• রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতে সিরিজ পাকিস্তানের
    বারবার দিক পাল্টানো ম্যাচের শেষটায় ব্যবধান গড়ে দিলেন মোহাম্মদ নওয়াজ। দুই ছক্কায় পাকিস্তানকে নিয়ে গেলেন জয়ের বন্দরে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজও জিতল বাবর আজমের দল।
  • বাবরের সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের রেকর্ড গড়া জয়
    ওয়ানডে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে ওঠার দিনে টি-টোয়েন্টিতে ঝড় তুললেন বাবর আজম। করলেন দুর্দান্ত সেঞ্চুরি। কার্যকর ইনিংস খেললেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। তাদের ব্যাটে রেকর্ড গড়া জয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে এগিয়ে গেল পাকিস্তান।
  • পাকিস্তানকে উড়িয়ে সমতায় দ. আফ্রিকা
    নতুন বলে সুর বেঁধে দিলেন জর্জ লিন্ডে। সেই সুরের দোলায় মেতে উঠলেন সতীর্থ বোলাররাও। তাদের সামনে লড়াই করলেন কেবল বাবর আজম। পাকিস্তানকে অল্প রানে গুটিয়ে বাকি কাজ সারলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানরা। অনায়াস জয়ে সিরিজে সমতা ফেরাল স্বাগতিকরা।
  • রিজওয়ানের ব্যাটে পাকিস্তানের রেকর্ড গড়া জয়
    শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আস্থার সঙ্গে খেললেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। এই কিপার ব্যাটসম্যানের দারুণ ফিফটিতে কঠিন চ্যালেঞ্জ পাড়ি দিল পাকিস্তান। রেকর্ড গড়া জয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে এগিয়ে গেল বাবর আজমের দল।
  • বাবর-ফখরের ব্যাটে সিরিজ জিতল পাকিস্তান
    টানা দ্বিতীয় ম্যাচে সেঞ্চুরি করলেন ফখর জামান। দৃঢ় ভিতের উপর দাঁড়িয়ে শেষটায় ঝড় তুললেন বাবর আজম। সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে পাকিস্তান পেল বড় সংগ্রহ। নিয়মিত খেলোয়াড়দের অনেককে ছাড়া খেলতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকা দারুণ লড়াই করলেও শেষরক্ষা করতে পারল না। বোলারদের মিলিত চেষ্টায় সিরিজ জিতে নিল পাকিস্তান।
  • সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল পাকিস্তান
    ৩০ বলে প্রয়োজন ৩০ রান, হাতে পাঁচ উইকেট, ক্রিজে দুই থিতু ব্যাটসম্যান। এমন সমীকরণের ম্যাচ গড়ালো শেষ বল পর্যন্ত, ছড়াল রোমাঞ্চ। বাবর আজমের সেঞ্চুরি ও ইমাম-উল হকের ফিফটিতে গড়া দৃঢ় ভিতে দাঁড়িয়েও সহজ ম্যাচ কঠিন করে জিতল পাকিস্তান।
  • হতাশার সফর শেষ বিব্রতকর হারে
    পুরো সফরের সারমর্ম যেন উঠে এলো শেষ ম্যাচে। ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে নিউ জিল্যান্ড মাতল রান উৎসবে। সঙ্গে থাকল বাংলাদেশের সুযোগ হাতছাড়ার মিছিল। পরে বড় রান তাড়ায় ব্যাটিংয়ে ভোগান্তি। ভুলে যাওয়ার মতো একটি সফর শেষ হলো বিব্রতকর এক হার দিয়ে।
  • নিউ জিল্যান্ডে হারের চক্রেই বাংলাদেশ
    ফিনিশিং একদমই ভালো হলো না। না বোলিংয়ে, না ব্যাটিংয়ে। মাঝে একটু ঝলক দেখালেন সৌম্য সরকার। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের ঝড়ো ফিফটিতে কিছুটা সময় ছড়াল উত্তেজনা। তবে জয়-পরাজয়ের হিসেবে তা খুব একটা প্রভাব ফেলতে পারল না। বাংলাদেশও পারল না ব্যর্থতার চক্র থেকে বের হতে। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিও অনায়াসে জিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত করল নিউ জিল্যান্ড।
  • কারানের বীরত্বেও পারল না ইংল্যান্ড
    লক্ষ্য থেকে দল ১৬২ রান দূরে থাকতে আট নম্বরে নেমে স্যাম কারান লড়াই করলেন শেষ পর্যন্ত। রেকর্ড ইনিংসের পথে আশা জাগালেন জয়ের। কিন্তু হার এড়াতে পারল না ইংল্যান্ড। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতে সিরিজ ঘরে তুলল ভারত।
  • বেয়ারস্টো-স্টোকসের নৈপুণ্যে রেকর্ড রান তাড়া করল ইংল্যান্ড
    প্রথম ওয়ানডেতে আশা জাগিয়েও সেঞ্চুরি পাননি জনি বেয়ারস্টো। দলও পেয়েছিল হারের তেতো স্বাদ। এবার আর কোনো হতাশা নয়। তার দারুণ সেঞ্চুরি, সঙ্গে বেন স্টোকসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ভারতের বিপক্ষে রেকর্ড রান তাড়া করে সিরিজে সমতা এনেছে ইংল্যান্ড।
  • বড় হারে ‘হোয়াইটওয়াশড’ বাংলাদেশ
    ভালো শুরুর পর বোলিংয়ে থাকল না ধারাবাহিকতা। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ভোগালো ফিল্ডিং। বড় রান তাড়ায় প্রায় সবাই ছুড়ে এলেন উইকেট। তিন বিভাগেই ব্যর্থ বাংলাদেশ হারল বড় ব্যবধানে।
  • কনওয়ে-মিচেলের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের সামনে বড় লক্ষ্য
    শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ভুগিয়েছে ফিল্ডিং। হাতছাড়া হয়েছে ক্যাচ আর রান আউটের অনেক সুযোগ। তবুও রুবেল হোসেন ও তাসকিন আহমেদের হাত ধরে শুরুটা ভালো হয়েছিল। কিন্তু সেটা ধরে রাখা যায়নি। সুযোগ দুই হাতে কাজে লাগিয়েছেন ডেভন কনওয়ে ও ড্যারিল মিচেল। তাদের দুর্দান্ত দুই সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশকে বড় লক্ষ্য দিয়েছে নিউ জিল্যান্ড।
  • রেকর্ড গড়ে ভারতের সিরিজ জয়
    ম্যাচটা এক অর্থে পরিণত হয়েছিল ‘ফাইনালে’। যেখানে ব্যাট হাতে ঝড় তুললেন রোহিত শর্মা। সঙ্গে বিরাট কোহলির কার্যকর ইনিংসে ভারত পেল রেকর্ড সংগ্রহ। রান তাড়ায় জস বাটলার ও দাভিদ মালানের ব্যাটে অনেকটা সময় ইংল্যান্ড লড়াই চালিয়ে গেলেও শেষ পর্যন্ত বড় জয়েই সিরিজ মুঠোয় ভরেছে স্বাগতিকরা।
  • জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করল আফগানিস্তান
    সিরিজের শেষ ম্যাচের গল্পটাও প্রায় একইরকম; আফগানিস্তানের বড় ইনিংসের জবাবে ব্যাট হাতে ব্যর্থ জিম্বাবুয়ে। ওভারপ্রতি ৯-এর বেশি রান তাড়ায় প্রতিপক্ষকে সেভাবে কখনোই চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেনি তারা। নাজিবউল্লাহ জাদরানের ঝড়ো ইনিংসের পর বোলারদের নৈপুণ্যে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করল আসগর আফগানের দল।
  • নিউ জিল্যান্ডের কাছে পাত্তাই পেল না বাংলাদেশ
    ছোট মাঠ, উইকেটও ব্যাটসম্যানদের জন্য নয় ভয়ঙ্কর কিছু। কিন্তু বাংলাদেশের ব্যাটিং তো আত্মঘাতী, এই দলকে রক্ষা করবে কে! রান প্রসবা মাঠেই রানের জন্য হাপিত্যেশ করলেন ব্যাটসম্যানরা। বোলিংও তথৈবচ। সব মিলিয়ে নিউ জিল্যান্ডের সামনে দাঁড়াতেই পারল না বাংলাদেশ।
  • নবির অলরাউন্ড নৈপুণ্যে সিরিজ আফগানিস্তানের
    বিস্ফোরক ইনিংস খেলার পর বল হাতেও আলো ছড়ালেন মোহাম্মদ নবি। তার অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আরেকটি অনায়াস জয় পেল আফগানিস্তান। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিশ্চিত করল আসগর আফগানের দল।
  • রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতে সমতায় ভারত
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবার ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ ফিফটি করলেন সূর্যকুমার যাদব। ক্যামিও ইনিংস উপহার দিলেন শ্রেয়াস আইয়ার। পরে বোলিংয়ে নিজেদের মেলে ধরলেন ভুবনেশ্বর কুমার, হার্দিক পান্ডিয়ারা। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সমতায় ফিরল ভারত।
  • কিষান-কোহলির সামনে দাঁড়াতেই পারল না ইংল্যান্ড
    বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে অভিষেক রাঙালেন ইশান কিষান। ঝড় তুললেন বিরাট কোহলিও। দুই জনের ব্যাটে ইংল্যান্ডের লড়াকু পুঁজি মামুলি বানিয়ে ফেলল ভারত।
  • উইলিয়ামস-টিরিপানোর হৃদয় ভেঙে রশিদের হাসি
    ব্যাট হাতে দারুণ দৃঢ়তায় শেষ দিনেও দলকে টানছিলেন শন উইলিয়ামস। বড় লক্ষ্যের স্বপ্নটা ক্রমে আরও বড় হচ্ছিল ফলো অনে পড়া জিম্বাবুয়ের। দুর্দান্ত বোলিংয়ে যা হতে দেননি রশিদ খান। ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে মোটেও বেগ পেতে হয়নি আফগানদের।
  • উইলিয়ামস-টিরিপানোর অসাধারণ প্রতিরোধে শেষ দিনে ম্যাচ
    চা-বিরতির সময় যা ছিল অভাবনীয়, দিন শেষে সবই বাস্তব। জিম্বাবুয়ের লিড, ইনিংস পরাজয় এড়ানো, পঞ্চম দিনে ম্যাচ...! রশিদ খানের দুর্দান্ত বোলিং আফগানিস্তানকে নিয়ে গিয়েছিল ইনিংস ব্যবধানে জয়ের দুয়ারে। কিন্তু শন উইলিয়ামসের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি ও ডোনাল্ড টিরিপানোর সঙ্গে অসাধারণ জুটিতে জিম্বাবুয়ে ম্যাচ নিয়ে গেল শেষ দিনে।
  • আর্চার-উডদের বোলিংয়ে ঘায়েল ভারত
    দুর্দান্ত বোলিংয়ে সুর বেঁধে দিলেন জফ্রা আর্চার। নিখুঁত লাইন, লেংথে বোলিং করে সঙ্গত করলেন মার্ক উড। তাদের সামনে লড়াই করতে পারলেন কেবল শ্রেয়াস আইয়ার। তার ফিফটির পরও কম রানেই থেমে গেল ভারতের ইনিংস। বাকিটা সহজেই সারলেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। অনায়াস জয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল ওয়েন মর্গ্যানের দল।
  • রশিদ-হামজার নৈপুণ্যে ফলো অনে জিম্বাবুয়ে
    উদ্বোধনী জুটিতে দলকে ভালো শুরু এনে দেন প্রিন্স মাসভাউরে ও কেভিন কাসুজা। বিপর্যয়ে দলের হাল ধরে আশি ছাড়ানো ইনিংস খেলেন সিকান্দার রাজা। কিন্তু তাতেও ফলো অন এড়াতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। রশিদ খান, আমির হামজাদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে বড় ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেছে দলটি।
  • হোপের সেঞ্চুরিতে উইন্ডিজের অনায়াস জয়
    ভালো শুরুর পর পথ হারিয়ে আড়াইশর আগেই থমকে গেল শ্রীলঙ্কা। মাঝারি পুঁজি নিয়ে তেমন লড়াইও করতে পারল না তারা। দায়িত্বশীল সেঞ্চুরিতে ব্যবধান গড়ে দিলেন শেই হোপ। সহজ জয়ে আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগে পয়েন্টের খাতা খুলল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • আসগরের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে আফগানিস্তান
    প্রথম টেস্টে বাজে হারের হতাশা ভুলে দলকে পথ দেখালেন আসগর আফগান। টেস্টে আফগানিস্তান অধিনায়ক করলেন নিজের প্রথম সেঞ্চুরি। তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়ে তিন অঙ্ক ছোঁয়ার কাছে হাশমতউল্লাহ শাহিদি। দুই জনের অবিচ্ছিন্ন দেড়শ ছাড়ানো জুটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বড় সংগ্রহের পথে আফগানিস্তান।
  • আকসার-অশ্বিনের স্পিনে তিন দিনেই জিতে ফাইনালে ভারত
    তৃতীয় দিনের উইকেটে উড়ছে ধুলা, বল করছে টার্ন। স্পিনবান্ধব উইকেটের সুবিধা দারুণভাবে কাজে লাগালেন আকসার প্যাটেল ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন। দুর্দান্ত বোলিংয়ে গুঁড়িয়ে দিলেন ইংল্যান্ডকে। তিন দিনেই সফরকারীদের হারিয়ে সিরিজ জিতে নিল ভারত। সঙ্গে জায়গা করে নিল আইসিসির টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে।
  • পান্তের অসাধারণ সেঞ্চুরিতে ভারতের লিড
    দলের প্রয়োজনে ব্যাট হাতে আবারও আলো ছড়ালেন রিশাভ পান্ত। ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে করলেন দারুণ এক সেঞ্চুরি। কার্যকর ইনিংস খেললেন ওয়াশিংটন সুন্দর। তাদের সৌজন্যে বড় লিডের পথে ভারত।
  • ফিঞ্চ আর বোলারদের নৈপুণ্যে সমতায় অস্ট্রেলিয়া
    দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে দলকে পথ দেখালেন অ্যারন ফিঞ্চ। টানা দুই ম্যাচে করলেন ফিফটি। দলকে এনে দিলেন লড়াইয়ে পুঁজি। মিলিত চেষ্টায় বাকিটা সারলেন বোলাররা। নিউ জিল্যান্ডকে আবারও হারিয়ে সিরিজে সমতা আনল অস্ট্রেলিয়া।
  • স্পিনারদের দাপটে দুইশ পেরিয়েই শেষ ইংল্যান্ড
    সিরিজের তৃতীয় টেস্টের পর চতুর্থ ম্যাচেও প্রথম দিনেই অলআউট হলো ইংল্যান্ড। দারুণ বোলিংয়ে আকসার প্যাটেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিন আবারও ভোগালেন ব্যাটসম্যানদের। বেন স্টোকস, ড্যান লরেন্সদের লড়াইয়ের পরও দুইশ পেরিয়েই থেমে গেল সফরকারীদের ইনিংস। 
  • ম্যাক্সওয়েল ঝড়ের পর অ্যাগারের ৬ উইকেট
    দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার পর যেন বেরিয়ে এলো সেরাটা। শুরুতে পথ দেখালেন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। শেষে তাণ্ডব চালালেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। অস্ট্রেলিয়া পেল বড় সংগ্রহ। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে নিউ জিল্যান্ডকে দেড়শ রানের আগে থামিয়ে দিলেন অ্যাশটন অ্যাগার। রেকর্ড গড়া জয়ে সিরিজে টিকে থাকল ফিঞ্চের দল।
  • আফগানদের গুঁড়িয়ে জিম্বাবুয়ের লিড
    নতুন বলে প্রতিপক্ষকে কাঁপিয়ে দিলেন ব্লেসিং মুজারাবানি। দারুণ সঙ্গ দিলেন ভিক্টর নাউচি। দুজনের তোপে আফগানিস্তান গুটিয়ে গেছে দেড়শর নিচে। পরে অধিনায়ক শন উইলিয়ামসের ব্যাটে জিম্বাবুয়ে পেয়েছে লিড।
  • স্পিন স্বর্গে ২ দিনেই ইংল্যান্ডকে হারাল ভারত
    দ্বিতীয় দিনের উইকেটে টিকে থাকাই যেন দায়। অনিয়মিত স্পিনার জো রুটের বল হয়ে উঠল ভয়ঙ্কর। সেখানে আকসার প্যাটেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে তো সামলাতেই পারলেন না ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। তাদের স্পিনে দুই দিনেই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আহমেদাবাদ টেস্ট জিতে নিল ভারত।
  • আকসারের ৬ উইকেটের পর লিডের পথে ভারত
    উইকেটে উড়ছে বালি, প্রথম দিন থেকেই বল ঘুরছে বেশ। উইকেটে থাকা সুবিধা দারুণভাবে কাজে লাগালেন আকসার প্যাটেল। দুর্দান্ত বোলিংয়ে এই স্পিনার গুঁড়িয়ে দিলেন ইংল্যান্ডকে। প্রতিপক্ষকে দুই সেশনের মধ্যে গুটিয়ে দিয়ে ভারত হাঁটছে লিডের পথে।
  • কনওয়ে ও বোলারদের দাপটে নিউ জিল্যান্ডের অনায়াস জয়
    শেষ বলে প্রয়োজন ২। তুমুল আগ্রহ নিয়ে দর্শকরা অপেক্ষায়। পারলেন না ডেভন কনওয়ে। মাত্র ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে ফিরলেন তিনি। নিউ জিল্যান্ড ইনিংসের শেষ দিকে যে উত্তেজনা এর ছিটেফোঁটাও ছিল না অস্ট্রেলিয়া ইনিংসের শেষ দিকে। দারুণ বোলিংয়ে অনেক আগেই যে ম্যাচ মুঠোয় পুরে ফেলেছে স্বাগতিকরা। 
  • রেকর্ড গড়ে ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে সমতায় ভারত
    জয়ের ভিত গড়া হয়েছিল আগের দিনই। এরপর খুব একটা লড়াই করতে পারল না ইংল্যান্ড। চেন্নাইয়ের স্পিন সহায়ক উইকেটের সুবিধা দারুণভাবে কাজে লাগিয়ে সফরকারীদের ব্যাটিং লাইন-আপে ধস নামালেন অভিষিক্ত আকসার প্যাটেল। রেকর্ড ব্যবধানে জিতে সিরিজে সমতা আনল ভারত।
  • অশ্বিনের সেঞ্চুরি, জয়ের পথে ভারত
    শেষ ব্যাটসম্যান যখন ক্রিজে আসলেন তখনও সেঞ্চুরি থেকে ২৩ রানে দূরে রবিচন্দ্রন অশ্বিন। স্পিনারদের জন্য প্রবল সহায়তা আছে এমন উইকেটে সতীর্থকে দারুণ সঙ্গ দিলেন মোহাম্মদ সিরাজ। অন্য প্রান্তে বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে অশ্বিন পৌঁছে গেলেন তিন অঙ্কে। পরে দ্রুত ইংল্যান্ডের ৩ উইকেট তুলে নিয়ে জয়ের পথে আরেকটু এগিয়ে গেল ভারত।
  • মিলার ঝড় ছাপিয়ে নায়ক হাসান
    বিস্ফোরক এক ইনিংসে দলকে পথ দেখালেন ডেভিড মিলার। কিন্তু তবুও পারল না দক্ষিণ আফ্রিকা। বোলিংয়ে ভালো করার পর ব্যাটিংয়েও অবদান রাখলেন হাসান আলি। তার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে জিতে সিরিজ ঘরে তুলল পাকিস্তান।
  • অশ্বিনের ৫ উইকেট, বড় লক্ষ্য দেওয়ার পথে ভারত
    ১৫ উইকেট পতনের দিনে আলো ছড়ালেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। উইকেটে থাকা সুবিধা দারুণভাবে কাজে লাগালেন এই অফ স্পিনার। ইংল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিয়ে দলকে এনে দিলেন বড় লিড। দ্বিতীয় টেস্টে সফরকারীদের বড় লক্ষ্য দেওয়ার পথে ভারত।
  • রোহিতের দাপুটে সেঞ্চুরি, কোহলি শূন্য
    করোনাভাইরাসের প্রকোপে দীর্ঘ দিন পর ভারতের মাঠে ফিরেছে দর্শক। দিনটি মাঠে আসা সমর্থকদের জন্য উপভোগ্য করে তুললেন রোহিত শর্মা। উপহার দেন দাপুটে এক সেঞ্চুরি। দলকে হতাশ করে শূন্য রানে ফিরেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।
  • বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়ালেও উইন্ডিজই এগিয়ে
    তৃতীয় দিনের শেষ বেলায় দ্রুত টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দিলেও ঢাকা টেস্টে পিছিয়েই বাংলাদেশ। শতরানের লিডের উপর দাঁড়িয়ে বাংলাদেশকে বড় লক্ষ্য দিতে লড়াই করছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • জোসেফ ৮২, বাংলাদেশের প্রথম চার ব্যাটসম্যান ৬৯
    ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৮ নম্বর ব্যাটসম্যান আলজারি জোসেফের রান ৮২। সেই জোসেফ যখন নিজের আসল কাজেও সফল হলেন, বল হাতে ফেরালেন তামিম ইকবালকে, বাংলাদেশের প্রথম চার ব্যাটসম্যানের সম্মিলিত রান তখন ৬৯! টপ অর্ডারের করুণ চিত্র ফুটে উঠছে এতেই।
  • রিজওয়ানের সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের রোমাঞ্চকর জয়
    দারুণ সেঞ্চুরিতে আলো ছড়ালেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। তবে বারবার রঙ পাল্টানো প্রথম টি-টোয়েন্টির শেষটায় নায়ক হওয়ার সুযোগ এসে গেল বিয়ন ফোরটানের সামনে। কিন্তু মেলাতে পারলেন না শেষ বলে ছক্কার সমীকরণ। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতল পাকিস্তান।
  • রোমাঞ্চকর শেষের অপেক্ষায় চেন্নাই টেস্ট
    সুযোগ থাকলেও ভারতকে ফলো অন করায়নি ইংল্যান্ড। দ্রুত রান তোলার চেষ্টায় দ্বিতীয় ইনিংসে তারা গুটিয়ে গেছে দুইশ রানের আগেই। তবুও চেন্নাই টেস্টে তারাই চালকের আসনে। তবে ম্যাচ বাঁচানোর আশা ভালোভাবেই টিকে আছে ভারতের। সব মিলিয়ে রোমাঞ্চকর শেষের হাতছানি প্রথম টেস্টে। 
  • হাসান-আফ্রিদির তোপে উড়ে গেল দ. আফ্রিকা
    দ্বিতীয় নতুন বলের সামনে দাঁড়াতেই পারলেন না দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানরা। হাসান আলি ও শাহিন শাহ আফ্রিদির তোপে উড়ে গেল তাদের সব প্রতিরোধ। এইডেন মারক্রামের লড়াকু সেঞ্চুরির পরও সহজেই দ্বিতীয় টেস্টে জিতল পাকিস্তান।
  • বেসের স্পিনে চাপে ভারত
    দারুণ বোলিংয়ে সুর বেঁধে দিলেন জফ্রা আর্চার। চমৎকার লাইন-লেংথে বোলিং করে সঙ্গত করলেন ডম বেস। তার স্পিনে প্রথম টেস্টে চাপে পড়ে গেছে ভারত।
  • হাসানের নৈপুণ্যে পাকিস্তানের লিড
    আগের দিনের ব্যাটিং ধস থেকে ঘুরে দাঁড়াতে পারেননি দক্ষিণ আফ্রিকা। হাসান আলির আগুনে বোলিংয়ে লিড পেয়েছে পাকিস্তান। তবে বোলারদের হাত ধরে দ্বিতীয় টেস্টে লড়াই করছে সফরকারীরা।
  • রুটের রেকর্ড গড়া ডাবল সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের রান-পাহাড়
    নিজের শততম টেস্টে ব্যাট হাতে আলো ছড়ালেন জো রুট। রেকর্ড গড়া ডাবল সেঞ্চুরিতে রাঙালেন উপলক্ষ। প্রথম দিন শেষে ৬০০-৭০০ রান করার যে চ্যালেঞ্জ দিয়েছিলেন অধিনায়ক, তা জয় করার পথে হাঁটছেন সতীর্থরা। তাতে প্রথম টেস্টে ভারতকে হতাশায় ডুবিয়ে ইংল্যান্ড গড়ছে রানের পাহাড়।
  • নরকিয়ার তোপের পরও চাপে দ. আফ্রিকা
    মন্থর উইকেটেও গতিময় সব ডেলিভারিতে ব্যাটসম্যানদের ভোগালেন আনরিক নরকিয়া। ফাহিম আশরাফের দারুণ লড়াইয়ের পরও পাঁচ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানকে থামিয়ে দিলেন তিনশ রানের আগেই। তবে দ্রুত উইকেট হারিয়ে রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে চাপে পড়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • রুটের সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের ভিত
    শততম টেস্টের উপলক্ষ দারুণ এক সেঞ্চুরিতে রাঙালেন জো রুট। অধিনায়ককে সঙ্গ দিলেন ডম সিবলি। তাদের ২০০ রানের জুটিতে ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ড পেয়েছে শক্ত ভিত।
  • বড় লিডের পর এলোমেলো বাংলাদেশের টপ অর্ডার
    বাংলাদেশের বোলিংয়ের স্বস্তি অনেকটা উবে গেল ব্যাটিংয়ে নেমে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসের শেষ দিকে উইকেটের যে স্রোত, প্রবল বেগে ধেয়ে এসে তা ভাসিয়ে দিল বাংলাদেশের টপ অর্ডারও। বড় লিডের পরও তাই দিনশেষে অস্বস্তির কাঁটার খোঁচাখুচি।
  • স্পিন ত্রয়ীর নৈপুণ্যে বাংলাদেশের বড় লিড
    স্পিন চতুষ্টয় নিয়ে শুরু করা ম্যাচের তৃতীয় সকালে বাংলাদেশ হয়ে গেল স্পিন ত্রয়ীর দল। ঊরুর চোটে দর্শক হয়ে রইলেন স্পিনারদের শিরোমণি সাকিব আল হাসান। তবে ক্যারিবিয়ানদের ভোগালেন বাকি তিন জন। মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম ও নাঈম হাসান মিলে দলকে এনে দিলেন বড় লিড।
  • মিরাজের শতকের পর মুস্তাফিজের জোড়া শিকার
    মেহেদী হাসান মিরাজের সেঞ্চুরিতে গড়ে দেওয়া ভিতে দাঁড়িয়ে নতুন বলে আগুন ঝরা বোলিং উপহার দিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিংয়ে জোর ধাক্কা লাগল শুরুতেই। তবে অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের দৃঢ়তায় শেষ পর্যন্ত দিনটা খানিকটা স্বস্তিতে শেষ করতে পারল ক্যারিবিয়ানরা।
  • নুমান-ইয়াসিরের স্পিনে বিধ্বস্ত দ. আফ্রিকা
    আগের দিন শেষ বেলায় দিক হারানো দক্ষিণ আফ্রিকা ফিরতে পারল না কক্ষপথে। দারুণ বোলিংয়ে নুমান আলি ও ইয়াসির শাহ লক্ষ্যটা রাখলেন একশর নিচে। বাকিটা সারলেন ব্যাটসম্যানরা। করাচি টেস্টে সহজেই জিতল পাকিস্তান।
  • শেষ বেলায় দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে দ. আফ্রিকা
    জমে গিয়েছিল এইডেন মারক্রাম ও রাসি ফন ডার ডাসেনের জুটি। জেগেছিল প্রথম ইনিংসের হতাশা কাটিয়ে প্রতিপক্ষকে বড় লক্ষ্য দেওয়ার আশা। কিন্তু জুটি ভাঙতেই যেন পথ হারাল দক্ষিণ আফ্রিকা। শেষ বেলায় দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে করাচি টেস্টে চাপে পড়েছে সফরকারীরা।
  • ফাওয়াদের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের লিড
    চাপের মুখে ব্যাটিং স্কিলের অসাধারণ প্রদর্শনীতে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি উপহার দিলেন ফাওয়াদ আলম। ফিফটি করলেন আজহার আলি ও ফাহিম আশরাফ। শুরুর বিপর্যয় সামলে পাকিস্তান পেল লিড, শক্ত করল নিজেদের অবস্থান।
  • রেকর্ড গড়া স্টার্লিংকে ছাপিয়ে নায়ক রশিদ
    দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে লড়াই করলেন পল স্টার্লিং। নাম লেখালেন রেকর্ডের একটি পাতায়ও। কিন্তু তার সেঞ্চুরিতেও হার এড়াতে পারেনি আয়ারল্যান্ড। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ব্যবধান গড়ে দিলেন রশিদ খান। তার হাত ধরে ওয়ানডেতে প্রথমবারের মতো আইরিশদের হোয়াইটওয়াশ করেছে আফগানিস্তান।
  • বোলারদের দাপটের দিনে বিপদে পাকিস্তান
    দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২০ রানে গুটিয়ে দিয়েও স্বস্তিতে নেই পাকিস্তান। করাচি টেস্টের প্রথম দিন শেষ বেলায় ব্যাটিংয়ে নেমে হারিয়ে ফেলেছে চার উইকেট। ছোট পুঁজি নিয়েও লিডের আশা জাগিয়েছে সফরকারীরা।
  • বেস-লিচের স্পিন বিষে ঘায়েল শ্রীলঙ্কা
    প্রথম ইনিংসে পাওয়া মূল্যবান লিড শ্রীলঙ্কা কাজে লাগাতে পারল না দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং ব্যর্থতায়। ডম বেস ও জ্যাক লিচের দারুণ বোলিংয়ে অল্পতে গুটিয়ে গেল তারা। ছোট লক্ষ্য তাড়ায় মাঝপথে দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়তে বসেছিল ইংল্যান্ডও। শেষ পর্যন্ত অবশ্য তেমন কিছু হয়নি, স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ করেই ছাড়ল জো রুটের দল।
  • রহমতের সেঞ্চুরিতে সিরিজ আফগানদের
    পল স্টার্লিংয়ের সেঞ্চুরির পরও নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে নাভিন-উল-হক ও মুজিব উর রহমান লক্ষ্যটা রাখলেন নাগালে। রেকর্ড গড়া জুটিতে বাকি কাজটা সহজেই সারলেন রহমত শাহ ও হাশমতউল্লাহ শাহিদি। আয়ারল্যান্ডকে উড়িয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখে ওয়ানডে সিরিজ জিতল আফগানিস্তান।
  • অ্যান্ডারসনের ৬ উইকেট, ডিকভেলার আক্ষেপ
    দ্বিতীয় দিনেও শ্রীলঙ্কাকে ভোগালেন জেমস অ্যান্ডারসন। দুর্দান্ত বোলিংয়ে স্বাগতিকদের আটকে রাখলেন চারশর নিচে। তিন অঙ্কের সম্ভাবনা জাগিয়েও আক্ষেপ নিয়ে ফিরলেন লঙ্কান কিপার-ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকভেলা।
  • অ্যান্ডারসনের ছোবলের পর ম্যাথিউসের সেঞ্চুরি
    দিনের শুরুতে এক ওভারে দুই উইকেট নিয়ে শ্রীলঙ্কাকে কাঁপিয়ে দেন জেমস অ্যান্ডারসন। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের অপরাজিত সেঞ্চুরি ও দিনেশ চান্দিমালের ফিফটিতে সেই ধাক্কা কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে লঙ্কানরা, পেয়েছে শক্ত ভিত।
  • ক্যারিবিয়ানদের গুঁড়িয়ে সিরিজ জিতল বাংলাদেশ
    একই উইকেটে খেলা হলেও কন্ডিশনের কারণে বোলারদের জন্য ছিল না খুব একটা সহয়তা। বল ভালোভাবেই এলো ব্যাটে। কিন্তু মেহেদী হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমানদের দারুণ লাইন-লেংথের সামনে খুব একটা লড়াই করতে পারল না ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যানরা। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে তারা গুটিয়ে গেল দেড়শর নিচে। অধিনায়ক তামিম ইকবালের ফিফটিতে সহজেই সেই রান পেরিয়ে সিরিজ জিতে নিল বাংলাদেশ।
  • গুরবাজের সেঞ্চুরি, রশিদ-ঝড়ে জিতল আফগানিস্তান
    রেকর্ড গড়া সেঞ্চুরিতে অভিষেক রাঙালেন রহমানউল্লাহ গুরবাজ। শেষ দিকে ঝড়ো ইনিংসে দলকে তিনশ রানের কাছে নিয়ে গেলেন রশিদ খান। সেই রানই যথেষ্ট হয়েছে আফগানিস্তানের জন্য। আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগে শুভ সূচনা করেছে দলটি।
  • সিমির অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে সিরিজ হার এড়াল আয়ারল্যান্ড
    টপ অর্ডারের ব্যর্থতার দিনে ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে দলকে এনে দিলেন লড়াইয়ের পুঁজি। পরে বল হাতে গড়লেন কম খরচে পাঁচ উইকেট নেওয়ার দারুণ কীর্তি। সিমি সিংয়ের এমন দাপুটে অলরাউন্ডার নৈপূণ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে উড়িয়ে সিরিজ হার এড়াল আয়ারল্যান্ড।
  • রোমাঞ্চকর শেষের অপেক্ষায় ব্রিজবেন টেস্ট
    চোট জর্জর খর্ব শক্তির দল নিয়েও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সমানে-সমান লড়ছে ভারত। উজ্জ্বল করেছে বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি ধরে রাখার সম্ভাবনা। অস্ট্রেলিয়ার সামনেও সুযোগ ট্রফি পুনরুদ্ধারের। ব্যাট-বলের তুমুল লড়াইয়ে রোমাঞ্চকর শেষের অপেক্ষায় দুই দলের লড়াই।
  • গল টেস্টে অনায়াসেই জিতল ইংল্যান্ড
    আগের দিন দ্রুত ৩ উইকেট তুলে নিয়ে লড়াইয়ের যে আশা জাগিয়েছিল শ্রীলঙ্কা তা মিলিয়ে গেল জনি বেয়ারস্টো ও ড্যান লরেন্সের ব্যাটে। গল টেস্টে অনায়াসেই জিতল ইংল্যান্ড।
  • জয়ের দুয়ারে ইংল্যান্ড
    দারুণ ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি করলেন লাহিরু থিরিমান্নে। কুসল পেরেরার পর ফিফটি করলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। অবদান রাখলেন অন্যরাও। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়িয়েও প্রথম ইনিংসের ব্যাটিং ব্যর্থতায় ইংল্যান্ডকে বড় লক্ষ্য দিতে পারেনি শ্রীলঙ্কা। সিরিজের প্রথম টেস্টে তাই জয়ের সামনে দাঁড়িয়ে সফরকারীরা।
  • সুন্দর-শার্দুলের দৃঢ়তায় ভারতের স্বস্তির দিন
    নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানোয় শঙ্কা জেগেছিল অল্পতে গুটিয়ে যাওয়ার। সেখান থেকে ভারতকে স্বস্তির দিন উপহার দিলেন ওয়াশিংটন সুন্দর ও শার্দুল ঠাকুর। লোয়ার মিডল অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যানই তুলে নেন টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি।
  • রুটের ডাবল সেঞ্চুরির পর শ্রীলঙ্কার লড়াই
    আগের দিনের সেঞ্চুরিকে ডাবলে রূপান্তর করলেন জো রুট। তবে দ্রুত শেষ পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে ইংল্যান্ডের সংগ্রহটা বেশি বড় হতে দিলেন না শ্রীলঙ্কার বোলাররা। পরে কুসল পেরেরা ও লাহিরু থিরিমান্নের ফিফটিতে লড়ছে স্বাগতিকরা।
  • ভারতকে লড়াইয়ে রাখলেন বোলাররা
    মার্নাস লাবুশেনের ব্যাটে পাওয়া দৃঢ় ভিত খুব একটা কাজে লাগাতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় দিন ঘুরে দাঁড়িয়ে স্বাগতিকদের চারশ রানের নিচে থামিয়ে দিয়েছে ভারত। বৃষ্টি বিঘ্নিত দিনে ব্যবধান কিছুটা কমিয়েও এনেছে তারা।
  • রুটের সেঞ্চুরিতে বড় লিডের পথে ইংল্যান্ড
    গত বছরটা কেটেছে তার সেঞ্চুরিহীন। নতুন বছরের শুরুতেই খরা কাটালেন জো রুট। অধিনায়কের অপরাজিত দেড়শ রানের ইনিংসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে বড় লিডের পথে রয়েছে ইংল্যান্ড।
  • ভারতের ক্যাচ মিসের মহড়ায় লাবুশেনের সেঞ্চুরি
    চোটে একের পর এক খেলোয়াড় হারিয়ে অনভিজ্ঞ বোলিং আক্রমণ নিয়েও অস্ট্রেলিয়াকে পরীক্ষায় ফেলেছিল ভারত। কিন্তু ফিল্ডারদের ব্যর্থতায় ব্রিজবেন টেস্টের প্রথম দিনে হতাশা সঙ্গী হয়েছে সফরকারীদের। মার্নাস লাবুশেনের সেঞ্চুরিতে শক্ত ভিত পেয়ে গেছে স্বাগতিকরা।
  • শেষ বেলার উইকেটে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া
    ক্যামেরন গ্রিন, মার্নাস লাবুশেন ও স্টিভেন স্মিথের তিন ফিফটিতে ভারতকে বড় লক্ষ্য দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। চারশ ছাড়ানো লক্ষ্য তাড়ায় শুরুটা ইতিবাচক করে সফরকারীরা। তবে শেষ বেলায় তাদের দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে কিছুটা এগিয়ে গেছে টিম পেইনের দল।
  •  কামিন্সের দাপটে বিপদে ভারত
    তিন বিভাগেই নিজেদের মেলে ধরে সিডনি টেস্টে নিয়ন্ত্রণ অনেকটাই মুঠোয় নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। প্যাট কামিন্সের দারুণ বোলিংয়ে নিয়েছে প্রায় শতরানের লিড। প্রথম ইনিংসের দুই নায়ক স্টিভেন স্মিথ ও মার্নাস লাবুশেন জমে গেছেন ক্রিজে। চোটে জেরবার ভারতকে বড় লক্ষ্য দেওয়ার পথে এগিয়ে গেছে টিম পেইনের দল।
  • স্মিথের সেঞ্চুরির পর গিলের ঝলক
    টানা ১৪ ইনিংস সেঞ্চুরির সঙ্গে আড়ি, প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির পর থেকে এমন খরায় আর পড়েননি স্টিভেন স্মিথ। সিডনি টেস্ট শুরুর আগে সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার টম মুডি বললেন, “খাঁচাবন্দি সিংহ স্মিথ ঝাঁপিয়ে পড়তে প্রস্তত।” মুডির কথা স্মিথের কানে পৌঁছেছিল কিনা কে জানে। তবে ঠিকই ঝাঁপিয়ে পড়লেন তিনি, রান ক্ষুধা মিটিয়ে ছুঁড়লেন প্রবল হুঙ্কার! অস্ট্রেলিয়ার অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের দারুণ সেঞ্চুরির দিনে নিজের প্রতিভার ঝলক দেখালেন ভারতের তরুণ ওপেনার শুবমান গিল।
  • বৃষ্টিভেজা দিনে লাবুশেন-পুকোভস্কির দৃঢ়তা
    শঙ্কা উড়িয়ে খেললেন ডেভিড ওয়ার্নার। তবে দ্রুতই তাকে থামিয়ে দিলেন মোহাম্মদ সিরাজ। শুরুর সাফল্য অবশ্য ধরে রাখতে পারেনি ভারত। উইল পুকোভস্কি ও মার্নাস লাবুশেনের ফিফটিতে সিডনি টেস্টে শক্ত ভিত পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
  • ৩ দিনেই দ. আফ্রিকার দাপুটে জয়
    লুঙ্গি এনগিডি, আনরিক নরকিয়াদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের বিপক্ষে ব্যাট হাতে একাই লড়াই করলেন দিমুথ করুনারত্নে। তুলে নিলেন কাঙ্ক্ষিত সেঞ্চুরি; কিন্তু এরপর আর ইনিংসটাকে বড় করতে পারলেন না শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক। তার দলও পারল না প্রতিপক্ষকে চ্যালেঞ্জ জানাতে। ছোট লক্ষ্য তাড়ায় অনায়াসে জিতে লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • এলগারের সেঞ্চুরির পর বিশ্ব ফার্নান্দোর ৫ উইকেট
    প্রত্যাশিত সেঞ্চুরি ঠিকই তুলে নিলেন ডিন এলগার। কিন্তু এরপর আর বড় করতে পারলেন না ইনিংস। ফিফটির পর বিদায় নিলেন রাসি ফন ডার ডাসেনও। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং লাইন-আপে ধস নামান বিশ্ব ফার্নান্দো।
  • নরকিয়ার বোলিং তোপে বিধ্বস্ত লঙ্কান ব্যাটিং
    জোহানেসবার্গে নিখুঁত লাইন-লেংথ ও গতির ঝলক দেখালেন আনরিক নরকিয়া। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে দিলেন এই পেসার। পরে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে বড় লিডের পথে রেখেছেন ডিন এলগার।
  • শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিল দক্ষিণ আফ্রিকা
    ফাফ দু প্লেসি, ডিন এলগারদের দারুণ ব্যাটিংয়ে জয়ের ভিত তৈরিই ছিল। সাজানো মঞ্চে বাকি কাজ সারলেন বোলাররা। সেঞ্চুরিয়ন টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে সহজ জয় তুলে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • দু প্লেসি ১৯৯, দক্ষিণ আফ্রিকা ৬২১
    আগের দিন অল্পের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপে পোড়া ডিন এলগারের সঙ্গে একটি জায়গায় মিলে গেলেন ফাফ দু প্লেসি। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান আউট হলেন ১৯৯ রানে।
  • আবার ব্যর্থ স্মিথ, বিপদে অস্ট্রেলিয়া
    শেষ ৫ উইকেট দ্রুত তুলে নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে দারুণ বোলিংয়ে আবার নিয়ন্ত্রণ মুঠোয় নিয়েছে ভারত। উজ্জ্বল করেছে মেলবোর্ন টেস্ট জিতে সমতা ফেরানোর সম্ভাবনা।
  • এলগারের ৫ রানের আক্ষেপ, মারক্রাম-দু প্লেসির ফিফটি
    দেড়শর কাছাকাছি জুটিতে দলকে ভালো শুরু এনে দিলেন এইডেন মারক্রাম ও ডিন এলগার। এরপর হঠাৎ দিক হারাতে বসেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। দারুণ ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দলকে লিডের পথে রেখেছেন ফাফ দু প্লেসি ও টেম্বা বাভুমা। 
  • রাহানের সেঞ্চুরিতে বড় লিডের পথে ভারত
    আগের টেস্টে ৩৬ রানে গুটিয়ে যাওয়ার দুঃস্বপ্ন ছাই চাপা দিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ভারত। অস্ট্রেলিয়াকে দুইশর নিচে থামিয়ে আজিঙ্কা রাহানের দারুণ সেঞ্চুরিতে বক্সিং ডে টেস্টে বড় লিডের পথে রয়েছে দলটি।
  • চান্দিমাল-ধনাঞ্জয়ার ব্যাটে শ্রীলঙ্কার শক্ত ভিত
    চাপে পড়া দলকে পথ দেখালেন দিনেশ চান্দিমাল ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। অবদান রাখলেন নিরোশান ডিকভেলাও। ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সেঞ্চুরিয়ন টেস্টের প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহের পথে শ্রীলঙ্কা।
  • প্রথম দিনে বুমরাহ-অশ্বিনের দাপট
    প্রথম টেস্টে বাজে হারের পর ভারতীয় ক্রিকেটারদের চোখেমুখে ছিল ঘুরে দাঁড়ানোর তীব্র প্রচেষ্টা। জাসপ্রিত বুমরাহ, রবিচন্দ্রন অশ্বিনের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সঙ্গে তাদের ফিল্ডিংয়েও ফুটে ওঠে সেটি। অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম ইনিংসে দুইশর নিচে থামিয়ে বক্সিং ডে টেস্টে আপাতত ভালো অবস্থানে সফরকারীরা।
  • রিজওয়ানের ব্যাটে হোয়াইটওয়াশ এড়াল পাকিস্তান
    ডেভন কনওয়ের ফিফটিতে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করার সম্ভাবনা জাগিয়েছিল নিউ জিল্যান্ড। তবে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে দলকে পথ দেখালেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। কিপার-ব্যাটসম্যানের দৃঢ়তায় তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে স্বাগতিকদের হারিয়ে দিয়েছে সফরকারীরা।
  • সাইফার্ট-উইলিয়ামসনের ফিফটিতে সিরিজ নিউ জিল্যান্ডের
    ব্যাট হাতে দারুণ ফর্মে থাকা টিম সাইফার্ট তুলে নিলেন টানা দ্বিতীয় ফিফটি। পঞ্চাশ পেরুনো ইনিংসে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও রাখলেন অবদান। টিম সাউদির নৈপুণ্যে দারুণ বোলিংয়ে পাকিস্তানকে অল্প রানে বেঁধে রেখে এই দুই জনের ব্যাটে এক ম্যাচ আগেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করল নিউ জিল্যান্ড।
  • ভারতকে গুঁড়িয়ে অস্ট্রেলিয়ার অনায়াস জয়
    গোলাপি বলে জশ হেইজেলউড ও প্যাট কামিন্সের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ভারত তাদের টেস্ট ইতিহাসে সর্বনিম্ন ৩৬ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর ম্যাচের ফল নিয়ে অনিশ্চয়তার বাকি ছিল সামান্যই। প্রথম সেশনের সেই নাটকীয়তার পর তিন দিনেই দিবা-রাত্রির টেস্ট জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
  • ৩৬ রানেই শেষ ভারত
    গোলাপি বলে জশ হেইজেলউড ও প্যাট কামিন্সের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ভারত। টেস্টে নিজেদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন ৩৬ রানে গুটিয়ে গেছে বিরাট কোহলির দল।
  • গোলাপি বলে ভারত-অস্ট্রেলিয়ার জমজমাট লড়াই
    মন্থর, একটু বাড়তি বাউন্স থাকা উইকেটে সারা দিন দারুণ বোলিং করে গেলেন অস্ট্রেলিয়ার বোলাররা। চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞতায় জবাব দিলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। গোলাপি বলের টেস্টের প্রথম দিনে অ্যাডিলেইডে দেখা গেল ব্যাট-বলের জমজমাট লড়াই।
  • কোহলিকে থামিয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল অস্ট্রেলিয়া
    ভারতের জয়ের আশা বেঁচে ছিল বিরাট কোহলির ব্যাটে। দুর্দান্ত খেলতে থাকা এই ব্যাটসম্যানকে থামিয়ে ম্যাচ নিজেদের দিকে ঘুরিয়ে দিলেন অ্যান্ড্রু টাই। রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত জিতে নিল অস্ট্রেলিয়া। টি-টোয়েন্টি সিরিজে এড়াল হোয়াইটওয়াশ।
  • পান্ডিয়ার ঝড়ে সিরিজ ভারতের
    লক্ষ্য দুইশর কাছাকাছি। শিখর ধাওয়ান করলেন দারুণ ফিফটি, কার্যকর ইনিংস খেললেন বিরাট কোহলি, শেষে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়লেন হার্দিক পান্ডিয়া। এক ম্যাচ বাকি থাকতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতল ভারত। 
  • ইনিংস ব্যবধানে জয়ের দুয়ারে নিউ জিল্যান্ড
    ম্যাচ যেভাবে এগোচ্ছিল, ফল হয়ে যেতে পারত তৃতীয় দিনেই। দ্বিতীয় ইনিংসে পাল্টা আক্রমণে প্রতিরোধ গড়লেন জার্মেইন ব্ল্যাকউড ও আলজারি জোসেফ। তাদের লড়াইয়ের পরও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে জয়ের দুয়ারে দাঁড়িয়ে নিউ জিল্যান্ড।
  • সেঞ্চুরির কাছে উইলিয়ামসন, বড় রানের পথে নিউ জিল্যান্ড
    আউটফিল্ড থেকে পিচ প্রায় আলাদাই করা যাচ্ছিল না। ভীতি ছড়াচ্ছিলেন ক্যারিবিয়ান পেসাররা। বৃষ্টির জন্য কন্ডিশন হয়ে গিয়েছিল আরও কঠিন। দুটি মাস্টারক্লাস ইনিংসে কেন উইলিয়ামসন ও টম ল্যাথাম দেখালেন কীভাবে জয় করতে হয় সব প্রতিকূলতা। তাদের ব্যাটে হ্যামিল্টন টেস্টে বড় ইনিংস গড়ার ভিত পেয়ে গেছে নিউ জিল্যান্ড।
  • ম্যাক্সওয়েলের ঝড় থামিয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল ভারত
    বারবার রং পাল্টানো ম্যাচে দলকে টানছিলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। আরেকটি বিস্ফোরক ইনিংসে সহজ করে ফেলেছিলেন সমীকরণ। দারুণ এক ডেলিভারিতে তাকে বোল্ড করে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিলেন জাসপ্রিত বুমরাহ। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল ভারত।
  • বৃষ্টিতে ভেসে গেল তৃতীয় টি-টোয়েন্টি
    নিউ জিল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে জল ঢেলে দিয়েছে বৃষ্টি।
  • রোমাঞ্চকর জয়ে সিরিজ ইংল্যান্ডের
    দারুণ বোলিংয়ে জফ্রা আর্চার, আদিল রশিদরা লক্ষ্যটা রেখেছিলেন নাগালে। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় এক সময় হাত থেকে ছুটে যেতে বসেছিল ম্যাচ। কোণঠাসা অবস্থায় চমৎকার এক ইনিংসে দলকে টানলেন দাভিদ মালান। সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেন ওয়েন মর্গ্যান। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সিরিজ জিতে নিল ইংল্যান্ড।
  • বেয়ারস্টো ঝড়ে জিতল ইংল্যান্ড
    কঠিন সময়ে নেমে গড়লেন প্রতিরোধ। পাল্টা আক্রমণে উড়িয়ে দিলেন সব চাপ। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে মিলিয়ে দিলেন কঠিন হয়ে যাওয়া সমীকরণ। দক্ষিণ আফ্রিকায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরার দিনে উজ্জ্বল জনি বেয়ারস্টো।
  • রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে উইন্ডিজকে হারাল নিউ জিল্যান্ড
    বারবার হানা দিল বৃষ্টি। ক্ষণে ক্ষণে রঙ পাল্টালো ম্যাচ। লকি ফার্গুসনের আগুনে বোলিং এড়িয়ে দলকে বড় সংগ্রহ এনে দিলেন কাইরন পোলার্ড। মিলিত চেষ্টায় সেই রান পেরিয়ে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতল নিউ জিল্যান্ড।
  • আবারও আইপিএল চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই
    ট্রেন্ট বোল্ট ও ন্যাথান কোল্টার-নাইল দারুণ বোলিংয়ে লক্ষ্যটা রাখলেন নাগালে। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সুর বেঁধে দিলেন কুইন্টন ডি কক। রোহিত শর্মা খেললেন দৃঢ়তাপূর্ণ ইনিংস। দিল্লি ক্যাপিটালসকে উড়িয়ে ফের আইপিএলের শিরোপা উৎসবে মাতল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।
  • কাদিরের স্পিনে হোয়াইটওয়াশড জিম্বাবুয়ে
    সিরিজ যত এগিয়েছে ততই যেন দুর্বোধ্য হয়ে উঠেছেন উসমান কাদির। তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে তো তিনি দাঁড়াতেই দেননি জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের। আরেকটি অনায়াস জয়ে চামু চিবাবাদের হোয়াটওয়াশ করেছে পাকিস্তান।
  • আইপিএল ফাইনালে প্রথমবার দিল্লি
    ব্যাটিংয়ে ভালো শুরু এনে দেওয়া মার্কাস স্টয়নিস বল হাতেও রাখলেন বড় অবদান। তার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে দারুণ এক জয় পেয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালস। দ্বিতীয় সুযোগ কাজে লাগিয়ে প্রথমবারের মতো আইপিএলের ফাইনালে উঠেছে দলটি।
  • রেকর্ড গড়া জয়ে সিরিজ পাকিস্তানের
    উসমান কাদির ও হারিস রউফ দারুণ বোলিংয়ে লক্ষ্যটা রাখলেন নাগালে। বাকিটা অনায়াসে সারলেন হায়দার আলি ও বাবর আজম। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রেকর্ড গড়া জয়ে সিরিজ জিতে নিল পাকিস্তান।
  • বাবরের ব্যাটে জয়ে শুরু পাকিস্তানের
    ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটিতে দেড়শ ছাড়ানো সংগ্রহ এনে দিয়েছিলেন ওয়েসলি মাধেভেরে। কিন্তু বাজে বোলিং আর ফিল্ডিংয়ে খুব একটা লড়াই করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। বাবর আজমের ফিফটিতে সহজ জয় দিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করেছে পাকিস্তান।
  • টেইলরের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতেও পারল না জিম্বাবুয়ে
    শক্তি-সামর্থ্যে দুই দলের পার্থক্য অনেক। তবে সাড়ে সাত মাস পর ক্রিকেটে ফিরে জিম্বাবুয়ে লড়ল বুক চিতিয়ে। অসাধারণ এক সেঞ্চুরিতে জয়ের আশা দেখালেন ব্রেন্ডন টেইলর। কিন্তু শেষ বেলায় পথ হারিয়ে মিলিয়ে গেল সেই আশা। স্লগ ওভারে শাহিন শাহ আফ্রিদি ও ওয়াহাব রিয়াজের দুর্দান্ত বোলিংয়ে জিতল পাকিস্তান।
  • ঘুরে দাঁড়িয়ে ইংল্যান্ডের দারুণ জয়
    মাঝারি রান তাড়ায় অনায়াস জয়ের পথে ছিল অস্ট্রেলিয়া। চ্যালেঞ্জিং উইকেটেও সাবলীল ব্যাটিংয়ে অ্যারন ফিঞ্চ ও মার্নাস লাবুশেন অনেকটাই মুঠোয় নিয়ে এসেছিলেন ম্যাচ। কিন্তু তাদের শতরানের জুটি ভাঙার পর ঘুরে দাঁড়ানোর চমৎকার এক গল্প লিখল ইংল্যান্ড। বুদ্ধিদীপ্ত নেতৃত্ব ও পেসারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের মিশেলে নাটকীয় জয়ে সিরিজে সমতা টানল ওয়েন মর্গ্যানের দল।
  • বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার শুভ সূচনা
    রেকর্ড গড়া জুটিতে দলকে লড়াইয়ের সংগ্রহ এনে দিলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও মিচেল মার্শ। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিতে লড়াই করলেন স্যাম বিলিংস। তবে জস হেইজেলউড ও অ্যাডাম জ্যাম্পার বোলিংয়ের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত পেরে ওঠেনি ইংল্যান্ড। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে ওয়ানডে লিগে শুভ সূচনা করেছে অস্ট্রেলিয়া।
  • অস্ট্রেলিয়াকে পাত্তা না দিয়ে সিরিজ ইংল্যান্ডের
    অ্যাডাম জ্যাম্পার বল ছক্কায় উড়িয়ে ম্যাচ শেষ করলেন জস বাটলার। ওই শটে লেখা হয়ে থাকল যেন ইংলিশদের দাপটও। আগের ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয়ের পর এবার ইংল্যান্ড জিতল অনায়াসে। নিশ্চিত হয়ে গেল তাদের সিরিজ জয়ও।
  • মইন ঝড় থামিয়ে পাকিস্তানের দারুণ জয়
    বারবার রঙ পাল্টানো ম্যাচে পেরে উঠলো না ইংল্যান্ড। জীবন পেয়ে পাকিস্তানকে ভোগাচ্ছিলেন মইন আলি। তাকে থামিয়ে তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে দারুণ জয় পেয়েছে পাকিস্তান।
  • মর্গ্যান-মালানের ব্যাটে ইংল্যান্ডের রেকর্ড গড়া জয়
    বড় রান তাড়ায় পরপর দুই বলে দুই ওপেনারকে হারিয়ে চাপে পড়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। সেখান থেকে বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে দলকে পথ দেখালেন ওয়েন মর্গ্যান, দারুণ ইনিংসে লক্ষ্যে পৌঁছে দিলেন দাভিদ মালান। দুই বাঁহাতির যুগলবন্দীতে পাকিস্তানের বিপক্ষে রেকর্ড গড়া জয় পেল ইংল্যান্ড।
  • ব্যান্টন ঝড়ের পর ম্যাচ পণ্ড
    করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর প্রথম টি-টোয়েন্টির রোমাঞ্চে জল ঢেলে দিয়েছে বৃষ্টি। টম ব্যান্টনের বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ের পর বৃষ্টির দাপটে পরিত্যক্ত হয়ে গেছে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের প্রথম টি-টোয়েন্টি।
  • অ্যান্ডারসনের মাইলফলক ছোঁয়ার ম্যাচ ড্র
    বৃষ্টি, আলোকস্বল্পতায় শঙ্কা জেগেছিল শেষ দিনে খেলা মাঠে গড়ানো নিয়ে। শেষ পর্যন্ত সব বাধা পেরিয়ে শুরু হয় খেলা। দ্রুতই জেমস অ্যান্ডারসন পৌঁছে যান কাঙ্ক্ষিত মাইলফলকে। টেস্ট ইতিহাসের প্রথম পেসার হিসেবে গড়েন ছয়শ উইকেটের কীর্তি। তার প্রাপ্তির ম্যাচটি হয়েছে ড্র।
  • মাইলফলকের দুয়ারে অ্যান্ডারসন, সিরিজ জেতার কাছে ইংল্যান্ড
    বৃষ্টি আর আলোকস্বল্পতায় অপেক্ষা বাড়ল জেমস অ্যান্ডারসনের। ছয়শ উইকেটের মাইলফলক থেকে স্রেফ ১ উইকেট দূরে দাঁড়িয়ে টেস্ট ইতিহাসের সফলতম পেসার। তার হতাশার দিনে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেছে ইংল্যান্ড।
  • অ্যান্ডারসনের সুইংয়ে ফলোঅনে পাকিস্তান
    যে পিচে নির্বিষ মনে হলো পাকিস্তানের বোলিং আক্রমণ, সেখানেই সুইংয়ের জাদুতে ব্যাটসম্যানদের কঠিন পরীক্ষায় ফেললেন জেমস অ্যান্ডারসন। ৫ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানকে গুঁড়িয়ে ছয়শ উইকেটের দুয়ারে পৌঁছে গেলেন অভিজ্ঞ এই ইংলিশ পেসার। অপরাজিত সেঞ্চুরিতেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্টে ফলোঅন এড়াতে পারেননি আজহার আলি।
  • ক্রলি-বাটলারের রেকর্ড জুটির পর অ্যান্ডারসনের ছোবল
    দারুণ ব্যাটিংয়ে আড়াইশ ছাড়ানো ইনিংস খেললেন জ্যাক ক্রলি। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে সঙ্গ দিলেন জস বাটলার। পঞ্চম উইকেটে তাদের রেকর্ড গড়া জুটিতে রান-পাহাড় গড়ল ইংল্যান্ড। শেষ বেলায় পাকিস্তানের তিন উইকেট তুলে নিয়ে তৃতীয় টেস্টে নিয়ন্ত্রণ আরও দৃঢ় করলেন জেমস অ্যান্ডারসন।
  • ক্রলি-বাটলারের ব্যাটে বড় সংগ্রহের পথে ইংল্যান্ড
    সম্ভাবনাময় ইনিংসগুলোকে পূর্ণতা দিতে পারছিলেন না জ্যাক ক্রলি। এবার সফল হলেন তরুণ এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। পাল্টা আক্রমণে তুলে নিলেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। জস বাটলারের সঙ্গে চমৎকার জুটিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডকে গড়ে দিলেন বড় সংগ্রহের ভিত।
  • বৃষ্টি ভেজা টেস্ট ড্র
    দ্বিতীয় টেস্টের শেষ দিনেও দেখা গেল বৃষ্টির দাপট। খেলা হতে পারল কেবল এক সেশন। অনুমিতভাবেই ড্র হল ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের বৃষ্টি ভেজা টেস্ট। 
  • বৃষ্টির দাপটে ড্রয়ের পথে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান টেস্ট
    বৃষ্টির রাজত্ব চলছেই ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের দ্বিতীয় টেস্টে। বারবার বৃষ্টির বাধায় চার দিনে দুই দলের প্রথম ইনিংসই শেষ হয়নি। শেষ দিনে চরম নাটকীয় কিছু না হলে ড্র হতে চলেছে ম্যাচ।
  • ব্রড-অ্যান্ডারসনের ছোবল সামলে রিজওয়ানের লড়াই
    টানা দ্বিতীয় দিনে অর্ধেক সময়ের খেলা ভেসে গেল বৃষ্টিতে। সহায়ক কন্ডিশনে দারুণ বোলিংয়ে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের চাপে রাখলেন স্টুয়ার্ট ব্রড-জেমস অ্যান্ডারসনরা। তাদের সামলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে দলকে এগিয়ে নিচ্ছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান।
  • বৃষ্টি ভেজা দিনে চাপে পাকিস্তান
    টসের সময় ছিল রোদ। পাকিস্তান ব্যাটিংয়ে নামার সময় আকাশ ঢেকে গেল মেঘে। বৃষ্টির বাধায় বারবার বন্ধ হলো খেলা। এর ফাঁকে যতটুকু খেলা হলো, তাতে দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর দিনে পাকিস্তানকে চাপে ফেলেছে ইংল্যান্ড।
  • ওকস-বাটলারের ব্যাটে ইংল্যান্ডের দারুণ জয়
    হঠাৎ লাফাচ্ছিল বল, কখনও কখনও থামছিল। ব্যাটিং ছিল বেশ কঠিন। ইয়াসির শাহ-নাসিম শাহরা উজাড় করে দিলেন নিজেদের। ব্যাটিং দুরূহ উইকেটে চ্যালেঞ্জিং রান তাড়ায় দিক হারাতে বসেছিল ইংল্যান্ড। জস বাটলারের সঙ্গে শতরানের জুটিতে ক্রিস ওকস দেখালেন পথ। লড়াকু ফিফটিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডকে এনে দিলেন দারুণ জয়। 
  • পাকিস্তানের শতরানের লিডের পর ঘুরে দাঁড়িয়েছে ইংল্যান্ড
    আগের দিন পথ দেখিয়েছিলেন পেসাররা। পরদিন বাকিটুকু সারলেন স্পিনাররা। বোলারদের মিলিত অবদানে ইংল্যান্ডকে দ্রুত গুটিয়ে দিয়ে শতরানের লিড নিয়েছে পাকিস্তান। তবে বল হাতে ঘুরে দাঁড়িয়েছে স্বাগতিকরা। লড়াই করছে লক্ষ্যটা নাগালে রাখতে।
  • মাসুদের সেঞ্চুরির পর চাপে ইংল্যান্ড
    বাবর আজমসহ তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দ্বিতীয় দিনের শুরটা দারুণ করে ইংল্যান্ড। সম্ভাবনা জাগায় কম রানে পাকিস্তানকে গুটিয়ে দেওয়ার। তবে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে সফরকারীদের টানেন শান মাসুদ। আর শেষ সেশনে ৪ উইকেট হারিয়ে উল্টো চাপে পড়ে গেছে ইংল্যান্ড।
  • বৃষ্টি ভেজা দিনে বাবরের দৃঢ়তা
    কন্ডিশন থেকে বেশ সহায়তা পাচ্ছিলেন ইংলিশ পেসাররা। তাদের দারুণ বোলিংয়ে রান আসছিল না সহজে। সংগ্রাম করতে হচ্ছিল সফরকারী ব্যাটসম্যানদের। বাবর আজম ক্রিজে যেতেই যেন পাল্টে গেল সব। বৃষ্টি ভেজা দিনে ইংল্যান্ডের শক্তিশালী বোলিং আক্রমণেরর সামনে নিজের সামর্থ্য দেখালেন পাকিস্তানের এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান।
  • স্টার্লিং-বালবার্নির সেঞ্চুরিতে আয়ারল্যান্ডের রেকর্ড গড়া জয়
    ওয়েন মর্গ্যানের সেঞ্চুরিতে আয়ারল্যান্ডকে রেকর্ড গড়ার চ্যালেঞ্জ দিয়েছিল ইংল্যান্ড। হোয়াইটওয়াশ এড়াতে সেই চ্যালেঞ্জ নিলেন পল স্টার্লিং ও অ্যান্ডি বালবার্নি। টপ অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি আর রেকর্ড গড়া জুটিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের তাদেরই মাটিতে হারিয়ে দিয়েছে আয়ারল্যান্ড।
  • বেয়ারস্টো ঝড়ের পর বিলিংস-উইলির দৃঢ়তায় সিরিজ ইংল্যন্ডের
    জনি বেয়ারস্টোর খুনে ব্যাটিংয়ে ইংল্যান্ডের জয় মনে হচ্ছিল স্রেফ সময়ের ব্যাপার। এই কিপার-ব্যাটসম্যানের ঝড় থামানোর পর ওয়েন মর্গ্যান ও মইন আলিকে দ্রুত ফিরিয়ে ম্যাচ জমিয়ে তুলেন জশ লিটল। তবে স্যাম বিলিংস ও ডেভিড উইলির দৃঢ়তায় এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জিতে নিয়েছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।
  • জয় দিয়ে ওয়ানডে লিগ শুরু ইংল্যান্ডের
    ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে লক্ষ্যটা ছোট রাখলেন ডেভিড উইলি। রান তাড়ায় শুরুতে কিছুটা চাপে পড়া ইংল্যান্ডকে টানলেন স্যাম বিলিংস। তার ফিফটিতে আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে ওয়ানডে সুপার লিগে শুভসূচনা করেছে ইংল্যান্ড। 
  • উইন্ডিজকে হারিয়ে উইজডেন ট্রফি ইংল্যান্ডের
    পুরো একটি দিন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ায় কাজটা কঠিন হয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ডের জন্য। তারপরও, ক্যারিবিয়ানদের বাজে ব্যাটিং আর নিজেদের দারুণ বোলিং-ফিল্ডিংয়ে শেষ পর্যন্ত সহজেই জিতেছে জো রুটের দল। প্রথম টেস্টে হারা ইংলিশরা ঘুরে দাঁড়িয়ে পুনরুদ্ধার করেছে উইজডেন ট্রফি।
  • বৃষ্টিতে ভেসে গেল ম্যানচেস্টার টেস্টের চতুর্থ দিন
    আবহাওয়ার পূর্বাভাসেই ছিল শঙ্কা, হলোও তাই। বৃষ্টিতে ভেসে গেল ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের তৃতীয় টেস্টের চতুর্থ দিন। লম্বা সময় অপেক্ষা করেও বল মাঠে গড়াল না।
  • ব্রডের আঘাতে এলোমেলো উইন্ডিজ
    সকালে ৪ উইকেট নিয়ে গুটিয়ে দিলেন ক্যারিবিয়ানদের প্রথম ইনিংস। শেষ বেলায় ২ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেও নাড়িয়ে দিলেন সফরকারীদের। স্টুয়ার্ট ব্রডের দারুণ বোলিংয়ে তৃতীয় টেস্টে জয়ের পথে এগিয়ে গেছে ইংল্যান্ড।
  • ব্রড ঝড়ের পর বিপদে উইন্ডিজ
    দিনের শুরুতে দারুণ বোলিংয়ে ঘুরে দাঁড়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয় নতুন বলে কাঁপিয়ে দেয় ইংলিশদের। দিক হারা দলকে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে টানেন স্টুয়ার্ট ব্রড। পরে বোলিংয়েও রাখেন অবদান। সঙ্গে অন্যরাও এগিয়ে আসায় ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ দৃঢ় করেছে ইংল্যান্ড।
  • পোপ-বাটলারের ব্যাটে ইংল্যান্ডের দৃঢ় ভিত
    সিরিজে রান ছিল না অলি পোপের ব্যাটে। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল জস বাটলারের। খুব প্রয়োজনের সময় দাঁড়িয়ে গেলেন দুই ব্যাটসম্যান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্টে প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডকে গড়ে দিলেন বড় সংগ্রহের ভিত।
  • দারুণ জয়ে সমতা ফেরাল ইংল্যান্ড
    ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে সময়ও যেন ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। সেই লড়াইয়ে জিতে টেস্ট সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে জো রুটের দল। পঞ্চম দিন সকালে তারা টি-টোয়েন্টি ঘরানার ব্যাটিংয়ের পর দারুণ বোলিংয়ে গুটিয়ে দিয়েছে ক্যারিবিয়ানদের।
  • ব্যাটিং ধসে চাপে উইন্ডিজ
    ব্যাটিং ধসে দ্বিতীয় টেস্টে চাপে পড়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নাটকীয় মোড় নিয়েছে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট। তাদের পরিস্থিতি হতে পারতো আরও খারাপ। কোনোমতে ফলোঅন এড়াতে পেরেছে সফরকারীরা। বড় লিড নেওয়া ইংল্যান্ড রান তুলছে দ্রুত। শেষ দিনে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে হাতছানি দিচ্ছে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের।
  • বৃষ্টিতে ভেসে গেল ম্যানচেস্টার টেস্টের তৃতীয় দিন
    বৃষ্টিতে ভেসে গেছে দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে সমতা ফেরানোর কাজটা এতে আরও কঠিন হয়ে গেল ইংল্যান্ডের জন্য।
  • স্টোকস-সিবলির সেঞ্চুরির পর চাপে উইন্ডিজ
    উইকেটে বোলারদের জন্য বেশ সহায়তা আছে, কন্ডিশনও সহায়ক। ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের দারুণ পরীক্ষা নিলেন ক্যারিবিয়ান পেসাররা। মাটি কামড়ে কঠিন সময় পার করে দেওয়া বেন স্টোকস, ডম সিবলি পেলেন সেঞ্চুরির দেখা। তাদের আড়াইশ ছাড়ানো জুটিতে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহ গড়েছে ইংল্যান্ড। জবাবে ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজের; দিনের শেষ বেলায় হারিয়েছে উইকেট।
  • সিবলি-স্টোকসের ব্যাটে ইংল্যান্ডের ভিত
    জমে যাওয়া জুটি ভাঙার সুবর্ণ সুযোগ পেয়ে হারালেন জেসন হোল্ডার; স্লিপে ডম সিবলির সহজ ক্যাচ মুঠোয় জমাতে পারলেন না ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক। জীবন পেয়ে সেঞ্চুরির পথে এগিয়ে যাচ্ছেন সিবলি। তার সঙ্গে বেন স্টোকসের শতরানের জুটিতে দ্বিতীয় টেস্টে বড় সংগ্রহের ভিত গড়েছে ইংল্যান্ড।
  • আর্চারের তোপ সামলে উইন্ডিজের দারুণ জয়
    ক্রিকেট তার সব নাটকীয়তা নিয়ে হাজির হলো সাউথ্যাম্পটন টেস্টের শেষ দিনে। ব্যাট হাতে ২৩ রানের ছোট্ট কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলার পর বল হাতে ক্যারিবিয়ানদের কাঁপিয়ে দিলেন জফ্রা আর্চার। তার তোপ সামলে দলকে কক্ষপথে ফেরালেন জার্মেইন ব্ল্যাকউড। এই মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যানের দারুণ ইনিংসে চ্যালেঞ্জিং রান তাড়ায় জয় তুলে নিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • শেষ বেলার রোমাঞ্চে আশায় উইন্ডিজ
    জ্যাক ক্রলি ও বেন স্টোকসের জুটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হাত থেকে লাগাম হাতছাড়া হতে বসেছিল। দারুণ এক ডেলিভারিতে আবার স্টোকসকে ফেরালেন জেসন হোল্ডার। ক্রলিকে বিদায় করলেন আলজারি জোসেফ। ৭ বলের মধ্যে পাল্টে গেল দৃশ্যপট। জয়ের পাল্লা ঝুলে থাকল ক্যারিবিয়ানদের দিকেই।
  • উইন্ডিজের শতরানের লিডের পর ইংল্যান্ডের সাবধানী ব্যাটিং
    শুরুতে দলকে টানলেন ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। পরে পথ দেখালেন শেন ডাওরিচ। তাদের দুই ফিফটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে শত রানের লিড নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাব দিতে নেমে সাবধানী ব্যাটিংয়ে দিনের শেষ বেলা পার করে দিয়েছেন ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার।
  • হোল্ডারের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে বিধ্বস্ত ইংল্যান্ড
    দুর্দান্ত একটি দিন কাটল ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের। নিলেন তিনটি সফল রিভিউ। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে পেলেন ছয় উইকেট। এই অলরাউন্ডারের আলো ঝলমলে দিনে সাউথ্যাম্পটন টেস্টে ইংল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • ক্রিকেট ফেরার দিন ম্লান বৃষ্টিতে
    দীর্ঘ, ক্লান্তিকর অপেক্ষা ফুরাল। ১১৭ দিন পর মাঠে গড়াল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। তবে প্রত্যাবর্তনের দিনটির বেশিরভাগ সময় ভেসে গেল বৃষ্টিতে। ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে সাউথ্যাম্পটন টেস্ট শুরুর দিনে খেলা হলো কেবল ৮২ মিনিট।
  • সিডনিতে হারের বৃত্তেই নিউ জিল্যান্ড
    ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চের শতরানের উদ্বোধনী জুটির পর দলকে টানলেন মার্নাস লাবুশেন। নিউ জিল্যান্ডকে পথ দেখাতে পারলেন না কেউ। পেসারদের দাপুটে বোলিংয়ে সিডনিতে সহজেই জিতল অস্ট্রেলিয়া।
  • বৃষ্টিতে ভেসে গেল ভারতের ম্যাচ
    পরের ম্যাচগুলো হবে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে। দর্শকদের গ্যালারিতে বসে খেলা দেখার শেষ সুযোগ ছিল কেবল এই ম্যাচে। বৃষ্টি উপেক্ষা করে এসেছিলেনও কিছু দর্শক। তবে তাদের ফিরতে হলো হতাশা নিয়ে। ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ওয়ানডে বৃষ্টিতে ভেসে গেছে।
  • শেষ ভালোর সঙ্গে বাংলাদেশের প্রাপ্তি রেকর্ড
    দাপুটে পথচলার সিরিজে শেষটায় হাতছানি ছিল দারুণ এক অর্জনের। প্রত্যাশিত জয়ে বাংলাদেশ পেল এতদিনের অধরা সেই স্বাদ। টি-টোয়েন্টি সিরিজেও উড়ে গেল জিম্বাবুয়ে। সাদা-রঙিন মিলিয়ে তিন সংস্করণেই প্রথমবার কোনো দলকে এক দফায় হারাল বাংলাদেশ।
  • রশিদকে ছাপিয়ে ও’ব্রায়েনের ছক্কায় আইরিশদের জয়
    আফগানিস্তান আর আয়ারল্যান্ডের লড়াই প্রায়ই হাজির হয় রোমাঞ্চ ও নাটকীয়তার পসরা সাজিয়ে। তেমনই এক দফা নাটক মঞ্চস্থ হলো গ্রেটার নয়ডায়। হারের কিনারায় দাঁড়িয়ে রশিদ খানের ছক্কা ও চারে ম্যাচ টাই করল আফগানিস্তান। কিন্তু সুপার ওভারে সেই রশিদের শেষ বলেই ছক্কা মেরে আয়ারল্যান্ডকে জয় এনে দিলেন কেভিন ও’ব্রায়েন।
  • দক্ষিণ আফ্রিকায় হোয়াইটওয়াশড অস্ট্রেলিয়া
    অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ব্যাটিংয়ে একাই লড়লেন মার্নাস লাবুশেন। তার দারুণ সেঞ্চুরির পরও দল পেল না বড় পুঁজি। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে লক্ষ্যটা নাগালে রাখলেন দক্ষিণ আফ্রিকার বোলাররা। বাকি কাজটা সহজেই সারলেন ব্যাটসম্যানরা। ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করে ছাড়ল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করে উইন্ডিজের জবাব
    নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে লক্ষ্যটা নাগালে রাখলেন বোলাররা। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সুর বেঁধে দিলেন ব্র্যান্ডন কিং। শিমরন হেটমায়ার খেললেন দৃঢ়তাপূর্ণ ইনিংস। আন্দ্রে রাসেল চালালেন তাণ্ডব। বড় জয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজে শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • রেকর্ড রাঙা জয়ে শেষ অধিনায়ক মাশরাফির
    এই ম্যাচের আবেদন বদলে গেছে আগের দিনই। যে ম্যাচের আবহে মিশে নেতা মাশরাফি মুর্তজার বিদায়ের সুর, সেখানে বাকি সব পারিপার্শ্বিকতাই তো গৌণ! লিটন দাস ও তামিম ইকবাল যেন নেমেছিলেন প্রিয় অধিনায়ককে বিদায়ী শ্রদ্ধার্ঘ্য দেওয়ার প্রতিজ্ঞা করেই। রেকর্ড বই চুরমার করা রান উৎসবে দুজন রাঙালেন উপলক্ষ। প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করা দিনটি পূর্ণতা পেল অধিনায়কের পঞ্চাশতম জয়ের অনন্য অর্জনে।
  • রশিদ-নাজিবউল্লাহর নৈপুণ্যে আয়ারল্যান্ডকে হারাল আফগানিস্তান
    পল স্টার্লিংয়ের ঝড় থামিয়ে লক্ষ্যটা নাগালের বাইরে যেতে দিলেন না রশিদ খান। রান তাড়ায় ভালো শুরুর পর দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে পথ হারাতে বসেছিল দল। ছয় নম্বরে ব্যাটিংয়ে ঝড়ো ইনিংস খেললেন নাজিবউল্লাহ জাদরান। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করল আফগানিস্তান।
  • এনগিডি-মালানের ঝলকে দক্ষিণ আফ্রিকার জয়
    ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে লক্ষ্যটা নাগালে রাখলেন লুঙ্গি এনগিডি। অভিষেকে প্রথম বলেই ফেরা ইয়ানেমান মালানের এবার হলো উল্টো অভিজ্ঞতা। দারুণ এক সেঞ্চুরিতে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দলের জয়কে সঙ্গে নিয়ে ফিরলেন। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জিতে নিল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • টমাসের তোপে লঙ্কানদের হারাল উইন্ডিজ
    এক ওভারে ৩ উইকেট নিয়ে শুরুতেই শ্রীলঙ্কাকে পেছনের পায়ে ঠেলে দিয়েছিলেন ওশেন টমাস। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে দলকে কক্ষপথে ফিরিয়েছিলেন কুসল পেরেরা। বিস্ফোরক এই ব্যাটসম্যানকে থামিয়ে জয় দিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • আড়াই দিনে হেরে হোয়াইটওয়াশড ভারত
    ওয়েলিংটনের পর ক্রাইস্টচার্চেও পাত্তা পেল না ভারত। ব্যাট-বলের অসাধারণ পারফরম্যান্সে নিউ জিল্যান্ড পেল দারুণ জয়। আড়াই দিনে হেরে হোয়াইটওয়াশের তেতো স্বাদ পেল বিরাট কোহলির দল।
  • রোমাঞ্চকর ম্যাচে হেরে শ্রীলঙ্কায় হোয়াইটওয়াশড উইন্ডিজ
    প্রতিটি বলে উত্তেজনা। একটি বাউন্ডারিতে সমীকরণ সহজ হচ্ছে তো একটি উইকেটে ম্যাচ হেলে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কার দিকে। হোয়াইটওয়াশড হওয়া এড়াতে চেষ্টার কমতি ছিল না ওয়েস্ট ইন্ডিজের। তবে শেষরক্ষা করতে পারেনি কাইরন পোলার্ডের দল। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতে তাদের হোয়াইটওয়াশ করে ছেড়েছে দিমুথ করুনারত্নের দল।  
  • রেকর্ড গড়া জয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ
    সিরিজ শুরুর আগে মাঠের বাইরের আলোচনাই ছিল বেশি। মাঠের ক্রিকেটে দুর্দান্ত অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে বাংলাদেশ বদলে দিল আবহ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয়টা ছিল প্রত্যাশিতই, বড় স্বস্তি হয়ে এলো দাপুটে জয়। লিটন দাসের সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের স্কোর উঠল রেকর্ড উচ্চতায়। পরে বোলাররা দলকে এনে দিলেন রেকর্ড গড়া জয়।
  • ক্লাসেনের সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়াকে হারাল দ. আফ্রিকা
    অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের অনুপস্থিতিতে দলকে টানলেন হাইনরিখ ক্লাসেন। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিতে দলকে এনে দিলেন লড়াইয়ের পুঁজি। সম্মিলিত চেষ্টায় বাকিটা সারলেন বোলাররা। স্টিভ স্মিথের লড়াই থামিয়ে প্রথম ওয়ানডেতে অস্ট্রেলিয়াকে হারাল দক্ষিণ আফ্রিকা। 
  • জেমিসনের ছোবলে এলোমেলো ভারত
    উইকেট যেন সবুজের গালিচা। ম্যাচের সকালে হয়েছে এক পশলা বৃষ্টি। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা দলের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ। তবুও শুরুর তোপ সামলে ভারত পেয়েছিল দৃঢ় ভিত। কিন্তু তাদের মিডল আর লোয়ার অর্ডার গুঁড়িয়ে দিলেন কাইল জেমিসন। দীর্ঘদেহী এই পেসারের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে বিরাট কোহলির দল গুটিয়ে গেল আড়াইশর নিচে। পরে ব্যাট হাতে দৃঢ়তা দেখালেন নিউ জিল্যান্ডের দুই ওপেনার।
  • দ.আফ্রিকাকে গুঁড়িয়ে সিরিজ অস্ট্রেলিয়ার
    নিউল্যান্ডসে বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় ঝড় বয়ে গিয়েছিল স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নারের উপর দিয়ে। সেই মাঠে ফিরে যেন তাণ্ডব চালালেন এই দুই ব্যাটসম্যান। বিস্ফোরক ইনিংস খেললেন অ্যারন ফিঞ্চও। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রানের পাহাড় গড়ে সিরিজ জিতে নিল অস্ট্রেলিয়া।
  • আভিশকা-মেন্ডিসের সেঞ্চুরিতে শ্রীলঙ্কার সিরিজ জয়
    পরপর দুই বলে উইকেট হারানোর অস্বস্তি উড়িয়ে দুই ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি! শুরুর ধাক্কা সামলে আভিশকা ফার্নান্দো ও কুসল মেন্ডিস খেললেন ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। গড়লেন রেকর্ড জুটি। তাতে যে উচ্চতায় উঠল শ্রীলঙ্কার ইনিংস, ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেল না তার নাগাল। লঙ্কানরা সিরিজ জিতে নিল দুই ম্যাচেই।
  • ভারতকে উড়িয়ে নিউ জিল্যান্ডের ‘সেঞ্চুরি’
    আগের দিন টপ অর্ডার কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন ট্রেন্ট বোল্ট। পরদিন মিডল আর লোয়ার অর্ডার গুঁড়িয়ে দিলেন টিম সাউদি। টানা দুই ইনিংসে ভারত গুটিয়ে গেল দুইশর নিচে। দারুণ জয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল নিউ জিল্যান্ড। ধরা দিল মাইলফলক জয়।
  • নাটকীয় জয়ে সিরিজে ফিরল দক্ষিণ আফ্রিকা
    ক্রিজে ডেভিড ওয়ার্নার। জয়ের জন্য শেষ ১৮ বলে প্রয়োজন ২৫ রান। হাতে ৭ উইকেট। সিরিজ নিশ্চিত করার পথেই ছিল অস্ট্রেলিয়া। কী দারুণ তিনটি ওভারই না করলেন লুঙ্গি এনগিডি, কাগিসো রাবাদা ও আনরিক নরকিয়া। সফরকারীদের হাতের মুঠো থেকে যেন জয় ছিনিয়ে নিয়ে সিরিজ বাঁচিয়ে রাখল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • ৩৭ রান যোগ করেই শেষ জিম্বাবুয়ে
    জিম্বাবুয়েকে দ্রুত অলআউেটর লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশের। আবু জায়েদ চৌধুরী ও তাইজুল ইসলামের সৌজন্যে পূরণ হয়েছে দলের চাওয়া। শেষ ৪ উইকেটে আগের দিনের রানের সঙ্গে আর ৩৭ রান যোগ করে থেমেছে জিম্বাবুয়ের ইনিংস।
  • রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে উইন্ডিজকে হারাল শ্রীলঙ্কা
    বারবার রং বদলের ম্যাচের শেষ দিকে নাটকীয়তা জমে উঠল। ভানিদু হাসারাঙ্গার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে শেষ হাসি হেসেছে শ্রীলঙ্কা।
  • অ্যাগারের হ্যাটট্রিকে দক্ষিণ আফ্রিকার রেকর্ড হার
    স্টিভেন স্মিথ ও অ্যারন ফিঞ্চের গড়ে দেওয়া মঞ্চে দাঁড়িয়ে ঝড় তুললেন অ্যাশটন আগার। পরে বোলিংয়ে দেখালেন চমক; হ্যাটট্রিকসহ নিলেন পাঁচ উইকেট। অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডারের স্পিনে টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের সর্বনিম্ন রানে গুটিয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা, পেল সবচেয়ে বড় হারের স্বাদ।
  • রান পাহাড় টপকে সিরিজ ইংল্যান্ডের
    উইকেটে বোলারদের জন্য প্রায় কিছুই নেই। সেই সুবিধা কাজে লাগিয়ে ব্যাটসম্যানরা মেতে উঠলেন রান উৎসবে। রান পাহাড় গড়েও লাভ হলো না দক্ষিণ আফ্রিকার। দারুণ জয়ে সিরিজ জিতে নিল ইংল্যান্ড। 
  • রোমাঞ্চকর জয়ে সিরিজে ফিরল ইংল্যান্ড
    ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত চেষ্টায় দুইশ ছাড়ানো সংগ্রহ গড়ল ইংল্যান্ড। রান তাড়ায় রেকর্ড ফিফটিতে দলকে পথ দেখালেন কুইন্টন ডি কক। তবে জয়ের জন্য যথেষ্ট হলো না তা। রোমাঞ্চকর জয়ে সিরিজে সমতা ফেরাল ওয়েন মর্গ্যানের দল।
  • স্টেইনের রেকর্ড গড়ার ম্যাচে দ. আফ্রিকার নাটকীয় জয়
    ফেরার ম্যাচে গড়লেন রেকর্ড। ইমরান তাহিরকে ছাড়িয়ে টি-টোয়েন্টিতে উইকেট শিকারীদের তালিকার চূড়ায় উঠলেন এককভাবে। ডেল স্টেইনের প্রাপ্তির দিনে দক্ষিণ আফ্রিকা পেল নাটকীয় জয়। লুঙ্গি এনগিডির দারুণ বোলিংয়ে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে পেরে উঠল না ইংল্যান্ড।
  • হতাশার সকালে দেড় ঘণ্টায় শেষ বাংলাদেশ
    আগের দিনের শেষ বেলার নাটকীয় ধসে যে শঙ্কা জেগেছিল, সেটিই সত্যিই হলো। রাওয়ালপিন্ডি টেস্ট ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। চতুর্থ দিন সকালে সফরকারীদের দ্বিতীয় ইনিংস টিকেছে দেড় ঘণ্টারও কম সময়।
  • দ. আফ্রিকাকে হারিয়ে সিরিজ বাঁচাল ইংল্যান্ড
    স্পিনারদের দারুণ বোলিংয়ের পর মিলিত প্রচেষ্টায় বাকিটা সারলেন ব্যাটসম্যানরা। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সিরিজ বাঁচাল ইংল্যান্ড।
  • বাবর-মাসুদের সেঞ্চুরিতে বিপদে বাংলাদেশ
    সম্ভাবনাময় জুটি ও ইনিংস বড় না করার আক্ষেপ পোড়াচ্ছে বাংলাদেশকে। আর কিভাবে সম্ভাবনাকে পূর্ণতা দিতে হয়, সফরকারীদের তা-ই যেন দেখাচ্ছে পাকিস্তান। দুই ব্যাটসম্যান করেছেন সেঞ্চুরি। নব্বই ছাড়িয়েছে তিনটি জুটি। দুই দিনেই রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে চালকের আসনে বসেছে আজহার আলির দল। 
  • ভারতকে হারিয়ে সিরিজ নিউ জিল্যান্ডের
    মার্টিন গাপটিলের ব্যাটে দুর্দান্ত শুরুর পর নিউ জিল্যান্ডকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দিলেন রস টেইলর। রবীন্দ্র জাদেজার প্রতিরোধ ভেঙে বাকি কাজ সারলেন বোলাররা। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে সিরিজ জিতে নিল কিউইরা।
  • ব্যাটসম্যানদের আক্ষেপের দিনে বাংলাদেশের ২৩৩
    কন্ডিশন আর উইকেটে পাকিস্তানের পেসারদের জন্য ছিল প্রবল সুবিধা। এর মাঝে প্রথম আট ব্যাটসম্যানের ছয়জন গেলেন ২৫ পর্যন্ত। শুরুর কঠিন কাজটা করলেন মাটি কামড়ে। সেখান থেকে পঞ্চাশ ছাড়াতে পারলেন কেবল একজন-মোহাম্মদ মিঠুন। ব্যাটসম্যানদের সুযোগ হাতছাড়া করার দিনে রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে প্রথম দিনেই গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ।
  • ডি ককের সেঞ্চুরি, বাভুমার ২ রানের আক্ষেপ
    নতুন ভূমিকায় আনুষ্ঠানিক যাত্রার শুরুটা দারুণ হলো কুইন্টন ডি ককের। ফাফ দু প্লেসির জায়গায় নেতৃত্ব পেয়ে দাপুটে সেঞ্চুরিতে দলকে পথ দেখিয়েছেন সামনে থেকে। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের দিনে ২ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে ফিরেছেন টেম্বা বাভুমা।
  • সান্ত্বনার জয়ও পেল না কিউইরা
    শততম ম্যাচে ফিফটি করলেন রস টেইলর। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে পঞ্চাশ পেরুনো ইনিংস খেললেন টিম সাইফার্ট। এরপরও ম্যাচ শেষে চিত্র সেই একই; সান্ত্বনার জয়ও পেল না নিউ জিল্যান্ড। সিরিজের শেষ ম্যাচে রোহিত শর্মার ঝড়ো ব্যাটিংয়ের পর বোলারদের নৈপুণ্যে অনায়াস জয় তুলে নিয়েছে ভারত।
  • মেন্ডিসের শতক, সিরিজ শ্রীলঙ্কার
    হারারে টেস্টে জয়ের জন্য শেষ দিনে রানের পাহাড় টপকাতে হতো। সেই পথে হাটেনি শ্রীলঙ্কা। মাটি কামড়ে ক্রিজে থেকে সামলেছে জিম্বাবুয়ের বোলিং। অপরাজিত শতকে সেই লক্ষ্যে দলকে পথ দেখিয়েছেন কুসল মেন্ডিস।
  • শেষের রোমাঞ্চের পর সুপার ওভারে ভারতের জয়োল্লাস
    শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৭ রান, হাতে উইকেট সাতটি। সহজ সমীকরণ আবারও মেলাতে ব্যর্থ নিউ জিল্যান্ড। ছয় বলে চার উইকেট তুলে নিল ভারত, ম্যাচ গড়ালো সুপার ওভারে। যেখানে অনায়াসে জয় মুঠোবন্দী করল বিরাট কোহলির দল।
  • হারারে টেস্ট বৃষ্টি আর জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণে
    বাজে আবহাওয়ার কারণে হারারে টেস্টে চতুর্থ দিনেও পুরো সময় খেলা হলো না। যেটুকু হয়েছে তাতে শ্রীলঙ্কান বোলারদের ওপর চাপ ধরে রেখেছে জিম্বাবুয়ে।
  • রাজার ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে জিম্বাবুয়ের লিড
    হারারে টেস্টে সিকান্দার রাজার ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে তিনশর আগে গুটিয়ে গেল শ্রীলঙ্কা। পরে ব্যাট হাতে বড় লিডের সম্ভাবনা জাগিয়েছে জিম্বাবুয়ে।
  • মন্থর ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কার জবাব
    শেষ চার উইকেটে খুব বেশি রান যোগ করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। চারশ ছাড়িয়েই থেমে গেছে স্বাগতিকদের ইনিংস। সাবধানী ব্যাটিংয়ে জবাব দেওয়া শ্রীলঙ্কা শেষ বেলায় হারিয়েছে দুই ওপেনারকে।
  • উইলিয়ামসের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের রেকর্ড রান
    শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আগের টেস্টের প্রতিচ্ছবি ছিল প্রথম ঘণ্টার ব্যাটিংয়ে। ব্রেন্ডন টেইলর ক্রিজে যাওয়ার পর বদলে গেল জিম্বাবুয়ে। বাড়ল রানের গতি। শন উইলিয়ামস ও সিকান্দার রাজাও ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে দ্রুত রান তুললেন। তাতে টেস্টের প্রথম দিনে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়ল স্বাগতিকরা।
  • বৃষ্টির হতাশায় শেষ বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি সফর
    অভিষেক হতে পারত হাসান মাহমুদের। নাজমুল হোসেন শান্তকে হয়তো আরেকবার পরখ করা যেত টি-টোয়েন্টিতে। ভুলগুলো শোধরানো যায় কতটা, সেসবও দেখার ছিল। সিরিজ হেরে যাওয়ার পর শেষ ম্যাচ থেকে এসবই ছিল বাংলাদেশের চাওয়া। কিন্তু সব আশা ভেসে গেল বৃষ্টিতে।
  • লড়াই করতেও পারল না বাংলাদেশ
    প্রথম ম্যাচের ভুলগুলো দ্বিতীয় ম্যাচে শোধরাতে চেয়েছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। বাস্তবে দেখা গেল উল্টো চিত্র। ব্যাটিং হলো আগের দিনের চেয়ে ঢিমেতালে। বোলিং একদমই ধারহীন। পারফরম্যান্সে নেই পরিকল্পনার ছাপ, শরীরী ভাষায় নেই কোনো ঝাঁঝ। ফলও তাই অনুমেয়। পাকিস্তানের কাছে পাত্তাই পেল না বাংলাদেশ।
  • হারের হতাশায় বাংলাদেশের শুরু
    মোহাম্মদ রিজওয়ানের শটে মিড উইকেটে সহজ ক্যাচ, কিন্তু মোহাম্মদ মিঠুন পারলেন না হাতে জমাতে। ওই শটেই দুই রান নিয়ে জিতে গেল পাকিস্তান। ম্যাচের শেষটা বাংলাদেশের জন্য হয়ে রইল যেন প্রতীকী। ব্যাটিং-বোলিংয়ে বাংলাদেশ ক্ষেত্র তৈরি করে দারুণ কিছুর, কিন্তু বারবার নিজেরাই ফসকে ফেলেছে সুযোগ। পাকিস্তান সিরিজ শুরু করেছে জয়ে।
  • জিম্বাবুয়ের প্রতিরোধ ভেঙে শ্রীলঙ্কার জয়
    দারুণ লড়াই করল জিম্বাবুয়ে, কিন্তু পারল না ম্যাচ বাঁচাতে। স্বাগতিকদের প্রতিরোধ ভেঙে প্রথম টেস্টে বড় জয় তুলে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা।
  • ম্যাথিউস-মেন্ডিসের ফিফটিতে লিডের পথে শ্রীলঙ্কা
    কুসল মেন্ডিসের পর ফিফটি পেলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। তার দায়িত্বশীল ইনিংসে প্রথম টেস্টে লিড নেওয়ার পথে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। তৃতীয় দিন কেবল তিনটি উইকেট নিতে পেরেছে জিম্বাবুয়ে।
  • হারারেতে দ্বিতীয় দিনেও ম্যাড়ম্যাড়ে ক্রিকেট
    টপ অর্ডারের তিন ফিফটিতে ভালো শুরু পেলেও খুব বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি জিম্বাবুয়ে। লাসিথ এম্বুলদেনিয়ার পাঁচ উইকেটে সাড়ে তিনশ ছাড়িয়েই থেমে গেছে স্বাগতিকদের প্রথম ইনিংস। জবাবে শুরুটা ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার।
  • প্রোটিয়াদের গুঁড়িয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড
    জয়ের মঞ্চ ছিল প্রস্তুত। একমাত্র বাধা হয়ে ছিলেন কেশভ মহারাজ। তার প্রতিরোধ ভেঙে পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ইনিংস ব্যবধানে হারিয়েছে ইংল্যান্ড।
  • সিমন্সের ছক্কা ঝড়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়দের স্বস্তির জয়
    এবারের বিপিএলে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে বেশ ধারাবাহিক পারফর্ম করে গেছেন লেন্ডল সিমন্স। তবে তার সেরা বিধ্বংসী চেহারা দেখা গেল দেশে ফেরার পর জাতীয় দলের হয়ে। এই ওপেনারের ব্যাটিং তাণ্ডবে আইরিশদের গুঁড়িয়ে সমতায় সিরিজ শেষ করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • টপ অর্ডারের কীর্তির দিনে জিম্বাবুয়ের মন্থর ব্যাটিং
    উদ্বোধনী জুটিতে এলো ৯৬ রান। ওভারের সংখ্যা দেখলে অবশ্য চোখ উঠতে পারে কপালে, ৫০ ওভার! টেস্ট ক্রিকেটের বিবেচনাতেও যা যথেষ্ট মন্থর ব্যাটিং, সেটিও সিরিজ শুরুর দিনে। তারপরও জিম্বাবুয়ের জন্য ভালো ব্যাপার, সারাদিনে হারিয়েছে কেবল দুই ওপেনারকে। টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানের ফিফটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ভালো অবস্থানে আছে তারাই।
  • পোলার্ডের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের ম্যাচে উইন্ডিজের হতাশা
    সিরিজ জয়ের আশা টিকিয়ে রাখতে ম্যাচটি জিততেই হতো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। কাইরন পোলার্ডের সৌজন্যে জয়ের সুযোগও সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু অধিনায়কের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হতাশ করল বৃষ্টি। ভেসে গেল ক্যারবিয়ানদের সিরিজ জয়ের আশা। নিশ্চিত হয়ে গেল, সিরিজ হারছে না আয়ারল্যান্ড।
  • বেসের ৫ উইকেটের পর ডি কক-ফিল্যান্ডারের প্রতিরোধ
    আগের দিন দুই উইকেট নেওয়া অফ স্পিনার ডম বেস নিলেন আরও তিনটি। পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে ফলোঅনের চোখ রাঙানির সামনে দাঁড়িয়ে বুক চিতিয়ে লড়াই করছেন কুইন্টন ডি কক ও ভারনন ফিল্যান্ডার। 
  • ধাওয়ান, স্মিথের আক্ষেপের দিনে ভারতের জয়
    টপ অর্ডারের গড়ে দেওয়া মঞ্চে ঝড় তুললেন লোকেশ রাহুল। ভারতকে নিয়ে গেলেন রানের পাহাড়ে। স্বাগতিক ওপেনার শিখর ধাওয়ানের মতো নব্বইয়ের ঘরে আউট হলেন অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথও। তাদের আক্ষেপের দিনে সহজেই জিতল বিরাট কোহলির দল।
  • স্টোকস-পোপের সেঞ্চুরির পর চাপে দ. আফ্রিকা
    প্রথম চার ব্যাটসম্যান ভালো শুরু পেয়েও ইনিংস বড় করতে পারেননি। পেরেছেন বেন স্টোকস ও ওলি পোপ। দারুণ দুই সেঞ্চুরিতে পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে ইংল্যান্ডকে দৃঢ় অবস্থানে নিয়ে গেছেন তারা। জবাব দিতে নেমে দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • ভারতের প্রতাপে পাত্তাই পেল না শ্রীলঙ্কা
    ইনিংসের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দাপুটে ব্যাটিং। বোলিংয়েও প্রতিপক্ষকে নাস্তানাবুদ করে ছাড়ল। ব্যাটে-বলে ভারত উপহার দিল পরিপূর্ণ পারফরম্যান্স। বিরাট কোহলির দলের দোর্দণ্ড প্রতাপে উড়ে গেল শ্রীলঙ্কা।
  • শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিল ভারত
    ভালো শুরু বড় করতে পারলেন না শ্রীলঙ্কার তিন টপ অর্ডারের কেউ। আশা জাগিয়েও সফরকারীরা পারল না বড় সংগ্রহ গড়তে। মাঝারি রান তাড়ায় ঝড় তুললেন লোকেশ রাহুল। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে লঙ্কানদের উড়িয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল ভারত।
  • দ. আফ্রিকার প্রতিরোধ ভেঙে ইংল্যান্ডের নাটকীয় জয়
    ডম বেসের ওভারের শেষ বলে সিঙ্গেল নেওয়া সম্ভব ছিল, কি ভেবে যেন নিলেন না ভারনন ফিল্যান্ডার। পরের ওভারে পরপর দুই বলে ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস ও আনরিক নরকিয়াকে বিদায় করে ইংল্যান্ডকে জয়ের দুয়ারে নিয়ে গেলেন বেন স্টোকস। পরে ফিল্যান্ডারকেই ফিরিয়ে বাকিটুকু সারলেন এই অলরাউন্ডার।
  • সিবলির সেঞ্চুরিতে দ. আফ্রিকার সামনে রেকর্ড গড়ার চ্যালেঞ্জ
    ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নিলেন ডম সিবলি। দ্রুত রান তুলতে ঝড় তুললেন বেন স্টোকস। তাদের দৃঢ়তায় দক্ষিণ আফ্রিকাকে টেস্টে সর্বোচ্চ রান তাড়ার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল ইংল্যান্ড। অভিষিক্ত পিটার মালানের লড়াকু ব্যাটিংয়ে ম্যাচ জমিয়ে তুলেছে ফাফ দু প্লেসির দল।
  • ওয়ার্নারের সেঞ্চুরির পর নিউ জিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিলেন লায়ন
    তাসমান পারের দুই দেশের লড়াই জমল না মোটেও। ব্যাটে-বলে নিজেদের মেলে ধরে প্রতিবেশী নিউ জিল্যান্ডকে উড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া। ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরির পর পাঁচ উইকেট নিয়ে চার দিনেই সিডনি টেস্টে স্বাগতিকদের জয় এনে দিলেন ন্যাথান লায়ন।
  • লায়নের আক্রমণে নাজেহাল নিউ জিল্যান্ড
    যেন একই চিত্রনাট্য ধরে এগোচ্ছে অস্ট্রেলিয়া-নিউ জিল্যান্ড সিরিজ। প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের দাপট, জবাব দিতে নেমে কিউইদের ব্যাটিং ব্যর্থতা। আগের দুই ম্যাচের মতো এবারও অস্ট্রেলিয়া পেল বড় লিড। নিউ জিল্যান্ডকে ২৫১ রানে থামিয়ে দিলেন ন্যাথান লায়ন ও প্যাট কামিন্স। 
  • লাবুশেনের ডাবল সেঞ্চুরির পর ল্যাথাম-ব্লান্ডেলের দৃঢ়তা
    ব্যাট হাতে দুর্দান্ত সময় কাটানো মার্নাস লাবুশেন খেললেন ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। তরুণ এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিতে সিডনি টেস্টে বড় সংগ্রহ গড়েছে অস্ট্রেলিয়া। কোনো ক্ষতি ছাড়ায় দিনের শেষ সেশন কাটিয়ে দিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের দুই ওপেনার টম ল্যাথাম ও টম ব্লান্ডেল।
  • রুট-স্টোকস-ডেনলিদের সুযোগ হাতছাড়া
    প্রথম সাত ব্যাটসম্যানের ছয়জন গেলেন দুই অঙ্কে। পাঁচজন ছাড়ালেন ত্রিশ। তারপরও প্রথম ইনিংসে আড়াইশ রানের আগে গুটিয়ে যেতে বসেছিল ইংল্যান্ড। জো রুট, বেন স্টোকস ও জো ডেনলিদের সুযোগ হাতছাড়া করার দিনে দলকে টানলেন ওলি পোপ। তবে বোলারদের মিলিত অবদানে কেপ টাউন টেস্টের প্রথম দিনটি নিজেদের করে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।   
  • লাবুশেনের সেঞ্চুরিতে আরও চাপে এলোমেলো নিউ জিল্যান্ড
    অসুস্থতা আর চোটের থাবায় টালমাটাল নিউ জিল্যান্ডকে আরও চাপে ফেলে দিয়েছেন মার্নাস লাবুশেন। তরুণ এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিতে সিডনি টেস্টে বড় সংগ্রহের পথে আছে অস্ট্রেলিয়া।
  • প্রোটিয়া পেসে উড়ে গেল ইংল্যান্ড
    কঠিন চ্যালেঞ্জে শেষরক্ষা করতে পারল না ইংল্যান্ড। রেকর্ড রান তাড়ায় শুরুটা ভালো হলেও শেষে পথ হারিয়ে বড় ব্যবধানে হারল তারা। কাগিসো রাবাদা ও আনরিক নরকিয়ার দারুণ বোলিংয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • ব্লান্ডেলের প্রতিরোধ ভেঙে সিরিজ অস্ট্রেলিয়ার
    মঞ্চ এক রকম প্রস্তুতই ছিল। প্রত্যাশা অনুযায়ী নিউ জিল্যান্ডকে বিশাল লক্ষ্য দিলো অস্ট্রেলিয়া। সেই লক্ষ্যে টম ব্লান্ডেল ছাড়া অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের সামনে আর কেউ প্রতিরোধ গড়তে পারল না। জেমস প্যাটিনসন ও ন্যাথান লায়নের তোপে কেন উইলিয়ামসনের দলকে গুঁড়িয়ে সিরিজ নিশ্চিত করল অস্ট্রেলিয়া।
  • রেকর্ড রান তাড়ায় ম্যাচ জমিয়ে তুলেছে ইংল্যান্ড
    ম্যাচের প্রথম তিন ইনিংস থেমেছে তিনশর আগে। সেখানে শেষ ইনিংসে জিততে ইংল্যান্ডকে যেতে হবে চারশর কাছে! ম্যাচের প্রেক্ষাপটে কাজটি ভীষণ কঠিন তো বটেই, কঠিন আসলে যে কোনো বাস্তবতায়ই। জিততে হলে গড়তে হবে নিজেদের রান তাড়ার রেকর্ড। তবে ররি বার্নসের সৌজন্যে সেই চ্যালেঞ্জেই ইংল্যান্ড এগোচ্ছে দারুণভাবে।
  • নিউ জিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিলেন কামিন্স-প্যাটিনসন-স্টার্ক
    অস্ট্রেলিয়ান পেস ত্রয়ীর সামনে দাঁড়াতেই পারল না নিউ জিল্যান্ড। বক্সিং ডে টেস্টে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১৪৮ রানে থমকে গেছে কেন উইলিয়ামসনের দল। প্যাট কামিন্স, জেমস প্যাটিনসন ও মিচেল স্টার্কের দাপুটে বোলিংয়ে তিনশ ছাড়ানো লিড পাওয়া অস্ট্রেলিয়া দিতে যাচ্ছে বিশাল লক্ষ্য।
  • সেঞ্চুরিয়নে বোলারদের দাপটের দিনে বিপদে ইংল্যান্ড
    মনে হচ্ছিল কঠিন সময়টা পার করে দিয়েছেন জো রুট ও জো ডেনলি। এবারে ইংল্যান্ডের এগিয়ে যাওয়ার পালা। তখনই যেন জেগে উঠল দক্ষিণ আফ্রিকার পেস আক্রমণ। দাপুটে বোলিংয়ে সফরকারীদের গুঁড়িয়ে দিয়ে দলকে এনে দেয় শতরানের লিড। দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো করছেন ইংলিশ বোলাররাও। তবে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দেওয়ার পথেই রয়েছে ফাফ দু প্লেসির দল।
  • হেডের সেঞ্চুরির পর চাপে নিউ জিল্যান্ড
    সেঞ্চুরির আশা জাগিয়েও পারেননি স্টিভেন স্মিথ। ব্যর্থ হননি আগের দিনের আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান ট্রাভিস হেড। এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহ গড়েছে অস্ট্রেলিয়া। জবাব দিতে নেমে দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছে নিউ জিল্যান্ড।
  • স্মিথের ব্যাটে বড় সংগ্রহের পথে অস্ট্রেলিয়া
    দিনের প্রথম ওভারেই জো বার্নসের স্টাম্প গুঁড়িয়ে দিলেন ট্রেন্ট বোল্ট। মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টের দুর্দান্ত এই শুরু ধরে রাখতে পারেনি নিউ জিল্যান্ড। স্টিভেন স্মিথের দারুণ ব্যাটিংয়ে প্রথম দিনে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়াই।
  • পাকিস্তানের ঘরে ফেরার জয়ে নাসিমের রেকর্ড
    দশ বছর পর ঘরের মাঠে টেস্ট ফেরার উপলক্ষ্য বড় জয় দিয়ে রাঙানোর দুয়ারেই ছিল পাকিস্তান। শেষ দিনে অবশিষ্ট তিন উইকেটে শ্রীলঙ্কা যোগ করতে পারল না কোনো রান। আনুষ্ঠানিকতা সারতে স্বাগতিকদের লাগল মাত্র ষোলো বল। সবচেয়ে কম বয়সী পেসার হিসেবে টেস্টে ৫ উইকেট পাওয়ার রেকর্ড গড়ে দলকে দারুণ এক জয় এনে দিলেন নাসিম শাহ।
  • ক্যারিবিয়ান চ্যালেঞ্জ জিতে কোহলির ভারতের সিরিজ জয়
    রান তাড়ায় জয়ের কাছে গিয়ে আউট হতে পারেন বিরাট কোহলি, বিরল এই দৃশ্য দেখতে হলো। তবে সেই ‘উপহার’ কাজে লাগাতে পারল না ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রবীন্দ্র জাদেজা ও শার্দুল ঠাকুর দারুণ ব্যাটিং পাড়ি দিলেন শেষের বৈতরণী। উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচ জিতে সিরিজও জিতে নিল ভারত।
  • করাচি টেস্টে জয়ের দুয়ারে পাকিস্তান
    সেঞ্চুরিতে আগের দিনটি রাঙিয়েছিলেন দুই ওপনোর আবিদ আলি ও শান মাসুদ। এবার তিন অঙ্ক স্পর্শ করলেন পরের দুই ব্যাটসম্যান আজহার আলি ও বাবর আজম। বড় পুঁজি পেয়ে জ্বলে উঠলেন বোলাররাও। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে করাচি টেস্টে জয়ের দুয়ারে পৌঁছে গেল পাকিস্তান।
  • আফ্রিদি-আব্বাসের ছোবল এড়িয়ে শ্রীলঙ্কার লিড
    শাহিন শাহ আফ্রিদি ও মোহাম্মদ আব্বাসের ছোবল এড়িয়ে করাচি টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে লিড এনে দিলেন দিনেশ চান্দিমাল ও দিলরুয়ান পেরেরা। ব্যাট-বলের জমজমাট লড়াইয়ের দিনে দ্বিতীয় ইনিংসে পাকিস্তানকে দারুণ শুরু এনে দিলেন দুই ওপেনার শান মাসুদ ও আবিদ আলি।
  • ১৩ উইকেটের দিনে করাচিতে জমজমাট লড়াই
    লাসিথ এম্বুলদেনিয়ার বাঁহাতি স্পিন আর লাহিরু কুমারার পেসের সামনে যেন অসহায় আত্মসমর্পণ করলেন পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা। দুইশর আগেই গুটিয়ে গেল স্বাগতিকদের ইনিংস। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলঙ্কাও স্বস্তিতে নেই খুব একটা। হারিয়ে ফেলেছে তারা টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে।
  • ধনাঞ্জয়ার ৫ দিনে সেঞ্চুরি, আবিদের ইতিহাস
    ম্যাচের প্রথম দিনে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। ৩৮ রানে অপরাজিত ছিলেন দিন শেষে। বৃষ্টি পরের তিন দিনেও শেষ হতে দিল না শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস। একটু একটু করে এগিয়ে টিকে রইলেন ধনাঞ্জয়াও। অবশেষে শেষ দিনে দেখা গেল সূর্যের হাসি, ধনাঞ্জয়ার ব্যাটেও মিলল সেঞ্চুরির হাসি। বৃষ্টিবিঘ্নিত টেস্টের শেষ দিনটি এরপর ইতিহাস গড়া সেঞ্চুরিতে রাঙালেন পাকিস্তানের আবিদ আলি।
  • তামিমের ব্যাটে রান, অলরাউন্ড নৈপুণ্যে উজ্জ্বল থিসারা  
    বাজে সময় পেছনে ফেলে রানে ফিরলেন তামিম ইকবাল। তুলে নিলেন ফিফটি। ব্যাটিংয়ে ঝড় তোলার পর বল হাতে থিসারা পেরেরা নিলেন পাঁচ উইকেট। কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সকে হারিয়ে আসরে প্রথম জয়ের দেখা পেল ঢাকা প্লাটুন।
  • রানের পাহাড় গড়ে সিরিজ জিতল ভারত
    বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত শুরু এনে দিলেন রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল। ঝড় তুললেন বিরাট কোহলিও। তাদের তিন ফিফটিতে রানের পাহাড় গড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সিরিজ জিতে নিল ভারত।
  • এসএ গেমস: নেপালকে হারিয়ে সোনার লড়াইয়ে শান্ত-আফিফরা
    ম্যাচটি নেপাল জাতীয় দলের বিপক্ষে বলেই কিছুটা লড়াইয়ের আশা ছিল। সেই সম্ভাবনাও জাগিয়েছিল দক্ষিণ এশিয়ান গেমসের স্বাগতিক দল। তবে পরশ খাড়কা ও কারান কেসিদের নিয়ন্ত্রিত বোলিং সামলে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও আফিফ হোসেন। পরে বোলারদের দাপুটে পারফরম্যান্সে সহজ জয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ।
  • কোহলি-রাহুলের ব্যাটে রানের পাহাড় টপকাল ভারত
    শুরুতে প্রতিরোধ গড়লেন, মাঝটায় টানলেন নির্ভরতায়, শেষটায় তুললেন ঝড়। বিরাট কোহলির ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রানের পাহাড় টপকাল ভারত। দুইশ ছাড়ানো রান তাড়ায় স্বাগতিকদের দারুণ জয়ে ঝড়ো ফিফটিতে লোকেশ রাহুল রাখলেন বড় অবদান।
  • এসএ গেমস: মালদ্বীপকে উড়িয়ে শুরু সৌম্য-শান্তদের
    দূর্বল প্রতিপক্ষ, অনভিজ্ঞ বোলিং লাইনআপ। মালদ্বীপের বিপক্ষে তবু প্রত্যাশিত ঝড় উঠলো না সৌম্য সরকার, নাঈম শেখ, নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাটে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় স্কোরবোর্ড অবশ্য হয়েছে সমৃদ্ধ। তানভীর ইসলামের দারুণ বোলিংয়ে এরপর অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে মালদ্বীপ। একাই পাঁচ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে বড় জয় এনে দিয়েছেন এই বাঁহাতি স্পিনার।
  • লায়নের স্পিনে ইনিংস ব্যবধানেই হারল পাকিস্তান
    সিরিজ জুড়ে দারুণ পারফর্ম করেছেন অস্ট্রেলিয়ান পেসাররা। ন্যাথান লায়নের কাছেও কিছু পাওয়ার ছিল দলের! পাওনা চুকিয়ে এই অফ স্পিনার, নিলেন ৫ উইকেট। যে মাঠে একসময় ছিলেন মাঠকর্মী, সেই অ্যাডিলেইড ওভালে পূরণ করলেন ৫০ উইকেট। অনুমিতভাবেই পাকিস্তানকে ইনিংস ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজে তাদের হোয়াইটওয়াশ করল অস্ট্রেলিয়া।
  • ইয়াসির-বাবরের লড়াইয়ের পরও ধুঁকছে পাকিস্তান
    বাবর আজমের ব্যাটে আবারও স্ট্রোকের দ্যুতি। ফিরলেন যদিও তিন রানের আক্ষেপ নিয়ে। অভাবনীয় ব্যাটিংয়ে সবাইকে চমকে দিয়ে সেঞ্চুরি করলেন ইয়াসির শাহ। তবে এই দুজনের লড়াইয়ের পরও মিচেল স্টার্কের বোলিং তোপে ফলো অন এড়াতে পারল না পাকিস্তান। দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেও অস্ট্রেলিয়ান পেসে ধরাশায়ী তিন ব্যাটসম্যান। সব মিলিয়ে অ্যাডিলেইডে পাকিস্তানকে চোখ রাঙাচ্ছে ইনিংস পরাজয়।
  • রুট-বার্নসের সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের লড়াই
    ১৪ ইনিংস পর সেঞ্চুরির দেখা পেলেন জো রুট। রোরি বার্নস তুলে নিলেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। দুজনের বড় জুটিতে ইংল্যান্ড কাটালো শুরুর বিপর্যয়। চা বিরতির পর দুই উইকেট তুলে নিয়ে লড়াইয়ে ফিরলো নিউ জিল্যান্ড। বৃষ্টিতে খেলা দ্রুত শেষ হওয়ার আগে হ্যামিল্টন টেস্টের তৃতীয় দিনে ব্যাটে-বলে হলো লড়াই হলো চমৎকার।
  • অস্ট্রেলিয়ার বিশাল সংগ্রহের পর বিপাকে পাকিস্তান
    ট্রিপল সেঞ্চুরিতে রেকর্ড রাঙালেন ডেভিড ওয়ার্নার, মারনাস লাবুশেনের ব্যাট থেকে এলো দেড়শো ছাড়ানো ইনিংস-বোলারদের উপর ছড়ি ঘুরিয়ে অস্ট্রেলিয়া গড়ল পাহাড়সম সংগ্রহ। পরে ব্যাট হাতেও ধুঁকতে দেখা গেল পাকিস্তানকে। মিচেল স্টার্কের তোপে তিন অঙ্ক ছোঁয়ার আগেই ৬ উইকেট হারিয়েছে সফরকারীরা।
  • ওয়াটলিং-মিচেলের ফিফটির পর চাপে ইংল্যান্ড
    আগের ম্যাচের নায়ক বিজে ওয়াটলিং দাঁড়িয়ে গেলেন এবারও। অভিষিক্ত ড্যারিল মিচেলের সঙ্গে গড়লেন শতরানের জুটি। শুরুর ধাক্কা সামাল দিয়ে নিউ জিল্যান্ডের রান গেল চারশর কাছে। শেষ বেলায় দুই উইকেট হারিয়ে হ্যামিল্টন টেস্টে চাপে ইংল্যান্ড।
  • বৃষ্টিবিঘ্নিত দিনে ল্যাথামের সেঞ্চুরি
    বৃষ্টির কারণে চা বিরতির পরই বন্ধ হয়ে গেল দিনের খেলা। সকালে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া নিউ জিল্যান্ডকে পথ দেখালেন টম ল্যাথাম। অপরাজিত সেঞ্চুরিতে দলকে টানছেন বাঁহাতি ওপেনার।
  • দাপুটে উইন্ডিজের বিপক্ষে বড় হার আফগানিস্তানের
    শামার ব্রুকসের সেঞ্চুরি আর রাকিম কর্নওয়ালের দশ উইকেটে আগের দিনই বড় হারের শঙ্কায় পড়েছিল আফগানিস্তান। জেসন হোল্ডারের তোপে তৃতীয় দিনে নাটকীয় কিছু করতে পারলেন না আফগান টেল এন্ডাররা। দাপুটে পারফরম্যান্সে লক্ষ্ণৌ টেস্টে ৯ উইকেটের জয় তুলে নিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • ব্রুকসের সেঞ্চুরি ও কর্নওয়ালের ১০ উইকেটে হারের মুখে আফগানিস্তান
    ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিতে প্রথম ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রায় একাই টানলেন শামার ব্রুকস। দ্বিতীয় ইনিংসেও প্রতিপক্ষের স্পিনে খেই হারালেন আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানরা। মাত্র দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নামা রাকিম কর্নওয়ালের দশ উইকেটে জয়ের খুব কাছে পৌঁছে গেছে ক্যারিবিয়ানরা।
  • কর্নওয়ালের ৭ উইকেটে ঘায়েল আফগান ব্যাটিং
    ‘আমাদের আছে বিশ্ব সেরা স্পিনারদের তিনজন’-ম্যাচের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে একরকম হুমকি দিয়ে রেখেছিলেন আফগানিস্তান কোচ ল্যান্স ক্লুজনার। কিন্তু ম্যাচের প্রথম দিনে দেখা গেল উল্টো চিত্র। ক্যারিবিয়ান স্পিনেই বিধ্বস্ত আফগান ব্যাটিং। মাত্র দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নামা অফ স্পিনার রাকিম কর্নওয়াল একাই নিলেন ৭ উইকেট।
  • বাবরের সেঞ্চুরিতেও ইনিংস হার এড়াতে পারল না পাকিস্তান
    একশর আগেই ৫ উইকেট হারানো পাকিস্তানের পরাজয়টা মনে হচ্ছিল সময়ের ব্যাপার। বাবর আজমের সেঞ্চুরি ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের দৃঢ়তায় প্রতিরোধ অবশ্য গড়েছিল তারা; কিন্তু শেষ পর্যন্ত দলটিকে ইনিংস ব্যবধানেই হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
  • ইনিংস হার এড়াতে পারল না বাংলাদেশ
    মাহমুদউল্লাহ ব্যাট করতে না পারায় ইনিংস ব্যবধারে হার এড়ানো প্রায় অসম্ভব হয়ে গিয়েছিল। দেখার ছিল লোয়ার অর্ডারের ব্যাটসম্যানকে নিয়ে কতটা লড়াই করতে পারেন মুশফিকুর রহিম। খুব একটা পারেননি, প্রথম ঘণ্টাতেই গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশ।
  • ওয়াটলিং-স্যান্টনারের রেকর্ডময় দিনে বিপাকে ইংল্যান্ড
    আগের দিনের অপরাজিত সেঞ্চুরিটিকে বিজে ওয়াটলিং রূপ দিলেন ইতিহাস গড়া ডাবল সেঞ্চুরিতে। মিচেল স্যান্টনার পেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির অতুলনীয় স্বাদ। দুজনের জুটির রেকর্ডে জুটিতে নিউ জিল্যান্ড উঠল রেকর্ড রানের উচ্চতায়। এরপর বল হাতেও দারুণ ঝলক দেখিয়ে স্যান্টনার ইংল্যান্ডকে করে দিলেন কোণঠাসা।
  • ইনিংস পরাজয় এড়াতে লড়ছে বাংলাদেশ
    দ্বিতীয় নতুন বলে দারুণ বোলিংয়ে দলকে আনন্দের একটা উপলক্ষ এনে দিয়েছিলেন বোলাররা। টপ অর্ডারের ব্যর্থতায় সেটাও উবে যেতে বসেছিল। শঙ্কা জেগেছিল দুদিনেই ম্যাচ হারের। কোণঠাসা অবস্থা থেকে মুশফিকুর রহিমের ব্যাটে কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। তবে ইনিংস পরাজয় এড়াতে এখনও কঠিন পথ পাড়ি দিতে হবে সফরকারীদের।
  • কোহলির সেঞ্চুরি, দ্বিতীয় নতুন বলে উজ্জ্বল বাংলাদেশ
    আগের ম্যাচে শূন্য রানে ফেরা বিরাট কোহলি তুলে নিলেন সেঞ্চুরি। অধিনায়কের দৃঢ়তায় বিশাল লিডের সম্ভাবনা জাগিয়েছিল ভারত। তবে দ্বিতীয় নতুন বলে আলো ছড়ালেন বাংলাদেশের বোলাররা। অনেক বড় সংগ্রহের আশা জাগিয়েও তাই ততদূর যেতে পারেনি স্বাগতিকরা।
  • লাবুশেনের ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ের পর বিপাকে পাকিস্তান
    অ্যাশেজের দুর্দান্ত ফর্ম ধরে রেখে ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেললেন মারনাস লাবুশেন। তিনশ ছাড়ানো লিড পেল অস্ট্রেলিয়া। শেষ বিকেলে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ইনিংস হারের শঙ্কায় পড়েছে পাকিস্তান।
  • গোলাপি উৎসবে ধূসর বাংলাদেশ
    দেশের মাটিতে প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্টকে স্মরণীয় করতে ভারতের কত না আয়োজন। ইডেন গার্ডেন্স ঘিরে যেন চলছে উৎসব। ইতিহাসের নতুন এ অধ্যায়ে নিজেদের মেলে ধরল বিরাট কোহলি ও তার সতীর্থরা। অন্যদিকে, ব্যর্থতার বৃত্তেই ঘুরপাক খেল বাংলাদেশ। ভারতের দ্যূতির বিপরীতে যেন আঁধারে ডুবে থাকল মুমিনুল হকের দল।
  • ওয়ার্নারের দারুণ সেঞ্চুরিতে বড় লিডের পথে অস্ট্রেলিয়া
    নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর ঘরের মাঠে প্রথম টেস্ট। অ্যাশেজের দুঃস্বপ্ন পেছনে ফেলে দারুণ এক সেঞ্চুরিতে উপলক্ষটিকে রাঙালেন ডেভিড ওয়ার্নার। বাঁহাতি ওপেনারের অপরাজিত দেড়শ রানের ইনিংসে ব্রিজবেন টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
  • অস্ট্রেলিয়ান পেসে নাজেহাল পাকিস্তান
    ঘাসের ছোঁয়া থাকা উইকেট। টস জিতে তবু পাকিস্তান নিল ব্যাটিং। আজহার আলির কণ্ঠে আত্মবিশ্বাস, “নতুন বল সামলে নিলেই এই উইকেটে রান আসবে তরতরিয়ে।” পাকিস্তান অধিনায়ক নিজে ও শান মাসুদ শুরুটাও করলেন দারুণ। প্রথম সেশনে উইকেট নেই। জুটিতে হলো রেকর্ড। তারপরও পাকিস্তান পারল না প্রথম দিন পার করতে। পেস ত্রয়ীর দুর্দান্ত বোলিংয়ে ঘুরে দাঁড়িয়ে দিনটা নিজেদের করে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
  • মন্থর দিনে ইংল্যান্ডকে টানলেন ডেনলি-স্টোকস
    পর্যটকদের কাছে নিউ জিল্যান্ডের অন্যতম আকর্ষণ মাউন্ট মঙ্গানুই। গ্রীষ্মে এখানে উৎসবের আবহ লেগেই থাকে। তবে অপরূপ সৌন্দর্যের এই শহরের টেস্ট অভিষেক খুব নান্দনিক হলো না মাঠের ক্রিকেট। সারা দিনে নিউ জিল্যান্ড নিতে পেরেছে ৪ উইকেট, ইংল্যান্ডের রান র্স্পশ করেনি আড়াইশ। মন্থর ক্রিকেটের দিন শেষে জো ডেনলি ও বেন স্টোকসের সৌজন্যে একটু এগিয়ে ইংলিশরা।
  • হৃদয়ের রেকর্ড সেঞ্চুরিতে সিরিজ যুবাদের
    তৌহিদ হৃদয়ের ব্যাটে রানের প্রবাহ আটকাতে পারল না শ্রীলঙ্কার যুবারা। টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান গড়লেন দেশের হয়ে যুব ওয়ানডেতে সর্বাধিক সেঞ্চুরির রেকর্ড। সঙ্গে অধিনায়ক আকবর আলির অপরাজিত ফিফটিতে সিরিজ নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশের যুবারা।
  • ভুলে ভরা ম্যাচে বিব্রতকর হার
    দুই দলের প্রথম ইনিংস শেষেই ইন্দোর টেস্টের ফল নিয়ে বাস্তবিক সব অনিশ্চয়তা কেটে গিয়েছিল। শুধু দেখার ছিল বাংলাদেশ লড়াই করতে পারে কতটা, ব্যবধান কতখানি কমাতে পারে। দেখা মেলেনি তাদের চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞার, পারেনি লড়াইয়ের মানিসকতা দেখাতেও। আবারও ব্যাটিং ব্যর্থতায় মুমিনুল হকের দল তিন দিনেই হেরেছে ইনিংসে ব্যবধানে।
  • আবু জায়েদের দ্যুতির পরও আঁধারে বাংলাদেশ
    সকালে অসাধারণ বোলিং করলেন আবু জায়েদ চৌধুরি। ফিরিয়ে দিলেন চেতেশ্বর পুজারা ও বিরাট কোহলিকে। দ্বিতীয় নতুন বলে অজিঙ্কা রাহানেকে ফিরিয়ে ভাঙলেন ১৯০ রানের জুটি। তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের পরও ইন্দোর টেস্টে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বাংলাদেশ। দারুণ এক ডাবল সেঞ্চুরিতে ভারতকে বিশাল সংগ্রহের পথে নিয়ে গেছেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল।
  • তৌহিদের হৃদয়কাড়া ব্যাটিং, যুবাদের রেকর্ড
    তৌহিদ হৃদয়ের ব্যাটে রানের প্রবাহ চলছেই। আগের ম্যাচে দারুণ ব্যাটিংয়ের পর এবার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে উপহার দিলেন অপরাজিত সেঞ্চুরি। পঞ্চাশ ছাড়ালেন আরও তিন জন। রেকর্ড রান তুলে শ্রীলঙ্কাকে হারাল বাংলাদেশের যুবারা।
  • ভারত থেকে ফিরেই সৌম্য-নাঈমের ব্যাটে রান
    ভারতে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন মোহাম্মদ নাঈম শেখ। জাতীয় দল থেকে ফিরে বাঁহাতি ওপেনার রান পেলেন বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের হয়েও। ভারত সিরিজে ব্যাট হাতে খুব ভালো কাটেনি সৌম্য সরকারের। দেশে ফেরার পর তার ব্যাটে ফিরল ঝড়। এসিসি ইমার্জিং টিমস কাপে উড়ন্ত সূচনা করল বাংলাদেশ।
  • প্রথম দিনেই বেহাল বাংলাদেশ
    ইন্দোরে আগে ব্যাটিং নিয়ে ‘সাহস’ দেখালেও ২২ গজে বুক চিতিয়ে লড়াইটাও করতে পারল না বাংলাদেশের কেউ। ফিল্ডিংয়ে ভারতের বাজে দিনের পরও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় তাই দেড়শ রানেই শেষ তাদের প্রথম ইনিংস। বল হাতেও করতে পারেনি দুর্দান্ত কিছু। সব মিলে প্রথম দিনে বিবর্ণ মুমিনুল হকের দল, দারুণ অবস্থানে ভারত।
  • নাঈম বীরত্বেও হতাশায় শেষ বাংলাদেশের
    বড় রান তাড়ায় দলের বাজে শুরুর পরও দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে আশা জাগিয়েছিলেন মোহাম্মদ নাঈম শেখ। তরুণ এই ওপেনারের বীরত্বের পরও ভারতের বিপক্ষে পেরে ওঠেনি বাংলাদেশ। শেষের দিকের তালগোল পাকানো ব্যাটিং আর দীপক চাহারের অসাধারণ বোলিংয়ে সফরকারীরা হেরেছে ম্যাচ, সেই সঙ্গে সিরিজও। 
  • ৫ বছর পর উইন্ডিজের ওয়ানডে সিরিজ জয়
    দীর্ঘ পাঁচ বছরেরও বেশি সময় পর ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্বাদ পেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আফগানিস্তানকে হারিয়ে সিরিজ ঘরে তুলেছে ক্যারিবীয়রা।
  • ব্যাটে-বলে বিবর্ণ বাংলাদেশ
    ভালো শুরু পেয়েও বড় সংগ্রহ গড়তে পারল না বাংলাদেশ। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার দিনে দুর্দান্ত কিছু উপহার দিয়ে লড়াই জমাতে পারেনি বোলাররাও। রোহিত শর্মার বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে সফরকারীদের উড়িয়ে সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে ভারত। 
  • আফগানদের উড়িয়ে দিল উইন্ডিজ
    আফগানিস্তানকে কম রানে থামিয়ে আসল কাজটা সেরে রেখেছিলেন বোলাররা। ব্যাটিংয়ে শুরুতে দ্রুত দুই উইকেট হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পথ দেখালেন রোস্টন চেইস। ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে এনে দিলেন অনায়াস জয়।
  • স্মিথ মাস্টারক্লাসে এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া
    পাওয়ার প্লেতে দুই ওপেনারকে হারানো দলকে পথ দেখালেন স্টিভ স্মিথ। ২২ গজে নেমে শুরু থেকে দৃঢ়তার সঙ্গে খেলে দলকে পৌঁছে দিলেন লক্ষ্যে। পাকিস্তানকে হারিয়ে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া।
  • কোণঠাসা বাঘের গর্জন
    তিন বছর আগে ৩ বলে ২ রানের সহজ সমীকরণ মেলাতে না পারা মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ এবার চ্যালেঞ্জিং কন্ডিশনে মিলিয়ে দিলেন ৩ ওভারে ৩৫ রানের সমীকরণ। সবার সম্মিলিত অবদানে দিল্লিতে শোনা গেল বাঘের গর্জন। বাংলাদেশ পেল এক অনির্বচনীয় স্বাদ। পরাক্রমশালী ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে প্রথম জয়। সেটাও এলো ভারতের মাটিতে। 
  • দুর্দান্ত ওয়ার্নারে হোয়াইটওয়াশড শ্রীলঙ্কা
    পুরো সিরিজে ডেভিড ওয়ার্নারকে একবারও আউট করতে পারলেন না লঙ্কান বোলাররা। টানা তৃতীয় ম্যাচে ব্যাট হাতে দাপট দেখালেন অস্ট্রেলিয়ান এই ওপেনার। অন্যদিকে, ব্যাটিং কিংবা বোলিং কোনো বিভাগেই ভালো করতে পারল না শ্রীলঙ্কা। ফলাফল, শেষ ম্যাচেও বড় ব্যবধানে হেরে হোয়াইটওয়াশড হলো সফরকারীরা।
  • পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে শ্রীলঙ্কার রেকর্ড
    দ্বিতীয় সারির দল নিয়েও ইতিহাস গড়লো শ্রীলঙ্কা। প্রথমবারের মতো তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টিতে হোয়াইটওয়াশ করলো প্রতিপক্ষকে। টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দল পাকিস্তানকে হারাল তাদেরই মাঠে।
  • ব্যাটিং ব্যর্থতায় ‘এ’ দলের বড় হার
    একশ পেরিয়েই থমকে গেল বাংলাদেশ ‘এ’ দলের ইনিংস। ছোট পুঁজি নিয়ে লড়াইটুকুও করতে পারলেন না বোলাররা। শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের বিপক্ষে প্রথম আনঅফিসিয়াল ওয়ানডেতে বড় হারের মুখ দেখল মোহাম্মদ মিঠুনের দল।
  • শেষ ম্যাচেও পারল না মেয়েরা
    ছিলেন জাতীয় দলের অনেকেই। এরপরও ভারত নারী ‘এ’ দলের বিপক্ষে ন্যূনতম লড়াইটাও করতে পারল না বাংলাদেশের মেয়েরা। ব্যাটিং ব্যর্থতায় তৃতীয় এক দিনের ম্যাচেও বড় ব্যবধানে হেরে সিরিজে হোয়াইটওয়াশড হয়েছে বাংলাদেশ নারী ‘এ’ দল।
  • পাকিস্তানের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার ‘প্রথম’
    ভানুকা রাজাপাকসে খুনে ব্যাটিংয়ে এনে দিলেন লড়াইয়ের পুঁজি। এক ওভারে ৩ উইকেট নিয়ে প্রতিপক্ষকে কাঁপিয়ে দিলেন ভানিদু হাসারাঙ্গা। ম্যাচ জুড়ে দারুণ বোলিং করে গেলেন নুয়ান প্রদিপ। তাদের মিলিত অবদানে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টিতে সিরিজ জিতল শ্রীলঙ্কা।
  • ভারতের কাছে সিরিজ হারল মেয়েরা
    দ্বিতীয় ম্যাচেও লড়াই করতে পারল না বাংলাদেশ নারী ‘এ’ দল। ব্যাটিং ব্যর্থতায় এক ম্যাচ বাকি থাকতে ভারত নারী ‘এ’ দলের কাছে সিরিজ হারাল স্বাগতিকরা।
  • আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে ওমানের চমক
    ব্যাটসম্যানরা এনে দিলেন লড়াইয়ের সংগ্রহ। উজ্জ্বীবিত বোলাররা দাঁড়াতেই দিলেন না আইরিশ ব্যাটসম্যানদের। টি-টোয়েন্টিতে প্রথমবারের মতো কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশকে হারালো ওমান।
  • দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দিল ভারত
    জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন ব্যাটসম্যানরা।বাকিটা সারলেন বোলাররা। রবীন্দ্র জাদেজা ও মোহাম্মদ শামির দারুণ বোলিংয়ে প্রথম টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দুই ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেছে ভারত।
  • পাকিস্তানকে গুঁড়িয়ে শুরু শ্রীলঙ্কার
    বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে উড়ন্ত সূচনা এনে দিলেন দানুশকা গুনাথিলাকা। টপ অর্ডারের অন্য দুই ব্যাটসম্যানও রাখলেন অবদান। লড়াইয়ের পুঁজি পাওয়া শ্রীলঙ্কার উজ্জীবিত বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারল না পাকিস্তান। সরফরাজ আহমেদের দলকে গুঁড়িয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল সফরকারীরা।
  • রোহিতের সেঞ্চুরির পর জয়ের আশায় ভারত
    মিডল অর্ডার থেকে ওপেনিংয়ে এসে যেন বদলে গেছেন রোহিত শর্মা। দুই ইনিংসেই করলেন সেঞ্চুরি, গড়লেন বেশ কিছু রেকর্ড। তার প্রাপ্তির টেস্টে জয়ের আশা জাগিয়েছে ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে অপেক্ষা করছে শেষ দিনের কঠিন লড়াই।
  • এলগার-ডি ককের সেঞ্চুরিতে দক্ষিণ আফ্রিকার লড়াই
    শুরুতে দ্রুত তিন ব্যাটসম্যানের বিদায়, ১৭৮ রানের মধ্যে নেই ৫ উইকেট। চোখ রাঙাচ্ছিল ফলো-অন। দরকার ছিল বড় এক জুটির। ডিন এলগার এবং কুইন্টন ডি ককের জুটিতে চাপ কাটিয়ে উঠলো দক্ষিণ আফ্রিকা। দুই সেঞ্চুরিয়ানের ব্যাটে ভারতের বিপক্ষে তৃতীয় দিনে দারুণ লড়াই করল সফরকারীরা।
  • ভারতের রানের পাহাড়, চাপে দ. আফ্রিকা
    আগের দিন সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া রোহিত শর্মা হাতছাড়া করলেন ক্যারিয়ারে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির সুযোগ। সেই পথে হাঁটেননি তার উদ্বোধনী সঙ্গী মায়াঙ্ক আগারওয়াল। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিকে রূপ দিয়েছেন দ্বিশতকে। দুই ওপেনারের রেকর্ড গড়া জুটিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বিশাখাপত্মম টেস্ট নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে ভারত।
  • শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সিরিজ পাকিস্তানের
    ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেললেন দানুশকা গুনাথিলাকা। শেষটায় ঝড় তুলে শ্রীলঙ্কাকে তিনশ রানের কাছে নিয়ে গেলেন দাসুন শানাকা। তবুও পেরে উঠলো না সফরকারীরা। ফখর জামান, আবিদ আলি ও হারিস সোহেলের ফিফটির ওপর ভর করে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে জিতে সিরিজ ঘরে তুলেছে পাকিস্তান।
  • বাবরের সেঞ্চুরির পর জয়াসুরিয়া-শানাকার রেকর্ড জুটি
    দারুণ এক সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানকে বড় সংগ্রহ এনে দিলেন বাবর আজম। রান তাড়ায় বাজে শুরুর পর ঘুরে দাঁড়ানোর অসাধারণ এক গল্প রচনার আশা জাগিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। তবে শেহান জয়াসুরিয়া ও দাসুন শানাকার রেকর্ড গড়া জুটি ভেঙে জয় তুলে নিয়েছে সরফরাজ আহমেদের দল।
  • জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে সিঙ্গাপুরের ইতিহাস
    আগের ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে শুরুর ধাক্কা সামাল দিয়ে বিব্রতকর হার এড়িয়েছিল জিম্বাবুয়ে। এবার আর পেরে উঠল না দলটি। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে তাদের হারিয়ে নিজেদের ইতিহাসের সেরা জয় তুলে নিয়েছে সিঙ্গাপুর।
  • লামিছানের ঘুর্ণি সামলে জিম্বাবুয়ের জয়
    নেপালের বিপক্ষে ছোট লক্ষ্য তাড়ায় সন্দিপ লামিছানের ঘূর্ণিতে শুরুতে চাপে পড়েছিল জিম্বাবুয়ে। শেষ পর্যন্ত অবশ্য রিচমন্ড মুতুমবামি ও রায়ার্ন বার্লের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে প্রত্যাশিত জয় তুলে নিয়েছে আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় থাকা আফ্রিকার দেশটি।
  • করাচিতে ওয়ানডে ফেরার ম্যাচ ভেসে গেল বৃষ্টিতে
    উৎসব হওয়ার কথা ছিল গ্যালারিতে, করাচিতে, পুরো পাকিস্তানে। ওয়ানডে ফেরার দিনটিতে হওয়ার কথা ছিল ক্রিকেটের উৎসব। সেখানে রাজত্ব করল বিরূপ আবহাওয়া। বৃষ্টিতে ভেসে গেল পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার প্রথম ওয়ানডে।
  • সাকিবের দুর্দান্ত ইনিংসে কাটল আফগান গেরো
    বরাবরের মতোই নির্লিপ্ত দেখাল সাকিব আল হাসানকে। জয়ের পর দেখা গেল না বিন্দুমাত্র উচ্ছ্বাস। তবে প্রতিক্রিয়া যেমনই হোক, ভেতরটা স্বস্তিতে ভরে যাওয়ার কথা বাংলাদেশ অধিনায়কের। অবশেষে আফগান-ধাঁধা মেলাতে পারল বাংলাদেশ। সতীর্থ ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার মিছিলে অধিনায়কের ব্যাটেই খুলল জট।
  • কোহলির ব্যাটে সহজেই দ. আফ্রিকাকে হারাল ভারত
    নেতৃত্বের অভিষেকে ব্যাট হাতে আলো ছড়ালেন কুইন্টন ডি কক। তাকে ছাড়িয়ে গেলেন বিরাট কোহলি। রান তাড়ায় পথ দেখালেন দলকে। অধিনায়কের দৃঢ়তায় দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে সহজেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাল ভারত।
  • ওয়েডের সেঞ্চুরিকে হারিয়ে ইংল্যান্ডের জয়
    অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্য চারশ ছুঁইছুঁই হওয়ার পরই অনেকটা নিশ্চিত ছিল ম্যাচের ভাগ্য। দেখার ছিল, অবিশ্বাস্য সিরিজের শেষ ইনিংসটায় নতুন কোনো বিস্ময় উপহার দিতে পারেন কিনা স্টিভেন স্মিথ। তা পারেননি এই ব্যাটসম্যান। অস্ট্রেলিয়াও পারেনি দারুণ কিছু করতে। ম্যাথু ওয়েড অবশ্য লড়াই করেছেন সেঞ্চুরিতে। কিন্তু ইংল্যান্ড ম্যাচ জিতে নিয়েছে বড় ব্যবধানেই।
  • ইংল্যান্ডের দিনে ডেনলির ৬ রানের আক্ষেপ
    টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির সুবাস পেয়েও হারিয়ে ফেললেন জো ডেনলি। পঞ্চাশ পেরিয়ে বেন স্টোকস পারলেন না সিরিজে তৃতীয় সেঞ্চুরির কাছে যেতে। সম্ভাবনা জাগিয়েও জস বাটলার পারলেন না ম্যাচে দ্বিতীয়বার পঞ্চাশ ছুঁতে। তবে ব্যক্তিগত এই আক্ষেপগুলো খুব একটা ভোগায়নি দলকে। ইংল্যান্ড পেয়ে গেছে বড় লিড।
  • জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে আফগানিস্তানের শুভ সূচনা
    জয় দিয়ে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করেছে আফগানিস্তান। নাজিবউল্লাহ জাদরান ও মোহাম্মদ নবির বিস্ফোরক জুটিতে বড় সংগ্রহ গড়া দলটি সহজেই হারিয়েছে জিম্বাবুয়েকে।
  • আর্চারের বোলিং তোপে ইংল্যান্ডের লিড
    স্টিভেন স্মিথের ব্যাটে রানের জোয়ার চলছেই। তবে ব্যর্থ তার সতীর্থরা। জফরা আর্চারের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে ধসে পড়ল অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং। স্মিথকে থামিয়ে ইংল্যান্ড পেল গুরুত্বপূর্ণ লিড।
  • মার্শের বোলিং চমক, বাটলারের লড়াই
    বোলিংয়ে একটি বিকল্প বাড়ানো আর লম্বা সিরিজের শেষ ম্যাচে  মূল ফাস্ট বোলারদের একটু বিশ্রামের সুযোগ দেওয়া। মূলত এই ভাবনা থেকেই একাদশে ফেরানো হলো মিচেল মার্শকে। কিন্তু সহকারীর ভূমিকায় এসে তিনিই হয়ে উঠলেন কেন্দ্রীয় চরিত্র। দুর্দান্ত বোলিংয়ে কাঁপিয়ে দিলেন ইংলিশ ব্যাটিং। কিন্তু একজন দাঁড়িলে গেলেন ব্যাট হাতে। দারুণ ব্যাটিংয়ে জস বাটলার কিছুটা উদ্ধার করলেন ইংল্যান্ডকে।
  • ৭০ মিনিটের লড়াইয়েও বাংলাদেশের আত্মসমর্পণ
    টিপ টিপ বৃষ্টি পড়ছে। ঘড়ির কাঁটা ছুঁটছে। ফ্লাড লাইট জ্বলছে। আফগানদের আশা দুলছে। বৃষ্টিময় দিনটির শেষবেলায় ক্রিকেটীয় উত্তেজনার ঢেউ। সম্ভাবনা আর শঙ্কার দোলাচল। সময়ের দাবি ছিল একজন নায়ক। সময়ের ডাক শুনলেন আফগান অধিনায়ক। অসাধারণ বোলিংয়ে রশিদ খান গড়ে দিলেন ম্যাচের ভাগ্য। চট্টলার সাঁঝবেলায় উজ্জ্বল হয়ে উঠল আফগান ক্রিকেট। হতাশার আঁধারে ডুবল বাংলাদেশ।
  • ইংলিশ প্রতিরোধ ভেঙে অ্যাশেজ ধরে রাখল অস্ট্রেলিয়া
    ক্রিকেটাররা সবাই তাকিয়ে স্টেডিয়ামের বড় পর্দায়। তাকিয়ে গ্যালারির সব দর্শক, গোটা মাঠের সবাই। রিভিউয়ের রায় দেখার রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষা। রিভিউয়ে যখন দেখা গেল ‘আউট’, আনন্দ হুঙ্কারে লাফিয়ে উঠলেন অস্ট্রেলিয়ানরা। একেকজন যেন ছুঁতে চাইলেন আকাশ। ওই আউটেই নিশ্চিত হলো ম্যাচ জয়। নিশ্চিত হলো অ্যাশেজ ধরে রাখাও। উল্লাস তাই বাঁধনহারা।
  • বাংলাদেশকে মাড়িয়ে জয়ের দুয়ারে আফগানিস্তান
    তৃতীয় দিন শেষেই ম্যাচের গতিপথ অনেকটা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। চিত্রপটে পরিবর্তন আনতে অবিশ্বাস্য কিছু করে দেখাতে হতো বাংলাদেশকে। তা তো হয়ইনি, বরং দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যাটিং ব্যর্থতায় বড় ব্যবধানে হারের শঙ্কায় পড়েছে সাকিব আল হাসানের দল। ব্যাটে-বলে পুরো চার দিনেই আধিপত্য করা আফগানিস্তানের জয়টা এখন শুধুই সময়ের ব্যাপার।
  • বাংলাদেশকে ইতিহাস গড়ার চ্যালেঞ্জ দিল আফগানিস্তান
    লিড চারশতে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যের কথা জানিয়েছিল আফগানরা। যেতে পেরেছে তারা খুব কাছে। চট্টগ্রাম টেস্ট জিততে হলে তাই বাংলাদেশকে গড়তে হবে নতুন ইতিহাস।
  • স্মিথের আরেকটি দুর্দান্ত ইনিংসের পর বিপদে ইংল্যান্ড
    দিনের শুরু আর শেষে অস্ট্রেলিয়ান পেসের দুর্দান্ত প্রদর্শনী। মাঝে স্টিভেন স্মিথের আরেকটি অসাধারণ ইনিংস। অ্যাশেজ ধরে রাখার পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচ বাঁচানোর লড়াইয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জে ইংল্যান্ড।
  • বাংলাদেশের ওপর আফগানিস্তানের রানের বোঝা
    প্রথম ওভারেই দুই উইকেট। সাকিব আল হাসানের চাওয়া মতো সত্যিই কি ‘ম্যাজিক্যাল’ কিছু করবে বাংলাদেশ! অধিনায়কের জোড়া উইকেটে ক্ষণিকের জন্য আশা জাগল। কিন্তু সময়ের সঙ্গে ইব্রাহিম জাদরান, আসগর আফগানদের ব্যাটে পিষ্ট হলো জাদুকরী কিছুর আশা। বড় লিড নিয়ে আফগানিস্তান উপহার দিল কঠিন বাস্তবতা। যেখানে জয় যেন দূর আকাশের তারা।
  • তৃতীয় সকালে ১৭ মিনিটেই শেষ বাংলাদেশ
    অধিনায়কের আশা ছিল এক সেশন ব্যাটিং। শেষ দুই জুটি টিকতে পারল কেবল ১৭ মিনিট। বাংলাদেশকে দ্রুত গুটিয়ে বড় লিড নিল আফগানিস্তান।
  • হেইজেলউডের বোলিং তোপে বিপাকে ইংল্যান্ড
    প্রায় দেড়শ ছোঁয়া জুটি। অস্ট্রেলিয়ান বোলিং চ্যালেঞ্জে ররি বার্নস ও জো রুটের জবাব। ইংল্যান্ড এগিয়ে যাচ্ছিল দারুণভাবে। দুর্দান্ত এক স্পেলে খেলার মোড় পাল্টে দিলেন জশ হেইজেলউড। ইংলিশরা এখন ফলো অনের শঙ্কায়।
  • আফগান দাপটে নাকাল বাংলাদেশ
    এক দল খেলছে তৃতীয় টেস্ট। সেটিও প্রতিপক্ষের মাঠে। আরেক দলের ১১৫তম টেস্ট। খেলা নিজেদের মাঠে। কিন্তু পারফরম্যান্স দেখে বোঝা মুশকিল, কোন দলটির কেবল শুরু আর কারা অভিজ্ঞ। নবীন আফগানিস্তানই যেন পরিণত। দিশাহারা বাংলাদেশ। আফগানরাই উজ্জীবিত, জবুথবু বাংলাদেশ!
  • আফগানদের সাড়ে তিনশর নিচে থামালেন তাইজুল-সাকিব
    দুর্ভাবনা ছিল আসগর আফগান ও আফসার জাজাইয়ের জুটি। কিন্তু এই দুজনকে দ্রুত ফেরানোর পর মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠলেন রশিদ খান। শেষ পর্যন্ত তাকেও ফিরিয়ে আফগানদের সাড়ে তিনশর নিচে থামাল বাংলাদেশ।
  • রানের জোয়ারে এবার স্মিথের ডাবল সেঞ্চুরি
    ভেন্যু বদলাচ্ছে, বদলে যাচ্ছে উইকেট। প্রতিপক্ষের বোলিং আক্রমণ বদলাচ্ছে। কৌশল বদলাচ্ছে। কিন্তু স্টিভেন স্মিথের কিছুই বদলাচ্ছে না। মাথায় চোট পেয়ে বিরতি পড়ছে। ছন্দে থাকার সময় বৃষ্টির বাঁধা পড়ছে। স্মিথের কিছুই যায় আসছে না। আপন ভুবনে খেলে যাচ্ছেন যেন আপন মনে। বইয়ে দিচ্ছেন রানের জোয়ার। সেই ধারাবাহিকতায় এবার করলেন ডাবল সেঞ্চুরি।
  • বাংলাদেশের স্পিন মঞ্চে রহমত-আসগরের আলো
    উইকেট-কৌশল নিয়ে অনেক জল্পনা শেষে দেখা গেল সেই পুরানো চিত্রই। দুই দলেরই একাদশে স্পেশালিস্ট স্পিনার চার জন করে। তবে সাজিয়ে রাখা সেই স্পিন মঞ্চে আলো ছড়ালেন দুই আফগান ব্যাটসম্যান। সেঞ্চুরিতে ইতিহাস গড়লেন রহমত শাহ। সেঞ্চুরির হাতছানি আসগর আফগানের সামনেও। দিনটিও তাই আফগানদের।
  • স্মিথের রান মেশিন চলছেই
    মাথায় চোট লাগল। এক টেস্ট বিশ্রামেও থাকতে হলো। কিন্তু ব্যাটের ধার কমল না একটুও। ফেরার পরও একইরকম সচল! আবারও ইংল্যান্ডের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে গেছেন স্টিভেন স্মিথ। চলছে মার্নাস লাবুশেনের অ্যাশেজ স্বপ্ন যাত্রাও। শুরুর অস্বস্তি কাটিয়ে তাই অস্ট্রেলিয়া পেয়েছে শক্ত ভিত।
  • শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে নিউ জিল্যান্ডের সিরিজ জয়
    লক্ষ্য খুব একটা বড় ছিল না। কিন্তু রান তাড়ায় আকিলা দনাঞ্জয়ার স্পিনে শুরুতেই দিক হারায় নিউ জিল্যান্ড। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে পথ দেখান কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। টম ব্রুসের সঙ্গে গড়েন ম্যাচ জেতানো জুটি। তাতে এক ম্যাচ হাতে রেখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে নিয়েছে টিম সাউদির দল।
  • উইন্ডিজকে উড়িয়ে পুরো ১২০ পয়েন্ট পেল ভারত
    ফল অনুমিতই ছিল। অপেক্ষা ছিল কেবল সময়ের। চতুর্থ দিনে সেই ফলটা পেতে দুই সেশনও লাগল না ভারতের। ‘কনকাশন’ বদলির সুযোগ নিয়ে ১২ জন ব্যাট করলেও লড়াই করতে পারল না ওয়েস্ট ইন্ডিজ। পুরো ১২০ পয়েন্ট নিয়ে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু করল ভারত।
  • রাহানে-বিহারির ফিফটির পর জয়ের পথে ভারত
    জাসপ্রিত বুমরাহর আগুন একটি দিনের জন্য স্তিমিত থাকল। তবে প্রতিপক্ষকে পোড়াতে ভারতের খুব একটা সমস্যা হলো না। প্রথম ইনিংসে বিশাল লিডের পর দ্বিতীয় ইনিংসে লিড আরও বাড়ল অজিঙ্কা রাহানে ও হনুমা বিহারির ফিফটিতে। শেষ ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে আবার শুরুতে হোঁচট খেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারত তাই অপেক্ষায় ম্যাচ ও সিরিজ জয়ের।
  • বিহারির সেঞ্চুরির পর বিধ্বংসী বুমরাহ
    আগের টেস্টে হাতছানি দিয়েও মিলিয়ে গিয়েছিল সেঞ্চুরি। এবার আর মিলিয়ে যেতে দেননি হনুমা বিহারি। দেখা পেয়েছেন বহু কাঙ্ক্ষিত প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির। আগের টেস্টে বিধ্বংসী বোলিংয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন জাসপ্রিত বুমরাহ। আগুনে বোলিংয়ে আবারও তিনি নাম লেখালেন রেকর্ড বইয়ে। এবার করলেন হ্যাটট্রিক। কিংস্টন টেস্টে ভারতের সামনে তাই দিশাহারা ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • কিংস্টনে ব্যাট-বলের জমজমাট লড়াই
    কিংস্টনে প্রথম দিন দারুণ লড়াই দেখা গেছে ব্যাট-বলের। লড়াকু দুই ফিফটিতে ভারতকে টেনেছেন বিরাট কোহলি ও মায়াঙ্ক আগারওয়াল। তবে জ্যামাইকা টেস্টের শুরুর দিন সবচেয়ে বেশি উজ্জ্বল ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।
  • দুর্দান্ত বোলিংয়ে নিউ জিল্যান্ডের রেকর্ড গড়া জয়
    ম্যাচের প্রথম তিন দিনের অনেকটাই খেয়ে নিয়েছিল বৃষ্টি। শেষ দিনের খেলা যখন শুরু হলো, তখনও শেষ হয়নি দুই দলের একটি করে ইনিংসও। এই ম্যাচে ফল সম্ভব? নিউ জিল্যান্ড দেখাল, খুবই সম্ভব। দুর্দান্ত ব্যাটিংকে অনুসরণ করে শেষ দিনে কিউইদের বোলিং হলো অসাধারণ। ধসে পড়ল লঙ্কান ব্যাটিং। রেকর্ড গড়া জয়ে সিরিজ ড্র করল নিউ জিল্যান্ড।
  • স্টোকসের অবিশ্বাস্য ইনিংসে ইংল্যান্ডের ইতিহাস গড়া জয়
    প্যাট কামিন্সের বলে চালিয়ে দিলেন ব্যাট। ফিল্ডারদের ফাঁক গলে বল ছুটল সীমানার দিকে। মুষ্ঠিবদ্ধ হাত বাতাসে ছুঁড়লেন বেন স্টোকস। দুহাত প্রসারিত করে ছুঁড়লেন হুঙ্কার। গ্যালারিতে তখন গর্জন দর্শকের কণ্ঠেও। হেডিংলির গ্যালারি যেন রোমান কলোসিয়াম, স্টোকস কোনো যুদ্ধজয়ী গ্ল্যাডিয়েটর! টেস্ট ইতিহাসের অন্যতম সেরা ইনিংস খেলে বলতে গেলে একাই হারিয়ে দিলেন অস্ট্রেলিয়াকে।
  • রানের পাহাড়ে নিউ জিল্যান্ড
    আগের দিন সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া টম ল্যাথাম থেমেছেন দেড়শ ছাড়িয়ে। দুই মেজাজের ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নিয়েছেন বিজে ওয়াটলিং ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে রানের পাহাড় গড়ছে নিউ জিল্যান্ড।
  • উইন্ডিজকে বড় লক্ষ্য দিচ্ছে ভারত
    তৃতীয় দিন সকালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্রুত গুটিয়ে দেওয়ার পর লিড বাড়িয়ে চলেছে ভারত। বিরাট কোহলি ও অজিঙ্কা রাহানের ব্যাটে অ্যান্টিগা টেস্টে ক্যারিবিয়ানদের বড় লক্ষ্য দেওয়ার পথে রয়েছে বিরাট কোহলির দল।
  • রুট-ডেনলির ব্যাটে ম্যাচ জমিয়ে তুলেছে ইংল্যান্ড
    রান প্রয়োজন ছিল দুজনেরই। প্রেক্ষাপট যদিও খানিকটা ভিন্ন। একজন দলের অধিনায়ক, মনে করা হয় সেরা ব্যাটসম্যানও। কিন্তু পারছিলেন না সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে। আরেকজনের দলে জায়গা টিকিয়ে রাখার শেষ সুযোগ ছিল হয়তো এটিই। জো রুট ও জো ডেনলি, হতাশার সিরিজে অবশেষে হাসল দুজনের ব্যাট। ডেনলি অবশ্য ফিরে গেছেন ফিফটি করে। তবে টিকে আছেন রুট। তাই টিকে আশা ইংল্যান্ডের আশাও।
  • ল্যাথামের সেঞ্চুরিতে লিডের পথে নিউ জিল্যান্ড
    লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে দারুণ লড়াই করলেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। পঞ্চম সেঞ্চুরিতে দলকে নিয়ে গেলেন আড়াইশ রানের কাছে। আগের ম্যাচে ভালো শুরুগুলো বড় করতে না পারা টম ল্যাথাম মেলে ধরলেন নিজেকে। দশম সেঞ্চুরিতে কলম্বো টেস্টে নিউ জিল্যান্ডকে লিড নেওয়ার পথে রাখলেন এই ওপেনার।
  • ইশান্তের দাপুটে বোলিংয়ে লিডের পথে ভারত
    লড়াকু এক ফিফটিতে দলকে তিনশ রানের কাছে নিয়ে গেলেন রবীন্দ্র জাদেজা। লোয়ার অর্ডারে ব্যাট হাতে অবদান রাখা ইশান্ত শর্মা বল হাতে ছড়ালেন দ্যুতি। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে কাঁপিয়ে দিয়ে অ্যান্টিগা টেস্টে ভারতকে রাখলেন লিড নেওয়ার পথে।
  • লাবুশেনের লড়াইয়ে তিনশর কাছে অস্ট্রেলিয়ার লিড
    পেসারদের অসাধারণ পারফরম্যান্স নিশ্চিত করেছিল প্রথম ইনিংসে বড় লিড। ব্যাটিংয়ে মার্নাস লাবুশেনের লড়াইয়ে সেই লিড আরও বাড়িয়ে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ইনিংসের মতোই ব্যাটিং বিপর্যয়ে ত্রাতা হয়ে দলকে টেনেছেন লাবুশেন।
  • অস্ট্রেলিয়ান পেসে ৬৭ রানেই শেষ ইংল্যান্ড
    আগের দিনের মতো মেঘলা আকাশ আর পেস সহায়ক কন্ডিশন নেই। বরং আলো ঝলমলে দিন। উইকেটও ব্যাটিংয়ের জন্য খুব কঠিন নয়। কিন্তু সেই কন্ডিশন আর উইকেটেই জ্বলে উঠল অস্ট্রেলিয়ান বোলাররা। তিন অস্ট্রেলিয়ান পেসারের খুনে বোলিংয়ে বিধ্বস্ত হলো ইংলিশ ব্যাটিং।
  • বোল্ট-সাউদির ছোবলের পর কলম্বোয় বৃষ্টির দাপট
    প্রথম সেশনে ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদির জোড়া আঘাতে শ্রীলঙ্কাকে কম রানে গুটিয়ে দেওয়ার আশা জাগিয়েছিল নিউ জিল্যান্ড। তাতে জল ঢেলে দিয়েছে বৃষ্টি। ভেসে গেছে পরের দুই সেশনের খেলা।
  • রোচ-গ্যাব্রিয়েলের তোপে চাপে ভারত
    নতুন বলে প্রতিপক্ষকে কাঁপিয়ে দিলেন কেমার রোচ। বিরাট কোহলির মূল্যবান উইকেট নেওয়ার পর অজিঙ্কা রাহানের প্রতিরোধ ভাঙলেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। দুই পেসারের তোপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম দিন শেষে চাপে ভারত।
  • আর্চারের আগুনে বোলিংয়ে পুড়ল অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটিং
    দিনভর বৃষ্টি ঝরেছে থেমে থেমে। জফরা আর্চারের বোলিংয়ের আগুন তাতে নেভেনি। বৃষ্টির ফাঁকে যখনই খেলা হয়েছে, সময়ের আলোচিত এই ফাস্ট বোলার যেন তোপ দেগেছেন। সঙ্গে অভিজ্ঞ স্টুয়ার্ট ব্রড দেখিয়েছেন সুইংয়ের জাদু। তাতে বিধ্বস্ত অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটিং। এই দুজনের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে লড়াই করতে পেরেছেন কেবল ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্নাস লাবুশেন।
  • বৃষ্টির কবলে কলম্বো টেস্টের প্রথম দিন
    শ্রীলঙ্কা ও নিউ জিল্যান্ডের মধ্যে কলম্বো টেস্টের প্রথম দিনের প্রায় দুই সেশনের খেলা ভেসে গেছে বৃষ্টিতে।
  • স্টোকসের সেঞ্চুরি ও লাবুশেন চমকের পর ম্যাচ ড্র
    প্রায় দুটি দিন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পর ড্র ছিল ম্যাচের সবচেয়ে অনুমিত ফল। হয়েছে সেটিই। তবে তার আগে লড়াই হলো জমজমাট। দেখা গেল পারফরম্যান্সের দ্যুতি। বেন স্টোকসের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ড পেল ইনিংস ঘোষণার সুযোগ। অস্ট্রেলিয়ার সামনে তখন ম্যাচ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ। শুরুতে হোঁচট খেলেও অস্ট্রেলিয়াকে উদ্ধার করলেন ‘কনকাশন’ বদলি হিসেবে খেলতে নামার ইতিহাস গড়া মার্নাস লাবুশেন।
  • করুনারত্নের সেঞ্চুরিতে শ্রীলঙ্কার রেকর্ড গড়া জয়
    চতুর্থ ইনিংসে রান তাড়ায় বরাবরই ব্যাটসম্যানদের দুঃস্বপ্নের ভেন্যু গল। সেই মাঠেই গড়ল শ্রীলঙ্কা গড়ল নতুন ইতিহাস। রান তাড়ার রেকর্ড গড়া জয়ে লঙ্কানরা শুরু করল আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পথচলা। অসাধারণ সেঞ্চুরিতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেন অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে।
  • স্মিথের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের পর বিপাকে ইংলিশরা
    প্রথম দিনের পুরোটুকু ও তৃতীয় দিনের দুই সেশনের খেলা ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। এরপরও দারুণ জমে উঠেছে লর্ডস টেস্ট। স্টিভেন স্মিথের আরেকটি অসাধারণ ইনিংস টেনে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস। এরপর প্যাট কামিন্স ও পিটার সিডলের তোপে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে গেছে ইংলিশরা। সব মিলিয়ে চতুর্থ দিন শেষে ম্যাচ দাঁড়িয়ে রোমাঞ্চকর মোড়ে।
  • রেকর্ড উদ্বোধনী জুটিতে জয় দেখছে শ্রীলঙ্কা
    টার্নিং উইকেটে চতুর্থ ইনিংসে দুইশ রানের ওপরে যে কোনো স্কোরই কঠিন। তবে ২৬৮ রানের লক্ষ্য সহজেই ছুঁয়ে ফেলার আশা জাগিয়েছে শ্রীলঙ্কা। দিমুথ করুনারত্নে ও লাহিরু থিরিমান্নে গড়েছেন চতুর্থ ইনিংসে দেশের সেরা উদ্বোধনী জুটি। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে গল টেস্টে জয় দেখছে স্বাগতিকরা।
  • বৃষ্টির আগে বিপর্যয়ে অস্ট্রেলিয়া
    লর্ডস টেস্টে বোলারদের দাপট চলছেই। অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের নৈপুণ্যে প্রথম ইনিংসে বড় স্কোর গড়তে পারেনি ইংল্যান্ড। এবার ইংলিশ বোলাররা দ্রুতই ছোবল দিলেন অস্ট্রেলিয়ান টপ অর্ডারে। তবে বোলারদের চেয়েও বেশি দাপট ছিল বৃষ্টির। তাই তৃতীয় দিনে খেলা হতে পারেনি পুরো একটি সেশনও।
  • গল টেস্টে ব্যাটে-বলে উজ্জ্বল লাকমল
    আগের দিন নিউ জিল্যান্ডকে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন আকিলা দনাঞ্জয়া। দ্বিতীয় দিন সকালে বাকিটা সেরেছেন সুরঙ্গা লাকমল। পরে ব্যাট হাতেও অবদান রেখে শ্রীলঙ্কার লিড নেওয়ার আশা বাঁচিয়ে রেখেছেন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। 
  • বিধ্বংসী গেইলকে ছাপিয়ে কোহলির দুর্দান্ত সেঞ্চুরি
    প্রথম দুই ওয়ানডেতে ক্রিস গেইল ছিলেন যেন ঘুমিয়ে। জেগে উঠলেন শেষ ম্যাচে। ব্যাটিং তাণ্ডবে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে এনে দিলেন বিধ্বংসী শুরু। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গড়ল চ্যালেঞ্জিং স্কোর। কিন্তু বিরাট কোহলি যখন থাকেন ছন্দে, কোনো চ্যালেঞ্জই তো মনে হয় না খুব কঠিন! অধিনায়কের টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে টানা দুই জয়ে ভারত জিতে নিল সিরিজ।
  • আর্চারকে অপেক্ষায় রাখল বৃষ্টি
    টস হওয়ার আগেই ছোট্ট একটি আয়োজন হয়ে গেল মাঠের এক প্রান্তে। ইংল্যান্ডের ড্রেসিং রুমের সামনে জফ্রা আর্চারকে টেস্ট ক্যাপ তুলে দিলেন ক্রিস জর্ডান। দুজনের জন্ম বারবাডোজে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন ইংল্যান্ডের হয়ে। দুই ফাস্ট বোলারের সম্পর্কও বেশ ঘনিষ্ঠ। সবকিছু মিলিয়ে আর্চারের স্বপ্নের টেস্ট ক্যাপ তুলে দেওয়ার জন্য জর্ডানকেই মনে করা হয়েছে উপযুক্ত। তবে ক্যাপ পেলেও আনুষ্ঠানিকভাবে আর্চারের অভিষেক হলো না এ দিন। বৃষ্টি যে টসই হতে দিল না!
  • দনাঞ্জয়ার ছোবল সামলে টেইলরের লড়াই
    গল টেস্টের প্রথম দিন দারুণ জমেছে ব্যাটে-বলের লড়াই। আকিলা দনাঞ্জয়ার স্পিন সারাটা দিন পরীক্ষায় রেখেছে নিউ জিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের। শ্রীলঙ্কার স্পিন আক্রমণ সামলে সফরকারীদের ভালো একটা সংগ্রহ গড়ার আশা বাঁচিয়ে রেখেছেন রস টেইলর।
  • গেইলের মাইলফলকের ম্যাচ রাঙালেন কোহলি-ভুবনেশ্বর
    ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ৩০০ ওয়ানডে খেলার স্বাদ। দারুণ এই অর্জনের দিনটি স্মরণীয় করে রাখতে পারলেন না ক্রিস গেইল। পারল না তার দলও। বরং বিরাট কোহলির আরেকটি সেঞ্চুরির পর ভুবনেশ্বর কুমারের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ম্যাচ জিতে নিল ভারত।
  • উইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করল ভারত
    দীপক চাহারের অসাধারণ বোলিংয়ে লক্ষ্যটা ছিল হাতের নাগালে। ব্যাট হাতে বাকিটা সহজেই সারলেন বিরাট কোহলি ও রিশাব পান্ত। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করল ভারত।
  • ইংল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে এজবাস্টন টেস্ট জিতল অস্ট্রেলিয়া
    টেস্ট ক্রিকেট তার সব রঙ নিয়ে যেন হাজির হয়েছিল এজবাস্টনে। প্রথম দিন ১২২ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা অস্ট্রেলিয়াই প্রথম টেস্ট জিতে নিল দাপটের সঙ্গে। শেষ দিন ইংল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিয়ে অ্যাশেজ টেস্ট সিরিজে সফরকারীদের এগিয়ে নিলেন অফ স্পিনার ন্যাথান লায়ন ও পেসার প্যাট কামিন্স।
  • পান্ডিয়ার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে সিরিজ জিতল ভারত
    ব্যাট হাতে তুললেন ঝড়। বোলিংয়েও রাখলেন অবদান, থামালেন তাণ্ডব চালানো রভম্যান পাওয়েলকে। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে পার্থক্য গড়ে দিলেন ক্রুনাল পান্ডিয়া। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচেই টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে নিল ভারত।
  • স্মিথের কীর্তির দিনে ওয়েডেরও সেঞ্চুরি
    প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিতে ছিল ফেরার ঘোষণা। দ্বিতীয় ইনিংসের সেঞ্চুরি যেন জানিয়ে দিল, হারানো সময়টায় হারায়নি কিছুই। প্রত্যাবর্তনের টেস্ট থেকেই আবার ছুটল স্টিভেন স্মিথের রান রথ। নাম লেখালেন রেকর্ড বইয়ে। ম্যাথু ওয়েডেরও এটি ফেরার টেস্ট। ক্যারিয়ারে প্রথমবার টেস্ট খেলছেন বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান হিসেবে। নিজের নতুন শুরু তিনিও রাঙালেন সেঞ্চুরিতে।
  • নবদীপ-ভুবনেশ্বরের নৈপুণ্যে উইন্ডিজকে হারাল ভারত
    অভিষেকে দারুণ বোলিং করলেন নবদীপ সাইনি। আলো ছড়ালেন অভিজ্ঞ ভুবনেশ্বর কুমার। বোলারদের নৈপুণ্যে পাওয়া ছোট লক্ষ্যে ব্যাটসম্যানদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় পৌঁছে গেল ভারত। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে হারিয়ে সফর শুরু করেছে বিরাট কোহলির দল।
  • ইংল্যান্ডের সামনে আবার স্মিথ-বাধা
    সকালের বিপর্যয় কাটিয়ে ইংল্যান্ডকে বড় লিড এনে দিল লেজের ব্যাটসম্যানরা। অস্ট্রেলিয়া সেই লিড পুষিয়ে দেওয়ার আগেই হারাল টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে। ম্যাচে তখন ইংলিশদের প্রবল দাপট। কিন্তু আবারও তাদের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়ালেন স্টিভেন স্মিথ। এই ম্যাচ দিয়েই ১৬ মাস পর টেস্টে ফেরা সাবেক অধিনায়কের ব্যাটে বড় লিডের আশা জিইয়ে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া।
  • বার্নসের সেঞ্চুরিতে বড় লিডের পথে ইংল্যান্ড
    অস্ট্রেলিয়ার পেস আক্রমণ সামলে ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন ররি বার্নস। এই ওপেনারের দৃঢ়তায় এজবাস্টন টেস্টে বড় লিডের আশা জাগিয়েছে ইংল্যান্ড।
  • অসাধারণ সেঞ্চুরিতে স্মিথের প্রত্যাবর্তন
    ফেরার ম্যাচটি নিয়ে কল্পনায় নিশ্চয়ই অনেক ছবি সাজিয়েছিলেন স্টিভেন স্মিথ। কোনোটি ছিল এতটা রঙিন? রূপকথার মতো প্রত্যাবর্তন কতই তো দেখেছে ক্রিকেট। কোনোটি কি এতটা রোমাঞ্চকর! বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ১৬ মাস পর ফিরলেন টেস্ট ক্রিকেটে। স্কিল, টেম্পারামেন্ট আর একক লড়াইয়ের বীরোচিত প্রদর্শনীতে খেললেন অ্যাশেজ ইতিহাসের অন্যতম সেরা ইনিংস। শত্রুর ডেরায় পেলেন অভিনন্দনের ডালি।
  • শেষ ম্যাচেও বাংলাদেশের দুঃস্বপ্নের হার
    বল হাতে ভালো শুরু ম্লান হয়ে গেছে শেষের এলোমেলো বোলিংয়ে। হাত থেকে এদিনও ছুটেছে ক্যাচ। সঙ্গে আবারও দেখা গেল বাজে ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী। সব মিলিয়ে বড় হার দিয়ে শেষ হয়েছে বাংলাদেশের হতাশার সফর। আবারও তিন বিভাগে নিজেদের মেলে ধরে সফরকারীদের হোয়াইটওয়াশ করেছে শ্রীলঙ্কা।
  • সিরিজ হারল বিবর্ণ বাংলাদেশ
    মুশফিকুর রহিমের ব্যাটিং বীরত্বে মাঝারি সংগ্রহ গড়েছিল বাংলাদেশ। অনিয়ন্ত্রিত বোলিং ও বাজে ফিল্ডিংয়ে সেই পুঁজি নিয়ে লড়াইও করতে পারেনি সফরকারীরা। এক ম্যাচ বাকি থাকতে সিরিজ জিতে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা।
  • আইরিশদের ৩৮ রানে গুঁড়িয়ে ইংল্যান্ডের স্বস্তির জয়
    এক সেশনে আয়ারল্যান্ডের জয়ের স্বপ্ন চুরমার করে দিলেন ক্রিস ওকস ও স্টুয়ার্ট ব্রড। দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৮ রানে আইরিশদের গুঁড়িয়ে দিয়ে লর্ডস টেস্টে ইংল্যান্ডকে এনে দিলেন স্বস্তির জয়।
  • বিবর্ণ বাংলাদেশের বড় হার
    বাজে বোলিং ও ফিল্ডিংয়ের জন্য ব্যাটসম্যানদের জন্য কাজটা হয়ে পড়েছিল বেশ কঠিন। প্রথম দল হিসেবে আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে তিনশ ছাড়ানো লক্ষ্য তাড়া করে জেতার চ্যালেঞ্জ ছিল সফরকারীদের সামনে। সেই চ্যালেঞ্জ নেওয়া তো বহু দূর, খুব একটা লড়াইও করতে পারল না বাংলাদেশ। তিন বিভাগেই ব্যর্থতায় বড় হার দিয়ে সিরিজ শুরু করল তামিম ইকবালের দল।    
  • লিচ চমকের পর আইরিশদের দারুণ ফেরা
    ৮০টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে ব্যাটিং গড় ১০.৯৭। এই টেস্টের প্রথম ইনিংসেও ব্যাটিং পজিশন ছিল ১১ নম্বর। দ্বিতীয় ইনিংসে সেই ব্যাটসম্যানকে শেষ বিকেলে ওপেনিংয়ে পাঠানো হলো নাইটওয়াচম্যান হিসেবে। সুযোগটি পেয়ে অভাবনীয় ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরির ইতিহাস প্রায় গড়েই ফেলেছিলেন জ্যাক লিচ। তবে তাকে সেঞ্চুরির আগে থামানোর পর দারুণ বোলিংয়ে ম্যাচে ফিরেছে আয়ারল্যান্ড। জমে উঠেছে তাই লর্ডস টেস্ট।
  • ইংলিশ ব্যাটিং বিধস্ত করার পর ‌আইরিশদের লিড
    দুইশ ছাড়িয়েই শেষ আয়ারল্যান্ড। টেস্ট ক্রিকেটে কোনো মানদণ্ডেই বড় স্কোর নয়। তবে আইরিশ পেসাররা আগেই এমন অভাবনীয় পারফরম্যান্স দেখিয়েছে যে ওই স্কোরেই মিলেছে বড় লিড। লর্ডস টেস্টের প্রথম দিনে ২০ উইকেটের পতন শেষে বিপাকে ইংল্যান্ড।
  • ইংল্যান্ডকে ৮৫ রানে গুটিয়ে দিল আয়ারল্যান্ড
    কয়েকদিন আগে যে মাঠে সব পাওয়ার আনন্দ মেতেছিল ইংল্যান্ড সেই লর্ডসে এবার হল উল্টো অভিজ্ঞতা। একমাত্র টেস্টের প্রথম সকালে ইংলিশদের ব্যাটিং লাইনআপ গুঁড়িয়ে দিলেন আইরিশ পেসাররা। টিম মারটাঘ ও মার্ক অ্যাডায়ারের বোলিং তোপে প্রথম সেশনেই ৮৫ রানে গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ড।
  • রুদ্ধশ্বাস জয়ে ইংল্যান্ডের স্বপ্নের শিরোপা
    রোমাঞ্চের কত রঙ থাকে? উত্তেজনার কত রূপ! ক্রিকেট তার অনিশ্চয়তা আর সৌন্দর্যের সবটুকু মেলে ধরল লর্ডসের ফাইনালে। পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকা ম্যাচের ভাগ্য বদল হলো অসংখ্যবার। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ টাই হয়ে গড়াল সুপার ওভারে। সেখানেও রোমাঞ্চের তীব্র দুলুনি শেষে আবার টাই! শেষ পর্যন্ত দুই দলকে আলাদা করল বাউন্ডারি সংখ্যা। অবিশ্বাস্য নাটকীয়তার পর বিশ্বকাপ জয়ের অনির্বচনীয় স্বাদ পেল ইংল্যান্ড।
  • জাদেজার জাদু থামিয়ে ফাইনালে নিউ জিল্যান্ড
    ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর অবিশ্বাস্য এক গল্প প্রায় লিখে ফেলেছিলেন রবীন্দ্র জাদেজা। আটে নেমে ওয়ানডে ইতিহাসের অন্যতম সেরা ইনিংস খেলেও দলকে এনে দিতে পারলেন না রূপকথার জয়। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতে বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠল নিউ জিল্যান্ড।
  • দ. আফ্রিকার কাছে হেরে সেমিতে ইংল্যান্ডকে পেল অস্ট্রেলিয়া
    অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসির সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়াকে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। দারুণ সেঞ্চুরিতে দলকে লড়াইয়ে রেখেছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। তবে শেষরক্ষা করতে পারেননি। প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে আসর শেষ করেছে প্রোটিয়ারা।   
  • জোড়া সেঞ্চুরিতে সেমির আগে ভারতের বড় জয়
    অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের সেঞ্চুরির পরও পুঁজি খুব একটা বড় ছিল না শ্রীলঙ্কার। মাঝারি সংগ্রহ নিয়ে দলটিকে লড়াইও করতে দেয়নি ভারত। রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুলের সেঞ্চুরিতে সেমি-ফাইনালের আগে অনায়াস জয় পেয়েছে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। 
  • বড় হারের গ্লানিতে শেষ বিশ্বকাপ অভিযান
    আশা ছিল শেষ ভালোর। সেমি-ফাইনাল স্বপ্ন গুঁড়িয়ে যাওয়ার পর নতুন আশায়ও গুড়ে বালি। শেষ ভালো নয়, বরং শেষের জন্য জমা ছিল যেন সবচেয়ে খারাপটুকুই। শাহিন শাহ আফ্রিদির আগুনে বোলিংয়ে পুড়ল ব্যাটিং। এবারের আসরে নিজেদের সবচেয়ে কম রানের স্কোর গড়ে পাকিস্তানের কাছে বড় হারের গ্লানিতে শেষ হলো বাংলাদেশের বিশ্বকাপ।
  • আফগানিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপ শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের
    তিন ফিফটিতে গুলবাদিন নাইবের দলকে বড় লক্ষ্য দিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ইকরাম আলি খিলের ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো তিনশ ছাড়ানো লক্ষ্য তাড়া করে জেতার আশা জাগিয়েছিল আফগানিস্তান। তবে ঘুরে দাঁড়িয়ে জয় দিয়েই বিশ্বকাপ শেষ করেছে জেসন হোল্ডারের দল। 
  • নিউ জিল্যান্ডকে উড়িয়ে সেমিতে ইংল্যান্ড
    জনি বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরির পরও ঘুরে দাঁড়িয়ে লক্ষ্যটা নাগালে রেখেছিল নিউ জিল্যান্ড। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা পথ দেখাতে পারেননি দলকে। কেন উইলিয়ামসনের দলকে উড়িয়ে দিয়ে সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড।
  • ভারতের কাছে হেরে সেমি-ফাইনাল স্বপ্নের সমাধি
    নুয়ে পড়া শরীর। নত হয়ে আসা মাথা। রণে ভঙ্গ দিয়ে একেকজন ব্যাটসম্যান উইকেট ছেড়ে গেলেন আর একটু একটু করে হারিয়ে গেল বাংলাদেশের স্বপ্ন। লক্ষ্যটাকে নাগালে পেয়েও ছোঁয়া হলো না। উত্থান-পতনের বিশ্বকাপ থেকে নিশ্চিত হয়ে গেল বাংলাদেশের বিদায়।
  • রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে উইন্ডিজকে হারাল শ্রীলঙ্কা
    আভিশকা ফার্নান্দোর সেঞ্চুরিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বড় লক্ষ্য দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। রান তাড়ায় শুরুটা ভালো না হলেও দলকে ম্যাচে ফেরান নিকোলাস পুরান। প্রথম সেঞ্চুরি পাওয়া বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানকে থামিয়ে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জয় তুলে নেয় দিমুথ করুনারত্নের দল।
  • ভারতকে হারের স্বাদ দিয়ে জয়ে ফিরল ইংল্যান্ড
    বিশ্বকাপে নিজের প্রথম সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দিয়েছিলেন জনি বেয়ারস্টো। আসরে নিজের তৃতীয় সেঞ্চুরিতে ভারতকে কক্ষপথে রেখেছিলেন রোহিত শর্মা। তবে শেষরক্ষা করতে পারেনি বিরাট কোহলির দল। শেষের দিকের দারুণ বোলিংয়ে তাদের প্রথম হারের স্বাদ দিয়ে জয়ে ফিরেছে ওয়েন মর্গ্যানের দল।
  • নিউ জিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া
    জমেনি গত আসরের দুই ফাইনালিস্টের লড়াই। আড়াইশর কাছাকাছি রান তাড়ায় সেভাবে অস্ট্রেলিয়াকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেনি নিউ জিল্যান্ড। তাসমান পাড়ের দুই দেশের লড়াইয়ে অনায়াস জয় পেয়েছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।
  • ইমাদের ব্যাটে পাকিস্তানের নাটকীয় জয় 
    বারবার রঙ পাল্টানো ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দিলেন ইমাদ ওয়াসিম। ক্রমশ মন্থর হয়ে যাওয়া পিচে খেললেন অসাধারণ এক ইনিংস। আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারের চোখ রাঙানি এড়িয়ে দলকে এনে দিলেন রোমাঞ্চকর এক জয়। টিকিয়ে রাখলেন পাকিস্তানের সেমি-ফাইনালের আশা।
  • সব হারিয়ে জয়ে ফিরল দক্ষিণ আফ্রিকা
    দারুণ বোলিংয়ে শ্রীলঙ্কাকে কম রানে থামিয়ে আসল কাজটা করেছিলেন বোলাররা। ব্যাটিংয়ে বাকিটা সেরেছেন হাশিম আমলা ও ফাফ দু প্লেসি। একপেশে ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে এনে দিয়েছেন সহজ জয়।
  • উইন্ডিজকে বিদায় করে দিল ভারত
    বিরাট কোহলি ও মহেন্দ্র সিং ধোনির ফিফটির পরও লক্ষ্য ছিল নাগালে। তবে মোহাম্মদ শামি, জাসপ্রিত বুমরাহদের বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারলেন না ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা। অনায়াস জয়ে সেমি-ফাইনালের পথে আরেকটু এগিয়ে গেল ভারত।
  • নিউ জিল্যান্ডকে প্রথম হারের স্বাদ দিল পাকিস্তান
    দারুণ বোলিংয়ে শাহিন শাহ আফ্রিদি লক্ষ্যটা রেখেছিলেন নাগালে। বিশ্বকাপে নিজের প্রথম সেঞ্চুরিতে ব্যাটিংয়ে বাকিটা সেরেছেন বাবর আজম। পেয়েছেন হারিস সোহেলের দারুণ সঙ্গ। নিউ জিল্যান্ডকে প্রথম হারের স্বাদ দিয়ে তৃতীয় জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান।  
  • ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সবার আগে সেমিতে অস্ট্রেলিয়া
    দারুণ সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়াকে লড়াই করার মতো সংগ্রহ এনে দিলেন অ্যারন ফিঞ্চ। বোলিংয়ে নিজেদের মেলে ধরলেন জেসন বেরেনডর্ফ ও মিচেল স্টার্ক। ইংল্যান্ডকে সহজেই হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে পৌঁছালো বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।
  • সাকিবের রেকর্ডে রাঙা ম্যাচে রঙিন বাংলাদেশ
    সাকিব আল হাসান দাঁড়িয়ে ছিলেন মিড অফে। ম্যাচ শেষ হতেই যখন উল্লাসে মেতেছেন সতীর্থদের অনেকে, সাকিব আস্তে আস্তে হেঁটে গেলেন তাদের দিকে। যেন কিছুই হয়নি! তার জন্য ম্যাচটি যেন রেকর্ডের পথ ধরে হেঁটে যাওয়ার আরেকটি দিন। বাংলাদেশের জন্য সেমি-ফাইনাল স্বপ্ন টিকিয়ে রাখার আরেকটু বড় স্বপ্ন। অবিশ্বাস্য ধারাবাহিকতার বিশ্বকাপে সাকিব জ্বলে উঠলেন আরও একবার। তার আলোয় উজ্জ্বল বাংলাদেশও।
  • ব্র্যাথওয়েটকে থামিয়ে নিউ জিল্যান্ডের নাটকীয় জয়
    ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে খাদের কিনারা থেকে দলকে টেনে তুললেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। তবে দারুণ সেঞ্চুরিতেও শেষরক্ষা করতে পারলেন না এই অলরাউন্ডার। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে শীর্ষে উঠেছে নিউ জিল্যান্ড।
  • ভারতকে কাঁপিয়ে হারল আফগানিস্তান
    মোহাম্মদ নবির ব্যাটিং বীরত্বে দারুণ এক জয়ের আশা জাগিয়েছিল আফগানিস্তান। তবে ম্যাচের শেষ ওভারে এই অলরাউন্ডারকে থামালেন মোহাম্মদ শামি। রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতে বিশ্বকাপে জয়ের পথেই থাকল ভারত।