• রুটের অধিনায়কত্ব নিয়ে চ্যাপেলের প্রশ্ন
    ভিন্ন কন্ডিশন, আলাদা ম্যাচ পরিস্থিতিতে অধিনায়ককে হতে হয় কৌশলী। চিরায়ত ধারার বাইরে গিয়ে নিতে হয় উদ্ভাবনী অনেক সিদ্ধান্ত। জো রুটের নেতৃত্বে এসবের বেশ অভাব চোখে পড়েছে ইয়ান চ্যাপেলের। যা ইংল্যান্ডের জন্য উদ্বেগের বলে মনে করেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক।
  • স্মিথ নয়, কামিন্সকে নেতৃত্বে চান চ্যাপেল
    অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের হাওয়া স্টিভেন স্মিথের দিকে। তবে সেই হাওয়ায় ভাসছেন না ইয়ান চ্যাপেল। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেলের মতে, অস্ট্রেলিয়ার পরবর্তী টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব স্মিথকে নয়, দেওয়া উচিত প্যাট কামিন্সকে।
  • ‘ভারতীয় তরুণদের তুলনায় এখনও প্রাইমারি স্কুলে অস্ট্রেলিয়ানরা’
    ক্রিকেটীয় কাঠামোয় একসময় আদর্শ ছিল অস্ট্রেলিয়া। তাদের শক্তির গভীরতায় তল খুঁজে পাওয়া যেত না। সময়ের সঙ্গে পাল্টে গেছে চিত্র। সদ্য সমাপ্ত বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফিতে ভারত দেখিয়েছে তাদের সামর্থ্যের পরিধি। অস্ট্রেলিয়া সেখানে চলেছে উল্টো রথে। অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি গ্রেগ চ্যাপেলের মতে, ভারতীয় তরুণদের তুলনায় যোজন যোজন পিছিয়ে অস্ট্রেলিয়ার তরুণরা।
  • পুকোভস্কিকে নিয়ে চ্যাপেলের ভয়
    উইল পুকোভস্কির সম্ভাবনা নিয়ে যখন রোমাঞ্চিত অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট, ইয়ান চ্যাপেল তখন তুলে ধরলেন একটি শঙ্কাও। অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটে পুকোভস্কি যেমন রানের বন্যা বইয়ে দিয়েছেন, তেমনি কনকাশনের শিকারও হয়েছেন বারবার। সাবেক অধিনায়ক চ্যাপেলের ধারণা, ভারতীয় পেসাররাও শর্ট বলে কাবু করতে চাইবে এই তরুণকে।
  • চ্যাপেলের ‘অদ্ভুতুড়ে’ প্রস্তাবে বিরক্ত স্মিথ
    অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট মহলে ইয়ান চ্যাপেলের মন্তব্য, প্রতিক্রিয়া ও ভাবনাকে বরাবরই মনে করা হয় ওজনদার। তবে সাবেক এই অধিনায়কের পাণ্ডিত্যে আপাতত খুব একটা আস্থা নেই স্টিভেন স্মিথের। বরং চ্যাপেলের একের পর এক মন্তব্য স্মিথের কাছে মনে হচ্ছে অদ্ভুত।
  • এলবিডব্লিউ আইনে আমূল পরিবর্তন চান চ্যাপেল
    ক্রিকেটে এলবিডব্লিউর আইন বেশ জটিল। বেশ কিছু ব্যাপার মাথায় রাখতে হয়। ব্যাপারটা একদম সহজ করে ফেলা উচিত বলে মনে করেন ইয়ান চ্যাপেল। সাবেক অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কের মতে, আমূল পরিবর্তন আনা উচিত এলবিডব্লিউর নিয়মে।