাঁড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা।

পঞ্চাশে পুজারার শতক, সঙ্গী রাহানেও

পঞ্চাশে পুজারার শতক, সঙ্গী রাহানেও

এই মাঠে এমনিতেই তার দারুণ এক স্মৃতি আছে। দলে জায়গা হারানোর পর দুবছর আগের অগাস্টে এই মাঠেই ফিরে ওপেনার হিসেবে খেলেছিলেন ম্যাচ জেতানো ১৪৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। সেই মাঠেই চেতেশ্বর পুজারা স্পর্শ করলেন ৫০ টেস্টের মাইলফলক, উপলক্ষটাকে স্মরণীয় করে রাখলেন দারুণ সেঞ্চুরিতে।

ফেরার আগেই ছিটকে গেলেন রাহুল

ফেরার আগেই ছিটকে গেলেন রাহুল

কাঁধের চোট কাটিয়ে ফেরার কথা ছিল এই ম্যাচ দিয়েই। কিন্তু ফেরার দুয়ার থেকে আবার ছিটকে গেলেন লোকেশ রাহুলে। ভাইরাস জ্বরের কারণে ভারতীয় ওপেনার খেলতে পারবেন না শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে।

লায়নের রেকর্ড বোলিংয়ে বেঙ্গালুরুতেও বিধ্বস্ত ভারত

লায়নের রেকর্ড বোলিংয়ে বেঙ্গালুরুতেও বিধ্বস্ত ভারত

পুনের স্পিন স্বর্গে আড়াই দিনেই উড়ে যাওয়া ভারত বেঙ্গালুরুতেও বিধ্বস্ত হলো প্রথম ইনিংসে। শুরুতে গতিতে কাঁপন ধরালেন মিচেল স্টার্ক ও জস হেইজেলউড। তবে ঘরের মাঠে ভারতকে আবারও ধসিয়ে দেওয়ার মূল নায়ক নাথান লায়ন। এই অফস্পিনারের রেকর্ড বোলিংয়ে প্রথম দিনেই এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া।

ভারতের দিনে রাহুলের ১ রানের হতাশা

ভারতের দিনে রাহুলের ১ রানের হতাশা

অফ স্টাম্পের অনেক বাইরে ঝুলিয়ে দেওয়া বল। লোকেশ রাহুল বুঝি ভাবলেন, দারুণ সুযোগ। ব্যাট বাড়িয়ে বেশ চেষ্টা করে তবেই ছোঁয়াতে পারলেন বলে; কিন্তু সহজ ক্যাচ কাভার পয়েন্টে! আদিল রশিদের নিরীহ অস্ত্রেই ‘খুন’ মাইফলকের আশা। রাহুল হাঁটু মুড়ে বসে রইলেন ক্রিজেই। ড্রেসিং রুম থেকে অবিশ্বাস নিয়ে তাকিয়ে কোহলি-অশ্বিনরা। নামের পাশে ১৯৯, কিন্তু ১ রান করতে না পারার হতাশাই তখন বেশি!