• বোল্টের ছোবলে কাতর ভারত
    ১১ নম্বরে নেমে ব্যাট হাতে উপহার দিলেন কার্যকর এক ঝড়ো ইনিংস। পরে জ্বলে উঠলেন নিজের আসল কাজেও। দারুণ বোলিংয়ে ভোগালেন প্রতিপক্ষকে। ট্রেন্ট বোল্টের দারুণ পারফরম্যান্সে বিপাকে পড়ে গেছে ভারত। বিরাট কোহলির দল লড়ছে হার এড়াতে।
  • ভারতকে গুঁড়িয়ে নিউ জিল্যান্ডের লিড
    আগের দিন গতি আর বাউন্সে ভারতকে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন অভিষিক্ত কাইল জেমিসন। দ্বিতীয় দিন টিম সাউদির তোপে বিরাট কোহলির দল গুটিয়ে গেছে অল্প রানে। কেন উইলিয়ামসনের ব্যাটে নিউ জিল্যান্ড পেয়েছে লিড। দিনের শেষ ভাগে ১১ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার হতাশা অবশ্য সঙ্গী হয়েছে কিউই অধিনায়কের।
  • অভিষেকে ভারতকে কাঁপিয়ে দিলেন জেমিসন
    শেষ মুহূর্তে নিল ওয়েগনার দল থেকে সরে না দাঁড়ালে একাদশে জায়গা পাওয়া কঠিনই ছিল। অভিষেকের সুযোগটা কী দারুণভাবেই না কাজে লাগালেন কাইল জেমিসন। ওয়েলিংটন টেস্টের বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথম দিনে সুইং আর বাউন্সে কাঁপিয়ে দিলেন ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপকে।
  • ভারতকে হোয়াইটওয়াশ করল নিউ জিল্যান্ড
    লোকেশ রাহুলের সেঞ্চুরিতে প্রায় তিনশ রানের সংগ্রহ গড়েও হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারল না ভারত। ব্যাটসম্যানদের মিলিত চেষ্টায় দুর্দান্ত জয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারের বদলা নিয়েছে নিউ জিল্যান্ড।
  • সাঙ্গাকারার ৫ বছর পর ম্যাথিউস
    কুমার সাঙ্গাকারা একাই ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন ১১টি! মাহেলা জয়াবর্ধনে ৭টি। মারভান আতাপাত্তু, সনাৎ জয়াসুরিয়া, তালিকা লম্বা হতেই থাকবে। লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে ডাবল সেঞ্চুরি ছিল নিয়মিত ঘটনা। অথচ সাঙ্গাকারার অবসরের পর সেই শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানরাই ভুলে গেছিলেন ডাবল সেঞ্চুরি করতে! অবশেষে পাঁচ বছর পর খরা ঘোচালেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস।
  • ইনিংস ব্যবধানে জয়ের দুয়ারে ইংল্যান্ড
    ২৮ বল, ১ রান, ৪ উইকেট। সাত সকালেই গুটিয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইনিংস। ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসেও স্বস্তিতে নেই স্বাগতিকরা। জো রুটের স্পিনে পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে জয়ের দুয়ারে ইংল্যান্ড।
  • তীরে এসে তরী ডুবল ওয়েস্ট ইন্ডিজের
    গ্রানাডায় যেন রান উৎসবে মেতেছিল দুই দল। টি-টোয়েন্টিতে আয়ারল্যান্ডের সেরা জুটি গড়লেন পল স্টার্লিং ও কেভিন ও’ব্রায়েন। দলকে এনে দিলেন লড়াইয়ের পুঁজি। ক্যারিবিয়ানে প্রথমবারের মতো দুইশ ছাড়ানো লক্ষ্য তাড়ার পথে এগিয়েই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শেষের দিকের তালগোল পাকানো ব্যাটিংয়ে রোমাঞ্চকর ম্যাচে হেরে গেছে কাইরন পোলার্ডের দল।
  • অ্যান্ডারসনের ৫ উইকেটের পর সিবলির দৃঢ়তা
    সাতসকালে দ্রুত দক্ষিণ আফ্রিকার শেষ দুই উইকেট তুলে নিয়ে দলকে লিড এনে দিলেন জেমস অ্যান্ডারসন। তার রেকর্ড গড়ার দিনে ব্যাট হাতে দৃঢ়তা দেখালেন ডম সিবলি। তরুণ এই ওপেনারের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে স্বাগতিকদের বড় লক্ষ্য দেওয়ার পথে ইংল্যান্ড।
  • মাশরাফি-তামিমদের উড়িয়ে রাজশাহীর শুরু
    টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বেশি তারকায় ঠাসা দল ঢাকা প্লাটুন। কিন্তু প্রথম ম্যাচে একদমই নিষ্প্রভ সেই তারকারাজি। ব্যাটে-বলে দাপুটে পারফরম্যান্সে মাশরাফি-তামিমদের দলকে উড়িয়ে দিয়েছে আন্দ্রে রাসেলের রাজশাহী রয়্যালস।
  • শানাকার খুনে ব্যাটিংয়ে ঘায়েল রংপুর
    ম্যাচের শুরুতে দাপট দেখাল রংপুর রেঞ্জার্স। দারুণ বোলিংয়ে বেঁধে রাখল কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের ব্যাটসম্যানদের। শেষের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে মোমেন্টাম নিজেদের দিকে নিয়ে এলেন দাসুন শানাকা। বোলিংয়ে সেটা ধরে রাখলেন মুজিব উর রহমান, আল আমিন হোসেনরা। একপেশে ম্যাচে দাপুটে জয়ে বঙ্গবন্ধু বিপিএল শুরু করল কুমিল্লা।
  • বোলারদের দাপটের পর উইলিয়ামসনের ফিফটি
    বেন স্টোকস ক্রিজে থাকায় বড় সংগ্রহের আশা বেঁচে ছিল ইংল্যান্ডের। কিন্তু দারুণ বোলিংয়ে ইংলিশদের ইনিংস খুব বেশি দীর্ঘায়িত হতে দেননি নিউ জিল্যান্ড পেসাররা। তবে বোলিংয়ের সেই দাপট ব্যাটিংয়ে থাকেনি। টপ অর্ডারের ব্যর্থতার দিনে দলকে কিছুটা টেনেছেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।
  • হ্যাটট্রিক সেঞ্চুরিতে হৃদয়ের রেকর্ড, বাংলাদেশের জয়
    যুব ওয়ানডেতে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে হ্যাটট্রিক সেঞ্চুরি করলেন তৌহিদ হৃদয়। আগের ম্যাচে দেশের হয়ে গড়া যুব ওয়ানডেতে সর্বাধিক সেঞ্চুরির রেকর্ডটা তাতে সমৃদ্ধ হলো আরও। আগেই সিরিজ নিশ্চিত করা বাংলাদেশের যুবারা  শেষ ম্যাচেও শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে হারাল বড় ব্যবধানে।
  • রহমানউল্লাহ-ঝড়ে রেকর্ড সংগ্রহ গড়ে সিরিজ আফগানদের
    বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে আফগানিস্তানকে নিজেদের সর্বোচ্চ সংগ্রহ এনে দিলেন রহমানউল্লাহ গুরবাজ। বাকিটা সারলেন বোলাররা। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সহজেই হারিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ ঘরে তুলেছে আফগানিস্তান।
  • ক্যারিবিয়ান দাপটে পাত্তা পেল না আফগানরা
    ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশড হওয়া আফগানিস্তান টি-টোয়েন্টি সিরিজও শুরু করেছে বড় হার দিয়ে। এভিন লুইসের ঝড়ো ব্যাটিং আর কাইরন পোলার্ডের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে বড় জয় পেয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে অস্ট্রেলিয়ার সিরিজ জয়
    আগের ম্যাচের তিক্ত অভিজ্ঞতা নিশ্চয়ই মনে ছিল লাসিথ মালিঙ্গার। সেদিন আগে বোলিং করে তুলোধুনো হতে হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ানদের ব্যাটিংয়ে। এবার তাই লঙ্কান অধিনায়ক টস জিতে নিলেন ব্যাটিং। তাদের ভাগ্য তাতে বদলাল না। পেতে হলো একই তেতো স্বাদ। এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল অস্ট্রেলিয়া।
  • ভারতের রেকর্ড গড়া জয়ে হোয়াইটওয়াশড দ. আফ্রিকা  
    তৃতীয় দিনেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল বড় হার। ইনিংস ব্যবধানে হার এড়াতে দুই টেল এন্ডারকে নিয়ে অতিমানবীয় কিছু করতে হতো টিউনিস ডি ব্রুইনকে। হলো না তেমন কিছুই। চতুর্থ দিনে মাত্র দুই ওভারের মধ্যে অবশিষ্ট দুই উইকেট তুলে নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে রেকর্ড ব্যবধানে হারিয়েছে ভারত।
  • আরও বড় হারের মুখে দক্ষিণ আফ্রিকা
    যে পিচে রান উৎসব করল ভারত, সেখানেই মুখ থুবড়ে পড়ল দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং লাইন-আপ। আগের টেস্টে বিরাট কোহলির দলের কাছে রেকর্ড ব্যবধানে হারের পর সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে আরও বড় ব্যবধানে হারের মুখে ফাফ দু প্লেসির দল।
  • মহারাজ-ফিল্যান্ডারের প্রতিরোধ ভেঙে ভারতের বড় লিড
    টপ ও মিডল অর্ডারের ব্যর্থতায় জেগেছিল দুইশর নিচে গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কা। প্রতিরোধ গড়েন কেশভ মহারাজ ও ভার্নন ফিল্যান্ডার। তবে দুজনের রেকর্ড জুটিও দক্ষিণ আফ্রিকাকে খুব একটা সুবিধাজনক অবস্থানে নিতে পারেনি। বিশাল লিড পেয়েছে ভারত।
  • কোহলির ডাবল সেঞ্চুরির পর বিপদে দ. আফ্রিকা
    এ বছর নিজের করা প্রথম সেঞ্চুরিকে ডাবল সেঞ্চুরিতে নিয়ে গেলেন বিরাট কোহলি। পঞ্চম উইকেটে তার সঙ্গে দুইশ ছাড়ানো জুটি গড়লেন রবীন্দ্র জাদেজা। ভারত পেল পাহাড় সমান সংগ্রহ। শেষ বিকেলে দ্রুত তিন উইকেট তুলে নিয়ে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকাকে আরও ব্যাকফুটে ঠেলে দিলেন পেসাররা।
  • মায়াঙ্কের সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহের পথে ভারত
    আগের টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করা ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল পেলেন সিরিজে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। চেতেশ্বর পুজারা ও বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে এল ফিফটি। পেসার কাগিসো রাবাদার দারুণ বোলিংয়ের পরও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পুনে টেস্টে বড় সংগ্রহের পথে রয়েছে ভারত।
  • ডি কক ঝড়ে ভারতকে উড়িয়ে দিল দ.আফ্রিকা
    বোলাররা লক্ষ্যটা নাগালে রাখার পর বাকিটা সহজেই সারলেন ব্যাটসম্যানরা। সিরিজ বাঁচানোর ম্যাচে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেন কুইন্টন ডি কক। অধিনায়কের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ভারতকে উড়িয়ে দিল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • উইন্ডিজকে গুঁড়িয়ে চার দিনে জিতল ভারত
    সেঞ্চুরি করলেন অজিঙ্কা রাহানে। ৭ রানের আক্ষেপ নিয়ে ফিরলেন হনুমা বিহারী। বোলিংয়ে আলো ছড়ালেন জাসপ্রিত বুমরাহ। জ্বলে উঠলেন ইশান্ত শর্মা ও মোহাম্মদ শামিও। তাতে এক সেশনে গুটিয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অ্যান্টিগা টেস্টে বড় জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেল ভারত।
  • অস্ট্রেলিয়ার ত্রিমুখী ছোবলে কাবু ইংলিশ ব্যাটিং
    প্রথম টেস্টে বসে থাকতে হয়েছে বাইরে। টেস্ট ক্যারিয়ার যথেষ্ট সমৃদ্ধ হওয়ার পরও তাই জস হেইজেলউডের প্রমাণ করার ছিল কিছু। ফেরার টেস্টে এই পেসার নিজের জাত চেনালেন দুর্দান্ত বোলিংয়ে। ফর্মে থাকা প্যাট কামিন্স ও ন্যাথান লায়ন ধরে রাখলেন ধারাবাহিকতা। অস্ট্রেলিয়ার ত্রিমুখী এই আক্রমণের সামনে ইংল্যান্ড গড়তে পারল না বড় স্কোর।
  • দ. আফ্রিকাকে বিদায় করে দিল পাকিস্তান
    বাঁচা-মরার ম্যাচে দায়িত্ব নিয়ে দলকে এগিয়ে নিতে পারলেন না কেউই। যা একটু লড়াই করলেন অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসি। পাকিস্তানের দেওয়া বড় লক্ষ্য তাড়ায় তা যথেষ্ট হলো না। দক্ষিণ আফ্রিকাকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে জয়ের পথে ফিরল সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।
  • বৃষ্টিতে ভেস্তে গেল ভারত-নিউ জিল্যান্ড ম্যাচও
    এবারের আসরে এখন পর্যন্ত অপরাজিত দুই দলের লড়াই হতে দিল না বৃষ্টি। পরিত্যক্ত হয়ে গেল ভারত ও নিউ জিল্যান্ডের ম্যাচ।
  • রোহিতের সেঞ্চুরিতে দ. আফ্রিকাকে হারাল ভারত
    পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ ও স্পিনার যুজবেন্দ্র চেহেলের ছোবলে লক্ষ্যটা ছিল হাতের নাগালে। দারুণ সেঞ্চুরিতে বাকিটা সারলেন রোহিত শর্মা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দাপুটে জয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করল ভারত।
  • প্রদিপের তোপে আফগানদের হারাল শ্রীলঙ্কা
    মোহাম্মদ নবির দারুণ বোলিংয়ে হাতের নাগালে লক্ষ্য পেয়েছিল আফগানিস্তান। সবুজ ঘাসের উইকেটে সেই রান করতে যে ঠাণ্ডা মাথার ব্যাটিং আর চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞা প্রয়োজন ছিল তা দেখাতে পারেনি গুলবাদিন নাইবের দল। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে পরাজয়ের চোখ রাঙানি এড়িয়ে শ্রীলঙ্কাকে দারুণ জয় এনে দিলেন নুয়ান প্রদিপ।
  • ইংল্যান্ডকে থামিয়ে হারের বৃত্ত ভাঙল পাকিস্তান
    জিততে রেকর্ড গড়তে হতো ইংল্যান্ডকে। জো রুট ও জস বাটলারের সেঞ্চুরিতে আশা জাগিয়েছিল দলটি। তবে উজ্জীবিত পাকিস্তানের সঙ্গে পেরে উঠল না স্বাগতিকরা। বাজে হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করা সরফরাজ আহমেদের দল দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ভাঙল ব্যর্থতার বৃত্ত।
  • ফিঞ্চের সঙ্গে পেরে উঠছে না পাকিস্তান
    নিজেকে যেন ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রতিযোগিতায় মেতেছেন অ্যারন ফিঞ্চ। তাতে পুড়ছে পাকিস্তান। টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করলেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক। টানা দ্বিতীয় জয় পেল বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।  
  • টি-টোয়েন্টিতেও হোয়াইটওয়াশড শ্রীলঙ্কা
    টেস্ট সিরিজে শ্রীলঙ্কা গড়েছিল ইতিহাস। উপমহাদেশের প্রথম দেশ হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকায় জিতেছিল টেস্ট সিরিজ। কিন্তু সীমিত ওভারের ক্রিকেটে পুরোপুরি উল্টো চিত্র। ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজেও হোয়াইটওয়াশড হয়েছে সফরকারীরা। ডোয়াইন প্রিটোরিয়াসের টর্নেডো ইনিংসে বড় সংগ্রহ গড়া দক্ষিণ আফ্রিকা জিতেছে সহজেই।
  • আফগানিস্তানের প্রথম টেস্ট জয়
    ছোট পুঁজি নিয়ে লড়াইও করতে পারল না আয়ারল্যান্ড। রহমত শাহ ও ইহসানউল্লাহর ফিফটিতে চতুর্থ দিন প্রথম সেশনে সহজেই লক্ষ্যে পৌঁছে গেল আফগানিস্তান। টেস্টে তুলে নিল নিজেদের প্রথম জয়।
  • তিন দিনের ম্যাচ বাঁচাতেও ধুঁকছে বাংলাদেশ
    ম্যাচের প্রথম দুই দিন ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। তৃতীয় দিনে খেলা হয়নি ২৫ ওভার। এই ম্যাচেও হেরে যাওয়ার পথ খুঁজে নিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসের ব্যাটিং ব্যর্থতার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও শুরুটা হয়েছে বাজে। মাঝে ঝড়ের গতিতে রান তুলে নিউ জিল্যান্ড নিয়েছে বড় লিড। বাংলাদেশের এখন ম্যাচ বাঁচানোই দায়!
  • লঙ্কান পেসারদের তোপে ডি ককের পাল্টা আক্রমণ
    নাটকীয় পালাবদলে নেতৃত্বের পরিবর্তন। মূল পেসারদের কয়েকজনের চোট। মাঠের বাইরে নানা বিতর্ক। এত প্রতিকূলতায়ও দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের প্রথম দিনে উজ্জ্বল শ্রীলঙ্কা। লঙ্কান পেসারদের দারুণ পারফরম্যান্স বিপাকে ফেলেছিল প্রোটিয়াদের। পরে কুইন্টন ডি ককের আগ্রাসী ইনিংস কিছুটা উদ্ধার করেছে দলকে।
  • স্টার্কের বোলিং তোপে বিধ্বস্ত শ্রীলঙ্কা
    গোলার মতো এক ডেলিভারি, বেরিয়ে গেল অফ স্টাম্পে চুমু দিয়ে। কিন্তু বেলস পড়া তো বহুদূর, নড়ার নামও নেই! মিচেল স্টার্ক অবাক। তবে হতাশ হলেন না। এক বল পরই তার ১৪৬ কিলোমিটার গতির ইয়র্কারে বোল্ড শেষ ব্যাটসম্যান বিশ্ব ফার্নান্দো। স্টার্ক পূরণ করলেন ম্যাচ ১০ উইকেট। শ্রীলঙ্কা হলো হোয়াইটওয়াশড।
  • ঘুরে দাঁড়িয়ে ভারতের দারুণ জয়
    ম্যাট হেনরি আর ট্রেন্ট বোল্ট শুরুতে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন ভারতকে। তবে অলরাউন্ডারদের নিয়ে দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দিলেন অম্বাতি রায়ডু। বাকিটা সারলেন বোলাররা। পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে দারুণ এক জয় পেয়েছে ভারত।
  • সেঞ্চুরিতে মানুকা ওভালের অভিষেক রাঙালেন বার্নস-হেড
    অস্ট্রেলিয়ার একাদশ টেস্ট ভেন্যু মানুকা ওভালের অভিষেকের দিনটি সেঞ্চুরিতে রাঙালেন জো বার্নস ও ট্র্যাভিস হেড। বাজে শুরুর পর তাদের ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহ গড়ছে স্বাগতিকরা।
  • অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে সিরিজ জিতল দক্ষিণ আফ্রিকা
    সিরিজ শুরুর আগে ফাফ দু প্লেসি এগিয়ে রেখেছিলেন পাকিস্তানকে। কিন্তু মাঠের পারফরম্যান্সে তার দলই মেলে ধরল শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ। শেষ ম্যাচে ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে পাকিস্তানকে হারিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা জিতে নিল সিরিজ।
  • নিউ জিল্যান্ডকে উড়িয়ে ভারতের সিরিজ জয়
    ম্যাচ শেষে কেন উইলিয়ামসনের সরল স্বীকোরোক্তি, “ভারত আমাদের শিক্ষা দিচ্ছে।” নিউ জিল্যান্ড অধিনায়কের কথাতেই ফুটে উঠছে এই ম্যাচ ও সিরিজের বাস্তবতা। এমনিতে দেশের মাটিতে নিউ জিল্যান্ড বরাবরই অপ্রতিরোধ্য। কিন্তু এবার ভারতের সামনে দাঁড়াতেই পারছে না। বিরাট কোহলির দল সিরিজ জিতে নিয়েছে প্রথম তিন ওয়ানডেতেই।
  • দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে সমতায় পাকিস্তান
    এক জুটিতেই এসেছে একশর বেশি। দক্ষিণ আফ্রিকা তবু যেতে পারল না দুইশর কাছাকাছিও। ইনিংসের মাঝামাঝি দুর্দান্ত স্পেলে এক ওভারে তিনটিসহ চার উইকেট নিলেন উসমান খান শিনওয়ারি। ধস নামল প্রোটিয়াদের ব্যাটিংয়ে। সহজ রান তাড়ায় জিতে সমতায় ফিরল পাকিস্তান।
  • হোল্ডারের ইতিহাস গড়া ডাবল সেঞ্চুরি
    ৭৭ রানেই শেষ ইংল্যান্ড, উইকেট ব্যাটসম্যানদের বধ্যভূমি? জেসন হোল্ডার দেখালেন অন্য ছবি। আট নম্বরে নেমে অসাধারণ এক ডাবল সেঞ্চুরিতে ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক নাম লেখালেন রেকর্ড বইয়ে। আরেক সেঞ্চুরিয়ান শেন ডাওরিচের সঙ্গে গড়লেন ম্যারাথান জুটি।
  • ক্যারিবিয়ান পেসে ৭৭ রানেই শেষ ইংল্যান্ড
    গত জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়েই পেস তোপের মুখে পড়েছিল বাংলাদেশ। গুটিয়ে গিয়েছিল ৪৩ রানে। একইরকম অভিজ্ঞতা হলো এবার ইংল্যান্ডের। ইংলিশ ব্যাটিং বিধ্বস্ত হলো ক্যারিবিয়ান পেসে। বাংলাদেশের সেই ম্যাচের মতোই ওয়েস্ট ইন্ডিজের ধ্বংসযজ্ঞের নায়ক কেমার রোচ।
  • কামিন্স, রিচার্ডসনের ছোবলে এলোমেলো শ্রীলঙ্কা
    অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্রিজবেন টেস্টে ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মধ্যে লড়াই করলেন কেবল নিরোশান ডিকভেলা। দুই পেসার প্যাট কামিন্স ও অভিষিক্ত জাই রিচার্ডসনের দারুণ বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে ১৪৪ রানে গুটিয়ে গেল শ্রীলঙ্কা। 
  • নিউ জিল্যান্ডকে সহজেই হারাল ভারত
    দারুণ প্রথম স্পেলে সুর বেঁধে দিলেন মোহাম্মদ শামি। সঙ্গত করলেন দুই রিস্ট স্পিনার কুলদীপ যাদব ও যুজবেন্দ্র চেহেল। নিউ জিল্যান্ডকে কম রানে গুটিয়ে দেওয়া ভারত প্রথম ওয়ানডেতে জিতল অনায়াসে।
  • ওয়ার্নারকে ছাপিয়ে নায়ক সাকিব
    বল হাতে গুরুত্বপূর্ণ দুটি উইকেট। ব্যাট হাতে এবারের আসরের প্রথম ফিফটি। ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ঢাকার জয়ের নায়ক সাকিব আল হাসান। টানা দ্বিতীয় ফিফটিতে ডেভিড ওয়ার্নার সিলেটকে এনে দিয়েছিলেন লড়ার মতো রান। কিন্তু ম্যাচ জেতানো অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে সাকিব ছাপিয়ে গেছেন ওয়ার্নার ও সিলেটকে।
  • তাইজুল, মাহমুদউল্লাহর স্পিনে খুলনার প্রথম জয়
    সঙ্গী টানা চারটি হারের ক্ষত। সম্বল ১২৮ রান। ভরসা ছিল কেবল উইকেট, দ্রুত রান তোলা যেখানে বেশ কঠিন। উইকেটের সেই সাহায্য দারুণভাবে কাজে লাগালেন বোলাররা। তাইজুল ইসলাম ও মাহমুদউল্লাহর স্পিন হয়ে উঠল দুর্বোধ্য। পঞ্চম ম্যাচে এসে প্রথম জয়ের দেখা পেল খুলনা টাইটানস।
  • দুর্দান্ত শেষ দুই ওভারে নায়ক মুস্তাফিজ
    ৪ ওভারে রান দিয়েছেন ১৭, উইকেট নেই একটিও। নায়ক তবু মুস্তাফিজুর রহমানই। বাঁহাতি এই পেসারের শেষ দুই ওভারের দুর্দান্ত বোলিংয়ের জবাব পেল না ব্যাটসম্যানরা। রংপুর রাইডার্সের মুঠো থেকে জয় বের করে আনল রাজশাহী কিংস।
  • রোহিতকে থামিয়ে অস্ট্রেলিয়ার হাজারতম জয়
    ভারতের কাছে টেস্ট সিরিজে হেরে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে সিরিজ শুরু করেছে জয় দিয়ে। সেঞ্চুরিয়ান রোহিত শর্মাকে থামিয়ে প্রথম দল হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক হাজার ম্যাচ জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছে দলটি।
  • টেইলর-নিকোলসের সেঞ্চুরিতে নিউ জিল্যান্ডের বড় জয়
    ওয়ানডেতে দারুণ সময় কাটানো রস টেইলর তুলে নিলেন সেঞ্চুরি। এই সংস্করণে প্রথমবারের মতো তিন অঙ্কের দেখা পেলেন হেনরি নিকোলস। বড় সংগ্রহ গড়া নিউ জিল্যান্ড সহজ জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করেছে শ্রীলঙ্কাকে।
  • দু প্লেসির সেঞ্চুরিতে বড় লিডের পথে দ.আফ্রিকা
    আগের ম্যাচে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো পেয়ারের স্বাদ পাওয়া ফাফ দু প্লেসি ঘুরে দাঁড়ালেন কেপ টাউন টেস্টে। অধিনায়কের সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে বড় লিডের পথে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • পুজারার আরেকটি সেঞ্চুরিতে ভারতের দারুণ শুরু
    অ্যাডিলেইড, মেলবোর্ন হয়ে সিডনি। আরেকটি টেস্ট, চেতেশ্বর পুজারার আরও একটি সেঞ্চুরি। উইকেটে গেলেন দিনের দ্বিতীয় ওভারে, দিন শেষে মাঠ ছাড়লেন অপরাজিত থেকে। তার আরেকটি অসাধারণ সেঞ্চুরিতে সিডনি টেস্টের প্রথম দিনটি ভারত করে নিল নিজেদের।
  • বুমরাহর ৬ উইকেটের পর কামিন্সের তোপ
    ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ৬ উইকেট পেলেন জাসপ্রিত বুমরাহ। তার দারুণ বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া গুটিয়ে গেল দেড়শ ছাড়িয়েই। স্বাগতিকদের ফলোঅন না করানো ভারত দ্বিতীয় ইনিংসে ধুঁকছে গতিময় পেসার প্যাট কামিন্সের ছোবলে।
  • পুজারার সেঞ্চুরিতে ভারতের বড় সংগ্রহ
    সাবধানী ব্যাটিংয়ে চলতি সিরিজে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নিলেন চেতেশ্বর পুজারা। সঙ্গে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার ব্যাটে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মেলবোর্ন টেস্টে প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহ গড়েছে ভারত।
  • বোল্টের সুইংয়ে উড়ে গেল শ্রীলঙ্কা
    ক্রইস্টচার্চ টেস্টে দ্বিতীয় দিন ট্রেন্ট বোল্টের সুইংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারল না শ্রীলঙ্কা। মাত্র ১৫ বলের মধ্যে ৬ উইকেট তুলে নিয়ে সফরকারীদের গুঁড়িয়ে দিলেন নিউ জিল্যান্ডের বাঁহাতি পেসার। দ্বিতীয় ইনিংসে জিত রাভাল ও টম ল্যাথামের ফিফটিতে দিনেশ চান্দিমালের দলকে বড় লক্ষ্য দেওয়ার পথে নিউ জিল্যান্ড।
  • পুজারা-কোহলির ব্যাটে ভালো অবস্থানে ভারত
    উইকেটে বাউন্স অসমান। হঠাৎ দুয়েকটা বল লাফিয়ে চমকে দিয়েছে ব্যাটসম্যানকে। কিন্তু দারুণ সতর্ক ব্যাটিংয়ে সে সব বল সামলেছেন ভারতের ব্যাটসম্যানরা। অভিষিক্ত মায়াঙ্ক আগারওয়াল, চেতেশ্বর পুজারা আর বিরাট কোহলির ব্যাটে ধীরে কিন্তু দৃঢ়ভাবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মেলবোর্ন টেস্টে এগিয়েছে সফরকারীরা।
  • শামির ছোবল সামলে জয় দেখছে অস্ট্রেলিয়া  
    ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়াকে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৪৩ রানে থামিয়ে লক্ষ্যটা তিনশ রানের নিচে রেখেছিলেন মোহাম্মদ শামি। তবে একশ রানের মধ্যে ভারতের প্রথম পাঁচ ব্যাটসম্যানকে বিদায় করে পার্থ টেস্টে জয়ের পথে এগিয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া।
  • উইলিয়ামসনের ফিফটি, ইয়াসিরের ৩ উইকেট
    দুই রানের মধ্যে ৩ উইকেট নিয়ে নিউ জিল্যান্ডকে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন ইয়াসির শাহ। তবে পাকিস্তানের এই লেগ স্পিনারের ছোবল সামলে লড়িয়ে এক ফিফটিতে নিউ জিল্যান্ডকে পথ দেখিয়েছেন কেন উইলিয়ামসন। আবু ধাবি টেস্টের প্রথম দিনে দেখা গেছে ব্যাটে-বলের দারুণ লড়াই।
  • ইয়াসিরের স্পিন জাদুতে উড়ে গেল নিউ জিল্যান্ড
    দুবাই টেস্টে ইয়াসির শাহর জাদুকরী বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতে পারেনি নিউ জিল্যান্ড। মাত্র ৪০ রানে ১০ উইকেট হারিয়ে ফলো অনে পড়ে কেন উইলিয়ামসনের দল। দ্বিতীয় ইনিংসেও দ্রুত দুই উইকেট তুলে নেন ইয়াসির। ফলো অনে পড়া নিউ জিল্যান্ড তৃতীয় দিন শেষ বেলায় প্রতিরোধ গড়েছে বিজে ওয়াটলিং ও রস টেইলরের ব্যাটে।
  • শেষ বিকেলে ঘুরে দাঁড়াল বাংলাদেশ
    দিনের মাঝামাঝি জিম্বাবুয়ে ছিল ফলো ফনের শঙ্কায়। দিনের শেষে সত্যি হলো সেটিই। কিন্তু মাঝের সময়টায় গড়ল তারা দারুণ প্রতিরোধ। বাংলাদেশকে হতাশার আঁধারে ডুবিয়ে জিম্বাবুয়েকে আশার আলো দেখাল ব্রেন্ডন টেইলর ও পিটার মুরের ব্যাট। তবে শেষ বিকেলের মরে আসা আলোয় আবার উজ্জ্বল হলো বাংলাদেশের সম্ভাবনা।
  • রোহিতের রেকর্ড সেঞ্চুরিতে সিরিজ ভারতের
    ঝড়ো ব্যাটিংয়ে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির রেকর্ডটা নিজের করে নিলেন রোহিত শর্মা। দলকে এনে দিলেন বিশাল সংগ্রহ। বড় লক্ষ্য তাড়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের কেউই দাঁড়াতে পারলেন না। ভুবনেশ্বর কুমার ও কুলদীপ যাদবদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে সহজ জয়ে সিরিজ নিশ্চিত করল ভারত।
  • তাই বলে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেও ১৪৩!
    কেউ খোঁচা মারলেন বাইরের বলে, কেউ খেললেন শরীর থেকে দূরে। কারও কারও শটের আবার ব্যাখ্যা পাওয়াই কঠিন। ব্যাটসম্যানদের যেন প্রতিযোগিতা, কে বেশি দায়িত্বজ্ঞানহীন! গত বছরখানেক ধরে টেস্টে ধুঁকছে বাংলাদেশের ব্যাটিং। তাই বলে দেশের মাটিতে এমন নির্জীব উইকেটে জিম্বাবুয়ের নির্বিষ বোলিংয়েও এমন হাল! ব্যাটিং আরও একবার বাংলাদেশকে ডোবাল বিষাদের অন্ধকারে।
  • প্রোটিয়া পেসে গুঁড়িয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া
    নতুন স্টেডিয়াম, কিন্তু স্বাদ পুরোনো। একসময় গতি আর বাউন্সের জন্য পরিচিত ছিল পার্থের ওয়াকা স্টেডিয়াম। সেই শহরের নতুন মাঠের উইকেটও গতিময় ও বাউন্সি। সবুজ উইকেটে মিলল সুইং। আদর্শ আঙিনা পেয়ে আগুনের ফুলকি ছড়ালেন দক্ষিণ আফ্রিকার পেসাররা। তাতে পুড়ল অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটিং।
  • শর্টের ব্যাটে অস্ট্রেলিয়ার জয়
    ব্যাটিংয়ে লড়াই করেছেন শাইমান আনোয়ার, ছোট পুঁজি নিয়ে সাধ্যমতো চেষ্টা করেছে বোলাররা। তবে অস্ট্রেলিয়াকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেনি সংযুক্ত আরব আমিরাত। ডার্চি শর্টের অপরাজিত ফিফটিতে সহজেই জিতেছে অ্যারন ফিঞ্চের দল।
  • জ্বলে উঠলেন বোলার সোহাগ গাজী
    অফ স্পিনে তার কার্যকারিতাই প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছিল। গত কিছুদিনে হয়ে উঠেছেন অলরাউন্ডার, যার বেশি সাফল্য ব্যাটিংয়ে। উইকেটও পেয়েছেন কিছু, তবে সেসব অনেক দামে কেনা। অবশেষে বল হাতে বলার মতো করে জ্বলে উঠতে পারলেন সোহাগ গাজী।
  • আবারও বড় ইনিংসের সুযোগ হাতছাড়া এনামুল-সৌম্যর
    আগের রাউন্ডেই ফিফটি পেরিয়ে তিন অঙ্কে যেতে পারেননি দুজন। জাতীয় লিগে আবারও বড় ইনিংস খেলার সুযোগ হাতছাড়া করলেন জাতীয় দলের বাইরে থাকা সৌম্য সরকার ও এনামুল হক। এ দিন আরেকটি সেঞ্চুরির আশা জাগিয়ে পারেননি তুষার ইমরানও।
  • উমেশের আগুনে পুড়ল উইন্ডিজ
    সম্ভাবনার সূর্যের আলোয় শুরু হয়েছিল দিন। জেসন হোল্ডারের বোলিং তোপে ম্যাচে ফিরেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু উমেশ যাদবের আগুনে বোলিংয়ে সব আশা পুড়ে ছাই। আরেকটি ব্যাটিং ব্যর্থতায় আবারও তিন দিনে ম্যাচ হারল ক্যারিবিয়ানরা।
  • কুক, রুটের সেঞ্চুরির পর বিপদে ভারত
    প্রথম ইনিংসে আশা জাগিয়েও তিন অঙ্কের দেখা পাননি অ্যালেস্টার কুক। দ্বিতীয় ইনিংসে তাকে ঠেকিয়ে রাখতে পারল না ভারত। বিদায়ী টেস্টে সেঞ্চুরি তুলে নিলেন কুক। তিন অঙ্কের দেখা পেলেন জো রুটও। তাদের ব্যাটে পঞ্চম টেস্টে জয়ের পথে ইংল্যান্ড।
  • জাদেজার দারুণ লড়াইয়েও পিছিয়ে ভারত
    অভিষেকে পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংস খেললেন হনুমা বিহারি। টেল এন্ডারদের নিয়ে বুক চিতিয়ে লড়াই করলেন রবীন্দ্র জাদেজা। তবে পঞ্চম টেস্টে পিছিয়েই আছে ভারত। প্রথম ইনিংসে লিড নেওয়া ইংল্যান্ড এগোচ্ছে অ্যালেস্টার কুক ও জো রুটের ব্যাটে।
  • মইনের স্পিনে দারুণ জয়ে সিরিজ ইংল্যান্ডের
    বিরাট কোহলি বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন আবারও। প্রতিরোধ গড়েছিলেন অজিঙ্কা রাহানে। কিন্তু এই দুজনের লড়াই শেষ হতেই যেন শেষ ভারতীয় ব্যাটিংয়ের দম। মইন আলির স্পিন ভেঙে দিল প্রতিপক্ষের মেরুদণ্ড। সঙ্গত ধরলেন পেসাররাও। দুর্দান্ত এক জয়ে ইংল্যান্ড নিশ্চিত করল সিরিজ জয়ও।
  • আবার ইংল্যান্ডকে টানলেন বাটলার-কারান
    টপ ও মিডল অর্ডারের টানা ব্যর্থতার সিরিজে ইংল্যান্ডকে বারবার উদ্ধার করেছে লোয়ার মিডল অর্ডার। সেটির পুনরাবৃত্তি আবারও। আবারও ব্যাট হাতে দাঁড়িয়ে গেলেন জস বাটলার। স্যাম কারানের ব্যাটে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস। ইংল্যান্ডের লিড এগোচ্ছে তাই আড়াইশর পথে।
  • আইরিশদের উড়িয়ে সিরিজ জিতল আফগানরা
    জয়ের পথ তৈরি করে দিয়েছিলেন আফগান বোলাররা। সেই পথ ধরে ব্যাটসম্যানরা অনায়াসেই পৌঁছে গেছে কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায়। সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে পাত্তাই পায়নি না আয়ারল্যান্ড।
  • শততম ওয়ানডেতে আয়ারল্যান্ডের কাছে আফগানিস্তানের হার
    এক ম্যাচ বাকি থাকতে সিরিজ নিশ্চিত করে শততম ওয়ানডের উপলক্ষ্য রাঙানোর সুযোগ ছিল আফগানিস্তানের। কিন্তু টিম মারটাঘের দারুণ বোলিংয়ে জয় তুলে নিয়েছে আয়ারল্যান্ড।
  • কালো মেঘ সরিয়ে বাংলাদেশের স্বস্তির জয়
    ১৪৬ বলে সেঞ্চুরি, ওয়ানডে ইতিহাসে বাংলাদেশের মন্থরতম। দেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৬০ বল খেলার রেকর্ড, কিন্তু রান মাত্র ১৩০। তবু তামিম ইকবালের অচেনা ইনিংসই হয়ে উঠল মহামূল্য। সাকিব আল হাসানের সঙ্গে তার দুইশ রানের জুটি গড়ে দিল জয়ের ভিত। মাশরাফি বিন মুর্তজার বোলিং আর নেতৃত্ব দেখাল পথের দিশা। টেস্ট সিরিজের গুমোট হাওয়া সরিয়ে বাংলাদেশ পেল স্বস্তির জয়।
  • লঙ্কায় মহারাজের স্পিন-রাজত্ব
    শ্রীলঙ্কার একাদশে তিন স্পিনার, দক্ষিণ আফ্রিকার একাদশে কেন একটি? দিনের শুরুতে ওঠা প্রশ্ন আরও উচ্চকিত হয়েছে সময় গড়ানোর সঙ্গে। তবে দিন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকান ম্যানেজমেন্ট বলতেই পারে, একজনেই কাজ হলে আরও কেন লাগবে! অসাধারণ বোলিংয়ে প্রথম দিনেই কেশভ মহারাজ নিলেন ৮ উইকেট।
  • আশা জাগানিয়া শুরুর পর বাংলাদেশের হতাশার দিন
    সকালের সেশন দেখিয়েছিল আশার আলো। সময়ের সঙ্গে জ্যামাইকায় প্রখর হলো রোদের তাপ; কিন্তু বাংলাদেশের বোলিংয়ের আলো ধীরে ধীরে গেল মিলিয়ে। ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের বাধার দেয়াল ভেদ করা গেল না আবারও। দলে ফেরার টেস্টে স্ট্রোকের দ্যুতি ছড়ালেন শিমরন হেটমায়ার। টস জিতে বোলিং নেওয়ার প্রথম দিন শেষ হলো হতাশায়।
  • বাংলাদেশ থেকে ফিরে রেকর্ড বইয়ে করুনারত্নে
    সতীর্থরা যখন ওয়েস্ট ইন্ডিজে, দিমুথ করুনারত্নে তখন বাংলাদেশে। এই তো সপ্তাহ দুয়েক আগেই। চোট কাটিয়ে ফেরার লড়াইয়ে ছিলেন, ছন্দ ফিরে পেতে তাকে পাঠানো হয় শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের সফরে। বাংলাদেশ ‘এ’ দলের বিপক্ষে প্রথম আনঅফিসিয়াল টেস্টে চট্টগ্রামে করলেন ৬০ ও ১৬১। ফিরে পেলেন জাতীয় দলে জায়গা। দলে ফিরেই প্রথম দিনটি রাঙালেন অসাধারণ সেঞ্চুরিতে। নাম লেখালেন রেকর্ড বইয়ে।
  • বাংলাদেশকে রেকর্ড ব্যবধানে হারাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ
    সম্ভাবনার কবর খোঁড়া হয়ে গিয়েছিল আগের দিনই। তৃতীয় দিনে সমাধি হয়ে গেল প্রথম সেশনেই। নুরুল হাসান সোহান লড়াই করলেন বটে। হারের ধরন এরপরও বাংলাদেশের জন্য বিব্রতকর। ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেল রেকর্ড ব্যবধানেরর জয়।
  • জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে পাকিস্তানের শুরু
    বকেয়া বেতন-ভাতা আর নানা বিতর্কে মাঠের বাইরে আবারও জেরবার জিম্বাবুয়ে। সেটির প্রভাব মাঠের ক্রিকেটেও। সম্ভাব্য সেরা দল পায়নি তারা। পারেনি টি-টোয়েন্টির শীর্ষ দল পাকিস্তানের সঙ্গে লড়াই করতেও। দুর্দান্ত ব্যাটিং-বোলিংয়ে পাকিস্তান জিতেছে অনায়াসেই।
  • ২০ উইকেটের দিনের পর ব্রিজটাউনে শেষ নাটকের অপেক্ষা
    ৫ উইকেট নিয়ে দিন শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কা, দিন শেষেও তাদের আছে ৫ উইকেট। কিন্তু মাঝে গোটা দিনে উইকেট পড়েছে ২০টি! প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট দিন শুরু করা লঙ্কানরা অলআউট হওয়ার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে দিয়েছে একশর নিচে। নিজেরা আবার রান তাড়ায় দ্বিতীয় ইনিংসে হারিয়েছে ৫ উইকেট। নাটকীয় এক দিন শেষে ব্রিজটাউন টেস্ট দাঁড়িয়ে শেষ রোমাঞ্চের অপেক্ষায়।
  • কুমারা, রাজিথার দাপটে ম্যাচে ফিরল শ্রীলঙ্কা
    বল বদলানো বিতর্কে উত্তেজনা ছড়ালো সেন্ট লুসিয়া টেস্ট। ৫ রান পেনাল্টি করা হল শ্রীলঙ্কাকে, বদলানো হল বিকৃত হয়ে যাওয়া বল। সেই ঘটনায় তেতে থাকা লঙ্কানরা আগুন ঝরিয়েছে তৃতীয় দিন। দ্রুত গুটিয়ে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংস।
  • স্কটল্যান্ডকে সহজেই হারাল পাকিস্তান
    শোয়েব মালিকের ব্যাটে ঝড় উঠল আবারও। তবে আগের ম্যাচের মতো এবার সঙ্গী পেলেন না সরফরাজ আহমেদ বা কাউকে। পাকিস্তানের স্কোরও তাই হলো না খুব বড়। তবে জয়টা হলো আগের দিনের চেয়ে অনেক বড়। পাকিস্তানী বোলিংয়ের সামনে যে দাঁড়াতেই পারল না স্কটল্যান্ড।
  • নেদারল্যান্ডসের কাছে হেরেই চলেছে আয়ারল্যান্ড
    নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে কোনোভাবেই পেরে উঠছে না আয়ারল্যান্ড। রোয়েলফ ফন ডার মারউইয়ের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে আরও একবার তাদের হারাল ডাচরা।
  • রোমাঞ্চকর রান উৎসবে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দিল স্কটল্যান্ড
    সাফইয়ান শরিফের দুর্দান্ত ইয়র্কার পায়ে লাগল মার্ক উডের। যেন একসঙ্গে আবেদন করল গোটা গ্যালারি! আম্পায়ারের আঙুল উঠতেই সেই গ্যালারিতে উচ্ছ্বাসের ঢেউ। বাঁধ ভাঙা আনন্দে দর্শকের অনেকে ছুটে গেলেন মাঠের ভেতরে। উপলক্ষ্যটাই এমন। রান উৎসবের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে স্কটল্যান্ড হারিয়ে দিয়েছে ইংল্যান্ডকে। স্কটিশদের ক্রিকেট ইতিহাসেই যা সেরা জয়গুলি একটি।
  • বড় লিড নিয়ে চালকের আসনে উইন্ডিজ
    সময় যত গড়াচ্ছে ত্রিনিদাদ টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নিয়ন্ত্রণ তত দৃঢ় হচ্ছে। বোলারদের দারুণ বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে জেসন হোল্ডারের দল পেয়েছে বড় লিড। কাইরন পাওয়েলের ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কাকে বিশাল লক্ষ্য দেওয়ার পথে স্বাগতিকরা।
  • ডাওরিচের সেঞ্চুরির পর চাপে শ্রীলঙ্কা
    টেলএন্ডারদের নিয়ে দারুণ লড়াই করলেন শেন ডাওরিচ। ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান দলকে এনে দিলেন চারশ ছাড়ানো সংগ্রহ। তার দ্বিতীয় টেস্ট সেঞ্চুরির পর দ্রুত শ্রীলঙ্কার তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দিয়ে ত্রিনিদাদ টেস্টে চালকের আসনে বসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারল না বাংলাদেশ
    আরিফুল হকের দারুণ শট হাওয়ায় ভেসে ছুটছিল সীমানার ওপারে। দুর্দান্ত ক্ষীপ্রতায় সেই বল মাটিতে নামালেন ফিল্ডার শফিকউল্লাহ। মাটিতে পড়ে আবার সীমানায় যেতে থাকা বলও ফেরালেন পরিমড়ি করে। চার নাকি চার নয়? তৃতীয় আম্পায়ারের রায়, বাউন্ডারি নয়। কেবল দুই রান। বাংলাদেশের হতাশার ষোলকলা তাতে পূর্ণ হলো। শেষ ম্যাচেও ধরা দিল না জয়। বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করেই ছাড়ল আফগানিস্তান।
  • পাকিস্তানকে তিন দিনেই উড়িয়ে দিল ইংল্যান্ড
    প্রথম ইনিংসের চেয়ে আরও ক্ষুরধার হলো ইংল্যান্ডের বোলিং। আর দুর্দশা বাড়লো পাকিস্তানী ব্যাটিংয়ের। ম্যাচ হলো তাই এক তরফা। তৃতীয় দিনেই ইনিংস ব্যবধানে জিতল ইংল্যান্ড। ড্রয়ে শেষ হলো দুই ম্যাচের সিরিজ।
  • পাকিস্তানকে গুঁড়িয়ে দিলেন ব্রড, অ্যান্ডারসন
    লর্ডস টেস্টের ব্যর্থতা ভুলে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ইংল্যান্ড। স্টুয়ার্ট ব্রড, জেমস অ্যান্ডারসন ও ক্রিস ওকস ত্রয়ীর দারুণ বোলিংয়ে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে দ্রুত গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। দলের সেরা দুই ব্যাটসম্যান অ্যালেস্টার কুক ও জো রুটের ব্যাটে শক্ত ভিত পেয়েছে ইংলিশরা।
  • সর্বোচ্চ সংগ্রহ গড়েও টি-টোয়েন্টিতেও সিরিজ হার মেয়েদের
    নিজেদের প্রথম ওয়ানডেতেই দুটি ফিফটি পেয়েছিল বাংলাদেশের মেয়েরা কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে অধরাই ছিল পঞ্চাশ। ৩৬তম ম্যাচে এসে বাংলাদেশ পেল প্রথম ফিফটি। তবে চমৎকার এক হাফ সেঞ্চুরির পরও দলকে জেতাতে পারেননি শামীমা সুলতানা। সহজ জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার মেয়েরা।
  • ফলো অনের পর আইরিশদের প্রতিরোধ
    আইরিশদের বোলিংয়ের আনন্দ অনেকটাই উবে গিয়েছিলে ব্যাটিংয়ে নেমে। সবুজাভ উইকেটে টের পেয়েছে তারা টেস্ট ক্রিকেটের উত্তাপ। নিজেদের ইতিহাসের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে এড়াতে পারেনি ফলো অন। তবে ফলো অনের পর ব্যাট করতে দুই আইরিশ ওপেনার উপহার দিয়েছেন দারুণ লড়াই।
  • পাকিস্তানে হোয়াইটওয়াশড ওয়েস্ট ইন্ডিজ
    সিরিজে প্রথমবারের মতো আগে ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে দেড়শ ছাড়ানো সংগ্রহ গড়ল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে দুই ওপেনারের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সহজ জয় তুলে নিল পাকিস্তান।
  • রেকর্ড গড়ে পাকিস্তানের সিরিজ জয়
    সিরিজের প্রথম ম্যাচে স্পর্শ করেছিল নিজেদের ইতিহাসে আগের সর্বোচ্চ রান। বাবর আজম ও হুসাইন তালাতের দারুণ ব্যাটিংয়ে পরদিনই রেকর্ডটাকে নতুন করে লিখল পাকিস্তান। আগের ম্যাচের চেয়ে এবার ব্যাটিং ভালো হল ওয়েস্ট ইন্ডিজেরও। তবে এবারও লক্ষ্যের ধারে কাছে যেতে পারেনি তারা।
  • জোহানেসবার্গ টেস্টে ফলোঅনের শঙ্কায় অস্ট্রেলিয়া
    সঙ্গীর অভাবে মাত্র ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি পাওয়া হল না টেম্বা বাভুমার। তবে দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে গেলেন পাঁচশ রানের কাছাকাছি। জবাব দিতে নেমে ব্যাটিং ব্যর্থতা আর স্বাগতিকদের দারুণ বোলিংয়ে জোহানেসবার্গ টেস্টে ফলোঅনের শঙ্কায় অস্ট্রেলিয়া।
  • এলগারের রেকর্ডের পর মর্কেল, রাবাদার ছোবল
    রেকর্ড গড়া ডিন এলগারের দৃঢ়তায় দক্ষিণ আফ্রিকা তিনশ ছাড়ানোর পর বোলিংয়ে জ্বলে উঠেছেন মর্নে মর্কেল ও কাগিসো রাবাদা। কেপ টাউন টেস্টে প্রথম ইনিংসে লিড নেওয়ার পথে দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • খাদের কিনারা থেকে বিশ্বকাপের মঞ্চে আফগানিস্তান
    প্রথম তিন ম্যাচ হেরে তারা ছিল গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে যাওয়ার দুয়ারে। কিন্তু অবিশ্বাস্য দ্রুততায় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ পর্যায়ে জায়গা পেয়ে যাওয়া আফগানিস্তান রচনা করল আরও একটি রূপকথার অধ্যায়। নিজেদের অবিশ্বাস্য ঘুরে দাঁড়ানো আর প্রতিপক্ষদের বেশ কিছু সমীকরণ মিলিয়ে আফগানরা জায়গা করে নিল ২০১৯ বিশ্বকাপে।
  • উইন্ডিজকে হারিয়ে টিকে থাকল আফগানিস্তান
    ছোট পুঁজি নিয়ে প্রাণপণ লড়াই করলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা। কিন্তু এগিয়ে আসতে পারলেন না ফিল্ডাররা। হাত থেকে ছুটল একের পর এক ক্যাচ। হাতছাড়া হল রান আউটের সুযোগ। রহমত শাহর ফিফটি আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাজে ফিল্ডিংয়ে রোমাঞ্চকর ম্যাচে জয় তুলে নিল আফগানিস্তান।
  • রাবাদার দাপটে সমতা ফেরাল দ.আফ্রিকা
    প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়া কাগিসো রাবাদা আরও উজ্জ্বল দ্বিতীয় ইনিংসে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এবার নিলেন ছয় উইকেট। লক্ষ্যটা রাখলেন হাতের নাগালে। তার দারুণ বোলিংয়ে পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে সহজ জয় পেল দক্ষিণ আফ্রিকা।
  • বেয়ারস্টো ঝড়ে সিরিজ ইংল্যান্ডের
    টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করলেন জনি বেয়ারস্টো। পেলেন দুই রকমের স্বাদ। আগের ম্যাচে হেরেছিল ইংল্যান্ড। এবার তার ঝড়ো সেঞ্চুরিতে উড়ে গেল নিউ জিল্যান্ড।
  • রাবাদার নৈপুণ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার দিন
    টস ভাগ্যকে পাশে পাওয়া অস্ট্রেলিয়ার শুরুটা ছিল দারুণ। কাগিসো রাবাদার চমৎকার বোলিংয়ে পরে ঘুরে দাঁড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তরুণ পেসার পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের প্রথম দিনই গুটিয়ে দিয়েছেন অতিথিদের।
  • ব্যাটে-বলে-ফিল্ডিংয়ে ইংল্যান্ডের নায়ক স্টোকস
    কদিন আগেও ছিলেন তিনি খলনায়ক। মাঠের বাইরে মারামারির ঘটনায় ছিলেন বিতর্কের কেন্দ্রে। পুলিশের অভিযোগের খড়গ ঝুলছে এখনও। তবে মাঠে সেই বেন স্টোকসই ইংল্যান্ডের নায়ক। ফেরার পর দ্বিতীয় ম্যাচেই দুর্দান্ত অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে জেতালেন দলকে।
  • ক্লাসেন-দুমিনি ঝড়ে ভারতকে হারাল দ.আফ্রিকা
    ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিং করলেন মনিশ পান্ডে, ফিফটি পেলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাদের ব্যাটে বড় সংগ্রহ গড়া ভারত লড়াই করলো প্রাণপণে। কিন্তু হাইনরিখ ক্লাসেনের টর্নেডো ইনিংস আর জেপি দুমিনির দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেষ হাসি হেসেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি জিতে সিরিজ বাঁচিয়ে রেখেছে স্বাগতিকরা।
  • সেঞ্চুরিয়ন টেস্টে চাপে ভারত
    লুঙ্গি এনগিডির ভেতরে ঢোকা বল ব্যাটের কানা ফাঁকি দিয়ে লাগল বিরাট কোহলির প্যাডে। দক্ষিণ আফ্রিকার খেলোয়াড়দের জোরালো আবেদনে সাড়া দিয়ে এলবিডব্লিউ দিলেন আম্পায়ার। মরিয়া ভারতীয় অধিনায়ক নিলেন রিভিউ। তবে পাল্টাল না সিদ্ধান্ত। সেঞ্চুরিয়ান টেস্টে চাপে তাই অতিথিরা।
  • বৃষ্টিতে ভেসে গেল তৃতীয় দিন
    আগের দুই দিন দাপট দেখালো বোলাররা। আর তৃতীয় দিন রাজত্ব করল বৃষ্টি। ফলে কেপ টাউন টেস্টের এ দিনে মাঠে গড়ায়নি বল।
  • লেগ স্পিন আর ধাওয়ানের ব্যাটে ভারতের সিরিজ জয়
    আশা ছিল ভারতে প্রথম সিরিজ জয়ের। শ্রীলঙ্কা ছুটছিলও দারুণ গতিতে। কিন্তু ভারতের দুই লেগ স্পিনারের সামনে মুখ থুবড়ে পড়ল লঙ্কান ব্যাটিং। আর লঙ্কান বোলিং পাত্তা পেল না শিখর ধাওয়ানের ব্যাটে। শেষ ম্যাচে বড় জয়ে সিরিজ জিতল ভারত।
  • অস্ট্রেলিয়ার রান উৎসবের পর বিপদে ইংল্যান্ড
    ডাবল সেঞ্চুরি করতে পারেননি মিচেল মার্শ। ডাবল সেঞ্চুরিকে আড়াইশ পর্যন্ত নিতে পারেননি স্টিভেন স্মিথ। তবে অস্ট্রেলিয়ার রান উৎসব থেমে থাকেনি। প্রথম ইনিংসে স্বাগতিকরা নিয়েছে বড় লিড। এরপর অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের দাপটে আরও কোণঠাসা ইংল্যান্ড।
  • স্মিথের অপরাজিত ডাবল সেঞ্চুরি, অপেক্ষায় মার্শ
    সেঞ্চুরিকে বানিয়ে ফেলেছেন ছেলেখেলা। ব্যাট করতে নামলেই সেঞ্চুরি। তবে আগের ২১ সেঞ্চুরিতে ডাবল সেঞ্চুরি মাত্র একটি। স্টিভেন স্মিথের তাড়না ছিল তাই বড় সেঞ্চুরির। দলে ফেরা মিচেল মার্শের তাড়না ছিল নিজেকে প্রমাণের। নির্বাচকদের আস্থার প্রতিদান দেওয়ার। দুই অস্ট্রেলিয়ানের সেই তাড়নার আগুনে পুড়ল ইংলিশ বোলিং।
  • স্মিথের ব্যাটে অস্ট্রেলিয়ার জবাব
    চার বছর আগে অ্যাশেজের এই ওয়াকা টেস্ট দিয়ে শুরু হয়েছিল স্টিভেন স্মিথের নবযাত্রা। সহজাত টেকনিকে বড় একটা পরিবর্তন এনেছিলেন, যোগ করেছিলেন শট খেলার আগে ‘শাফল’। সেই ইনিংসে সেঞ্চুরির পর আর পেছন ফিরে তাকাননি। নতুন টেকনিকে নিজেকে নিয়ে গেছেন বিশ্বসেরার উচ্চতায়। সেই ওয়াকার শেষ টেস্টে স্মিথ আরেকবার দেখিয়ে দিলেন নিজের জাত।
  • মালান-বেয়ারস্টোর ব্যাটে দুর্দান্ত ইংল্যান্ড
    টস জয়ের পর জো রুটের মুখে খেলে গেল দারুণ হাসি। দিনের মাঝামাঝি নাগাদ সেই হাসি উধাও। দিন শেষে ইংলিশ অধিনায়কের মুখে সেই হাসি আবার ফিরিয়ে আনলেন দলের নবীন একজন। প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ পেলেন ডাভিড মালান। পার্থ টেস্টের প্রথম দিনটি ইংল্যান্ড করে নিল নিজেদের।
  • শ্রীলঙ্কার সুইং বোলিংয়ে বিপর্যস্ত ভারত
    ২ ওভারে ১ উইকেটে শূন্য। ৫ ওভারে ২ উইকেটে ২। ১৩ ওভারে ৪ উইকেটে ১৬। ১৭ ওভারে ৭ উইকেটে ২৯। ম্যাচ যত এগোয়, ভারতের স্কোরকার্ডের চেহারা ততই হয়ে ওঠে অবিশ্বাস্য। ধ্বংসস্তুপে দাঁড়িয়ে মহেন্দ্র সিং ধোনির লড়িয়ে ইনিংসে কিছুটা মান বাঁচিয়েছে ভারত। তবে ম্যাচ বাঁচাতে পারেনি।
  • ধনঞ্জয়া-রোশেনের ব্যাটে শ্রীলঙ্কার বীরোচিত ড্র
    ভারতে শেষ দিনের উইকেট। প্রতিপক্ষের বোলিং আক্রমণে দুর্দান্ত দুজন স্পিনার; রিভার্স সুইং করানোর মত পেসার। আগের দিনই তিন উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে দল। শ্রীলঙ্কার সামনে তাই চ্যালেঞ্জ ছিল এভারেস্টসম। ধনঞ্জয়া ডি সিলভার অসাধারণ সেঞ্চুরি ও অভিষিক্ত রোশেন সিলভার দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সেই চ্যালেঞ্জ জিতল লঙ্কানরা। বাঁচিয়ে ফেলল ম্যাচ।
  • স্টার্ক-হেইজেলউড গুঁড়িয়ে দিলেন ইংল্যান্ডকে
    বাতাসে ছিল উত্তেজনার রেণু। অপেক্ষা ছিল রোমাঞ্চকর শেষ দিনের। কিন্তু শেষ দিনে লড়াই একটুও জমতে দিলেন না অস্ট্রেলিয়ার পেস আক্রমণের দুই সেনানী। শুরুতে পুরোনো বলে জশ হেইজেলউডের ছোবল, পরে নতুন বলে মিচেল স্টার্কের। শেষ দিনে প্রথম সেশনেই শেষ ইংল্যান্ড।
  • রোমাঞ্চকর শেষের অপেক্ষায় অ্যাডিলেড
    শন মার্শের সেঞ্চুরিতে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস ঘোষণা। বোলারদের সৌজন্যে দুইশ ছাড়ানো লিড। এরপর আচমকাই ম্যাচে হাওয়া বদল। ইংলিশ বোলারদের দুর্দান্ত ফেরা। জো রুটের ভরসায় রান তাড়ায় এগিয়ে যাওয়া। উত্থান-পতনের নানা ধাপ পেরিয়ে অ্যাডিলেড টেস্ট দাঁড়িয়ে রোমাঞ্চকর এক মোড়ে।