ল্যাঙ্গার আমাকে নির্বোধ বলেছেন: মিচেল মার্শ

ল্যাঙ্গার আমাকে নির্বোধ বলেছেন: মিচেল মার্শ

ঘরোয়া ক্রিকেটে আউটের পর হতাশায় ড্রেসিংরুমের দেওয়ালে ঘুসি মেরে হাত ভাঙায় ছয় সপ্তাহের জন্য ছিটকে যাওয়ার শঙ্কায় পড়েছেন মিচেল মার্শ। এ ঘটনায় হতাশ জাতীয় দলের কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার তাকে নির্বোধ বলেছেন বলে জানিয়েছেন এই অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার।

দেয়ালে ঘুষি মেরে মার্শের হাতে চোট

দেয়ালে ঘুষি মেরে মার্শের হাতে চোট

বিতর্ক যেন পিছুই ছাড়ে না মিচেল মার্শের। কিংবা তিনিই বারবার আপন করে নেন অঘটনকে। অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডারের বিতর্ক জর্জর ক্যারিয়ারে যোগ হলো নতুন অধ্যায়। শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচে আউট হবার পর ড্রেসিংরুমে ফিরে মাথা ঠান্ডা রাখতে পারেননি। ঘুষি মেরে বসেন ড্রেসিংরুমের দেয়ালে। মেজাজ হারানোর খেসারত তাকে দিতে হচ্ছে মাঠের বাইরে ছিটকে গিয়ে।

মার্শ ভাইদের সেঞ্চুরির পর বিপদে ইংল্যান্ড

মার্শ ভাইদের সেঞ্চুরির পর বিপদে ইংল্যান্ড

সিডনির কোনো কোনো জায়গায় তাপমাত্রা ছুঁয়েছে ৪৭.৩ ডিগ্রি। সেই ১৯৩৯ সালের পর এতটা উত্তপ্ত হয়নি সিডনি। সেই উত্তাপ সবচেয়ে বেশি টের পেল যেন ইংলিশরা। উসমান খাওয়াজার পর সেঞ্চুরি করলেন শন ও মিচেল মার্শ। বোলিং দৈন্যর পর ব্যাটিংয়ে নেমেও দুর্দশা ইংল্যান্ডের।

স্মিথের অপরাজিত ডাবল সেঞ্চুরি, অপেক্ষায় মার্শ

স্মিথের অপরাজিত ডাবল সেঞ্চুরি, অপেক্ষায় মার্শ

সেঞ্চুরিকে বানিয়ে ফেলেছেন ছেলেখেলা। ব্যাট করতে নামলেই সেঞ্চুরি। তবে আগের ২১ সেঞ্চুরিতে ডাবল সেঞ্চুরি মাত্র একটি। স্টিভেন স্মিথের তাড়না ছিল তাই বড় সেঞ্চুরির। দলে ফেরা মিচেল মার্শের তাড়না ছিল নিজেকে প্রমাণের। নির্বাচকদের আস্থার প্রতিদান দেওয়ার। দুই অস্ট্রেলিয়ানের সেই তাড়নার আগুনে পুড়ল ইংলিশ বোলিং।