• এক টেস্ট জিতেই খুশি থাকার সুযোগ নেই: মুমিনুল
    নিউ জিল্যান্ড থেকে এমন ফেরা আগে কখনও হয়নি বাংলাদেশ দলের। আগের সব সফরেই দল ফিরেছে সব ম্যাচ হেরে। এবার সেখানে টেস্ট সিরিজ ড্র করার অভাবনীয় প্রাপ্তি নিয়ে ফেরা! তবে সেই সাফল্যের স্রোতে ভেসে যাচ্ছেন না মুমিনুল হক। বরং দেশে ফিরেই বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক বলছেন, তিনি তাকিয়ে সামনের চ্যালেঞ্জগুলির দিকে।
  • নিউ জিল্যান্ড সফরে সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি ‘বিশ্বাস’
    ব্যর্থতার বৃত্ত কাটানো জয়ের সঙ্গে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ১২ পয়েন্ট। নিউ জিল্যান্ডে প্রথমবারের মতো কোনো সিরিজে হার এড়ানো। মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে পেসারদের বোলিং, ক্রাইস্টচার্চে লিটন দাসের সেঞ্চুরি। বছরের প্রথম সিরিজে বাংলাদেশের প্রাপ্তি আছে বেশ কিছু। তবে এসব ছাপিয়ে মুমিনুল হকের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মনে হচ্ছে, দেশের বাইরে জেতার বিশ্বাস।
  • প্রিন্সের ভালো লেগেছে সোহানের মানসিকতা ও ইয়াসিরের নিবেদন
    ১২৬ রানে গুটিয়ে যাওয়া ব্যাটিং পারফরম্যান্সে এমনিতে প্রাপ্তি খুঁজে পাওয়া ভার। ক্রাইস্টচার্চ টেস্টে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে ইয়াসির আলি চৌধুরি ও নুরুল হাসান সোহানের ব্যাটিংয়ে তবু ছিল আশার ঝিলিক। ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্সেরও নজর কেড়েছে এই দুজনের ব্যাটিং।
  • বল না ছাড়ার আক্ষেপ বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচের
    আগের টেস্টে নিজেদের ভালো করার অভিজ্ঞতা আছে। চলতি টেস্টে নিউ জিল্যান্ডকে দেখেও করণীয় স্পষ্ট হয়েছে। তবু মূল কাজটি ঠিকঠাক করতে পারেনি বাংলাদেশ। ব্যাটিং ব্যর্থতার কারণ অনুসন্ধানে বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্সের কাছে সবচেয়ে বড় সমস্যা মনে হয়েছে সেটিই, যথেষ্ট পরিমাণে বল ছাড়তে পারেনি ব্যাটসম্যানরা।
  • ল্যাথাম ২৫২, বাংলাদেশ ১২৬
    সুইং করানোর সামর্থ্য তো টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্টের সহজাত। পাশাপাশি দুজন দেখিয়ে দিলেন সবুজ উইকেটে বল রাখার আদর্শ লেংথও। নিউ জিল্যান্ডের দুই অভিজ্ঞ পেসার দারুণ বোলিংয়ে গুঁড়িয়ে দিলেন বাংলাদেশের ব্যাটিং। ধ্বংসস্তুপে দাঁড়িয়ে কিছুটা লড়াই করতে পারলেন কেবল ইয়াসির আলি চৌধুরি ও নুরুল হাসান সোহান। নিউ জিল্যান্ডের বিশাল লিড তাতে অবশ্য আটকানো গেল না।
  • বাংলাদেশকে হতাশ করে নিউ জিল্যান্ডের দুর্দান্ত শুরু
    ইবাদত হোসেনের প্রথম ওভারেই আম্পায়ার আঙুল তুললেন দুই দফায়। কিন্তু আউট হলেন না ব্যাটসম্যান। দুটি সিদ্ধান্তই বদলে গেল রিভিউয়ে। লাঞ্চের সময় অবশ্য বাংলাদেশের প্রয়োজন নিজেদের বোলিংয়ে ‘রিভিউ’। সবুজ ঘাসে ভরা উইকেটে কাঙ্ক্ষিত টস জিতেও বাংলাদেশ যে পারল না ফায়দা নিতে! চ্যালেঞ্জিং উইকেটে নিউ জিল্যান্ডকে দারুণ শুরু এনে দিলেন টম ল্যাথাম ও উইল ইয়াং।
  • নাঈমকে দিয়ে বাংলাদেশের ‘সেঞ্চুরি’
    মোহাম্মদ নাঈম শেখের টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পাওয়া নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা কম হয়নি। সেই তিনিই এবার সৌভাগ্যক্রমে হয়ে গেলেন বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের অংশ। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ক্রাইস্টচার্চ টেস্টে তিনি পেলেন টেস্ট ক্যাপ। বাঁহাতি এই ওপেনার বাংলাদেশের শততম টেস্ট ক্রিকেটার।
  • বোলিংয়ে বাংলাদেশ, নাঈমের অভিষেক, নেই মুশফিক
    টসের আগে বড় দুঃসংবাদ। কুঁচকির চোটের কারণে খেলতে পারবেন না মুশফিকুর রহিম। টসে অবশ্য ভাগ্যকে পাশে পেল বাংলাদেশ। ক্রাইস্টচার্চে কাঙ্ক্ষিত টসটি জিতে বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক ব্যাটিংয়ে পাঠালেন নিউ জিল্যান্ডকে।
  • মুমিনুল-জেমিসনের ভাইরাল ছবি নিয়ে হাথুরুসিংহের টুইট
    উচ্চতার জন‍্য কাইল জেমিসনের চোখে চোখ রাখা বাংলাদেশের যে কোনো ক্রিকেটারের জন‍্যই কঠিন। সবচেয়ে কঠিন সম্ভবত মুমিনুল হকের জন‍্য। তবে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের এক পর্যায়ে সম্ভবত সেই চেষ্টাই করলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। ওই ছবি তুমুল আলোচনার জন্ম দিল অন্তর্জালে। যা নিয়ে এবার টুইট করলেন বাংলাদেশের সাবেক কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহেও।
  • ‘আমি বিমান সেনা, স্যালুট দিতে জানি’
    ইবাদত হোসেন চৌধুরির উইকেট উদযাপনের রহস্য বাংলাদেশ ক্রিকেটের অনেকেরই জানা। এবার তা জেনে গেল ক্রিকেট বিশ্বও। নিউ জিল্যান্ডে বাংলাদেশের ইতিহাস গড়া জয়ের নায়ক মাথা উঁচু করে বললেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ও বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে গর্বের কথা।
  • ‘এই জয়ে গর্ব করতে পারে বাংলাদেশ’
    সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশের পক্ষে বাজি ধরার লোক খুব একটা ছিল না। এর যৌক্তিক কারণও ছিল। এক দিকে ঘরের মাঠে দারুণ রেকর্ড নিউ জিল্যান্ডের, অন্য দিকে বাংলাদেশের রেকর্ড বেশ বাজে। তিন সংস্করণ মিলিয়ে হেরেছে টানা ৩২ ম্যাচ। সেই দলটিই কিনা টেস্ট চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে দিল তাদের আঙিনায়! অভাবনীয় এই জয়ে বাংলাদেশ দল ভাসছে স্তুতির জোয়ারে।
  • ‘মুশফিক ভাই সবচেয়ে ইমোশনাল’
    ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্ট দিয়ে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করার পর যে চিৎকার দিলেন মুশফিকুর রহিম, সেটাই বলে দিল অনেক কিছু। দেড় দশকে নিউ জিল্যান্ডে তো কম সইতে হয়নি তাকে। তারই জবাব যেন ছিল এই হুঙ্কার। তার শরীরি ভাষায় যেটা ফুটে উঠছিল, ম্যাচ শেষে সেটাই বললেন মুমিনুল হক। তার দেখা সবচেয়ে আবেগপ্রবণ মানুষ মুশফিক।
  • সর্বশ্রেষ্ঠ যে জয়
    অপরূপ নৈসর্গিক সৌন্দর্যের দেশ নিউ জিল্যান্ড। অপূর্ব সব লেক, সাগরে স্বচ্ছ স্ফটিকের মতো নীল জলরাশি, মাইলের পর মাইল জুড়ে সবুজ প্রান্তর আর ছোট-বড় পাহাড় মিলিয়ে প্রকৃতি যেন খুব যত্ন করে সাজিয়েছে দেশটি। সৌন্দর্যের সেই লীলাভূমিতেই বাংলাদেশের ক্রিকেট পেল ইতিহাসের সুন্দরতম দিন।
  • সুজন ভাইয়ের অনেক অবদান: মুমিনুল
    বৃষ্টিতে আড়াই দিনের বেশি সময় ভেসে যাওয়া একটি ম্যাচে দুঃস্বপ্নের ব্যাটিংয়ে হারের পরপরই নিজেদের কঠিনতম গন্তব্যে একটিতে যাত্রা। সেখানে কোভিড জটিলতায় বেড়ে গেল কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ। এর ডামাডোলে হারিয়ে গেল একটি প্রস্তুতি ম্যাচ। কোনো কিছুই ঠিক বাংলাদেশের পক্ষে ছিল না। বাজে সময়ের মধ্য দিয়ে যাওয়া নড়বড়ে এক দলকে মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু ছিল না। মুমিনুল হক জানালেন, খালেদ মাহমুদের তৎপরতায় উজ্জ্বীবিত হয়েই নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে খেলতে নেমেছিলেন তারা।
  • ‘ইবাদত যে দিন ভালো জায়গায় বল করবে, সেদিন ওই দল শেষ’
    গতি সব সময়ই ছিল কিন্তু ছিল না নিয়ন্ত্রণ। বিচ্ছিন্নভাবে দুয়েকটা স্পেলে ঝলক দেখালেও বেশিরভাগ সময় ছিলেন অকার্যকর। উইকেট নেওয়ায় ব্যর্থতার সঙ্গে ছিল রান বিলানোর প্রবণতা। সব মিলিয়ে ১০ উইকেট নেওয়া বোলারদের মধ্য টেস্ট ইতিহাসে সবচেয়ে বাজে গড় ছিল তার। স্বাভাবিকভাবেই তাকে খেলানো নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল। রেকর্ড রাঙা বোলিংয়ে সব প্রশ্নের উত্তর দিলেন ইবাদত হোসেন চৌধুরি।
  • বিপদ থেকে উদ্ধার পাওয়ার পথ খুঁজছে নিউ জিল্যান্ড
    লুক রনকি নিজে ছিলেন আগ্রাসী ব্যাটসম্যান। যে কোনো পরিস্থিতিতে আগ্রাসনই ছিল বরাবরের কৌশল। এখন তিনি নিউ জিল্যান্ডের ব্যাটিং কোচ। মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে বাংলাদেশের তৈরি করা ফাঁস আলগা করতে পুরনো কৌশলেই সমাধান দেখছেন তিনি। শেষ দিনে নিজেদের ব্যাটসম্যানদের ইতিবাচক ব্যাটিং করতে দেখতে চান তিনি।
  • ‘ইবাদত প্রমাণ করেছে, সে ভালো বোলার’
    টেস্ট প্রতি উইকেট মোটে একটি করে। বোলিং গড় ভীষণ বাজে। ওভারপ্রতি রান অনেক বেশি। মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের আগে ইবাদত হোসেন চৌধুরির টেস্ট রেকর্ড ছিল একদমই যাচ্ছেতাই। বোলিংয়ে স্কিল, কারুকাজ ও ধারাবাহিকতাও দেখা যায়নি আগে তেমন। সেই ইবাদতই দুর্দান্ত বোলিং করে বাংলাদেশকে নিয়ে গেছেন অভাবনীয় এক জয়ের কাছে।
  • মাহমুদুলের ডান হাতে তিন সেলাই
    নিউ জিল্যান্ডে দ্বিপক্ষীয় সিরিজে প্রথম জয়ের আশা উজ্জ্বল করার দিনে একটা দুঃসংবাদ শুনল বাংলাদেশ। হাতে চোট পেয়েছেন মাহমুদুল হাসান জয়। এই টেস্টের প্রথম ইনিংসে দুর্দান্ত ব্যাট করা তরুণ ব্যাটসম্যানের ডান হাতে পড়েছে তিনটি সেলাই।
  • দ্যুতিময় ইবাদতে উজ্জ্বল বাংলাদেশের জয়ের স্বপ্ন
    দুটি ক্যাচের সঙ্গে একটি রান আউটের সহজ সুযোগ হাতছাড়া। সেসব কাজে লাগিয়ে নিউ জিল্যান্ডের লিড। মনে হচ্ছিল, আরও একবার বুঝি এলো দীর্ঘশ্বাসের পালা। কিন্তু এই দিনটি অন্যরকম। এই ম্যাচটি আলাদা। ম্যাচের পর ম্যাচ ধারহীন বোলিংয়ে যাকে নিয়ে ছিল সমালোচনা, সেই ইবাদত হোসেন চৌধুরি জ্বলে উঠলেন আগুনে বোলিংয়ে। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে তিনি বাংলাদেশকে নিয়ে গেলেন এমন এক জায়গায়, যেখান থেকে জয় খুব নাগালেই!
  • ২ উইকেটের সঙ্গে একটি সুযোগ হাতছাড়ার আক্ষেপ
    প্রথম ইনিংসে ভালো বল করেও উইকেটশূন্য থাকা তাসকিন আহমেদের হাত ধরে এলো প্রথম সাফল্য। গতিময় বোলিংয়ে ইবাদত হোসেন নিলেন আরেকটি। উইকেট পেতে পারতেন মেহেদী হাসান মিরাজও। তবে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি লিটন দাস। তাই নিউ জিল্যান্ডের দুই উইকেটের সঙ্গে একটি সুযোগ হাতছাড়ার আক্ষেপ নিয়ে চা-বিরতিতে গেছে বাংলাদেশ। 
  • ১৩০ রানের লিড নিয়ে থামল বাংলাদেশ
    ইয়াসির আলি চৌধুরির সঙ্গে মেহেদী হাসান মিরাজের জুটি ভাঙার পর দ্রুতই গুটিয়ে গেল বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। তৃতীয় নতুন বলে দ্রুত শেষ চার উইকেট হারানোর আগে অবশ্য নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে লিড শতরানে নিতে পেরেছে মুমিনুল হকের দল।
  • বাংলাদেশের বিপক্ষে ‘পছন্দের উইকেট’ পায়নি নিউ জিল‍্যান্ড
    দেশের মাটিতে সাধারণত যতটা সুবিধা মেলে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে ততটা পাচ্ছেন না নিউ জিল‍্যান্ডের বোলাররা। উইকেট নিতে নিজেদের নিংড়ে দিতে হচ্ছে তাদের। পেসার ট্রেন্ট বোল্ট বললেন, বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে এতো ভালো উইকেট তারা আশা করেননি।
  • ভয়ে ছিলেন মাহমুদ, এখন জয় না পেলেও চান অন্তত ড্র
    টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদের একটা বড় দায়িত্ব, দলকে চাঙা করা। সেই চেষ্টা তিনি করে যাচ্ছেন। তবে নিজেই ভেতরে ভেতরে ছিলেন চুপসে। এমন অনভিজ্ঞ ব্যাটিং লাইন আপ নিয়ে নিউ জিল্যান্ডে না জানি কী হয়! কিন্তু দল যেভাবে খেলছে, তাতে উচ্ছ্বসিত তিনি। এখন তার চাওয়া, টেস্টের বাকি দুই দিনেও ধারাবাহিকতা ধরে রেখে অন্তত ড্র আদায় করা।
  • যে কৌশলে মাহমুদুলের অনন‍্য কীর্তি
    দলের শক্ত ভিত গড়ে দিতে মাহমুদুল হাসান ছিলেন অগ্রগামী। যেন ধৈর্য‍্যের প্রতিমূর্তি। খেলতে থাকলে রান আসবেই-এই ভাবনায় নিল ওয়‍্যাগনার, ট্রেন্ট বোল্টদের আক্রমণ সামলে ক্রিজে কাটিয়ে দেন প্রায় ৫ ঘণ্টা। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নেমে দুরূহ কন্ডিশনে তার এমন ব্যাটিং অনেকের কাছেই বিস্ময়ের। তৃতীয় দিনের খেলা শেষে মাহমুদুল জানালেন, কীভাবে খেলেছেন এই ইনিংস।
  • লিড পাওয়ার দিনে তিন সেঞ্চুরি হাতছাড়ার হতাশা
    প্রত্যাশাকে ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রাপ্তি আছে। আশা জাগিয়ে পূরণ করতে না পারার আক্ষেপও আছে। দিনজুড়ে এমনই হর্ষ-বিষাদের নানা রঙের খেলা। তবে দিন শেষের সমীকরণে ড্রেসিং রুমে হয়তো বসছে হাসিমুখের মেলা। নিউ জিল্যান্ডে আরও একটি দিন কাটাল বাংলাদেশ তৃপ্তির হিল্লোল জাগানিয়া সুন্দর।
  • লিটনের নান্দনিকতা ও মুমিনুলের দৃঢ়তায় দারুণ এক সেশন
    কাইলে জেমিসনের বলে লিটন দাসের নান্দনিক ড্রাইভে তিন রান। সেশনের প্রথম বলেই যে ইঙ্গিত, পরের সময়টায় সেটি রূপ পেল পূর্ণতার। প্রথম সেশনের সব অস্বস্তি আর জড়তা পরের সেশনে গেল মিলিয়ে। লিটনের চোখ জুড়ানো সব শটের মহড়া আর মুমিনুল হকের চোয়ালবদ্ধ দৃঢ়তায় নিউ জিল্যান্ডকে হতাশ করে বাংলাদেশ কাটাল দুর্দান্ত এক সেশন।
  • মাহমুদুলকে ফেরানোর সুযোগ যেভাবে হারাল নিউ জিল্যান্ড
    নিউ জিল্যান্ডের সামনে বাঁধার দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে যিনি, তাকে ফেরানোর বড় একটা সুযোগ এসেছিল। কিন্তু নিজেদের ভুলেই সেটা তারা পারেনি। কিউইরা রিভিউ না নেওয়ায় বেঁচে যাওয়া মাহমুদুল হাসান জয় দিন শেষ করেন অপরাজিত থেকে। নিউ জিল্যান্ডের পেসার নিল ওয়্যাগনার দিনশেষে বললেন, ব্যাটের কানায় লাগার মতো শব্দ পেয়ে তারা রিভিউ নেননি।
  • সাকিব-তামিমদের চেয়ে ‘ভিন্ন ব্র্যান্ডের ক্রিকেট’ মাহমুদুল-শান্তদের
    এমনিতেই বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে বড় আস্থার জায়গা তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। নিউ জিল্যান্ডে টেস্টে তাদের রেকর্ড আরও বেশি ভালো। সেই দুজনই এবারের সফরে নেই। তবে তরুণ যে ব্যাটসম্যানরা খেললেন, তাদের দেখে মুগ্ধ নিল ওয়্যাগনার। নিউ জিল্যান্ডের এই পেসার বললেন, সাবধানী ক্রিকেট খেলে বাংলাদেশের এই তরুণরা তেমন কোনো সুযোগই দেননি প্রতিপক্ষকে।
  • দুই দলকেই সমতায় দেখছেন গিবসন
    খেলা শেষ হওয়ার আধ ঘণ্টা আগে দাপুটে অবস্থায় ছিল নিউ জিল্যান্ড। শক্ত ভিত গড়েই দিনের খেলা শেষ করার পথে ছিল তারা। কিন্তু শেষ সময়ে দুটি উইকেট নিয়ে বাংলাদেশ ম্যাচে ফেরে দারুণভাবে। দিন শেষে স্কোরবোর্ডের যা চিত্র, তাতে দুই দলকেই পাশাপাশি রাখছেন বাংলাদেশের বোলিং কোচ ওটিস গিবসন।
  • শরিফুলের খুশি মনে আছে 'কিন্তুও'
    বলা হয়, ‘নিউ জিল্যান্ডের সবুজ ঘাসের আড়ালে রান হাসে।’ শুরুর কঠিন সময় পার করে দিতে পারলে হাতছানি দেয় বড় রান। সেখানেই ডেভন কনওয়ের সেঞ্চুরির পরও স্বাগতিকদের খুব বেশি রান করতে দেয়নি বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষকে বেঁধে রাখতে চমৎকার বোলিংয়ে বড় অবদান রাখেন শরিফুল ইসলাম। নিজেদের প্রথম দিনের পারফরম্যান্সে খুশি বাঁহাতি এই পেসার। একটু আফসোসও আছে, দিনটা হতে পারত যে আরও ভালো।
  • নিউ জিল্যান্ডে বোলিং করে যেমন লেগেছে শরিফুলের
    নিউ জিল্যান্ডে স্বাভাবিকের তুলনায় এবার ততটা সবুজ নয় উইকেট। তবে সবুজের ছোঁয়া ভালোভাবেই আছে। দুই দলেরই চাওয়া ছিল আগে বোলিং। ইচ্ছে পূরণ হয় বাংলাদেশের। নিজেকে মেলে ধরেন শরিফুল ইসলাম। তার শরীরী ভাষায় যা ফুটে উঠছিল দিনের খেলা শেষে বললেনও তাই, দারুণ উপভোগ্য ছিল প্রথম ঘণ্টায় বোলিং।
  • দুই সেশনে বাংলাদেশের প্রাপ্তি দুই উইকেট
    ‘প্রথম ঘণ্টা বোলারদের দাও, বাকি দিনটা নিজেদের করে নাও’, টেস্ট ক্রিকেটে বহু পুরনো এক কথা এটি। নিউ জিল্যান্ড হাঁটল যেন সেই পথেই। টম ল্যাথামকে শুরুতে হারানোর পর উইল ইয়াং ও ডেভন কনওয়ে মাথা গুঁজে পড়ে রইলেন প্রথম ঘণ্টা। দিনটা নিজেদের করে নেওয়ার আয়োজনও হয়ে গেল তাতে। ইয়াং পরে আউট হলেও সেই কনওয়ে এখন সেঞ্চুরির দুয়ারে।
  • বোল্ট-সাউদিদের নিয়ে ‘দুর্ভাবনা’, তাসকিন-ইবাদতদের নিয়ে রোমাঞ্চ
    নিউ জিল‍্যান্ড দল ঘোষণার মধ‍্যেই ছিল বিপদের বার্তা। আগের টেস্টে এক ইনিংসে ১০ উইকেট নেওয়া বাঁহাতি স্পিনার এজাজ প‍্যাটেল যেখানে দলে নেই, সেখানে আছেন পাঁচ পেসার। তাদের চার জনই হয়তো খেলবেন প্রথম টেস্টে। বাড়তি বাউন্স ও সুইং আছে এমন উইকেটে কিউইদের পেস চতুষ্টয় নিয়ে দুর্ভাবনা থাকাই স্বাভাবিক। তবে এই চ‍্যালেঞ্জ জিততে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক।
  • বাংলাদেশের 'শূন‍্যতায় সুযোগ' তরুণদের
    বাংলাদেশের কোচ হয়ে আসার পর সাকিব আল হাসানকে খুব একটা টেস্ট দলে পাননি রাসেল ডমিঙ্গো। বাঁহাতি অলরাউন্ডারের অনুপস্থিতির মানে কী, সেটা খুব ভালো করে জানা আছে তার। তবে একই সঙ্গে সাকিবের না থাকাকে অন্যদের জন্য একটা সুযোগ হিসেবেও দেখছেন তিনি।
  • টেইলরের বিদায় বিষাদময় করতে চায় বাংলাদেশ
    বছর শুরুর টেস্ট সিরিজেই নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেটে শেষের সুর। বাংলাদেশের বিপক্ষে এই সিরিজ দিয়েই টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় বলছেন তাদের ব্যাটিংয়ে মহীরূহ রস টেইলর। শেষটা রাঙাতে নিশ্চিতভাবেই মুখিয়ে থাকবেন নিউ জিল্যান্ডের ইতিহাসের সফলতম ব্যাটসম্যান। তবে বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলছেন, বিদায় বেলায় তারা টেইলরকে উপহার দিতে চান বিষাদ।
  • ওয়েলিংটনের প্রেরণায় আরও ভালো কিছুর আশায় বাংলাদেশ
    সুখস্মৃতি খুব বেশি নেই। তার পরও হাতড়ে বেড়ানো, যদি প্রেরণার রসদ কিছু মেলে! বাংলাদেশ দলের বলা যায় এখন সেই অবস্থা। নিউ জিল্যান্ডে টেস্টে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স যাচ্ছেতাই। তবু ৫ বছর আগে ওয়েলিংটন টেস্টের যে লড়াই এবং শেষ দিনের শেষ সেশন পর্যন্ত ম্যাচ টেনে নিতে পারা, সেই স্মৃতি থেকেই এবার অনুপ্রেরণা খুঁজছে দল।
  • নিউ জিল্যান্ডের বাউন্সে মুমিনুলদের ‘স্বস্তি’
    কয়েক সেকেন্ডের ছোট্ট দুটি ভিডিও। একটিতে দেখা গেল, বাঁহাতি পেসার শরিফুল ইসলামের বল সিমে পিচ করে তীক্ষ্ণভাবে ভেতরে ঢুকল বাঁহাতি সাদমান ইসলামের জন্য। আরেকটিতে আর্ম থ্রোয়ারে বল ছুঁড়লেন জাতীয় দলের থ্রোয়ার মোহাম্মদ রমজান। মুমিনুল হকের অফ স্টাম্পের বাইরে পিচ করে গুড লেংথ থেকেই অনেকটা লাফিয়ে উঠল বল। সংবাদমাধ্যমের জন্য পাঠানো বিসিবির দুটি ক্লিপিংসেই পরিষ্কার, নিউ জিল্যান্ডে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের অপেক্ষায় কোন চ্যালেঞ্জ।
  • বাংলাদেশের বিপক্ষে নেই মুম্বাইয়ে ১০ উইকেট নেওয়া এজাজ
    বাংলাদেশের সামনে ঠিক কী অপেক্ষা করছে, এর একটা আভাস পাওয়া গেল নিউ জিল‍্যান্ডের দল ঘোষণায়। ভারতের বিপক্ষে মুম্বাই টেস্টে এক ইনিংসে ১০ উইকেট নিয়ে ইতিহাস গড়া বাঁহাতি স্পিনার এজাজ প‍্যাটেল নেই দলে।
  • ছন্দে ফিরতে অনুশীলনে মনোযোগী বাংলাদেশ
    নিউ জিল্যান্ডে ১১ দিন ঘরবন্দি থেকে স্বাভাবিকভাবেই জড়তা চলে এসেছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মাঝে। টানা দুই দিন অনুশীলন করে তা অনেকটাই কেটে গেছে। লিটন দাস মনে করছেন, এভাবে কয়েক দিন অনুশীলন করতে পারলে আবারও ছন্দে ফিরতে পারবেন তারা।
  • নিউ জিল‍্যান্ডে শুরু মুমিনুল-মুশফিকদের প্রস্তুতি
    কোয়ারেন্টিন পর্ব শেষ করে মাঠে ফিরেছে বাংলাদেশ দল। হালকা মেজাজের অনুশীলন দিয়ে শুরু হয়েছে টেস্ট সিরিজের প্রস্তুতি। লিঙ্কন বিশ্ববিদ‍্যালয় মাঠে মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিমদের দেখা গেছে ফুরফুরে মেজাজে।
  • নিউ জিল‍্যান্ডে অনেক সমস্যার পরও নিরুপায় বাংলাদেশ
    টানা জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকা এমনিতেই ক্লান্তিকর। সেখানে কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ বৃদ্ধি ক্রিকেটারদের মনের ওপর ফেলছে বাড়তি চাপ। বাংলাদেশ দলের অনেকেই নাকি ভাবছিলেন, নিউ জিল‍্যান্ড সিরিজ বাদ দেওয়া বা মাঝপথ থেকে ফিরে আসা যায় কি না। আপাতত এর বাস্তবিক কোনো সুযোগ দেখছেন না নাজমুল হাসান।
  • নিউ জিল‍্যান্ডে বন্ধ বাংলাদেশের অনুশীলন
    অনুশীলন শুরু করতে বাংলাদেশের অপেক্ষা বাড়ছে আরও। অনুমতি দেওয়ার এক দিন পরেই তা প্রত‍্যাহার করে নিয়েছে নিউ জিল্যান্ডের স্বাস্থ‍্য মন্ত্রণালয়।
  • বাংলাদেশ দল কেমন আছে, জানালেন মাহমুদ
    বিশ্রামের যেন সুযোগই নেই। এক সিরিজ শেষ হতে না হতেই আরেকটি সিরিজের সামনে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশ দল। একের পর এক জৈব- সুরক্ষা বলয়ে থাকা দলের সদস্যদের জন্য বেশ কঠিন। তবে সবাই ভালো আছেন বলেই জানালেন ‘টিম ডিরেক্টর’ খালেদ মাহমুদ।
  • সাকিবের জায়গায় ফজলে মাহমুদ
    প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দারুণ সময় কাটানোর পুরস্কার পেলেন ফজলে মাহমুদ রাব্বি। প্রথমবারের মতো টেস্ট দলে ডাক পেয়েছেন এই টপ অর্ডার ব‍্যাটসম‍্যান।
  • বাংলাদেশ সিরিজে উইলিয়ামসনকে পাচ্ছে না নিউ জিল্যান্ড
    কনুইয়ের পুরনো চোট কদিন পরপরই মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। এই ধাক্কায় এবার অন্তত দুই মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে গেলেন কেন উইলিয়ামসন। স্বাভাবিকভাবেই তাই বাংলাদেশ সিরিজে নিয়মিত এই অধিনায়ককে পাচ্ছে না নিউ জিল্যান্ড।
  • ‘আনঅফিসিয়ালি’ ছুটি চেয়েছেন সাকিব, চিঠির অপেক্ষায় বিসিবি
    নিউ জিল্যান্ড সফরের বাংলাদেশ দলে রাখা হয়েছে সাকিব আল হাসানকে। তবে এই সফরে যেতে ইচ্ছুক নন বলে অনানুষ্ঠানিকভাবে বিসিবিকে জানিয়েছেন এই অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান তাকে বলে দিয়েছেন, না যেতে চাওয়ার কারণ উল্লেখ করে আনুষ্ঠানিকভাবে বোর্ডকে জানাতে।
  • এক টেস্টের জন্য ২০ জনের বহর যে কারণে
    বাংলাদেশ যেমন ঘনবসতিপূর্ণ দেশ, বাংলাদেশ ক্রিকেট দলেরও এখন একই অবস্থা। পাকিস্তানের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টের বাংলাদেশ স্কোয়াডে রাখা হয়েছে ২০ জনকে! আলোচনা-সমালোচনার ঝড়ও উঠেছে প্রবল। তবে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন জানিয়েছেন, শুধু এই টেস্ট নয়, নিউ জিল্যান্ড সফরকেও ভাবনায় রাখতে হয়েছে বলেই এত বড় স্কোয়াড।
  • এই হার ভুলে বিশ্বকাপে জয়ের আত্মবিশ্বাস মাহমুদউল্লাহর
    টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচে হার, স্বাভাবিকভাবেই হতাশ মাহমুদউল্লাহ। ব্যাটিং, বোলিং দুই বিভাগেই কিছু ঘাটতি চোখে পড়েছে বাংলাদেশ অধিনায়কের। তবে তার বিশ্বাস, সমস্যাগুলো কাটিয়ে বিশ্বকাপে জয়ের পথে ফিরবে দল।
  • শেষের হারে ম্লান সিরিজ জয়ের স্বস্তি
    মূল বোলারদের চারজন বাইরে, মাঠে নতুন চেহারার বোলিং লাইনআপ। উইকেটও তরতাজা। তারপরও বোলিংটা খারাপ হলো না বাংলাদেশের। দলে পরিবর্তন এলেও ব্যাটিংয়ে শক্তি কমেনি খুব একটা। কিন্তু এই বিভাগেই ভুগতে হলো সবচেয়ে বেশি। স্বাগতিকদের ব্যাটিং দেখে বোঝার উপায় ছিল না যে খেলা হচ্ছে তুলনামূলক ভালো উইকেটে। বাজে শটের মহড়ায় নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে বড় ব্যবধানেই হারল মাহমুদউল্লাহর দল।
  • শামীমকে নিয়ে নির্বাচকদের অনেক আশা
    আপাতত একাদশের বাইরে থাকলেও শামীম হোসেনের কার্যকারিতা নিয়ে কোনো সংশয় নেই মিনহাজুল আবেদীনের। প্রধান নির্বাচক মনে করেন, তরুণ এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের খেলার ধরন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সঙ্গে দারুণ মানানসই।
  • বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দলে শামীম, মূল স্কোয়াডে নেই রুবেল
    তামিম ইকবাল নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার পর বিশ্বকাপ দল নিয়ে কৌতূহলের অবকাশ আর খুব বেশি ছিল না। নতুন কোনো চমকও শেষ পর্যন্ত দেখা গেল না। মোটামুটি অনুমিত দলই সাজালেন নির্বাচকরা। উল্লেখযোগ্য বলা যায় কেবল তরুণ শামীম হোসেনের জায়গা পাওয়া।
  • আক্ষেপ ঘুচল নাসুমের
    মাস পাঁচেক আগে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষেই অভিষেক। প্রতিপক্ষের মাঠে প্রথম দুই টি-টোয়েন্টিতে বেশ ভালো বোলিং করেছিলেন নাসুম আহমেদ। কিন্তু দলের বেশিরভাগই সেই সিরিজে ছিলেন বিবর্ণ। তাই তেমন একটা লড়াইও করতে পারেনি বাংলাদেশ। এবার দেশের মাটিতে সেই নিউ জিল্যান্ডকে হারিয়ে আক্ষেপ ঘুচল বাঁহাতি স্পিনার নাসুমের।
  • নাসুমের ফ্লাইটে আশার ঝিলিক
    নাসুম আহমেদ ঝুলিয়ে দিলেন বল। পা বাড়িয়ে ড্রাইভ করতে চাইলেন হেনরি নিকোলস। বল তার ব্যাট-প্যাডের ফাঁক গলে বিশাল টার্ন করে উড়িয়ে দিল বেলস। পরের বল আবার ভাসিয়ে দিলেন নাসুম। কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম যেন পা বাড়ালেন সম্মোহিতের মতো। বল টার্ন করে লাফিয়ে গ্লাভসে ছোবল দিয়ে আশ্রয় নিল নুরুল হাসান সোহানের গ্লাভসে। দুটি ডেলিভারিতে নাসুম যেন জানান দিলেন, তিনি এখন এই দলের অংশ!
  • অ্যালেনের উইকেট সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে নাসুমের
    একটু সময় পেলে ফিন অ্যালেন কি করতে পারেন, ভালো করেই জানা আছে বাংলাদেশের। কম রানের ম্যাচে বিস্ফোরক এই ব্যাটসম্যানের ঝড়ো ৩০-৪০ রানের ইনিংসই গড়ে দিতে পারে ব্যবধান। তাই খুব করে তার উইকেট চেয়েছিলেন নাসুম আহমেদ। চাওয়া পূরণ হওয়ায় দারুণ খুশি বাঁহাতি এই স্পিনার।
  • নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষেও সিরিজ জিতল বাংলাদেশ
    নাসুম আহমেদের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের পর মুস্তাফিজুর রহমানের নৈপুণ্যে লক্ষ্যটা ছিল একশর নিচে। এক সময়ে সেটাও কঠিন হয়ে যেতে বসেছিল। তবে মাহমুদউল্লাহর অধিনায়কোচিত ইনিংসে শেষ পর্যন্ত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ল বাংলাদেশ। একই সঙ্গে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টিতে তিনটি সিরিজ জিতল তারা।
  • বাংলাদেশের সিরিজ জয় কিংবা নিউ জিল্যান্ডের সমতা
    উইকেট পেলেও মনে হয় এতটা খুশি হন না তাসকিন আহমেদ। খ্যাপাটে দৌড়ে ছুটতে থাকা পেসারকে আটকাতেই পারছিলেন না কেউ। অমন উচ্ছ্বাসের কারণ, তার দল গোল করেছে! মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার দুপুরে গা গরমের ফুটবল ম্যাচে দেখা গেল এমন গোল আর হাসি-মজার জোয়ার। কিন্তু অনুশীলনের এই প্রাণের উৎসব কতটা দেখা যাবে মূল লড়াইয়ে?
  • বাংলাদেশের ‘আগুনের’ জবাব ‘আগুন’ দিয়েই দেবে কিউইরা
    আহত বাঘের হুঙ্কারে মিশে থাকে প্রতিশোধের নেশা। নিজের আঙিনায় চোট পাওয়া বাঘের তো আরও বেশি তেতে থাকার কথা। নিউ জিল্যান্ড তাই জানে, আগের ম্যাচে বাজেভাবে হেরে যাওয়া বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াতে চাইবে প্রবলভাবে। সেটি মাথায় রেখেই প্রস্তুত কিউইরা। তাদের কোচ গ্লেন পকন্যাল জানিয়ে দিলেন, লড়াইয়ে তারা পিছপা হবেন না একটুও।
  • দায়িত্ব নিয়ে খেলা উচিত ছিল, উপলব্ধি লিটনের
    প্রথম তিন ওভারে পাঁচটি বাউন্ডারি। এমন দারুণ শুরুর পর তৃতীয় ওভারে আউট হয়ে গেলেন লিটন দাস। দিক হারানোর সেই শুরু, এরপর আর কক্ষপথে ফিরতে পারেনি বাংলাদেশ। তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হারের পর নিজেদের ভুল বুঝতে পারছেন বাংলাদেশ ওপেনার।
  • বাংলাদেশকে হারিয়ে পরিপূর্ণ পারফরম্যান্সের খোঁজে নিউ জিল্যান্ড
    প্রথম ম্যাচে স্রেফ ৬০ রানে গুটিয়ে গিয়ে হার। পরের ম্যাচে ১৪০ ছাড়ানো স্কোর তাড়ায় শেষ বলে হার। উন্নতির ধারা ধরে রেখে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে বড় জয়। সিরিজ বাঁচিয়ে রাখায় দারুণ খুশি টম ল্যাথাম। তবে নিজেদের আরও উন্নতির সুযোগ দেখছেন সফরকারী অধিনায়ক। এই কিপার-ব্যাটসম্যান জানালেন, পরিপূর্ণ পারফরম্যান্স থেকে এখনও কিছুটা দূরেই আছে তারা।
  • উইকেটে আশাহত হয়েছে বাংলাদেশ, বলছেন ডমিঙ্গো
    কৃত্রিম আলোর নিচে বল স্কিড করে। ব্যাটে আসে ভালোভাবে। শট খেলা হয়ে ওঠে একটু সহজ। দ্বিতীয় ম্যাচে নিউ জিল্যান্ডের ব্যাটিং দেখে তৃতীয় ম্যাচে এমন কিছুর আশায় ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু এই ম্যাচে উইকেট পরের দিকে আরও খারাপ হয়েছে, দাবি বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর।
  • যেভাবে ব্যাটসম্যানদের বেঁধে রেখেছিলেন এজাজ
    তিন বলের মধ্যে মেহেদি হাসান ও সাকিব আল হাসানের উইকেট। খানিক বাদে পরপর দুই বলে মাহমুদউল্লাহ ও আফিফ হোসেনের উইকেট। এজাজ প্যাটেলের দুইবারের জোড়া ধাক্কা সামলে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বাংলাদেশ।
  • ব্যাটিংয়ের ধরনে সমস্যা দেখছেন না বাংলাদেশ কোচ
    আউটগুলোর বেশির ভাগই দৃষ্টিকটু। বেশ কজনের শট নির্বাচন নিয়ে তোলা যায় প্রশ্ন। তবে বাংলদেশের ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিংয়ের ধরনে কোনো সমস্যা দেখছেন না রাসেল ডমিঙ্গো। বাংলাদেশ কোচের মতে, এই উইকেটে রান রেট শুরু থেকেই ভালো রাখা জরুরি ছিল।
  • টি-টোয়েন্টিতে আর কিপিং করতে চান না মুশফিক
    কিপিং নিয়ে বদলে গেছে মুশফিকুর রহিমের ভাবনা। তাই পরিবর্তন এসেছে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্তেও। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মুশফিক আর কিপিং করতে অনিচ্ছুক বলে জানালেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। কিপিং নিয়ে তাই আপাতত দলের পরিকল্পনায় নুরুল হাসান সোহান ও লিটন দাস।
  • ব্যাটিং ব্যর্থতায় বাংলাদেশের বড় হার
    ভালো শুরুর পর বোলাররা পারেননি বাকিটা দ্রুত শেষ করতে। ষষ্ঠ উইকেটে পঞ্চাশ ছোঁয়া এক জুটিতে চ্যালেঞ্জিং এক লক্ষ্য দেয় নিউ জিল্যান্ড। প্রথম তিন ওভারে পাঁচ বাউন্ডারির পর দিক হারায় বাংলাদেশ। পরে আর কক্ষপথে ফিরতে পারেনি স্বাগতিকরা। নিজেদের সর্বনিম্ন রান কোনোমতে এড়াতে পারলেও শেষ পর্যন্ত বড় ব্যবধানেই হেরেছে বাংলাদেশ। তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৫২ রানে জিতে ব্যবধান কমিয়েছে নিউ জিল্যান্ড।
  • মাহমুদউল্লাহর শততম ম্যাচে প্রত্যাশায় ৩-০
    এমনিতে পাদপ্রদীপের আলোয় খুব একটা আসেন না মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশের ক্রিকেটে বরাবরই তার ভূমিকা পার্শ্বনায়কের। তবে সময়টা এখন তার। তিনিই নায়ক! নিউ জিল্যান্ড সিরিজের প্রথম ম্যাচ জয়ের পর তিনি হয়ে গেছেন বাংলাদেশের সফলতম টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। এখন অপেক্ষায় তিনি দেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ১০০ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলার স্বাদ পাওয়ার।
  • তাইজুলের কাছে নিজের চেয়ে দেশ বড়
    দিনের পর দিন গড়াচ্ছে। ম্যাচের পর ম্যাচ হয়ে যাচ্ছে। তাইজুল ইসলামের অপেক্ষা বেড়েই চলেছে। অনুশীলনে নিয়মিত ঘাম ঝরিয়ে যাচ্ছেন, কিন্তু ম্যাচ এলেই তিনি দর্শক। একের পর এক সিরিজ এভাবেই চলছে। তিনি অবশ্য তাতে ভেঙে পড়ছেন না। তার মতে, যোগ্যরাই যে খেলছে! অনুশীলনে ঘাম ঝরানো আরও একটি দিনের পর এই বাঁহাতি স্পিনার বললেন, নিজের খেলার চেয়ে দলের চাওয়া তার কাছে অনেক বড়।
  • ‘উইকেট ভালো থাকলে খেলাও ভালো হয়’
    ৬০ রানের বিব্রতকর অভিজ্ঞতা থেকে ১৪২ তাড়া করে ফেলার কাছাকাছি যাওয়া। একতরফা এক ম্যাচের পর শেষ বলে ফয়সালার রোমাঞ্চ। প্রথম ম্যাচের হতাশার চিত্র দ্বিতীয় ম্যাচে বদলে দেওয়ায় দারুণ খুশি নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক টম ল্যাথাম। তার মতে, উইকেট এ দিন ভালো ছিল বলে লড়াইও হয়েছে জমজমাট।
  • ল্যাথামের লড়াইয়ের পরও বাংলাদেশের জয়
    লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ এনে দিলেন ভালো শুরু। শেষটায় রানের গতিতে দম দিলেন মাহমুদউল্লাহ। তাতে লড়াইয়ের পুঁজি পেল বাংলাদেশ। টম ল্যাথামের দারুণ ব্যাটিংয়ে সেই রান তাড়ার আশা জাগাল নিউ জিল্যান্ড। বোলিং-ফিল্ডিংয়ে শেষ দিকে তালগোল পাকালেও শেষ পর্যন্ত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ল বাংলাদেশ।
  • বাংলাদেশে আত্মবিশ্বাস, ওমানে প্রস্তুতি
    স্পিন মঞ্চে একের পর এক জয়। নিচু, মন্থর টার্নিং উইকেটে খেলে এই সব জয়ে কি আদৌ কোনো উপকার হচ্ছে? টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে কাজে লাগছে এই সব ম্যাচ? মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন জানালেন, মিরপুরে খেলার অভিজ্ঞতা হয়তো বিশ্ব মঞ্চে কাজে লাগবে না; কিন্তু এখান থেকে পাওয়া আত্মবিশ্বাস ঠিকই সহায়ক হবে।
  • মিরপুরের উইকেট ভালো করা যাচ্ছে না ‘আবহাওয়ার কারণে’
    একের পর এক জয় ধরা দিচ্ছে আর সঙ্গে বাড়ছে প্রশ্ন। এরকম মন্থর ও টার্নিং উইকেট টি-টোয়েন্টির জন্য কি আদর্শ? এরকম উইকেটে খেলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতিই বা কতটা হচ্ছে! প্রশ্নগুলোকে যৌক্তিক মানছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খানও। তবে উইকেট নিয়ে তার কণ্ঠে শোনা গেল অসহায়ত্ব। ভালো উইকেট বানাতে চাইলেও আবহাওয়ার কারণে তা সম্ভব হয়ে উঠছে না বলে দাবি তার।
  • বোলারদের ক্ষুধা তৃপ্তি দিচ্ছে অধিনায়ককে
    উইকেট বোলিং সহায়ক। প্রতিপক্ষের ব্যাটিং লাইন আপ এই কন্ডিশনে একদমই নড়বড়ে। সবকিছুই বাংলাদেশের পক্ষে। পারিপার্শ্বিকতা সহায়ক হলেও মূল কাজটা তো নিজেদেরই করতে হয়! বাংলাদেশের বোলাররা তা করতে পেরেছেন দেখে উচ্ছ্বসিত মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশ অধিনায়ক বেশি খুশি, ম্যাচের পর ম্যাচ বোলাররা এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারায়।
  • ভুল থেকে শিখতে চায় নিউ জিল্যান্ড
    মিরপুরের উইকেটে কাজটা কঠিন হবে, জানা ছিল টম ল্যাথামের। কিন্তু এতটা কঠিন, তা ভাবতে পারেননি নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক। তারা তাই এখন বোঝার চেষ্টা করছেন এই উইকেটের আদর্শ স্কোর কত। খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন ওই স্কোরে পৌঁছানোর পথ।
  • ২০০৭ বিশ্বকাপের স্মৃতি মনে পড়ছে সাকিবের
    মন্থর ও টার্নিং উইকেটে খেলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি কতটা হচ্ছে বাংলাদেশের, সেই প্রশ্ন উচ্চকিত হচ্ছে সময়ের সঙ্গে। তবে সাকিব আল হাসানের কাছে আলাদা গুরুত্ব পাচ্ছে জয়ের আত্মবিশ্বাস। তার মনে পড়ছে ২০০৭ ওয়ানডে বিশ্বকাপের কথা। সেবারও টানা কিছু জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে বিশ্বকাপে গিয়ে ভালো করেছিল বাংলাদেশ।
  • অস্ট্রেলিয়া সিরিজের চেয়ে কঠিন উইকেট: সাকিব
    অফ স্টাম্পের বাইরে শর্ট বল, ব্যাটসম্যান কাট করার চেষ্টায় ব্যর্থ। টাইমিংই হয় না! লেগ স্টাম্পের বল ফ্লিক করতে গেলে ফিরতি ক্যাচ যায় বোলারের হাতে। বাউন্স ভীষণরকম অসমান। ম্যাচের প্রথম ওভার থেকে উইকেটের আচরণে যে ইঙ্গিত, পরের সময়টায় তা স্পষ্ট আরও। দুই দলের স্কোরে যা ফুটে উঠছে, ম্যাচ শেষে তা উঠে এলো সাকিব আল হাসানের কণ্ঠেও। নিউ জিল্যান্ড সিরিজের প্রথম ম্যাচের উইকেট আগের সিরিজের চেয়েও কঠিন।
  • মিরপুরের স্পিন মঞ্চে নাস্তানাবুদ নিউ জিল্যান্ড
    দুটি ট্রেনিং ক্যাম্প, বাংলাদেশের মতো উইকেট তৈরি করে অনুশীলন, কত কিছুই না করে এই সফরে এসেছে নিউ জিল্যান্ড। কিন্তু প্রস্তুতি আর বাস্তবতার ফারাক কতটা, বুঝে গেল তারা প্রথম ম্যাচেই। মন্থর, টার্নিং ও অসমান বাউন্সের উইকেটে কিউই ব্যাটিং মুখ থুবড়ে পড়ল বাজেভাবে। বাংলাদেশ পেল টি-টোয়েন্টিতে প্রথমবার নিউ জিল্যান্ডকে হারানোর স্বাদ।
  • বিশ্বকাপ প্রস্তুতির আবহে নিউ জিল্যান্ডকে হারানোর অভিযান
    টম ল্যাথাম মনেই করতে পারছিলেন না, শেষ কবে টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নকারীই পরে মনে করিয়ে দিলেন, ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিও তিনি সবশেষ খেলেছেন আড়াই বছরের বেশি আগে! অথচ এই ল্যাথামই এখন অধিনায়ক। স্রেফ এতেই ফুটে ওঠে, এই সফরকে নিউ জিল্যান্ড কীভাবে নিয়েছে। বাংলাদেশের বাস্তবতা ভিন্ন। সম্ভাব্য সেরা দল নিয়ে তারা ঝাঁপিয়ে পড়তে প্রস্তুত জয়ের মন্ত্রে উদ্বুদ্ধ হয়ে।
  • বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল ‘অল সেট’
    বিশ্বকাপ দল ঘোষণা নিয়ে কোচের সঙ্গে একমত মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশ অধিনায়কেরও চাওয়া ছিল, নিউ জিল্যান্ড সিরিজের আগেই ঘোষণা করা হোক বিশ্বকাপ দল। সেই চাওয়া পূরণ না হলেও অবশ্য সমস্যার খুব বেশি কিছু দেখছেন না অধিনায়ক। দল তৈরিই আছে, জানিয়ে দিলেন তিনি।
  • কিপিং নিয়ে মুশফিক-সোহান ‘দুজনই খুশি, অল গুড’
    কিপিংয়ের দায়িত্ব মুশফিকুর রহিম ও নুরুল হাসান সোহানের ভাগাভাগি করা নিয়ে দলে কোনো অস্থিরতা তৈরি হয়নি বলেই দাবি করলেন মাহমুদউল্লাহ। বাংলাদেশ অধিনায়ক জানালেন, দুই কিপারই ইতিবাচকভাবে নিয়েছেন এই সিদ্ধান্ত।
  • দলে বাজে প্রতিযোগিতার শঙ্কা দেখছেন মাশরাফি
    নিউ জিল্যান্ড সিরিজে বাংলাদেশের উইকেটকিপিংয়ের দায়িত্ব ভাগাভাগি করে দেওয়া ও সেটির প্রকাশ্য ঘোষণাকে সুস্থ চর্চা বলে মনে করছেন না মাশরাফি বিন মুর্তজা। বাংলাদেশের সফলতম ওয়ানডে অধিনায়কের মতে, ১৬ বছর ধরে বাংলাদেশ দলে খেলে আসা মুশফিকুর রহিমের প্রতি এটা অন্যায্য। পাশাপাশি, নুরুল হাসান সোহানের প্রতিও ভালো বার্তা নয়।
  • ১৫০-১৬০ রানের উইকেট আশা করছেন ডমিঙ্গো
    বিশ্বকাপের আগে ভালো উইকেটে ব্যাটসম্যানদের প্রস্তুতি জরুরি। জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে বিশ্বকাপে যাওয়াও গুরুত্বপূর্ণ। তাই নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের উইকেটের ক্ষেত্রে দুটি ভাবনাই বিবেচনায় রাখা উচিত বলে মনে করেন রাসেল ডমিঙ্গো। বাংলাদেশ কোচের ধারণা, মিরপুরের স্বাভাবিক উইকেটই দেখা যাবে এই সিরিজে।
  • নিউ জিল্যান্ডের প্রস্তুতির অংশ বাংলাদেশের সাবেক কোচরাও
    বাংলাদেশ সিরিজের জন্য প্রস্তুতিতে কোনো কমতিই রাখেনি নিউ জিল্যান্ড। মন্থর উইকেট তৈরি করে অনুশীলন করা, দুটি ক্যাম্প করা, বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের নিয়ে বিশ্লেষণ করা, এসব তো হয়েছেই। এখানকার কন্ডিশন ও ক্রিকেটারদের সম্পর্কে ধারণা নিয়েছে তারা বাংলাদেশের সাবেক কোচদের থেকেও। সব মিলিয়ে খর্বশক্তির দল পাঠালেও তারা আটঘাঁট বেঁধেই এসেছেন।
  • মুস্তাফিজকে চাপে রাখার কৌশল নেবে নিউ জিল্যান্ড
    বাংলাদেশকে হারাতে হলে কাকে সামলানো জরুরি, সেই গবেষণা করেই এসেছে নিউ জিল্যান্ড। তাদের অ্যানালিস্টের পরীক্ষাগারে প্রবল কাটাছেঁড়া হয়েছে মুস্তাফিজুর রহমানের বোলিং নিয়ে। বিশ্লেষণ করা হয়েছে বিস্তর। বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসারকে নিষ্ক্রিয় করার উপায়ও বের করেছে কিউইরা। তাদের কোচ গ্লেন পকন্যাল জানালেন, ভিন্ন কিছু করে মুস্তাফিজকে পাল্টা চাপে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করবেন তারা।
  • স্বপ্ন পূরণের আশায় ৫ বছর পর আবার বাংলাদেশে রবীন্দ্র
    নিউ জিল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি দলে রাচিন রবীন্দ্র সুযোগ পেয়েছেন প্রথমবার। তবে বাংলাদেশ সফর তার এটিই প্রথম নয়! ৫ বছর আগে এখানেই অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলে গেছেন মাত্র ১৬ বছর বয়সে। পরে আরও একটি যুব বিশ্বকাপ, ঘরোয়া ক্রিকেট ও ‘এ’ দলের পথ ধরে এখন তিনি জাতীয় দলে। চক্র ঘুরে ফিরে এসেছেন তিনি সেই পুরনো আঙিনায়, যেখানে তিনি প্রথমবার খেলেছিলেন বিশ্বমঞ্চে। এবার সেটি হতে পারে তার স্বপ্ন পূরণের মঞ্চও।
  • ‘মিরপুরে ওভারপ্রতি ৬ রানই হয়তো ভালো’
    অস্ট্রেলিয়া বুঝেছে খেলে, নিউ জিল্যান্ড বোঝার চেষ্টা করছে দেখে। টি-টোয়েন্টির ধুমধাড়াক্কা ব্যাটিং, চার-ছক্কার ঝড়, এসব মিরপুরে অচল। এখানে টি-টোয়েন্টির রূপ ভিন্ন। ব্যাটিংয়ের ধারাপাতই আলাদা। নিউ জিল্যান্ডের তরুণ অলরাউন্ডার রাচিন রবীন্দ্র তাই বলছেন, রানের প্রত্যাশায় লাগাম টেনে তবে ব্যাট করতে হবে শের-ই-বাংলার ২২ গজে।
  • সাকিব-মুশফিকদের দেখে শিখতে চান রবীন্দ্র
    বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের দেখে শিখেই বাংলাদেশকে হারানোর পারফরম্যান্সটা দেখাতে চান রাচিন রবীন্দ্র। নিউ জিল্যান্ডের তরুণ এই অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, মুশফিকুর রহিমদের দেখে বুঝতে চান মিরপুরের উইকেটে খেলার রসায়ন। তার পর নিজের খেলায় সেই শিক্ষা কাজে লাগাতে চান এই বাঁহাতি স্পিনিং অলরাউন্ডার।
  • একতার শক্তিতে এবার নিউ জিল্যান্ডকে হারানোর লক্ষ্য
    অস্ট্রেলিয়া সিরিজে বাংলাদেশ দলের আবহ সঙ্গীত ছিল ‘দলীয় ঐক্য।’ ম্যাচ জেতানোর মতো ক্রিকেটার টি-টোয়েন্টিতে যেহেতু খুব বেশি নেই দলের, তাই সম্মিলিত অবদানে জয়ের ঠিকানায় পৌঁছানোর প্রয়াস। সেই একই পথ ধরে এগোলে সাফল্য মিলবে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে, বিশ্বাস বাংলাদেশের কিপার-ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহানের।
  • ‘এই অবস্থায় ক্রিকেট খেলতে পারাই বড় ব্যাপার’
    চার দেয়ালের বন্দি জীবন শেষে আলো-হাওয়ায় অবগাহনের স্বস্তি। টিম হোটেলে তিন দিনের রুম কোয়ারেন্টিন শেষে শুক্রবার থেকে বাইরে বের হতে পারছেন না ক্রিকেটাররা। তবে পুরোপুরি মুক্তি নেই, পায়ে জড়ানো অদৃশ্য শেকল। সময়টাই যে এমন! আরেকটি সিরিজ মানেই আরও একবার জৈব-সুরক্ষা বলয়ের জীবন। কঠিন এই বাস্তবতায় অবশ্য সবাই মানিয়ে নিয়েছেন বলেই মনে করেন নুরুল হাসান সোহান। বাংলাদেশের এই কিপার-ব্যাটসম্যানের মতে, মহামারীকালে ক্রিকেট খেলতে পারাই তাদের জন্য অনেক কিছু।
  • বাংলাদেশে মন্থর উইকেটের চ্যালেঞ্জ নিতে মুখিয়ে হেনরি
    “আমার জন্য এটি চ্যালেঞ্জিং। আমার ব্যাটিং কেমন হচ্ছে, তা দেখানোর সুযোগ। আশা করি, ওপেনিংয়ে ব্যাট করব…”, এটুকু বলেই হাসতে হাসতে হাত দিয়ে মুখ ঢাকলেন ম্যাট হেনরি। ওপেনারের বদলি হিসেবে বাংলাদেশ সফরে সুযোগ পেয়েছেন বটে, তবে তিনি তো ব্যাটসম্যানই নন! মজাটুকু শেষে তাই মন দিলেন তিনি নিজের আসল ভূমিকায়। বাংলাদেশের ধীরগতির উইকেট পেসারদের কাজ কঠিন হলেও নিউ জিল্যান্ডের এই পেসার বললেন, চ্যালেঞ্জটা নিতে তিনি প্রস্তুত।
  • ‘দেশে ফিরে বলতে চাই, বাংলাদেশে সিরিজ জিতেছি’
    প্রায় ১১ বছর আগের কথা। তবে হামিশ বেনেটের স্মৃতিতে এখনও তরতাজা। তার প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ সেটি, নিউ জিল্যান্ড হেরেছিল বাজেভাবে। বাংলাদেশকে তাই ভালোই চেনেন এই পেসার। শুধু ২০১০ সালের সেই সিরিজের অভিজ্ঞতাই নয়, সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ সফরে অস্ট্রেলিয়ার দুর্দশার কথাও তার জানা। এই কন্ডিশনের চ্যালেঞ্জটা এবার তাই জিততে চান বেনেট, নিউ জিল্যান্ডে ফিরতে চান এখানে সিরিজ জয়ের গৌরব নিয়ে।
  • ঢাকায় আসার দুই দিন পর কোভিড পজিটিভ অ্যালেন
    কোভিড পজিটিভ হয়েছেন বাংলাদেশ সফরে আসা নিউ জিল্যান্ড দলের ব্যাটসম্যান ফিন অ্যালেন। ঢাকায় পা রাখার ৪৮ ঘণ্টা পর হওয়া পরীক্ষায় তার দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।
  • ঢাকায় এসে কোয়ারেন্টিনে নিউ জিল্যান্ড দল
    পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে নিউ জিল্যান্ড দল এখন বাংলাদেশে। মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকায় পৌঁছে টিম হোটেলে কোয়ারেন্টিনে আছেন কিউইরা। তিন দিন কোয়ারেন্টিনের পর কোভিড নেগেটিভ হওয়া সাপেক্ষে অনুশীলন শুরু করতে পারবেন তারা।
  • বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ দেখে ‘শিক্ষা নিয়েছে’ নিউ জিল্যান্ড
    বাংলাদেশের কন্ডিশনে মুখ থুবড়ে পড়েছিল অস্ট্রেলিয়া। কোনোমতে এড়াতে পারে হোয়াইটওয়াশ। প্রতিবেশী দেশটির পরিণতি দেখেছে নিউ জিল্যান্ড। এবার তাদের সামনেও একই চ্যালেঞ্জ। কঠিন সেই চ্যালেঞ্জ জিততে নিজেদের প্রস্তুত মনে করছেন নিউ জিল্যান্ড টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান হেনরি নিকোলস।
  • দলের আগেই ঢাকায় নিউ জিল্যান্ডের দুই ক্রিকেটার
    দল বাংলাদেশে আসার চার দিন আগেই চলে এসেছেন নিউ জিল্যান্ডের দুই ক্রিকেটার। ইংল্যান্ডে ‘দা হানড্রেড’ টুর্নামেন্টে খেলে সরাসরি ঢাকায় এসেছেন অলরাউন্ডার কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও ওপেনার ফিন অ্যালেন।
  • ফিরলেন মুশফিক-লিটন-আমিনুল, বাদ মিঠুন
    নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের বাংলাদেশ দলে অনুমিতভাবেই জায়গা পেয়েছেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন কুমার দাস। এই দুজনের পাশাপাশি দলে ফিরেছেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লবও। সবশেষ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের দল থেকে বাদ পড়েছেন কেবল একজন-মোহাম্মদ মিঠুন।
  • বাংলাদেশ সফরের দলে ডাক পেয়ে রোমাঞ্চিত কিউই অলরাউন্ডার
    নিউ জিল্যান্ডে ক্রিকেট মৌসুম শুরু হয়নি। অফুরন্ত অবসর। কোল ম্যাকনকি সময় কাটাচ্ছিলেন গলফ খেলে। সেখানেই পেলেন একটি ফোন কল। অপর প্রান্ত থেকে যে শব্দগুলো ভেসে এলো ইথারে, তাতে এই অলরাউন্ডার নিজেও যেন ভেসে গেলেন খুশিতে। জায়গা পেয়েছেন তিনি বাংলাদেশ ও পাকিস্তান সফরের নিউ জিল্যান্ড দলে!
  • বিশ্বকাপ দলের কেউ নেই নিউ জিল্যান্ডের বাংলাদেশ সফরে
    বিশ্বকাপের প্রস্তুতির জন্য সিরিজ, অথচ সেই দলে নেই নিউ জিল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্কোয়াডের কেউ! নিয়মিত খেলোয়াড়দের বাদ দিয়ে বাংলাদেশ সফর করবে নিউ জিল্যান্ড।
  • বিশ্বাস আর আগ্রাসনের মন্ত্রে জয়ের আশা বাংলাদেশের
    ওটাগো হারবারের কোল ঘেঁষে নান্দনিক সৌন্দর্যের আধার ‘সিগনাল হিল।’ ডানেডিন শহরের আকর্ষণীয় এই পর্যটন কেন্দ্রেই ওয়ানডে সিরিজের ট্রফি উন্মোচন হলো শুক্রবার। বাংলাদেশ অধিনায়ক তামিম ইকবাল মুগ্ধতাভরা কণ্ঠে বললেন, ‘খুব সুন্দর জায়গা, দলের সবাইকে নিয়ে আসতে হবে।’ সৌন্দর্যের কথা বললে অবশ্য গোটা নিউ জিল্যান্ডই যেন স্বর্গ। তবে স্বপ্নের মতো এই দেশ মাঠের ক্রিকেটে বাংলাদেশের জন্য বরাবরই দুঃস্বপ্নের।
  • বাংলাদেশের ‘চমকের’ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে নিউ জিল্যান্ড
    তরুণ ও অচেনা পেসারদের দিয়ে নিউ জিল্যান্ডকে চমকে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তবে এই যুগে কী আর কাউকে আড়াল করে রাখা যায়! নিউ জিল্যান্ড কোচ গ্যারি স্টিড জানিয়ে দিলেন, বাংলাদেশের স্কোয়াডের সবার খুঁটিনাটি বিশ্লেষণ করেই তারা নামছেন মাঠের লড়াইয়ে।
  • ডানেডিনে প্রচুর রান দেখছেন ডমিঙ্গো
    উইকেট ব্যাটিং সহায়ক, মাঠের বাউন্ডারি ছোট। সাম্প্রতিক সময়ে এই মাঠ দেখেছে রানের জোয়ার। ডানেডিনে নিউ জিল্যান্ড-বাংলাদেশ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতেও তাই রানের মেলা বসবে বলে ধারণা করছেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।
  • ব্যাটসম্যানদের নিয়েও কাজ করছেন স্পিন কোচ ভেটোরি
    ড্যানিয়েল ভেটোরির স্পিনার পরিচয়টাই সবচেয়ে বড়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ইতিহাসের সফলতম বাঁহাতি স্পিনার তিনি। তবে ব্যাট হাতে তার দক্ষতাও কম ছিল না। বাংলাদেশও সেটা খুব ভালো করেই জানে। কম তো ভুগতে হয়নি তার ব্যাটিংয়ে! এখন তিনি বাংলাদশের স্পিন বোলিং কোচ, তবে ব্যাটিং নিয়ে তার জ্ঞান ও অভিজ্ঞতাও দল কাজে লাগাচ্ছে বলে জানালেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।