• শেষ ভালোর তৃপ্তি ল্যাথামের
    সিরিজের ফয়সালা হয়ে গিয়েছিল আগেই। প্রাপ্তির সুযোগ তারপরও কম ছিল না। ৪-১ ব্যবধানে হারের চেয়ে ৩-২ ব্যবধানের হার তো অনেক সম্মানের! শেষ ম্যাচ জিতে সেই লক্ষ্য পূরণ করার তৃপ্তি নিয়ে বাংলাদেশ সফর শেষ করতে পারছেন নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক টম ল্যাথাম।
  • অনেক প্রশ্ন সঙ্গী করে বাংলাদেশের সিরিজ জয়
    জয় তো অনেক ধরনেরই হয়। সব জয়ের উচ্ছ্বাস-তৃপ্তি একরকম নয়। বাংলাদেশের এই জয়টিই যেমন। উইকেট টার্নিং ও মন্থর বটে, কিন্তু ভয়ঙ্কর তো আর নয়! নিজেদের চেনা আঙিনায় ৯৪ রান তাড়া করতেও যদি ধুঁকতে হয়, অপেক্ষা করতে হয় শেষ ওভার পর্যন্ত, অনেক প্রশ্নও তখন ভীড় করতে শুরু করে। ম্যাচ জিতে সিরিজ জয়ের স্বস্তিও পেল বাংলাদেশ। কিন্তু শান্তি মনে হয় খুব একটা পেল না।
  • ৭৬ ভুলে ঘুরে দাঁড়ানোর আশায় বাংলাদেশ
    অস্ট্রেলিয়াকে ৬২ রানে, নিউ জিল্যান্ডকে ৬০ রানে গুটিয়ে দিয়ে কী বিব্রতকর স্বাদই না দিয়েছে বাংলাদেশ। এবার নিজেদের মাঠে নিজেরাই সেই দুঃস্বপ্নের শিকার। তবে হতাশার এই ঘোর দ্রুত কাটিয়ে পরের ম্যাচেই জয়ে ফিরতে চান অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।
  • মুশফিক নয়, তৃতীয় ম্যাচেও কিপিংয়ে সোহান
    সিরিজ শুরুর আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তৃতীয় ও চতুর্থ ম্যাচে কিপিং করার কথা মুশফিকুর রহিমের। কিন্তু রোববার তৃতীয় ম্যাচে কিপিং গ্লাভস হাতে দেখা গেল নুরুল হাসান সোহানকেই। ভাগাভাগি করে কিপিংয়ের নমুনা তাই দেখা গেল না আপাতত।
  • এক উইকেট নিলেই শীর্ষে সাকিব, দুই উইকেটে ‘অনন্য’
    রেকর্ড, মাইলফলক, অর্জন, এসব সাকিব আল হাসানের প্রতিশব্দ হয়ে গেছে বেশ আগেই। ১৫ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে কত কিছুতে তিনি প্রথম, কত রেকর্ডের তিনি চূড়ায়, হিসাব রাখাই কঠিন। অর্জনে সমৃদ্ধ এই ক্যারিয়ারে আরও দারুণ দুটি মাইলফলকের দুয়ারে দাঁড়িয়ে সাকিব।
  • লড়াই করে জিতে আরও এগিয়ে বাংলাদেশ
    ২ বলে প্রয়োজন ১৩ রান। ম্যাচ বাংলাদেশের মুঠোয়। তখনই মুস্তাফিজুর রহমান করে বসলেন ‘নো বল’, টম ল্যাথাম সেটি পাঠালেন বাউন্ডারিতে। আচমকাই ম্যাচে উত্তেজনা, ২ বলে ৮ রান তো খুবই সম্ভব! শেষ পর্যন্ত অবশ্য পারলেন না ল্যাথাম। অসাধারণ ইনিংস খেলেও নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক থমকে গেলেন কাঙ্ক্ষিত ঠিকানার কাছাকাছি গিয়ে। শঙ্কা উড়িয়ে বাংলাদেশ পেল আরেকটি জয়ের স্বস্তি।
  • নিউ জিল্যান্ডের ব্যাটিংয়ে যোগ হচ্ছে অ্যালেনের ‘বারুদ’
    প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ব্যাটিং বিপর্যয়ের দুঃস্বপ্নের মধ্যে একটি সুখবর পেল নিউ জিল্যান্ড। কোভিড নেগেটিভ হওয়ায় দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন ফিন অ্যালেন। মিরপুরের উইকেটে আগ্রাসী এই ওপেনার জ্বলে উঠবেন, আশা তাদের কোচ গ্লেন পকন্যালের।
  • টি-টোয়েন্টির নেতৃত্বে মাশরাফিকে ছাড়িয়ে মাহমুদউল্লাহ
    সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ হওয়ায় বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব পেয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। ঘটনাক্রমে পাওয়া সেই দায়িত্বের পথ ধরেই তিনি এখন দেশের সফলতম টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। এই অলরাউন্ডার ছাড়িয়ে গেলেন মাশরাফি বিন মুর্তজাকে।
  • বিশ্বকাপ দলের ছবি দেখতে পাচ্ছেন বাংলাদেশ কোচ
    কিছুটা শঙ্কা, অনিশ্চয়তা, খানিকটা দোলাচল, এসবকে সঙ্গী করেই নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শুরু করতে হবে বাংলাদেশ দলের কয়েকজন ক্রিকেটারকে। সিরিজের মাঝপথেই যে ঘোষণা করা হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাংলাদেশ দল! রাসেল ডমিঙ্গো অবশ্য বলছেন, এই সিরিজের আগেই বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করলে ভালো হতো। তবে সেটা না হলেও সম্ভাব্য বিশ্বকাপ দল তৈরি হয়েই আছে, জানালেন বাংলাদেশ কোচ।
  • কিপিংয়ে প্রথম দুই ম্যাচে সোহান, পরের দুটিতে মুশফিক
    নিউ জিল্যান্ড সিরিজে বাংলাদেশের উইকেটকিপিংয়ের দায়িত্ব ভাগাভাগি করে দেওয়া হচ্ছে দুই কিপারকে। প্রথম দুই ম্যাচে দায়িত্বটি পাচ্ছেন নুরুল হাসান সোহান, পরের দুই ম্যাচে মুশফিকুর রহিম। ওই ম্যাচগুলোতে দুজনের পারফরম্যান্স বিশ্লেষণ করে চূড়ান্ত করা হবে শেষ ম্যাচের কিপার।
  • মিরপুরে গতি মানেই মার, বুঝে গেছেন সিয়ার্স
    গতি বেন সিয়ার্সের শক্তি, গতিই সম্পদ। গতি দিয়ে তিনি ছেলেবেলা থেকে নজর কেড়েছেন নিউ জিল্যান্ডের ক্রিকেটে। সামনে ছুটেছেন গতির রথেই। সেই পথ তাকে নিয়ে এসেছে জাতীয় দলে। কিন্তু তার সম্ভাব্য অভিষেকের মঞ্চ যেটি, সেটি তো গতিময় বোলারদের বধ্যভূমি! নিজের করণীয় তাই এর মধ্যেই বুঝে ফেলেছেন সিয়ার্স। মিরপুরের উইকেটে স্মার্ট বোলিং করতে চান তরুণ এই কিউই ফাস্ট বোলার।
  • রোমাঞ্চিত এজাজ বাংলাদেশকে নিয়ে সতর্কও
    নিউ জিল্যান্ডের স্পিনারদের জন্য উপমহাদেশ সফর ও স্পিন সহায়ক উইকেটে খেলতে পারা অনেকটা স্বর্গে চক্কর দেওয়ার মতোই। বাংলাদেশের মন্থর ও টার্নিং উইকেটে বল করার সম্ভাবনায় তাই রোমাঞ্চিত এজাজ প্যাটেল। তবে উইকেট সহায়ক মানেই রাজত্ব করার নিশ্চয়তা নয়, সেটিও জানেন তিনি। নিউ জিল্যান্ডের এই বাঁহাতি স্পিনার মনে করিয়ে দিচ্ছেন, বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা স্পিন খেলে অভ্যস্ত।
  • অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে নিউ জিল্যান্ড বেশি প্রস্তুত থাকবে, জানে বাংলাদেশ
    শেষ দুবারের বাংলাদেশ সফরের অভিজ্ঞতা এমনিতেই ভালো নয় নিউ জিল্যান্ডের। তারওপর কদিন আগে তাসমান সাগর পাড়ের আরেক দেশ অস্ট্রেলিয়াকে হেরে যেতে দেখেছে বাজে ভাবে। এরপরও এখানকার কন্ডিশন থেকে শুরু করে সবকিছু নিউ জিল্যান্ডের খুব ভালোভাবে বিশ্লেষণ না করার কোনো কারণ দেখেন না বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্স।
  • ‘লিটন ও মুশফিকের ফেরা দলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ’
    হাতের তালুর মতো চেনা মাঠ। বেশিরভাগ সময় এখানেই খেলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। তাই অস্ট্রেলিয়া সিরিজে না খেললেও মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের মানিয়ে নিতে কোনো সমস্যা হবে না বলে মনে করছেন অ্যাশওয়েল প্রিন্স। ব্যাটিং কোচের মতে, এই দুই ব্যাটসম্যানের দলে ফেরা বাংলাদেশের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।