• মেয়ার্স-ব্রুকসের সেঞ্চুরিতে উইন্ডিজের তিনে তিন
    আগের পাঁচ ওয়ানডের চারটিতে ব্যাটিং পেয়ে কাইল মেয়ার্সের কখনও চার নম্বরের ওপরে নামা হয়নি। প্রথমবার ওপেনিংয়ে সুযোগ পেয়ে তিনি উপহার দিলেন দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি। সঙ্গে শামারা ব্রুকসের সেঞ্চুরিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেল বড় পুঁজি। ম্যাক্স ও'ডাওড জবাব দিলেন দারুণ এক ইনিংস খেলে। কিন্তু আশা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত পেরে উঠল না নেদারল্যান্ডস। ডাচদের হোয়াইটওয়াশ করে ছাড়ল ক্যারিবিয়ানরা।
  • অম্ল-মধুর অভিষেকে রেকর্ড বইয়ে ব্রুকস
    অভিষেকেই ব্যাট হাতে ফিফটি পেরিয়ে আরও অনেক দূর, প্রাপ্তি তাই যথেষ্টই। কিন্তু হাতছানি দিয়েও যখন মিলিয়ে যায় সেঞ্চুরি, আক্ষেপও তখন হয় সঙ্গী। অভিষেকে এমন মিশ্র অনুভূতির সঙ্গে পরিচয় হলো শামার ব্রুকসের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি ওয়ানডে অভিষেকে আটকা পড়লেন ‘নাভার্স নাইন্টিজ’-এ।
  • অভিষেকেই উইন্ডিজের নায়ক ব্রুকস
    সেই ৪৪ বছর আগে সেঞ্চুরিতে অভিষেক রাঙিয়েছিলেন ডেসমন্ড হেইন্স। এরপর আর ওয়ানডে অভিষেকে শতরান পাননি ওয়েস্ট ইন্ডিজের কেউ। এবার খুব কাছে গিয়েও পারলেন না শামার ব্রুকস। দারুণ খেলে নিজেকে অবশ্য জানান দিলেন তিনি। তার সঙ্গে অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের দুর্দান্ত জুটির পর বোলারদের সৌজন্যে স্বস্তির জয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ শুরু করল সিরিজ।