• আশরাফুল ও শরিফুল্লাহর হ্যাটট্রিক
    ব্যাট হাতে যেতে পারলেন না দুই অঙ্কে। তবে বোলিংয়ে আলো ছড়ালেন মোহাম্মদ আশরাফুল। তার হ্যাটট্রিক ও মনির হোসেনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে দেড়শর কম পুঁজি নিয়েও লিড পেয়েছে বরিশাল বিভাগ।
  • শান্ত ৭২, মুমিনুল ৬২, মুরাদের ৫ উইকেট
    অনিয়িমিত স্পিনার শাহাদাত হোসেন বল ফেললেন প্রায় মাঝ পিচে। নির্বিষ শর্ট বলটিকে অনসাইডে যে কোনো জায়গায় পাঠাতে পারতেন নাজমুল হোসেন শান্ত। তিনি সজোরে পুল করলেন বটে, কিন্তু বল গেল সোজা মিড উইকেট ফিল্ডারের হাতে! এমন আলগা বলে আউট হয়ে হতাশায় কোমরে হাত দিয়ে ঠায় দাঁড়িয়ে রইলেন শান্ত।
  • মুরাদের ৫ উইকেটে চট্টগ্রামের বড় লিড
    থিতু হয়ে ইনিংস বড় করতে পারলেন না ঢাকা মেট্রোর ব্যাটসম্যানরা। দারুণ বোলিংয়ে প্রতিপক্ষকে দ্রুত থামিয়ে দলকে বড় লিড এনে দিলেন চট্টগ্রাম বিভাগের তরুণ স্পিনার হাসান মুরাদ।
  • ভেটোরির ছোঁয়া পেলেন তানভির-মুরাদরা
    চড়া পারিশ্রমিকে আনা স্পিন কোচের অনেকটা সময় পেরিয়ে যাচ্ছে কেবল ম্যাচ দিয়েই। মিরপুর টেস্ট চারদিনে শেষ হওয়ায় ড্যানিয়েল ভেটোরিকে একটু কাজে লাগানোর ফুরসত পাওয়া গেল। জাতীয় দলের বাইরের চার স্পিনারের সঙ্গে সময় কাটালেন বাংলাদেশের স্পিন কোচ।
  • এইচপি দলে সাইফ-নাঈমের সঙ্গী আফ্রিদি-মুরাদ
    ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আটশর বেশি রান করা দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও নাঈম শেখ ডাক পেয়েছেন ২০১৯-২০ সেশনের হাই পারফরম্যান্স ইউনিট বা এইচপি দলে। বিকেএসপির তরুণ বাঁহাতি স্পিনার হাসান মুরাদ তাদের সঙ্গী। বল হাতে তেমন কিছু করতে না পারলেও ডাক পেয়েছেন মিনহাজুল আবেদীন আফ্রিদি।